বুলগেরিয়া জাতীয় ফুটবল দল

বুলগেরিয়া জাতীয় ফুটবল দল (বুলগেরীয়: Български национален отбор по футбол, ইংরেজি: Bulgaria national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে বুলগেরিয়ার প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম বুলগেরিয়ার ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বুলগেরীয় ফুটবল ইউনিয়ন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯২৪ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৫৪ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা উয়েফার সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯২৪ সালের ২১শে মে তারিখে, বুলগেরিয়া প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; অস্ট্রিয়ার ভিয়েনায় অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে বুলগেরিয়া অস্ট্রিয়ার কাছে ৬ –০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

বুলগেরিয়া
দলের লোগো
ডাকনামলাভোভেতে (সিংহ)
অ্যাসোসিয়েশনবুলগেরীয় ফুটবল ইউনিয়ন
কনফেডারেশনউয়েফা (ইউরোপ)
প্রধান কোচখালি
অধিনায়কপেতার জানেভ
সর্বাধিক ম্যাচস্তিলিয়ান পেত্রভ (১০৫)
শীর্ষ গোলদাতাদিমিতার বেরবাতভ
রিস্তো বোনেভ (৪৮)
মাঠভাসসিল লেভস্কি জাতীয় স্টেডিয়াম
ফিফা কোডBUL
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৭১ হ্রাস(৭ এপ্রিল ২০২১)[১]
সর্বোচ্চ(জুন ১৯৯৫)
সর্বনিম্ন৯৬ (মে ২০১২)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৭৮ হ্রাস ১২ (২৪ এপ্রিল ২০২১)[২]
সর্বোচ্চ(আগস্ট ১৯৭৫)
সর্বনিম্ন৮২ (নভেম্বর ২০২০)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 অস্ট্রিয়া ৬–০ বুলগেরিয়া 
(ভিয়েনা, অস্ট্রিয়া; ২১ মে ১৯২৪)
বৃহত্তম জয়
 বুলগেরিয়া ১০–০ ঘানা 
(লেওন, মেক্সিকো; ১৪ অক্টোবর ১৯৬৮)
বৃহত্তম পরাজয়
 স্পেন ১৩–০ বুলগেরিয়া 
(মাদ্রিদ, স্পেন; ২১ মে ১৯৩৩)
বিশ্বকাপ
অংশগ্রহণ৭ (১৯৬২-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচতুর্থ স্থান (১৯৯৪)
উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপ
অংশগ্রহণ২ (১৯৯৬-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যগ্রুপ পর্ব (১৯৯৬, ২০০৪)
গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক
অংশগ্রহণ৫ (১৯২৪-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যরানার-আপ (১৯৬৮)
বলকান কাপ
অংশগ্রহণ১২ (১৯৩০-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (১৯৩১, ১৯৩২, ১৯৭৬)

৪৪,০০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট ভাসসিল লেভস্কি জাতীয় স্টেডিয়ামে লাভোভেতে নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় বুলগেরিয়ার রাজধানী সফিয়ায় অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন সিএসকেএ সফিয়ার রক্ষণভাগের খেলোয়াড় পেতার জানেভ

বুলগেরিয়া এপর্যন্ত ৭ বার ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছে, যার মধ্যে সেরা সাফল্য হচ্ছে ১৯৯৪ ফিফা বিশ্বকাপের চতুর্থ স্থান অর্জন করা, যেখানে তারা সুইডেনের কাছে ৪–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে। অন্যদিকে, উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপে বুলগেরিয়া এপর্যন্ত ২ বার অংশগ্রহণ করেছে, যার মধ্যে সেরা সাফল্য হচ্ছে উয়েফা ইউরো ১৯৯৬ এবং উয়েফা ইউরো ২০০৪-এর গ্রুপ পর্বে অংশগ্রহণ করা। গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে বুলগেরিয়ার সেরা সাফল্য হচ্ছে রৌপ্য পদক জয়লাভ করা। এছাড়াও, বলকান কাপে বুলগেরিয়া অন্যতম সফল দল, যেখানে তারা ৩টি (১৯৩১, ১৯৩২ এবং ১৯৭৬) শিরোপা জয়লাভ করেছে।

স্তিলিয়ান পেত্রভ, রিস্তো বোনেভ, বরিস্লাভ মিহায়লভ, দিমিতার বেরবাতভ এবং এমিল কস্তাদিনভের মতো খেলোয়াড়গণ বুলগেরিয়ার জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯২২ সালে বুলগেরিয়া জাতীয় দল গঠিত হয়। ১৯২৩ সালে, বুলগেরীয় ফুটবল ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ১৯২৪ সালে ২১শে মে তারিখে ভিয়েনায় তাদের প্রথম ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়,[৩] উক্ত ম্যাচে অস্ট্রিয়া ৬–০ তে পরাজিত হয়।[৪] ফলাফলটি বিস্ময়কর ছিল না কারণ সেই সময়ে অস্ট্রিয়া মধ্য ইউরোপীয় অঞ্চলের দলগুলোর মধ্যে এগিয়ে ছিল, যা সেই সময়ে ফুটবলকে প্রভাবিত করেছিল। বুলগেরিয়াকে ঐ পর্যায়ের কাছাকাছি নিয়ে আসার জন্য, বুলগেরিয়া ফুটবল অ্যাসোসিযেশন ১৯২০ সালের দিকে অস্ট্রিয়ান কোচ নিতশ্চ এবং স্টেজসকাল এবং ১৯৩০ সালের দিকে হাঙ্গেরীয় কোচ নেমেস, ফোগল এবং জার্মান কোচ ফেইস্টকে নিয়োগ দেয়। উরুগুয়েতে অনুষ্ঠিত ১৯৩০ ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করার জন্য বুলগেরিয়াকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল, কিন্তু খেলোয়াড়রা তাদের চাকরি থেকে দীর্ঘ ছুটি না পাওয়ার কারণে অবশেষে সে আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করে।[৫]

র‌্যাঙ্কিংসম্পাদনা

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ১৯৯৫ সালের জুন মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে বুলগেরিয়া তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (৮ম) অর্জন করে এবং ২০১২ সালের মে মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ৯৬তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে বুলগেরিয়ার সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ৩য় (যা তারা ১৯৭৫ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ৮২। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৭ এপ্রিল ২০২১ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৬৯     এল সালভাদোর ১৩৪১.২৪
৭০     কানাডা ১৩৪০.৫৬
৭১     বুলগেরিয়া ১৩৩৯.০৩
৭২     গিনি ১৩৩১.৭৯
৭৩     কাবু ভের্দি ১৩৩০.১৬
৭৩     সংযুক্ত আরব আমিরাত ১৩৩০.১৬
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
২৪ এপ্রিল ২০২১ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৭৬     জর্জিয়া ১৫১৩
৭৭     বেলারুশ ১৫০৭
৭৮   ১২   বুলগেরিয়া ১৪৯৯
৭৯     গুয়াতেমালা ১৪৯৫
৮০     ওমান ১৪৯৩

প্রতিযোগিতামূলক তথ্যসম্পাদনা

ফিফা বিশ্বকাপসম্পাদনা

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
  ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান
  ১৯৩৪ উত্তীর্ণ হয়নি ১৪
  ১৯৩৮
  ১৯৫০ অংশগ্রহণ করেনি প্রত্যাখ্যান
  ১৯৫৪ উত্তীর্ণ হয়নি
  ১৯৫৮ ১১
  ১৯৬২ গ্রুপ পর্ব ১৫তম
  ১৯৬৬ গ্রুপ পর্ব ১৫তম ১১
  ১৯৭০ গ্রুপ পর্ব ১৩তম ১২
  ১৯৭৪ গ্রুপ পর্ব ১২তম ১৩
  ১৯৭৮ উত্তীর্ণ হয়নি
  ১৯৮২ ১১ ১০
  ১৯৮৬ ১৬ দলের পর্ব ১৫তম ১৩
  ১৯৯০ উত্তীর্ণ হয়নি
  ১৯৯৪ ৩য় স্থান নির্ধারণী ৪র্থ ১০ ১১ ১০ ১৯ ১০
  ১৯৯৮ গ্রুপ পর্ব ২৯তম ১৮
    ২০০২ উত্তীর্ণ হয়নি ১০ ১৪ ১৫
  ২০০৬ ১০ ১৭ ১৭
  ২০১০ ১০ ১৭ ১৩
  ২০১৪ ১০ ১৪
  ২০১৮ ১০ ১৪ ১৯
  ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ৩য় স্থান নির্ধারণী ৭/২১ ২৬ ১৫ ২২ ৫৩ ১২৯ ৬০ ২৭ ৪২ ২০৯ ১৭৭

অর্জনসম্পাদনা

শিরোপাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৭ এপ্রিল ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০২১ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ২৪ এপ্রিল ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২১ 
  3. Павлов, Стоимен (২০১৪-০৬-২৪)। "Българският футбол чества исторически годишнини на фона на нерадостна реалност"Radio Bulgaria (Bulgarian ভাষায়)। София: Българско национално радио। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৫ 
  4. Austria vs Bulgaria match report at EU-Football.info
  5. Банов, Георги (২০১৪-০৩-২৩)। "Българският флаг накартичка от първото световно по футбол"24 часа (Bulgarian ভাষায়)। София: МГБХ। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা