চেকোস্লোভাকিয়া জাতীয় ফুটবল দল

চেকোস্লোভাকিয়া জাতীয় ফুটবল দল (চেক: Československá fotbalová reprezentace, স্লোভাক: Československé národné futbalové mužstvo, ইংরেজি: Czechoslovakia national football team) আন্তর্জাতিক ফুটবলে চেকোস্লোভাকিয়ার প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল ছিল, যার সকল কার্যক্রম চেকোস্লোভাকিয়ার ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা চেকোস্লোভাক ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হতো। এই দলটি ১৯২০ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৫৪ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা উয়েফাের সদস্যপদ অর্জন করেছিল। ১৯২০ সালের ২০শে আগস্ট তারিখে, চেকোস্লোভাকিয়া প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছিল; বেলজিয়ামের আন্টভের্পে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে চেকোস্লোভাকিয়া যুগোস্লাভিয়াকে ৭–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছিল। চেকোস্লোভাকিয়া বেশ কয়েকটি স্টেডিয়ামে তাদের হোম ম্যাচগুলো আয়োজন করতো।

চেকোস্লোভাকিয়া
দলের লোগো
অ্যাসোসিয়েশনচেকোস্লোভাক ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
কনফেডারেশনউয়েফা (ইউরোপ)
সর্বাধিক ম্যাচজদেনেক নেহোদা (৯১)
শীর্ষ গোলদাতাআন্তোনিন পুচ (৩৪)
মাঠবিভিন্ন
ফিফা কোডTCH
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 চেকোস্লোভাকিয়া ৭–০ যুগোস্লাভিয়া 
(আন্টভের্প, বেলজিয়াম; ২৮ আগস্ট ১৯২০)
সর্বশেষ আন্তর্জাতিক খেলা
 বেলজিয়াম ০–০ চেকোস্লোভাকিয়া 
(ব্রাসেল্‌স, বেলজিয়াম; ১৭ নভেম্বর ১৯৯৩)
বৃহত্তম জয়
 চেকোস্লোভাকিয়া ৭–০ যুগোস্লাভিয়া 
(আন্টভের্প, বেলজিয়াম; ২৮ আগস্ট ১৯২০)
 চেকোস্লোভাকিয়া ৭–০ যুগোস্লাভিয়া 
(প্রাগ, চেকোস্লোভাকিয়া; ২৮ অক্টোবর ১৯২৫)
বৃহত্তম পরাজয়
 হাঙ্গেরি ৮–৩ চেকোস্লোভাকিয়া 
(বুদাপেস্ট, হাঙ্গেরি; ১৯ সেপ্টেম্বর ১৯৩৭)
 স্কটল্যান্ড ৫–০ চেকোস্লোভাকিয়া 
(গ্লাসগো, স্কটল্যান্ড; ৮ ডিসেম্বর ১৯৩৭)
 হাঙ্গেরি ৫–০ চেকোস্লোভাকিয়া 
(হাঙ্গেরি; ৩০ এপ্রিল ১৯৫০)
 হাঙ্গেরি ৫–০ চেকোস্লোভাকিয়া 
(হাঙ্গেরি; ১৯ অক্টোবর ১৯৫২)
 অস্ট্রিয়া ৫–০ চেকোস্লোভাকিয়া 
(জুরিখ, সুইজারল্যান্ড; ১৯ জুন ১৯৫৪)
বিশ্বকাপ
অংশগ্রহণ৮ (১৯৩৪-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যরানার-আপ (১৯৩৪, ১৯৬২)
উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপ
অংশগ্রহণ৩ (১৯৬০-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (১৯৭৬)

এই দলটি ১৯৯২ সালে বিলুপ্ত হয়েছে। উক্ত বছরে চেকোস্লোভাকিয়া বিভক্ত হওয়ার সময় দলটি ১৯৯৪ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে উয়েফার গ্রুপ ৪-এ অংশগ্রহণ করছিল; বিভক্ত হওয়ার পর দলটি উক্ত বাছাইপর্বে চেক ও স্লোভাকীয় প্রতিনিধি (চেক: Reprezentace Čechů a Slováků, স্লোভাক: Reprezentácia Čechov a Slovákov, ইংরেজি: Representation of Czechs and Slovaks) হিসেবে অংশগ্রহণ করেছিল। বর্তমানে বিদ্যমান চেক প্রজাতন্ত্র জাতীয় ফুটবল দল চেকোস্লোভাকিয়ার উত্তরাধিকারী হিসেবে স্বীকৃত।[১][২] অন্যদিকে, একটি নতুন দল স্লোভাকিয়া জাতীয় ফুটবল দল স্লোভাকিয়ার প্রতিনিধিত্ব করে।

চেকোস্লোভাকিয়া সর্বমোট ৮ বার ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছে, যার মধ্যে সেরা সাফল্য হচ্ছে ১৯৩৪ এবং ১৯৬২ ফিফা বিশ্বকাপের ফাইনালে পৌঁছানো, যেখানে তারা যথাক্রমে ইতালি এবং ব্রাজিলের কাছে পরাজিত হয়েছে। অন্যদিকে, উয়েফা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপে চেকোস্লোভাকিয়া অন্যতম সফল দল, যেখানে তারা ১৯৭৬ ইউরোপীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়লাভ করেছে। এছাড়াও, গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে চেকোস্লোভাকিয়ার সেরা সাফল্য হচ্ছে ১৯৮০ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে স্বর্ণ পদক জয়লাভ করা।

জদেনেক নেহোদা, মারিয়ান মাসনি, লাদিস্লাভ নোভাক, আডোলফ শেরার এবং আন্তোনিন পুচের মতো খেলোয়াড়গণ চেকোস্লোভাকিয়ার জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছিলেন।

প্রতিযোগিতামূলক তথ্যসম্পাদনা

ফিফা বিশ্বকাপসম্পাদনা

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
  ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
  ১৯৩৪ ফাইনাল ২য়
  ১৯৩৮ কোয়ার্টার-ফাইনাল ৫ম
  ১৯৫০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
  ১৯৫৪ গ্রুপ পর্ব ১৪তম
  ১৯৫৮ গ্রুপ পর্ব ৯ম
  ১৯৬২ ফাইনাল ২য় ২০
  ১৯৬৬ উত্তীর্ণ হয়নি ১২
  ১৯৭০ গ্রুপ পর্ব ১৫তম ১৬
  ১৯৭৪ উত্তীর্ণ হয়নি
  ১৯৭৮
  ১৯৮২ গ্রুপ পর্ব ১৯তম ১৫
  ১৯৮৬ উত্তীর্ণ হয়নি ১১ ১২
  ১৯৯০ কোয়ার্টার-ফাইনাল ৬ষ্ঠ ১০ ১৩
  ১৯৯৪ উত্তীর্ণ হয়নি ১০ ২১
মোট ফাইনাল ৮/১৫ ৩০ ১১ ১৪ ৪৪ ৪৫ ৭১ ৪০ ১৬ ১৫ ১৪৪ ৬৩

অর্জনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Member Association – Czech Republic"। FIFA.com। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মার্চ ২০১৬ 
  2. "UEFA EURO 2016 – Czech Republic profile"। UEFA.com। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মার্চ ২০১৬