প্রধান মেনু খুলুন

উইকিপিডিয়া β

আজকের নির্বাচিত নিবন্ধ

নির্বাচিত নিবন্ধ
নির্বাচিত নিবন্ধ
বাংলাদেশের পতাকা

বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার একটি রাষ্ট্র। দেশটির উত্তর, পূর্ব ও পশ্চিম সীমানায় ভারত ও দক্ষিণ-পূর্ব সীমানায় মায়ানমার; দক্ষিণে বঙ্গোপসাগর। সাবেক “বঙ্গ” বা “বাংলা” নামক ভূখন্ডের পূর্ব অংশ যা পূর্ব বাংলা নামে পরিচিত ছিল সেটি বর্তমান বাংলাদেশ রাষ্ট্র। সুপ্রাচীন কালে বাংলাদেশে প্রথম মানব বসতি গড়ে উঠে। পর্যায়ক্রমে বৌদ্ধ, হিন্দু ও মুসলিম শাসনের পর বাংলা ব্রিটিশ উপনিবেশে পরিণত হয়। আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় ১৯৪৭ সালের ভারত বিভাগের সময় পাকিস্তানের পূর্ব অংশ (পূর্ব পাকিস্তান) হিসেবে বাংলাদেশের সীমানা নির্ধারিত হয়। পূর্ব পাকিস্তানের প্রতি বৈষম্যের কারণে দীর্ঘ আন্দোলনের এক পর্যায়ে ১৯৭১ রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। সংবিধান অনুসারে বাংলাদেশে সংসদীয় পদ্ধতিতে পরিচালিত সরকার প্রতিষ্ঠিত। বাংলাদেশ নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ুর দেশ। বর্ষার সময় এখানে প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়। অসংখ্য নদনদী সমগ্র দেশজুড়ে বয়ে গেছে। পদ্মা, মেঘনা, যমুনা দেশের প্রধান নদী। নদীবাহিত পলির কারণে সুপ্রাচীনকাল থেকে এখানকার মাটি উর্বর। সড়ক ও রেলপথ ছাড়াও জলপথ যোগাযোগের একটি অন্যতম প্রধান মাধ্যম। ধান, পাট, গম, চা ইত্যাদি এখানকার প্রধান ফসল। বাঙালিরা বাংলাদেশের মূল জনগোষ্ঠী। এছাড়াও চাকমা, মারমা, সাঁওতাল, গারোসহ অনেক আদিবাসী গোষ্ঠী রয়েছে। বাংলা ভাষা বাংলাদেশের রাষ্ট্রভাষা। দেশের অধিকাংশ মানুষ মুসলিম। অন্যান্য ধর্মের মধ্যে হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিষ্ট ধর্ম রয়েছে। চট্টগ্রামমংলা বাংলাদেশের সমুদ্রবন্দর। এ দুই বন্দরের মাধ্যমে বৈদেশিক বাণিজ্যের অধিকাংশ সম্পন্ন হয়। তৈরী পোষাক বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান রপ্তানি পণ্য। বাংলাদেশ দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা সার্ক ও বিম্‌সটেক-এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। এছাড়া দেশটি ওআইসিডি-৮ এরও সদস্য। (বাকি অংশ পড়ুন...)


ভালো নিবন্ধ
ভালো নিবন্ধ
শানহুয়া মন্দিরের দাজিওংবাও হল

শানহুয়া মন্দির (চীনা: 善化寺) হচ্ছে একটি বৌদ্ধ মন্দির যা চীনের শানসি প্রদেশের তাথং এ অবস্থিত। তাং রাজবংশের ৮ম শতকের প্রথম দিকে এই মন্দির প্রতিষ্ঠিত হলেও এটার প্রথম সময় নিরূপণ করা হয়েছিল ১১ শতকে। ঐ বছরেই মন্দিরের ব্যাপকভাবে পুননির্মাণের কাজ হয়, এবং বর্তমানে তিনটা প্রধান হল ও সাম্প্রতিককালে পুনর্নির্মিত দুটি পূজামণ্ডপ অক্ষত অবস্থায় আছে। দাজিওংবাও হল হচ্ছে ১১ শতকে লিআও রাজবংশের সময় হতে প্রাপ্ত সর্বপ্রথম এবং সর্ববৃহৎ হল, এমনকি এ ধরণের হলের মধ্যে এটা চীনেও বৃহত্তম। শানহুয়া মন্দির তাং রাজবংশের (৭১৩-৭৪১) সম্রাট জুয়াংজং-এর পৃষ্ঠপোষকতায় কাইয়ুয়ানের সময়ে প্রথম প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল বলে তৎকালীন সময়ে এটি কাইয়ুয়ান মন্দির নামে পরিচিত ছিল। তাং রাজবংশের পঞ্চম রাজার (৯০৬-৯৬০) পতনের পর মন্দিরের নাম পরিবর্তিত হয়ে দা পু'এনজি নামে পরিচিত হয়। শানহুয়া মন্দির তিনটি প্রধান হলের (দাজিওংবাও হল, সানশেং হল ও প্রধান ফটক) সমন্বয়ে গঠিত, যার একটি উত্তর-দক্ষিণ অক্ষের উপর সাজানো ও সানশেং হলের পূর্ব ও পশ্চিমে অবস্থিত দুটি মণ্ডপ নিয়ে গঠিত। দাজিওংবাও হলের প্রতিটি পাশ দিয়ে আরও দুটি করে ছোট হল আছে। (বাকি অংশ পড়ুন...)

আপনি জানেন কি...

“ভানুসিংহ” কিশোর রবীন্দ্রনাথ, ১৮৭৭
১৫৭০ সালে প্রকাশিত “ইউক্লিড’স এলিমেন্টস”-এর ইংরেজি সংস্করণের প্রচ্ছদ
অন্য ভাষায় পড়ুন