পাঁচবিবি রেলওয়ে স্টেশন

পাঁচবিবি রেলওয়ে স্টেশন বাংলাদেশের রাজশাহী বিভাগের জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার একটি গুরুত্বপূর্ণ রেলওয়ে স্টেশন। এটি ১৮৮৪ সালে ব্রিটিশ রাজ আমলের প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এখানে ১৯২৪ সালে মিটারগেজ লাইন হতে ব্রডগেজ লাইন স্থাপন করা হয়। পাঁচবিবি একটি সীমান্ত নিকটবর্তী উপজেলা, বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম হিলি স্থলবন্দর পাঁচবিবির উপজেলার খুব কাছে অবস্থিত। পাঁচবিবি রেলস্টেশনের পূর্ববর্তী জয়পুরহাট রেলস্টেশন এবং পরবর্তী হিলি রেলস্টেশন। তাই ভারত,নেপাল এবং ভুটান যেতে চায় এমন অনেক যাত্রী রেলপথে পাঁচবিবি স্টেশনে আসেন। তারা এই স্টেশন থেকে রেলপথে মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যে হিলিতেও যেতে পারেন। এটি বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চল এর অধীনে পরিচালিত ।

পাঁচবিবি রেলওয়ে স্টেশন
রেলওয়ে স্টেশন
পাঁচবিবি রেলওয়ে স্টেশনে দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেন
অবস্থানজয়পুরহাট জেলা
 বাংলাদেশ
স্থানাঙ্ক২৫°১১′২১″ উত্তর ৮৯°০১′১৭″ পূর্ব / ২৫.১৮৯১° উত্তর ৮৯.০২১৩° পূর্ব / 25.1891; 89.0213
মালিকানাধীনবাংলাদেশ রেলওয়ে
লাইন
প্ল্যাটফর্ম
নির্মাণ
গঠনের ধরনসাধারণ
অন্য তথ্য
অবস্থাতৃতীয় শ্রেণি
ইতিহাস
চালু১৮৮৪; ১৩৯ বছর আগে (1884)
অবস্থান
মানচিত্র

ইতিহাস সম্পাদনা

এটি ১৮৮৪ সালে চালু করা হয়। পাঁচবিবি উপজেলায় মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী দীর্ঘদিন যাবৎ বসবাস করায় এই স্টেশনটি ভাসানীবঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতি বিজড়িত একটি স্টেশন। তাছাড়া কৃষি প্ৰধান এ এলাকার কৃষকের উৎপাদিত পণ্য ট্রেনের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে যায়। এছাড়া এ রেলপথ দিয়ে পাঁচবিবি উপজেলার পাশ্ববর্তী ঘোড়াঘাট, গোবিন্দগঞ্জহিলি(হাকিমপুর) উপজেলার অনেক যাত্রী, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী ঢাকা, রাজশাহী, খুলনাসহ বিভিন্নস্থানে যাতয়াত করে।

এ কারণে সকল আন্তনগর ট্রেনের যাত্রা বিরতি, স্টেশনটি মডেলে রূপান্তর ও অনলাইনে টিকিট বিক্রয় সিস্টেম চালুর দাবি জানানো হয়।

পরিষেবা সম্পাদনা

পাঁচবিবি রেলওয়ে স্টেশন দিয়ে যেসব ট্রেন চলাচল করে নিম্নে তা উল্লেখ করা হলো:

আরো দেখুন সম্পাদনা

তথ্যসূত্র সম্পাদনা