ইউনিয়ন অব ইউরোপিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (ইংরেজি: UEFA, /jˈfə/ yoo-AY-fə, ফরাসি: Union des associations européennes de football, জার্মান: Union der europäischen Fußballverbände; যা সংক্ষেপে উয়েফা নামে সুপরিচিত) হলো ইউরোপের ফুটবল, ফুটসাল এবং বিচ ফুটবল পরিচালনাকারী সংস্থা। এটি বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা ফিফার ৬টি মহাদেশীয় কনফেডারেশনের মধ্যে একটি। উয়েফা ৫৫টি জাতীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সমন্বয়ে গঠিত। ১৯৫৪ সালের ১৫ই জুন সুইজারল্যান্ডের বাসেলে ফ্রান্স, ইতালিবেলজিয়ামের মধ্যে অনুষ্ঠিত আলোচনার ফলস্বরূপ উয়েফা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। বর্তমানে উয়েফার সদরদপ্তর সুইজারল্যন্ডের নিওঁয়ে অবস্থিত।

ইউনিয়ন অব ইউরোপিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
UEFA logo.svg
UEFA.svg
সংক্ষেপেউয়েফা
গঠিত (1954-06-15) ১৫ জুন ১৯৫৪ (বয়স ৬৭)
প্রতিষ্ঠাস্থানবাজেল, সুইজারল্যান্ড
ধরনফুটবল সংস্থা
সদরদপ্তরনিওঁ, সুইজারল্যান্ড
স্থানাঙ্ক৪৬°২২′১৬″ উত্তর ৬°১৩′৫২″ পূর্ব / ৪৬.৩৭১০০৯° উত্তর ৬.২৩১০৩° পূর্ব / 46.371009; 6.23103
যে অঞ্চলে কাজ করে
ইউরোপ
সদস্যপদ
৫৫টি পূর্ণ সদস্য
দাপ্তরিক ভাষা
ইংরেজি
ফরাসি
জার্মান
(অন্যান্য প্রধান কিন্তু অপ্রাতিষ্ঠানিক ভাষা: ইতালীয়, পর্তুগিজ, রুশ, স্পেনীয়)[১]
আলেকসান্দের চেফেরিন[২]
প্রথম সহ-সভাপতি
কার্ল-এরিক নিলসন
সহ-সভাপতি
জভিগনিয়েভ বোনিয়েক
সান্দোর চানি
লুইস রুবিয়ালেস
ফের্নান্দো গোমেস
মিচেলে উভা
সাধারণ সম্পাদক
থেওদোর থেওদোরিদিস
প্রধান অঙ্গ
উয়েফা কংগ্রেস
প্রধান প্রতিষ্ঠান
ফিফা
ওয়েবসাইটuefa.com

এবে শোয়ার্ৎস এবং অঁরি দেলোনে হলেন যথাক্রমে এই সংস্থার প্রথম সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক। উয়েফার বর্তমান সভাপতি হলেন স্লোভেনিয়া ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের প্রাক্তন সসভাপতি আলেকসান্দের চেফেরিন, যিনি ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসে গ্রিসের অ্যাথেন্সে অনুষ্ঠিত দ্বাদশ বিশেষ উয়েফা কংগ্রেসে উয়েফার সপ্তম সভাপতি এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফিফার সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন।[৩] এই সংস্থাটি উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপ, উয়েফা নেশনস লীগ, উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ, উয়েফা ইউরোপা লীগ, উয়েফা ইউরোপা কনফারেন্স লীগ এবং উয়েফা সুপার কাপসহ সকল জাতীয় ও ক্লাব প্রতিযোগিতা পরিচালনা করার পাশাপাশি উক্ত সেই প্রতিযোগিতাগুলোর পুরস্কার, নিয়মকানুন এবং গণমাধ্যম অধিকার নিয়ন্ত্রণ করে থাকে।

ইতিহাসসম্পাদনা

ফ্রান্স, ইতালিবেলজিয়াম অ্যাসোসিয়েশনের মধ্যকার আলোচনার পর ১৯৫৪ সালের ১৫ই জুন তারিখে সুইজারল্যান্ডের বাজেলে উয়েফা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।[৪] প্রতিষ্ঠাতা সভায় ২৫টি অ্যাসোসিয়েশন উপস্থিত ছিল, তবে উক্ত সভায় উপস্থিত না থাকা সত্ত্বেও বাকি ৬টি অ্যাসোসিয়েশনও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হিসেব স্বীকৃতি অর্জন করেছে; সর্বমোট ৩১টি অ্যাসোসিয়েশন উয়েফার প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য।[৫] সোভিয়েত ইউনিয়ন, যুগোস্লাভিয়া এবং চেকোস্লোভাকিয়ার বিভাজনের ফলে নতুন অঙ্গ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হওয়ার মাধ্যমে উয়েফা ১৯৯০-এর দশকের মাঝামাঝি সময়ে ৫০টি অ্যাসোসিয়েশন বেশি সদস্যে উন্নীত হয়েছে। ১৯৫৯ সাল পর্যন্ত এই সংস্থাটির প্রধান সদরদপ্তর ফ্রান্সের প্যারিসে এবং পরবর্তীকালে বের্নে অবস্থিত ছিল। ১৯৯৫ সালে উয়েফার সদর দপ্তর সুইজারল্যান্ডের নিওঁয়ে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

উয়েফার সদস্যপদ ইউরোপের একটি সার্বভৌম দেশ হিসেবে স্বীকৃতির সাথে অধিকাংশের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ (৫৫টি সদস্যের মধ্যে ৪৮টি জাতিসংঘের সার্বভৌম সদস্য রাষ্ট্র), যদিও কিছু ব্যতিক্রম রয়েছে। জাতিসংঘের একটি সদস্য রাষ্ট্র (মোনাকো) এবং জাতিসংঘের একটি পর্যবেক্ষক রাষ্ট্র (ভ্যাটিকান সিটি) এই সংস্থার সদস্য নয়। কিছু সদস্য সার্বভৌম রাষ্ট্র নয়, কিন্তু আন্তর্জাতিক আইনের প্রেক্ষাপটে একটি বৃহত্তর স্বীকৃত সার্বভৌম রাষ্ট্রের অংশ, যার মধ্যে রয়েছে উত্তর আয়ারল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস (যুক্তরাজ্যের দেশ), জিব্রাল্টার (ব্রিটিশ বৈদেশিক অঞ্চল), ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জ (ডেনমার্ক রাজ্যের মধ্যকার অঙ্গ দেশ) এবং কসোভো (সীমিত স্বীকৃতিসহ রাজ্য), তবে এই দেশগুলোর প্রেক্ষাপটে ক্রীড়া সম্পর্কিত সরকারী অনুষ্ঠান উয়েফা সদস্য সত্তার সাথে আঞ্চলিক স্তরে বহন করা হয়।

কিছু উয়েফা সদস্য আন্তঃমহাদেশীয় রাষ্ট্র (আজারবাইজান, জর্জিয়া, কাজাখস্তান, রাশিয়া এবং তুরস্ক) এবং অন্যান্য সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক উভয় (আর্মেনিয়া এবং সাইপ্রাস) ইউরোপের অংশ হিসেবে বিবেচিত হয়। যে সব দেশ এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের (এএফসি) সদস্য ছিল, তারাও ইউরোপীয় ফুটবল সংস্থার সদস্য ছিল, বিশেষ করে ইসরায়েল (কারণ ১৯৭৪ সালে তাদের এএফসি গ্রুপ থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল) এবং কাজাখস্তান। কিছু উয়েফা সদস্য অ্যাসোসিয়েশন তাদের অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান অঞ্চলের বাইরের দলগুলোকে তাদের "ঘরোয়া" প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার অনুমতি দিয়ে থাকে। উদাহরণস্বরূপ, ফরাসি ক্লাব মোনাকো (যদিও একটি পৃথক সার্বভৌম সত্তা) লীগ ১-এ; ওয়েলশ ক্লাব কার্ডিফ সিটি, সোয়ানসি সিটি এবং নিউপোর্ট কাউন্টি প্রিমিয়ার লীগে; উত্তর আয়ারল্যান্ড ভিত্তিক ক্লাব ডেরি সিটি লীগ অব আয়ারল্যান্ডে এবং লিশটেনস্টাইনের ৭টি স্থানীয় লিকটেনস্টাইন সুইস লীগে অংশগ্রহণ করে, কেননা লিশটেনস্টাইনের কোন ঘরোয়া লীগ নেই, কেবল একটি কাপ প্রতিযোগিতা রয়েছে।[৬]

উয়েফার প্রতিনিধিত্বকারী জাতীয় দলগুলো ফিফা বিশ্বকাপে সফলতা অর্জন করেছে। এখন পর্যন্ত ২১টি আসরের মধ্যে ইউরোপীয় দলগুলো ১২টি বিশ্বকাপ শিরোপা জয়লাভ করেছে। ইতালি এবং জার্মানি চারটি করে শিরোপা জয়লাভ করেছে; অন্যদিকে, জাতীয় ফুটবল দল|ফ্রান্স দুটি এবং ইংল্যান্ড এবং স্পেন একটি করে শিরোপা জয়লাভ করেছে। স্পেনের লা লিগা, ইংল্যান্ডের প্রিমিয়ার লীগ, জার্মানির বুন্দেসলিগা, ইতালির সেরিয়ে আ এবং ফ্রান্সের লীগ ১ নিয়ে গঠিত তথাকথিত "বিগ ফাইভ ইউরোপিয়ান লীগ" আয়োজনের জন্যও এই দেশগুলোর অ্যাসোসিয়েশন কাজ করে।

কার্যনির্বাহী সদস্যসম্পাদনা

সদস্যসম্পাদনা

কোড অ্যাসোসিয়েশন জাতীয় দল প্রতিষ্ঠিত ফিফা
সদস্যভুক্তি
উয়েফা
সদস্যভুক্তি
ALB   আলবেনিয়া ১৯৩০ ১৯৩২ ১৯৫৪
AND   অ্যান্ডোরা ১৯৯৪ ১৯৯৬ ১৯৯৬
ARM   আর্মেনিয়া ১৯৯২ ১৯৯২ ১৯৯২
AUT   অস্ট্রিয়া ১৯০৪ ১৯০৫ ১৯৫৪
AZE   আজারবাইজান ১৯৯২ ১৯৯৪ ১৯৯৪
BLR   বেলারুশ ১৯৮৯ ১৯৯২ ১৯৯৩
BEL   বেলজিয়াম ১৮৯৫ ১৯০৪ ১৯৫৪
BIH   বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ১৯৪৬ ১৯৯৬ ১৯৯৮
BUL   বুলগেরিয়া ১৯২৩ ১৯২৪ ১৯৫৪
CRO   ক্রোয়েশিয়া ১৯১২ ১৯৯২ ১৯৯৩
CYP   সাইপ্রাস ১৯৩৪ ১৯৪৮ ১৯৬২
CZE   চেক প্রজাতন্ত্র ১৯০১ ১৯০৭ ১৯৫৪
DEN   ডেনমার্ক ১৮৮৯ ১৯০৪ ১৯৫৪
ENG   ইংল্যান্ড ১৮৬৩ ১৯০৫ ১৯৫৪
EST   এস্তোনিয়া ১৯২১ ১৯২৩ ১৯৯২
FRO   ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জ ১৯৭৯ ১৯৮৮ ১৯৯০
FIN   ফিনল্যান্ড ১৯০৭ ১৯০৮ ১৯৫৪
FRA   ফ্রান্স ১৯১৯[টী ১] ১৯০৪[টী ২] ১৯৫৪
GEO   জর্জিয়া ১৯৯০ ১৯৯২ ১৯৯২
GER   জার্মানি ১৯০০ ১৯০৪ ১৯৫৪
GIB   জিব্রাল্টার ১৮৯৫ ২০১৬ ২০১৩
GRE   গ্রিস ১৯২৬ ১৯২৭ ১৯৫৪
HUN   হাঙ্গেরি ১৯০১ ১৯০৬ ১৯৫৪
ISL   আইসল্যান্ড ১৯৪৭[টী ৩] ১৯৪৭ ১৯৫৪
ISR   ইসরায়েল[টী ৪] ১৯২৮ ১৯২৯ ১৯৯৪[টী ৫]
ITA   ইতালি ১৮৯৮ ১৯০৫ ১৯৫৪
KAZ   কাজাখস্তান[টী ৬] ১৯৯৪ ১৯৯৪ ২০০২
KOS   কসোভো ২০০৮ ২০১৬ ২০১৬
LVA   লাতভিয়া ১৯২১ ১৯২২ ১৯৯২
LIE   লিশটেনস্টাইন ১৯৩৪ ১৯৭৪ ১৯৭৪
LTU   লিথুয়ানিয়া ১৯২২ ১৯২৩ ১৯৯২
LUX   লুক্সেমবুর্গ ১৯০৮ ১৯১০ ১৯৫৪
MLT   মাল্টা ১৯০০ ১৯৫৯ ১৯৬০
MDA   মলদোভা ১৯৯০ ১৯৯৪ ১৯৯৩
MNE   মন্টিনিগ্রো ১৯৩১ ২০০৭ ২০০৭
NED   নেদারল্যান্ডস ১৮৮৯ ১৯০৪ ১৯৫৪
MKD   উত্তর মেসিডোনিয়া ১৯২৬ ১৯৯৪ ১৯৯৪
NIR   উত্তর আয়ারল্যান্ড ১৮৮০ ১৯১১ ১৯৫৪
NOR   নরওয়ে ১৯০২ ১৯০৮ ১৯৫৪
POL   পোল্যান্ড ১৯১৯[টী ৭] ১৯২৩ ১৯৫৪
POR   পর্তুগাল ১৯১৪ ১৯২৩ ১৯৫৪
IRL   আয়ারল্যান্ড ১৯২১ ১৯২৩ ১৯৫৪
ROU   রোমানিয়া ১৯০৯ ১৯২৩ ১৯৫৪
RUS   রাশিয়া ১৯১২ ১৯১২ ১৯৫৪
SMR   সান মারিনো ১৯৩১ ১৯৮৮ ১৯৮৮
SCO   স্কটল্যান্ড ১৮৭৩ ১৯১০ ১৯৫৪
SRB   সার্বিয়া ১৯১৯ ১৯২৩ ১৯৫৪
SVK   স্লোভাকিয়া ১৯৩৮ ১৯৯৪ ১৯৯৩
SVN   স্লোভেনিয়া ১৯২০ ১৯৯২ ১৯৯২
ESP   স্পেন ১৯০৯ ১৯০৪ ১৯৫৪
SWE   সুইডেন ১৯০৪ ১৯০৪ ১৯৫৪
SUI    সুইজারল্যান্ড ১৮৯৫ ১৯০৪ ১৯৫৪
TUR   তুরস্ক ১৯২৩ ১৯২৩ ১৯৬২
UKR   ইউক্রেন ১৯৯১ ১৯৯২ ১৯৯২
WAL   ওয়েলস ১৮৭৬ ১৯১০ ১৯৫৪
টীকা
  1. ১৯০৭ সালে Comité Français Interfédéral হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়, বর্তমান ফেডারেশনের পূর্বসূরি।
  2. বর্তমান ফরাসি এফএ, ফরাসি ফুটবল ফেডারেশন (পূর্ব নাম Comité Français Interfédéral'), ১৯০৭ সালে ইউএসএফএসএ-কে প্রতিস্থাপন করে।
  3. আইসল্যান্ডীয় শীর্ষ ফ্লাইট ক্লাব ফুটবল যা কেএসআই প্রতিষ্ঠা ৩৫ বছর আগে শুরু হয়, সমস্ত প্রাক-১৯৪৭ শিরোপা কেএসআই দ্বারা স্বীকৃত
  4. এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের প্রাক্তন সদস্য (১৯৫৪-১৯৭৪) উয়েফায় যোগ দেন কারণ বেশ কয়েকটি এএফসি দল তাদের বিপক্ষে খেলতে অস্বীকার করে। ইজরায়েলের বৈদেশিক সম্পর্ক এবং ইজরায়েলের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দেখুন।
  5. ইজরায়েল ১৯৯২ সাল থেকে উয়েফার সহযোগী সদস্য ছিল, তাই ইজরায়েলি ক্লাবগুলো ১৯৯২-৯৩ এবং ১৯৯৩-৯৪ সালে উয়েফা ক্লাব প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার যোগ্য ছিল যদিও ইজরায়েল তখন উয়েফার পূর্ণ সদস্য ছিল না।
  6. এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের প্রাক্তন সদস্য (১৯৯৪-২০০২) উয়েফায় যোগ দেয়।
  7. ১৯১১ সালে Związek Polski Piłki Nożnej (বিচ্ছিন্ন অস্ট্রীয় ফুটবল ইউনিয়নের অংশ) হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয় , বর্তমান ফেডারেশনের পূর্বসূরি।

প্রতিযোগিতাসম্পাদনা

আন্তর্জাতিকসম্পাদনা

জাতীয় ফুটবল দলের জন্য উয়েফা যে প্রধান প্রতিযোগিতার আয়োজন করে সেটি হচ্ছে উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপ, যা শুরু হয়েছে ১৯৫৮ সালে এবং প্রথম ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয় ১৯৬০ সালে। ১৯৬৪ সালের আগে এটি ইউরোপিয়ান নেশনস কাপ নামেও পরিচিত ছিল। উয়েফা নেশনস লীগ নামক সাম্প্রতিক একটি দ্বিবার্ষিক প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে যা ফিফা ফ্রেন্ডলির প্রতিস্থাপক রূপে খেলা হয়। উয়েফা জাতিভিত্তিক দলের জন্য অনূর্ধ্ব-২১,অনূর্ধ্ব-১৯ এবং অনূর্ধ্ব-১৭ প্রতিযোগিতাও আয়োজন করে।

মহিলাদের জাতীয় দলের জন্য উয়েফা মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপ এবং অনূর্ধ্ব-১৯ পর্যায়ে ইউরোপিয়ান উইমেনস অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপ পরিচালনা করে।

উয়েফা কাফের সাথে যৌথভাবে তরুণ দলের জন্য উয়েফা/কাফ মেরিডিয়ান কাপ আয়োজন করে।

ফুটসলে উয়েফা ফুটসল চ্যাম্পিয়নশিপ নামে একটি প্রতিযোগিতা আছে।

পেশাদার দল ভিত্তিকসম্পাদনা

উয়েফা ইউরোপে দলভিত্তিক ফুটবলের জন্য প্রধান দুটি প্রতিযোগিতা আয়োজন করেঃ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ যা ১৯৫৫ সালে শুরু হয় ও ১৯৯১ সালের আগ পর্যন্ত ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন ক্লাব’স কাপ (বা শুধু ইউরোপিয়ান কাপ) নামেও পরিচিত ছিল; এবং উয়েফা কাপ, যা ১৯৭১ সালে শুরু হওয়া জাতীয় পর্যায়ে কাপ বিজয়ীদের নিয়ে নকআউট প্রতিযোগিতা। আরেকটি তৃতীয় প্রতিযোগিতা কাপ উইনার্স কাপ ১৯৬০ সাল থেকে শুরু হয়ে ১৯৯৯ সালে উয়েফা কাপের সাথে একত্রীত হয়েছে। কেবল চারটি দল তিনটি প্রতিযোগিতাই জিতেছে, যা কাপ উইনার্স কাপ জেতেনি এমন দলের জন্য বর্তমানে আর সম্ভব নয়। ইউরোপের দশটি দল তিনটি ট্রফির দুটিই জিতেছে। এর মধ্যে সবাই কাপ উইনার্স কাপ জিতেছে কিন্তু ছটি দলের চ্যাম্পিয়নস লীগ জেতা ও চারটি দলের উয়েফা কাপ জেতা বাকী আছে।

উয়েফা সুপার কাপ, যাতে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ বিজয়ী ও উয়েফা কাপ বিজয়ী (পূর্বে কাপ উইনার্স কাপ বিজয়ী) অংশ নেয়, ১৯৭৩ সাল থেকে শুরু হয়।

উয়েফা ইন্টারটোটো কাপ একটি গ্রীষ্মকালীন প্রতিযোগিতা যা পূর্বে মধ্য ইউরোপের কিছু দেশ আয়োজন করত। উয়েফা ১৯৯৫ সালে এটি পুনরায় চালু করে উয়েফা কাপের বাছাই পর্ব হিসেবে। সম্প্রতি উয়েফা আধা-পেশাদার দলের জন্য উয়েফা রিজিয়নস কাপ চালু করেছে। নারী দলের জন্য উয়েফা উইমেন’স কাপ চালু আছে।

ফুটসলে উয়েফা ফুটসল কাপ নামে একটি প্রতিযোগিতা আছে।

ইউরোপিয়ান/দক্ষিণ আমেরিকান কাপ যৌথভাবে আয়োজন করে কন্মেবোল ও উয়েফা এবং এটি চ্যাম্পিয়নস লীগকোপা লিবার্তাদোরেস বিজয়ীদের মাঝে অনুষ্ঠিত হয়।

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংসম্পাদনা

  • সর্বশেষ হালনাগাদ:
    • পুরুষদের জাতীয় দল – ১৯ ডিসেম্বর ২০১৯[১০]
    • মহিলাদের জাতীয় দল – ১২ জুলাই ২০১৯[১১]
শীর্ষ পুরুষদের জাতীয় দল
র‌্যাঙ্কিং ফিফা দ্বারা গণনাকৃত
শীর্ষ মহিলাদের জাতীয় দল
র‌্যাঙ্কিং ফিফা দ্বারা গণনাকৃত
উয়েফা ফিফা জাতি পয়েন্ট +/- উয়েফা ফিফা জাতি পয়েন্ট +/-
  বেলজিয়াম ১৭৬৫     জার্মানি ২০৫৯  
  ফ্রান্স ১৭৩৩     নেদারল্যান্ডস ২০৩৭  
  ইংল্যান্ড ১৬৬১     ফ্রান্স ২০২৯  
১৪   ক্রোয়েশিয়া ১৬৪২     ইংল্যান্ড ২০২৭  
  পর্তুগাল ১৬৩৯     সুইডেন ২০২১  
  স্পেন ১৬৩৬   ১২   নরওয়ে ১৯১৭  
১৩    সুইজারল্যান্ড ১৬০৮   ১৩   স্পেন ১৮৯৯  
  ইতালি ১৬০৭   ১৪   ইতালি ১৮৯১  
১৬   নেদারল্যান্ডস ১৬০৪   ১৫   ডেনমার্ক ১৮৩৯  
১০ ১২   জার্মানি ১৬০২   ১০ ১৭   আইসল্যান্ড ১৮২২  
১১ ১০   ডেনমার্ক ১৫৯৮   ১১ ১৮    সুইজারল্যান্ড ১৮১৫  
১২ ১৮   সুইডেন ১৫৭৯   ১২ ১৯   বেলজিয়াম ১৮১৩  
১৩ ২১   পোল্যান্ড ১৫৫৯   ১৩ ২১   অস্ট্রিয়া ১৭৯৩  
১৪ ১৭   ওয়েলস ১৫৪০   ১৪ ২২   স্কটল্যান্ড ১৭৯১  
১৫ ২৪   ইউক্রেন ১৫৩৭   ১৫ ২৪   ইউক্রেন ১৭০৮  
১৬ ২৩   অস্ট্রিয়া ১৫০৭   ১৬ ২৫   রাশিয়া ১৭০৪  
১৭ ২৯   তুরস্ক ১৪৯৪   ১৭ ২৮   চেক প্রজাতন্ত্র ১৬৭৯  
১৮ ২৫   সার্বিয়া ১৪৯৪   ১৮ ২৯   পোল্যান্ড ১৬৭৫  
১৯ ৩৬   স্লোভাকিয়া ১৪৯০   ১৯ ৩০   পর্তুগাল ১৬৭১  
২০ ৪৭   প্রজাতন্ত্রী আয়ারল্যান্ড ১৪৮৬   ২০ ৩১   ফিনল্যান্ড ১৬৬৮  
২১ ৪৮   উত্তর আয়ারল্যান্ড ১৪৭৬   ২১ ৩২   ওয়েলস ১৬৬৭  
২২ ৪৩   রোমানিয়া ১৪৭৫   ২২ ৩৩   আয়ারল্যান্ড ১৬৬৬  
২৩ ৩৮   রাশিয়া ১৪৭০   ২৩ ৪২   রোমানিয়া ১৫৪৮  
২৪ ৫২   আইসল্যান্ড ১৪৬৪   ২৪ ৪৩   সার্বিয়া ১৫৪৬  
২৫ ৪২   নরওয়ে ১৪৫১   ২৫ ৪৫   হাঙ্গেরি ১৫২৫  
২৬ ৪০   চেক প্রজাতন্ত্র ১৪৪৬   ২৬ ৪৭   স্লোভাকিয়া ১৫০০  
২৭ ৫৫   বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ১৪৩০   ২৭ ৫১   স্লোভেনিয়া ১৪৫৩  
২৮ ৪৪   স্কটল্যান্ড ১৪২২   ২৮ ৫৪   বেলারুশ ১৪৪৬  
২৯ ৩৭   হাঙ্গেরি ১৪১৬   ২৯ ৫৫   ক্রোয়েশিয়া ১৪৪০  
৩০ ৫১   গ্রিস ১৪০৯   ৩০ ৫৯   উত্তর আয়ারল্যান্ড ১৪২০  
৩১ ৫৪   ফিনল্যান্ড ১৩৮৬   ৩১ ৬২   তুরস্ক ১৪১২  
৩২ ৭১   বুলগেরিয়া ১৩৮১   ৩২ ৬৪   ইসরায়েল ১৩৯২  
৩৩ ৬৪   মন্টিনিগ্রো ১৩৬৫   ৩৩ ৬৫   গ্রিস ১৩৭৬  
৩৩ ৬৩   স্লোভেনিয়া ১৩৬৫   ৩৪ ৬৭   বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ১৩৭১  
৩৫ ৬৬   আলবেনিয়া ১৩৫৬   ৩৫ ৭৩   কাজাখস্তান ১৩৪৯  
৩৬ ৬২   উত্তর মেসিডোনিয়া ১৩৪৭   ৩৬ ৭৭   আজারবাইজান ১৩৪৫  
৩৭ ৮৯   বেলারুশ ১২৮০   ৩৭ ৭৮   আলবেনিয়া ১৩২৬  
৩৮ ৯১   জর্জিয়া ১২৬৭   ৩৮ ৭৯   বুলগেরিয়া ১৩০৩  
৩৯ ৮৫   ইসরায়েল ১২৬০   ৩৯ ৮৫   ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জ ১২৭২  
৪০ ৯৭   সাইপ্রাস ১২৫১   ৪০ ৯৩   লাতভিয়া ১২২৮  
৪১ ৯৬   লুক্সেমবুর্গ ১২৩৬   ৪১ ৯৬   মলদোভা ১২১৯  
৪২ ৯০   আর্মেনিয়া ১২১৩   ৪২ ৯৮   মন্টিনিগ্রো ১২১৭  
৪৩ ১১৬   এস্তোনিয়া ১২০২   ৪৩ ৯৯   এস্তোনিয়া ১২১২  
৪৪ ১১৩   ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জ ১১৮১   ৪৪ ১০২   মাল্টা ১১৯২  
৪৫ ১১০   আজারবাইজান ১১৭৭   ৪৫ ১০৬   লিথুয়ানিয়া ১১৭২  
৪৬ ১২০   কসোভো ১১৭৪   ৪৬ ১১২   জর্জিয়া ১১৪৩  
৪৭ ১২৪   কাজাখস্তান ১১৫৫   ৪৭ ১১৩   লুক্সেমবুর্গ ১১৩৪  
৪৮ ১৩৪   লিথুয়ানিয়া ১০৮৯   ৪৮ ১১৭   সাইপ্রাস ১১২৩  
৪৯ ১৫৮   অ্যান্ডোরা ১০৮২   ৪৯ ১২৬   কসোভো ১০৫৯  
৫০ ১৩৮   লাতভিয়া ১০৮২   ৫০ ১২৭   উত্তর মেসিডোনিয়া ১০৫৩  
৫১ ১৭৭   মলদোভা ৯৫৯   ৫১ ১৫৬   অ্যান্ডোরা ৭৪৯  
৫২ ১৮৬   লিশটেনস্টাইন ৯২৬  
৫৩ ১৭৫   মাল্টা ৯১৯  
৫৪ ১৯৫   জিব্রাল্টার ৮৭৯  
৫৫ ২১০   সান মারিনো ৮২৪  
  • * – ১৮ মাস ধরে নিষ্ক্রিয় ও তাই র‌্যাঙ্কিং দেওয়া হয়নি।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. uefa.com। "How to switch to another language of UEFA.com – Inside UEFA – UEFA.com"UEFA.com। ৯ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ এপ্রিল ২০২১ 
  2. "Čeferin elected as UEFA President"। UEFA। সংগ্রহের তারিখ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  3. uefa.com। "President – About UEFA – Inside UEFA"UEFA.com। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০১৮ 
  4. uefa.com (১৮ মে ২০২০)। "60 years at the heart of football" (PDF)UEFA.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মে ২০২০ 
  5. Vieli, André (২০১৪)। "UEFA: 60 years at the heart of football" (PDF)UEFA.com। Nyon: Union of European Football Associations। পৃষ্ঠা 169। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০২০ 
  6. UEFA: Why some clubs are allowed to participate in competitions outside of their territory? https://us.bolavip.com
  7. "UEFA Executive Committee"। UEFA। সংগ্রহের তারিখ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  8. "Florence Hardouin"। UEFA। ১৮ জুন ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০১৬ 
  9. FIFA.com। "Football Confederations - UEFA - FIFA.com"www.fifa.com 
  10. "The FIFA/Coca-Cola World Ranking - Ranking Table - European Zone - FIFA.com"FIFA.com। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১৮ 
  11. "The FIFA Women's World Ranking - European Zone - FIFA.com"FIFA.com। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১৯ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

টেমপ্লেট:UEFA women's teams

টেমপ্লেট:International futsal