পর্তুগাল জাতীয় ফুটবল দল

পর্তুগাল জাতীয় ফুটবল দল (পর্তুগিজ: Seleção Portuguesa de Futebol, ইংরেজি: Portugal national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে পর্তুগালের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম পর্তুগালের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা পর্তুগিজ ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯২৩ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৫৪ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা উয়েফার সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯২১ সালের ১৮ই ডিসেম্বর তারিখে, পর্তুগাল প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; স্পেনের মাদ্রিদে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে পর্তুগাল স্পেনের কাছে ৩–১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল। পর্তুগাল হচ্ছে উয়েফা নেশনস লীগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন, যারা ২০১৯ সালে নেদারল্যান্ডসকে ১–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে।

পর্তুগাল
দলের লোগো
ডাকনামআ সেলেসাও (বাছাইকৃত)
ওস নাভেগাদোরেস (নাবিক)
অ্যাসোসিয়েশনপর্তুগিজ ফুটবল ফেডারেশন
কনফেডারেশনউয়েফা (ইউরোপ)
প্রধান কোচফের্নান্দো কোস্তা সান্তোস
অধিনায়কক্রিস্তিয়ানো রোনালদো
সর্বাধিক ম্যাচক্রিস্তিয়ানো রোনালদো (১৬৭)
শীর্ষ গোলদাতাক্রিস্তিয়ানো রোনালদো (১০১)
মাঠএস্তাদিও নাসিওনাল
ফিফা কোডPOR
ওয়েবসাইটwww.fpf.pt
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমানঅপরিবর্তিত (২৭ নভেম্বর ২০২০)[১]
সর্বোচ্চ(মে–জুন ২০১০, অক্টোবর ২০১২, এপ্রিল–জুন ২০১৪, সেপ্টেম্বর ২০১৭ – এপ্রিল ২০১৮)
সর্বনিম্ন৪৩ (আগস্ট ১৯৯৮)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমানবৃদ্ধি(১৯ নভেম্বর ২০২০)[২]
সর্বোচ্চ(জুন ২০০৬)
সর্বনিম্ন৪২ (নভেম্বর ১৯৬২)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 স্পেন ৩–১ পর্তুগাল 
(মাদ্রিদ, স্পেন; ১৮ ডিসেম্বর ১৯২১)
বৃহত্তম জয়
 পর্তুগাল ৮–০ লিশটেনস্টাইন 
(লিসবন, পর্তুগাল; ১৮ নভেম্বর ১৯৯৪)
 পর্তুগাল ৮–০ লিশটেনস্টাইন 
(কুইব্রা, পর্তুগাল; ৯ জুন ১৯৯৯)
 পর্তুগাল ৮–০ কুয়েত 
(লেইরিয়া, পর্তুগাল; ১৯ নভেম্বর ২০০৩)
বৃহত্তম পরাজয়
 পর্তুগাল ০–১০ ইংল্যান্ড 
(লিসবন, পর্তুগাল; ২৫ মে ১৯৪৭)
বিশ্বকাপ
অংশগ্রহণ৭ (১৯৬৬-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যতৃতীয় স্থান (১৯৬৬)
উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপ
অংশগ্রহণ৮ (১৯৮৪-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (২০১৬)
উয়েফা নেশনস লীগ
অংশগ্রহণ২ (২০১৯-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (২০১৯)
কনফেডারেশন্স কাপ
অংশগ্রহণ১ (২০১৭-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যতৃতীয় স্থান (২০১৭)

৩৭,৫৯৩ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট এস্তাদিও নাসিওনালে ওস নাভেগাদোরেস নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় পর্তুগালের রাজধানী লিসবনে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন ফের্নান্দো কোস্তা সান্তোস এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন ইয়ুভেন্তুসের আক্রমণভাগের খেলোয়াড় ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো

পর্তুগাল এপর্যন্ত ৭ বার ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছে, যাদের সেরা সাফল্য হচ্ছে ১৯৬৬ ফিফা বিশ্বকাপে তৃতীয় স্থান অর্জন করা, যেখানে তারা সোভিয়েত ইউনিয়নকে কাছে ২–১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে। অন্যদিকে, উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপে পর্তুগাল এপর্যন্ত ৮ বার অংশগ্রহণ করেছে, যার মধ্যে সেরা সাফল্য হচ্ছে উয়েফা ইউরো ২০১৬-এর শিরোপা জয়লাভ করা, যেখানে তারা ফ্রান্সকে ১–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে। এছাড়াও, ২০১৭ ফিফা কনফেডারেসন্স কাপে পর্তুগাল তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে।

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, পাউলেতা, ইউসেবিও, লুইশ ফিগো এবং পেপের মতো খেলোয়াড়গণ পর্তুগালের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিংসম্পাদনা

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০১০ সালের মে মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে পর্তুগাল তাদের ইতিহাসে সর্বপ্রথম সর্বোচ্চ অবস্থান (৩য়) অর্জন করে এবং ১৯৯৮ সালের আগস্ট মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ৪৩তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে পর্তুগালের সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ২য় (যা তারা ২০০৬ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ৪২। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
২৭ নভেম্বর ২০২০ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
    ব্রাজিল ১৭৪৩
    ইংল্যান্ড ১৬৭০
    পর্তুগাল ১৬৬২
    স্পেন ১৬৪৫
    আর্জেন্টিনা ১৬৪২
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
১৯ নভেম্বর ২০২০ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
    ফ্রান্স ২০৯২
    স্পেন ২০৫০
    পর্তুগাল ২০৩৮
    ইতালি ১৯৯৮
    নেদারল্যান্ডস ১৯৯৪

প্রতিযোগিতামূলক তথ্যসম্পাদনা

ফিফা বিশ্বকাপসম্পাদনা

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
  ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ প্রত্যাখ্যান
  ১৯৩৪ উত্তীর্ণ হয়নি ১১
  ১৯৩৮
  ১৯৫০
  ১৯৫৪
  ১৯৫৮
  ১৯৬২
  ১৯৬৬ ৩য় স্থান নির্ধারণী ৩য় ১৭
  ১৯৭০ উত্তীর্ণ হয়নি ১০
  ১৯৭৪ ১০
  ১৯৭৮ ১২
  ১৯৮২ ১১
  ১৯৮৬ গ্রুপ পর্ব ১৭তম ১২ ১০
  ১৯৯০ উত্তীর্ণ হয়নি ১১
  ১৯৯৪ ১০ ১৮
  ১৯৯৮ ১০ ১২
    ২০০২ গ্রুপ পর্ব ২১তম ১০ ৩৩
  ২০০৬ ৩য় স্থান নির্ধারণী ৪র্থ ১২ ৩৫
  ২০১০ ১৬ দলের পর্ব ১১তম ১২ ১৯
  ২০১৪ গ্রুপ পর্ব ১৮তম ১২ ২৪ ১১
  ২০১৮ ১৬ দলের পর্ব ১৩তম ১০ ৩২
  ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ৩য় স্থান নির্ধারণী ৭/২১ ৩০ ১৪ ১০ ৪৯ ৩৫ ১৩৯ ৭৬ ৩৩ ৩০ ২৬২ ১৩৯

অর্জনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ২৭ নভেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৭ নভেম্বর ২০২০ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ১৯ নভেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১৯ নভেম্বর ২০২০ 
  3. Harding, John (২৬ জুলাই ২০১০)। "Not even the great Eusebio can halt England's World Cup march"Give me Football। ৩১ জুলাই ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  4. "Germany 2006: The final ranking"। FIFA। ৯ জুলাই ২০০৬। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০১৮ 
  5. "2006 FIFA World Cup Germany ™ | Awards"। FIFA। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০১৮ 
  6. "Portugal striker Cristiano Ronaldo forced off injured in Euro 2016 final"। ESPN FC। ১০ জুলাই ২০১৬। ১১ জুলাই ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০১৬ 
  7. Szreter, Adam (৫ জুলাই ২০০৪)। "Greece are crowned kings of Europe"। UEFA। ৬ মে ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১৬ 
  8. "Portugal come from behind to finish third"। FIFA। ২ জুলাই ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  9. Law, Matt (৯ জুন ২০১৯)। "Result: Goncalo Guedes scores winner as Portugal land UEFA Nations League title"। Sports Mole। সংগ্রহের তারিখ ৯ জুন ২০১৯ 
  10. Shamoon Hafez (৯ জুন ২০১৯)। "Nations League final" (English ভাষায়)। BBC Sport। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুন ২০১৯ 
  11. "Games of the XXVI. Olympiad - Football Tournament"www.rsssf.com 
  12. "Skydome Cup (Canada 1995)"www.rsssf.com 
  13. "Sala de troféus da CBF"cbf.com.br (পর্তুগিজ ভাষায়)। ২০১২-০৯-১৫। ২০১২-০৯-১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-১৯ 
  14. "Laureus Awards 2017: Bolt, Biles, Rosberg, Atherton & Leicester among winners"। BBC Sport। ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। ৮ জুন ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ অক্টোবর ২০১৭ 
  15. "Laureus World Team of the Year 2017 nominees"। Laureus। ২৫ অক্টোবর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ অক্টোবর ২০১৭ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা