হলদিবাড়ি–নিউ জলপাইগুড়ি রেলপথ

হলদিবাড়ি–নিউ জলপাইগুড়ি রেলপথ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের জলপাইগুড়ি জেলার নতুন জলপাইগুড়ি ও কোচবিহার জেলার হালদিবাড়ির মধ্যে সংযোগ ঘটায়, এটি ১৮৭৮ সাল থেকে কলকাতা-শিলিগুড়ি ব্রডগেজ রেলপথের অংশ ছিল। ১৯৪৭ সালে ভারত বিভাগের সাথে রেলপথের প্রধান অংশ পাকিস্তানে, পরে বাংলাদেশে অন্তর্ভূক্ত হয় এবং রেলপথের পৃথক দুটি প্রান্ত ভারতে অবস্থিত ছিল। (বিস্তারিত জানার জন্য হাওড়া–নিউ জলপাইগুড়ি রেলপথ দেখুন)। যাইহোক, ১৯৬৫ সালের ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ পর্যন্ত এই রেলপথটি চলু ছিল। তারপরে, রেলপথটি বন্ধ হয়ে যায়। এই রেলপথের অংশ পৃথক ভাবে নিজ নিজ দেশে ব্যবহার করা হয়।

হলদিবাড়ি–নিউ জলপাইগুড়ি রেলপথ
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
অবস্থাসক্রিয়
সেবাগ্রহণকারী অঞ্চলউত্তরবঙ্গ, পশ্চিমবঙ্গ
বিরতিস্থলহলদিবাড়ি
নিউ জলপাইগুড়ি
বিরতিস্থলসমূহ১০
ক্রিয়াকলাপ
উদ্বোধনের তারিখ১৮৭৮
মালিকভারতীয় রেল
পরিচালনাকারীউত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে
প্রযুক্তিগত
রেললাইনের মোট দৈর্ঘ্য৫৮ কিলোমিটার (৩৬ মা)
ট্র্যাক গেজ১,৬৭৬ এমএম (৫ ফুট ৬ ইঞ্চি) ব্রডগেজ

গেজ পরিবর্তনসম্পাদনা

শিলিগুড়ি-হালদিবাড়ি রেলপথ দুটি ক্রমবর্ধমান গেজ পরিবর্তনের মাধ্যমে বর্তমান অবস্থায় এসেছে। যেহেতু এলাকায় অন্যান্য রেলপথগুলি মিটার গেজ ছিল তাই লাইনটি ১৯৪২ সালে ব্রডগেজ থেকে মিটার গেজে রূপান্তরিত হয়েছিল। তারপর উনিশ শতকে যখন এই অঞ্চলে ব্রডগেজ রেলপথ চালু করা হয়, তখন লাইনটিকে ব্রডগেজ রূপে রূপান্তরিত করা হয় এবং সংযুক্ত করা হয় নিউ জলপাইগুড়ি জংশন স্টেশনের সঙ্গে।[১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "India: the complex history of the junctions at Siliguri and New Jalpaiguri"। IRFCA। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১১-১২ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা