প্রবেশদ্বার:ফুটবল


প্রধান পাতা   বিষয়শ্রেণী এবং মূল বিষয় স্বীকৃত ভুক্তি

ফুটবল প্রবেশদ্বার

ফুটবল একটি দলগত খেলা। এটি বৈশ্বিকভাবে ব্যাপক পরিচিত ও জনপ্রিয় খেলা। এটি আন্তর্জাতিক ফুটবল ফেডারেশন (ফিফা) কর্তৃক পরিচালিত ক্রীড়ার আনুষ্ঠানিক নাম। কেবলমাত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডায় খেলাটি সকার নামে পরিচিত। এটি দুই দলের মধ্যে খেলা হয়, যার প্রতিটি দলে ১১ জন করে খেলোয়াড় থাকে। একবিংশ শতকে এসে ফুটবল খেলা দুই শতাধিক দেশের ২৫০ মিলিয়নেরও অধিক খেলোয়াড় খেলে থাকেন। এরফলে ফুটবল বিশ্বের সর্বাধিক জনপ্রিয় ও প্রচলিত খেলা হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে।

ফুটবল খেলার স্তর এবং দেশভেদে কোচের ভূমিকা ও দায়িত্ব-কর্তব্যের রূপরেখা ভিন্নতর হতে পারে। যুব ফুটবলে কোচের প্রধান ভূমিকা হচ্ছে খেলোয়াড়দেরকে উদ্বুদ্ধ করা এবং তাদের দক্ষতাকে কাগজে-কলমে দেখিয়ে উত্তরণ ঘটানো। শারীরিক অথবা কৌশলগত উত্তরণের তুলনায় প্রাণবন্তঃ এবং সুন্দর খেলা উপহার দেয়াকে প্রাধান্য দেয়া। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় বিভিন্ন দেশের ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণ সংস্থাগুলো তাদের প্রশিক্ষণের ছকে এ সংক্রান্ত প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। কোচদেরকেও খেলোয়াড়দের উন্নয়ন এবং বিজয়ের লক্ষ্যে আনন্দ উপভোগের জন্যে প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা অনুসরণ করতে বলেছে।

আরো পড়ুন ...

নির্বাচিত নিবন্ধ

উয়েফার লোগো
ইউনিয়ন অব ইউরোপীয়ান ফুটবল এসোসিয়েশন, যা উয়েফা, ইউরোপের ফুটবল নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান। ইউরোপের জাতীয় ফুটবল এসোসিয়েশনগুলো এই সংস্থার সদস্য। এটি ইউরোপে জাতীয় ও দলগত পর্যায়ে প্রতিযোগিতা পরিচালনা, খেলোয়াড়ের প্রাইজমানি ও গণমাধ্যম প্রচারণাস্বত্ত্ব এবং খেলার নিয়ম-শৃংখলা রক্ষার কাজ নিয়ন্ত্রণ ও সম্পাদন করে। কয়েকটি দেশের ভৌগোলিক অবস্থান এশিয়াইউরোপের মাঝামাঝি হওয়া সত্ত্বেও এএফসির সদস্য না হয়ে উয়েফার সদস্য হয়েছে। এরা হলো সাইপ্রাস, আর্মেনিয়া, জর্জিয়া, তুরস্ক, কাজাখস্তান, রাশিয়াআজারবাইজান (কাজাখস্তান পূর্বে এএফসির সদস্য ছিল)। সাইপ্রাসের কাছে ইউরোপ, এশিয়া অথবা আফ্রিকার সদস্য হওয়ার সুযোগ ছিল এবং তারা নিজেকে ইউরোপীয়ান ফুটবল জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেছে।

নির্বাচিত ফুটবলার

রোমারিও
রোমারিও ডি ফারিয়া সুজা (জন্ম ২৯ জানুয়ারী,১৯৬৬) বিশ্ব ফুটবল মঞ্চে সবচেয়ে পরিচিত খেলোয়াড়দের একজন। তার অসাধারণ নৈপুণ্য ব্রাজিলকে ১৯৯৪ সালে চতুর্থবারের মত বিশ্বকাপ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ব্রাজিল জাতীয় দল ছাড়াও ক্লাব ফুটবলে রোমারিও সর্বকালের সবচেয়ে বেশি সংখ্যক গোলদাতাদের একজন। ১৯৯৪ সালে ফিফা তাকে ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলার হিসেবে নির্বাচিত করে। একই বছর তিনি গোল্ডেন বল বিজয়ীর সম্মান অর্জন করেন। এছাড়াও ফিফার শততম বর্ষপূর্তিতে ঘোষিত সেরা ১২৫ বেঁচে থাকা ফুটবলার-এর তালিকায় তার নাম অন্তর্ভুক্ত হয়। নিজের দাবী অনুযায়ী পেশাদারী জীবনে তিনি ১০০০-এর বেশি গোল করেছেন, যদিও প্রকৃত পরিসংখ্যানে অনেকে এই সংখ্যাটি ৯০০-এর অধিক বলে মনে করেন। গোলসংখ্যার হিসেবে পেলের পরেই তার অবস্থান।

নির্বাচিত ছবি

১৯২৪ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে প্রথম স্বর্ণপদক জয়ী উরুগুয়ে জাতীয় ফুটবল দল
১৯২৪ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে প্রথম স্বর্ণপদক জয়ী উরুগুয়ে জাতীয় ফুটবল দল
কৃৃতিত্ব: অজ্ঞাত
১৯২৪ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে প্রথম স্বর্ণপদক জয়ী উরুগুয়ে ফুটবল দল

নির্বাচিত দল

স্পেন জাতীয় ফুটবল দল
স্পেন জাতীয় ফুটবল দল (স্পেনীয়: Selección de fútbol de España) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে স্পেনের প্রতিনিধি। দলটি রয়্যাল স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। স্পেনের জাতীয় ফুটবল দলকে সাধারণত লা ফুরিয়া রোহা (La Furia Roja) অর্থাৎ "লাল শিখা" বা কেবল লা রোহা অর্থাৎ "লাল" নামে সম্বোধন করা হয়। স্পেন ২০০৮ সালে উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে জার্মানিকে পরাজিত করে। ২০১২ সালে ইতালিকে ৪–০ গোলে পরাজিত করে স্পেন একমাত্র দল হিসেবে টানা দুবার ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। এছাড়া স্পেন ১৯৬৪ সালে ইউরোপীয়ান নেশনস কাপ জয়লাভ করেছিল ও ১৯৮৪ সালে ফাইনাল পর্যন্ত উন্নীত হয়। এখন পর্যন্ত দলটি ১৪ বার ফিফা বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে।

নির্বাচিত ক্লাব

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফুটবল ক্লাবের লোগো
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফুটবল ক্লাব বিশ্ববিখ্যাত ইংরেজ ফুটবল ক্লাব। এদের নিজস্ব মাঠ ওল্ড ট্রাফোর্ড ফুটবল গ্রাউন্ড, ট্রাফোর্ড, গ্রেটার ম্যানচেস্টারে অবস্থিত। সারা বিশ্বের জনপ্রিয়তম ফুটবল দলগুলোর মধ্যে এটি অন্যতম। এদের সমর্থকের সংখ্যা সারা বিশ্বে প্রায় ৩৩০ মিলিয়নেরও অধিক যা পৃথিবীর মোট জনসংখ্যার ৫%। ১৯৬৪-৬৫ মৌসুম থেকে কেবল ছয়টি মৌসুম ছাড়া ইংরেজ ফুটবলের ইতিহাসে এই ক্লাবের গড় দর্শকের সংখ্যা অন্য যেকোন ক্লাবের চেয়ে বেশি। ইংরেজ ফুটবলের ইতিহাসে সফলতম দলগুলোর মধ্যে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড অন্যতম। ১৯৮৬ সালের নভেম্বর মাসে অ্যালেক্স ফার্গুসন ম্যানেজারের পদে আসীন হবার পর থেকে বিশ বছরের অধিক সময়ে তারা ২২টি প্রধান শিরোপা জিতেছে যা প্রিমিয়ার লীগের অন্য যেকোন দলের থেকে বেশি।

আপনি জানেন কি

উল্লিখিত তথ্যগুলি উইকিপিডিয়া:আপনি জানেন কি প্রকল্পের অংশ হিসেবে প্রধান পাতায় প্রদর্শিত হয়েছে।


সম্পর্কিত উইকিমিডিয়া


উইকিসংবাদে ফুটবল
উন্মুক্ত সংবাদ উৎস


উইকিউক্তিতে ফুটবল
উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন


উইকিসংকলনে ফুটবল
উন্মুক্ত পাঠাগার


উইকিবইয়ে ফুটবল
উন্মুক্ত পাঠ্যপুস্তক ও ম্যানুয়াল


উইকিবিশ্ববিদ্যালয়ে ফুটবল
উন্মুক্ত শিক্ষা মাধ্যম


উইকিমিডিয়া কমন্সে ফুটবল
মুক্ত মিডিয়া ভাণ্ডার


উইকিঅভিধানে ফুটবল
অভিধান ও সমার্থশব্দকোষ


উইকিউপাত্তে ফুটবল
উন্মুক্ত জ্ঞানভান্ডার


উইকিভ্রমণে ফুটবল
উন্মুক্ত ভ্রমণ নির্দেশিকা