প্রধান মেনু খুলুন

জার্মেনিয়াম হলো ৩২ পারমাণবিক সংখ্যা বিশিষ্ট একটি মৌল যার প্রতীক Ge। এটি কার্বন শ্রেণীর একটি উজ্জ্বল, শক্ত-ভঙ্গুর, ধূসরাভ-সাদা ধাতুকল্প রাসায়নিক উপাদান। রাসায়নিকভাবে একই গ্রুপের সিলিকনটিনের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ। সিলিকনের মতোই জার্মেনিয়াম অর্ধপরিবাহিতা প্রদর্শন করে। সিলিকনের মতোই জার্মেনিয়াম প্রকৃতিতে অক্সিজেনের সাথে বিক্রিয়া করে যৌগ উৎপন্ন করে।

জার্মেনিয়াম   ৩২Ge
Grayish lustrous block with uneven cleaved surface
A 12 gram (2x3 cm) polycrystalline block of Ge with uneven cleaved surfaces
পরিচয়
নাম, প্রতীকজার্মেনিয়াম, Ge
উচ্চারণ/ərˈmniəm/
jər-MAY-nee-əm
উপস্থিতিধুসর-সাদা
পর্যায় সারণীতে জার্মেনিয়াম
হাইড্রোজেন (other non-metal)
হিলিয়াম (noble gas)
লিথিয়াম (alkali metal)
বেরিলিয়াম (alkaline earth metal)
বোরন (metalloid)
কার্বন (other non-metal)
নাইট্রোজেন (other non-metal)
অক্সিজেন (other non-metal)
ফ্লোরিন (halogen)
নিয়ন (noble gas)
সোডিয়াম (alkali metal)
ম্যাগনেসিয়াম (alkaline earth metal)
অ্যালুমিনিয়াম (post-transition metal)
সিলিকন (metalloid)
ফসফরাস (other non-metal)
সালফার (other non-metal)
ক্লোরিন (halogen)
আর্গন (noble gas)
পটাশিয়াম (alkali metal)
ক্যালসিয়াম (alkaline earth metal)
স্ক্যানডিয়াম (transition metal)
টাইটানিয়াম (transition metal)
ভ্যানাডিয়াম (transition metal)
ক্রোমিয়াম (transition metal)
ম্যাঙ্গানিজ (transition metal)
লোহা (transition metal)
কোবাল্ট (transition metal)
নিকেল (transition metal)
তামা (transition metal)
দস্তা (transition metal)
গ্যালিয়াম (post-transition metal)
জার্মেনিয়াম (metalloid)
আর্সেনিক (metalloid)
সেলেনিয়াম (other non-metal)
ব্রোমিন (halogen)
ক্রিপ্টন (noble gas)
রুবিডিয়াম (alkali metal)
স্ট্রনসিয়াম (alkaline earth metal)
ইটরিয়াম (transition metal)
জিরকোনিয়াম (transition metal)
নাইওবিয়াম (transition metal)
মলিবডিনাম (transition metal)
টেকনিসিয়াম (transition metal)
রুথেনিয়াম (transition metal)
রোহডিয়াম (transition metal)
প্যালাডিয়াম (transition metal)
রুপা (transition metal)
ক্যাডমিয়াম (transition metal)
ইন্ডিয়াম (post-transition metal)
টিন (post-transition metal)
অ্যান্টিমনি (metalloid)
টেলুরিয়াম (metalloid)
আয়োডিন (halogen)
জেনন (noble gas)
সিজিয়াম (alkali metal)
বেরিয়াম (alkaline earth metal)
ল্যান্থানাম (lanthanoid)
সিরিয়াম (lanthanoid)
প্রাসিওডিমিয়াম (lanthanoid)
নিওডিমিয়াম (lanthanoid)
প্রমিথিয়াম (lanthanoid)
সামারিয়াম (lanthanoid)
ইউরোপিয়াম (lanthanoid)
গ্যাডোলিনিয়াম (lanthanoid)
টারবিয়াম (lanthanoid)
ডিসপ্রোসিয়াম (lanthanoid)
হলমিয়াম (lanthanoid)
এরবিয়াম (lanthanoid)
থুলিয়াম (lanthanoid)
ইটারবিয়াম (lanthanoid)
লুটেসিয়াম (lanthanoid)
হ্যাফনিয়াম (transition metal)
ট্যানটালাম (transition metal)
টাংস্টেন (transition metal)
রিনিয়াম (transition metal)
অসমিয়াম (transition metal)
ইরিডিয়াম (transition metal)
প্লাটিনাম (transition metal)
সোনা (transition metal)
পারদ (transition metal)
থ্যালিয়াম (post-transition metal)
সীসা (post-transition metal)
বিসমাথ (post-transition metal)
পোলোনিয়াম (post-transition metal)
এস্টাটিন (halogen)
রেডন (noble gas)
ফ্রান্সিয়াম (alkali metal)
রেডিয়াম (alkaline earth metal)
অ্যাক্টিনিয়াম (actinoid)
থোরিয়াম (actinoid)
প্রোটেক্টিনিয়াম (actinoid)
ইউরেনিয়াম (actinoid)
নেপচুনিয়াম (actinoid)
প্লুটোনিয়াম (actinoid)
অ্যামেরিসিয়াম (actinoid)
কুরিয়াম (actinoid)
বার্কেলিয়াম (actinoid)
ক্যালিফোর্নিয়াম (actinoid)
আইনস্টাইনিয়াম (actinoid)
ফার্মিয়াম (actinoid)
মেন্ডেলেভিয়াম (actinoid)
নোবেলিয়াম (actinoid)
লরেনসিয়াম (actinoid)
রাদারফোর্ডিয়াম (transition metal)
ডুবনিয়াম (transition metal)
সিবোরজিয়াম (transition metal)
বোহরিয়াম (transition metal)
হ্যাসিয়াম (transition metal)
মিটনেরিয়াম (unknown chemical properties)
ডার্মস্টেটিয়াম (unknown chemical properties)
রন্টজেনিয়াম (unknown chemical properties)
কোপার্নিসিয়াম (transition metal)
ইউনুনট্রিয়াম (unknown chemical properties)
ফেরোভিয়াম (unknown chemical properties)
ইউনুনপেন্টিয়াম (unknown chemical properties)
লিভেরমোরিয়াম (unknown chemical properties)
ইউনুনসেপটিয়াম (unknown chemical properties)
ইউনুনকটিয়াম (unknown chemical properties)
Si

Ge

Sn
গ্যালিয়ামজার্মেনিয়ামআর্সেনিক
পারমাণবিক সংখ্যা32
আদর্শ পারমাণবিক ভর72.63(1) 
মৌলের শ্রেণীmetalloid
শ্রেণী, পর্যায়, ব্লক১৪, পর্যায় ৪, p-ব্লক
ইলেকট্রন বিন্যাস[Ar] 3d10 4s2 4p2
per shell: 2, 8, 18, 4
ভৌত বৈশিষ্ট্য
দশাকঠিন
গলনাঙ্ক1211.40 কে ​(938.25 °সে, ​1720.85 °ফা)
স্ফুটনাঙ্ক3106 K ​(2833 °সে, ​5131 °ফা)
ঘনত্ব (ক.তা.-র কাছে)5.323 g·cm−৩ (০ °সে-এ, ১০১.৩২৫ kPa)
তরলের ঘনত্বm.p.: 5.60 g·cm−৩
ফিউশনের এনথালপি36.94 kJ·mol−১
বাষ্পীভবনের এনথালপি334 kJ·mol−১
তাপ ধারকত্ব23.222 J·mol−১·K−১
বাষ্প চাপ
P (Pa) ১০ ১০০ ১ k ১০ k ১০ k
at T (K) 1644 1814 2023 2287 2633 3104
পারমাণবিক বৈশিষ্ট্য
জারণ অবস্থা4, 3, 2, 1, 0, -1, -2, -3, -4
(amphoteric oxide)
তড়িৎ-চুম্বকত্ব2.01 (পলিং স্কেল)
পারমাণবিক ব্যাসার্ধempirical: 122 pm
সমযোজী ব্যাসার্ধ122 pm
ভ্যান ডার ওয়ালস ব্যাসার্ধ211 pm
বিবিধ
কেলাসের গঠনdiamond cubic
Diamond cubic জন্য কেলাসের গঠন{{{name}}}
শব্দের দ্রুতিপাতলা রডে: 5400 m·s−১ (at 20 °সে)
তাপীয় প্রসারাঙ্ক6.0 µm·m−১·K−১
তাপীয় পরিবাহিতা60.2 W·m−১·K−১
তড়িৎ রোধকত্ব ও পরিবাহিতা২০ °সে-এ: 1  Ω·m
চুম্বকত্বDiamagnetic[১]
ইয়ংয়ের গুণাঙ্ক103[২] GPa
কৃন্তন গুণাঙ্ক41[২] GPa
আয়তন গুণাঙ্ক75[২] GPa
পোয়াসোঁর অনুপাত0.26[২]
(মোজ) কাঠিন্য6.0
ক্যাস নিবন্ধন সংখ্যা7440-56-4
সবচেয়ে স্থিতিশীল আইসোটোপ
মূল নিবন্ধ: জার্মেনিয়ামের আইসোটোপ
iso NA অর্ধায়ু DM DE (MeV) DP
68Ge syn 270.8 d ε - 68Ga
70Ge 21.23% Ge 38টি নিউট্রন নিয়ে স্থিত হয়
71Ge syn 11.26 d ε - 71Ga
72Ge 27.66% Ge 40টি নিউট্রন নিয়ে স্থিত হয়
73Ge 7.73% Ge 41টি নিউট্রন নিয়ে স্থিত হয়
74Ge 35.94% Ge 42টি নিউট্রন নিয়ে স্থিত হয়
76Ge 7.44% 1.78×1021 y ββ - 76Se
· তথ্যসূত্র

প্রকৃতিতে একসাথে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে পাওয়া না যাওয়ায় রসায়নের ইতিহাসে জার্মেনিয়াম অপেক্ষাকৃত অনেক পরে আবিষ্কৃত হয়। পৃথিবীপৃষ্ঠে প্রাপ্য সহজলভ্য মৌলের মধ্যে জার্মেনিয়ামের অবস্থান ৫০তম। ১৮৬৯ সালে দিমিত্রি ম্যান্ডেলিভ তাঁর পর্যায় সারণীতে অবস্থান থেকে জার্মেনিয়ামের কিছু রাসায়নিক বৈশিষ্ট্য ব্যাখ্যা করেন ও মৌলের অস্তিত্ব সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বানী করেন। তিনি মৌলটিকে একাসিলিকন নামে অভিহিত করেন। প্রায় দুই দশক পরে ১৮৮৬ সালে ক্লিমেন্স উইঙ্কলার আর্গাইরোডাইট নামের একটি দুর্লভ খনিজে রূপাগন্ধকের সাথে একটি নতুন মৌল আবিষ্কার করেন। আপাতদৃষ্টিতে নতুন আবিষ্কৃত মৌলটি আর্সেনিকঅ্যান্টিমনির সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ মনে হলেও, রাসায়নিক যৌগের সংযুক্তি বিশ্লেষণ করে মৌলটিকে ম্যান্ডেলিভের ভবিষ্যদ্বাণীমতো সিলিকনের সাথে সম্পর্কিত বলে মত দেন। উইঙ্কলার তাঁর দেশ জার্মানির নামানুসারে যৌগের নাম রাখেন জার্মেনিয়াম। বর্তমানে, দস্তার প্রাথমিক আকরিক স্ফালেরাইট থেকে জার্মেনিয়াম নিষ্কাশিত হয়, তবে বাণিজ্যিকভাবে রূপা, সীসাতামার আকরিক থেকেও জার্মেনিয়াম পুনরুদ্ধার করা হয়।

জার্মেনিয়াম মৌল অর্ধপরিবাহী হিসেবে ট্রানজিস্টরে ও অন্যান্য ইলেকট্রনিক যন্ত্রে ব্যবহার করা হয়। ঐতিহাসিকভাবে অর্ধপরিবাহী ইলেকট্রনিক্সের প্রথম দশক সম্পূর্ণরূপে জার্মেনিয়ামের ওপর নির্ভরশীল ছিল। বর্তমানে জার্মেনিয়ামের প্রধান ব্যবহার অপটিক্যাল ফাইবার ব্যবস্থা, অবলোহিত ফাইবার, সৌর কোষএলইডিতেপলিমারকরণ বিক্রিয়ার প্রভাবক হিসেবে এবং সাম্প্রতিককালে ন্যনোওয়্যার উৎপাদনে জারমেনিয়াম যৌগ ব্যবহৃত হয়। এই মৌলটি টেট্রাইথাইলজার্মেনিয়ামের মতো বেশ কয়েকটি জৈব-জার্মেনিয়াম যৌগ গঠন করে, যা জৈব-ধাতব রসায়নে তাৎপর্যপূর্ণ। জার্মেনিয়ামকে প্রযুক্তির জন্য তাৎপর্যপূর্ণ মৌল হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

জীব দেহের জন্য জার্মেনিয়ামকে অত্যাবশ্যকীয় উপাদান হিসেবে গণ্য করা হয় না। জার্মেনিয়ামের কিছু জটিল জৈব যৌগ ঔষধ শিল্পের জন্য পরীক্ষা করা হচ্ছে, যদিও এ পর্যন্ত সাফল্য পাওয়া যায় নি। সিলিকন ও অ্যালুমিনিয়ামের মতো প্রাকৃতিক জার্মেনিয়াম যৌগসমূহ পানিতে সাধারণত অদ্রবণীয় এবং এ কারণে মুখে প্রবেশে সামান্য বিষাক্ততা প্রদর্শন করে। তবে কৃত্রিমভাবে সংশ্লেষিত দ্রবণীয় জারমেনিয়াম লবণসমূহ বৃক্কে বিষাক্ততা প্রদর্শন করে। হ্যালোজেনহাইড্রোজেনযুক্ত কৃত্রিম সংশ্লেষিত রাসায়নিক সক্রিয় জার্মেনিয়াম যৌগসমূহ বিষাক্ত।

পরিচ্ছেদসমূহ

ইতিহাসসম্পাদনা

 
জার্মেনিয়াম সম্পর্কিত ভবিষ্যৎবাণী, "?=70" (পর্যায় সারণী ১৮৬৯)

১৮৬৯ সালে রাশিয়ান রসায়নবিদ দিমিত্রি ম্যান্ডেলিভ তাঁর মৌলের পর্যায়বৃত্তিক সূত্র-এ বেশ কয়েকটি মৌলিক পদার্থের অস্তিত্ব সম্পর্কে ভবিষ্যৎবাণী করেন। এর মধ্যে কার্বন শ্রেণীতে সিলিকনটিনের মধ্যে একটি মৌল অন্যতম।[৩] পর্যায় সারণীতে অবস্থানের জন্য ম্যান্ডেলিভ এর নাম দেন একাসিলিকন (Es), এবং আণবিক ভর ৭০ (পরবর্তীতে ৭২) বলে ধারণা করেন।

১৮৮৫ সালের মাঝামাঝিতে জার্মানির স্যাক্সনি রাজ্যের ফ্রিবার্গ শহরের কাছাকাছি রূপাসমৃদ্ধ একটি নতুন খনিজ আবিষ্কৃত হয় এবং এর নামকরণ করা হয় আর্গাইরোডাইট। গ্রিক আর্গাইরোডাইট শব্দের অর্থ রূপা-ধারণকারী[৪] রসায়নবিদ ক্লিমেন্স উইঙ্কলার নতুন খনিজটিকে বিশ্লেষণ করে রূপা, গন্ধক ও একটি নতুন মৌলের সন্ধান পান। উইঙ্কলার ১৮৮৬ সালে নতুন মৌলটিকে আলাদা করতে সক্ষম হন এবং অ্যান্টিমনির সাথে সাদৃশ্য খুঁজে পান। তিনি প্রাথমিকভাবে মৌলটিকে একা-অ্যান্টিমনি হিসেবে শনাক্ত করলেও পরবর্তীতে মৌলটি একা-সিলিকন বলে চিহ্নিত করেন।[৫][৬] উইঙ্কলারের নতুন মৌলের প্রতিবেদনটি প্রকাশের পূর্বে মৌলটির নাম ন্যাপচুনিয়াম রাখার সিদ্ধান্ত নেন, কেননা ১৮৪৬ সালে মৌলটির মতো পূর্ব ভবিষ্যদ্বাণী অনুযায়ী নেপচুন গ্রহ আবিষ্কৃত হয়। (১৮৪৩ সালে দুই গণিতবিদ জন কাউচ অ্যাডামসআরবেইন লি ভ্যারিয়ার সেলেস্টিয়াল মেকানিক্স পদ্ধতিতে হিসাব নিকাশ করে নেপচুন গ্রহের অস্তিত্বের কথা প্রকাশ করেন। মহাকাশ পর্যবেক্ষণে দেখা যায় ইউরেনাস গ্রহ তার কক্ষপথ থেকে সামান্য বিচ্যুত থাকে, এর কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে নেপচুনের অস্তিত্বের ধারণ দেন।[৭] জেমস ক্যালিস ১৮৪৬ সালের জুলাইয়ে অনুসন্ধান শুরু করেন এবং ১৮৪৬ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর গ্রহটি পর্যবেক্ষণ করেন।[৮]) কিন্তু আগেই অন্য একটি মৌলের নাম হিসেবে ন্যাপচুন প্রস্তাবিত হয়ে যায়। যদিও মৌলটি বর্তমানের ন্যাপচুনিয়াম মৌল (১৯৪০ সালে আবিষ্কৃত) নয়। ১৮৭৭ সালে আর হারম্যান পর্যায় সারণীতে ট্যানটালামের নিচে অবস্থিত তাঁর আবিষ্কৃত নতুন মৌলের নাম গ্রিক সমুদ্র দেবতার নামানুসারে ন্যাপচুনিয়াম প্রস্তাব করেন।[৯][১০] অবশ্য পরবর্তীতে ধাতুটিকে নাইওবিয়াম ও ট্যানটালামের সংকর হিসেবে শনাক্ত করা হয়।[১১] পরবর্তীতে পর্যায় সারণীর ইউরেনিয়ামের ঠিক পরের কৃত্রিমভাবে সংশ্লেষিত মৌলের নামকরণ করা হয় "ন্যাপচুনিয়াম", যা নিউক্লীয় পদার্থবিদরা ১৯৪০ সালে আবিষ্কার করেন।[১২] তাই উইঙ্কলার তাঁর মাতৃভূমির নামানুসারে মৌলটির নাম রাখেন জার্মেনিয়াম (জার্মানির ল্যাটিন শব্দ জার্মানিয়া থেকে)।[৬] আর্গাইরোডাইট প্রকৃতপক্ষে Ag8GeS6 বলে প্রমাণিত। আর্সেনিক ও অ্যান্টিমনির সাথে সাদৃশ্যগত কারণে পর্যায় সারণীতে মৌলটির অবস্থান নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়, কিন্তু দিমিত্রি ম্যান্ডেলিভের একাসিলিকন-এর সাথে যথেষ্ট মিল থাকায় পর্যায় সারণীতে এর অবস্থান সুনির্দিষ্ট করা হয়।[৬][১৩] ১৮৮৭ সালে স্যক্সনির খনিজ থেকে প্রায় ৫০০ কেজি আকরিক সংগ্রহ করে উইঙ্কলার নতুন মৌলটির আরও রাসায়নিক বৈশিষ্ট্য ব্যাখ্যা করেন।[৫][৬][১৪] বিশুদ্ধ জার্মেনিয়াম টেট্রাক্লোরাইড (GeCl
4
) বিশ্লেষণ করে পারমাণবিক ভর ৭২.৩২ নির্ণয় করেন। আবার লিকক ডি বোইসবোড্রান মৌলের বৈদ্যুতিক বর্ণালি তুলনা করে পারমাণবিক ভর ৭২.৩ নির্ণয় করেন।[১৫]

উইঙ্কলার জার্মেনিয়ামের নতুন কয়েকটি মৌল, যেমন ফ্লোরাইড, ক্লোরাইড, সালফাইড, ডাইঅক্সাইড, প্রথম জৈব-জার্মেন যৌগ টেট্রাইথাইল জার্মেন (Ge(C2H5)4)[৫] তৈরি করতে সক্ষম হন। এই যৌগসমূহের গাঠনিক ধর্ম ম্যান্ডেলিভের ভবিষ্যদ্বাণীর সাথে মিলে যায়, যা ম্যান্ডেলিভের পর্যায়বৃত্তিক ধর্ম সম্পর্কে অধিক নিশ্চয়তা প্রদান করে। ম্যান্ডেলিভ ও উইঙ্কলারের পর্যবেক্ষণ তথ্যের তুলনা নিম্নরূপ:[৫]

বৈশিষ্ট্য একাসিলিকন
ম্যান্ডেলিভ
ভবিষ্যদ্বাণী (১৮৭১)
জার্মেনিয়াম
উইঙ্কলার
আবিষ্কার (১৮৮৭)
পারমাণবিক ভর ৭২.৬৪ ৭২.৫৯
ঘনত্ব (গ্রাম/সেমি) ৫.৫ ৫.৩৫
গলনাঙ্ক (°সে) উচ্চ ৯৪৭
রং ধূসর ধূসর
অক্সাইডের প্রকৃতি তাপসহ ডাইঅক্সাইড তাপসহ ডাইঅক্সাইড
অক্সাইডের ঘনত্ব (গ্রাম/সেমি) ৪.৭ ৪.৭
অক্সাইডের সক্রিয়তা দুর্বল ক্ষারীয় দুর্বল ক্ষারীয়
ক্লোরাইডের স্ফূটনাঙ্ক (°সে) ১০০ এর নিচে ৮৬ (GeCl4)
ক্লোরাইডের ঘনত্ব (গ্রাম/সেমি) ১.৯ ১.৯

১৯৩০ এর শেষ পর্যন্ত ধারণা ছিল জার্মেনিয়াম একটি খুব নিম্ন পরিবাহী ধাতু[১৬] ১৯৪৫ সালের পর জার্মেনিয়ামের ইলেক্ট্রনিক অর্ধপরিবাহিতা ধর্ম আবিষ্কৃত হওয়ার আগ পর্যন্ত মৌলটির অর্থনৈতিক মূল্যবান বিবেচিত হতো না। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় বিশেষ ইলেকট্রনিক যন্ত্র বিশেষত ডায়োড তৈরিতে সামান্য পরিমাণ জার্মেনিয়াম ব্যবহৃত হয়।[১৭][১৮] যুদ্ধের সময় জার্মেনিয়ামের প্রথম গুরুত্বপূর্ণ ব্যবহার ছিল রাডারের শনাক্তকরণ যন্ত্রে পয়েন্ট-কনট্যাক্ট শটকি ডায়োডে[১৬] প্রথম সিলিকন-জার্মেনিয়াম সংকর তৈরি করা হয় ১৯৫৫ সালে।[১৯] ১৯৪৫ এর পূর্বে খনি থেকে মাত্র কয়েকশ কিলোগ্রাম জার্মেনিয়াম আহরিত হয়। কিন্তু ১৯৫০ এর দশকের শেষ নাগাদ বৈশ্বিক উৎপাদন ৪০ metric ton (৪৪ শর্ট টন)-এ পৌঁছে যায়।[২০]

১৯৪৮ সালে জার্মেনিয়াম ট্রানজিস্টরের আবিষ্কারের পর কঠিন অবস্থার ইলেকট্রনিক্সে এর ব্যবহারের মাত্রা বেড়ে যায়।[২১][২২] ১৯৫০ থেকে ৭০ এর দশক পর্যন্ত ইলেকট্রনিক্সে জার্মেনিয়ামের ব্যবহার অব্যাহত থাকে। কিন্তু এরপর ট্রানজিস্টর, ডায়োড ও রেকটিফায়ারে জার্মেনিয়ামের পরিবর্তে উচ্চমাত্রার বিশুদ্ধ সিলিকন ব্যবহার শুরু হয়।[২৩] ফেয়ারচাইল্ড সেমিকন্ডাক্টর ১৯৫৭ সালে সিলিকন ট্রানজিস্টর উৎপাদনের উদ্দেশ্যে প্রতিষ্ঠিত হয়। সিলিকনের উন্নত ইলেকট্রনীয় বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান, কিন্তু উচ্চ মাত্রার বিশুদ্ধ অবস্থায় সিলিকন তা প্রদর্শন করে, যা কঠিন অবস্থার ইলেকট্রনিক্সের প্রাথমিক অবস্থায় অর্থনৈতিকভাবে সম্ভব ছিল না।[২৪]

এর মধ্যে অপটিক্যাল ফাইবার যোগাযোগ ব্যবস্থা, অবলোহিত নাইট ভিশন ব্যবস্থা ও পলিমারকরণ বিক্রিয়ার প্রভাবক হিসেবে জার্মেনিয়ামের চাহিদা নাটকীইয়ভাবে বৃদ্ধি পায়।[২০] এই প্রয়োগ ২০০০ সালে জার্মেনিয়ামের মোট ব্যবহারের মাত্র ৮৫%।[২৩] এমনকি যুক্তরাষ্ট্র সরকার মৌলটিকে গুরুরত্বপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করে এবং ১৯৮৭ সালে জাতীয় প্রতিরক্ষার জন্য ১৪৬ শর্ট টন (১৩২ মেট্রিক টন) জার্মেনিয়াম মজুদ করে।[২০]

সিলিকনের সাথে জার্মেনিয়ামের মূল পার্থক্য হলো জার্মেনিয়াম উৎসের সীমাবদ্ধতা আর সিলিকনের উৎপাদন সীমাবদ্ধতা। জার্মেনিয়ামের আবিষ্কৃত খনি সীমিত, কিন্তু সিলিকন সাধারণ বালি ও কোয়ার্টজ থেকে আহরিত হয়। ১৯৯৮ সালে সিলিকনের মূল্য ছিল প্রতি কেজি $১০ এর বেশি,[২০] যেখানে জার্মেনিয়ামের মূল্য ছিল প্রতি কেজি প্রায় $৮০০।[২০]

বৈশিষ্ট্যসম্পাদনা

Under standard conditions, germanium is a brittle, silvery-white, semi-metallic element.[২৫] This form constitutes an allotrope known as α-germanium, which has a metallic luster and a diamond cubic crystal structure, the same as diamond.[২৩] While in crystal form, germanium has a displacement threshold energy of  [২৬]. At pressures above 120 kbar, germanium becomes the allotrope β-germanium with the same structure as β-tin.[২৭] Like silicon, gallium, bismuth, antimony, and water, germanium is one of the few substances that expands as it solidifies (i.e. freezes) from the molten state.[২৭]

Germanium is a semiconductor. Zone refining techniques have led to the production of crystalline germanium for semiconductors that has an impurity of only one part in 1010,[২৮] making it one of the purest materials ever obtained.[২৯] The first metallic material discovered (in 2005) to become a superconductor in the presence of an extremely strong electromagnetic field was an alloy of germanium, uranium, and rhodium.[৩০]

Pure germanium suffers from the forming of whiskers by spontaneous screw dislocations. If a whisker grows long enough to touch another part of the assembly or a metallic packaging, it can effectively shunt out a p-n junction. This is one of the primary reasons for the failure of old germanium diodes and transistors.

রাসায়নিকসম্পাদনা

Elemental germanium starts to oxidize slowly in air at around 250 °C, forming GeO2 .[৩১] Germanium is insoluble in dilute acids and alkalis but dissolves slowly in hot concentrated sulfuric and nitric acids and reacts violently with molten alkalis to produce germanates ([GeO
3
]2−
). Germanium occurs mostly in the oxidation state +4 although many +2 compounds are known.[৩২] Other oxidation states are rare: +3 is found in compounds such as Ge2Cl6, and +3 and +1 are found on the surface of oxides,[৩৩] or negative oxidation states in germanides, such as −4 in Mg
2
Ge
. Germanium cluster anions (Zintl ions) such as Ge42−, Ge94−, Ge92−, [(Ge9)2]6− have been prepared by the extraction from alloys containing alkali metals and germanium in liquid ammonia in the presence of ethylenediamine or a cryptand.[৩২][৩৪] The oxidation states of the element in these ions are not integers—similar to the ozonides O3.

Two oxides of germanium are known: germanium dioxide (GeO
2
, germania) and germanium monoxide, (GeO).[২৭] The dioxide, GeO2 can be obtained by roasting germanium disulfide (GeS
2
), and is a white powder that is only slightly soluble in water but reacts with alkalis to form germanates.[২৭] The monoxide, germanous oxide, can be obtained by the high temperature reaction of GeO2 with Ge metal.[২৭] The dioxide (and the related oxides and germanates) exhibits the unusual property of having a high refractive index for visible light, but transparency to infrared light.[৩৫][৩৬] Bismuth germanate, Bi4Ge3O12, (BGO) is used as a scintillator.[৩৭]

Binary compounds with other chalcogens are also known, such as the disulfide (GeS
2
), diselenide (GeSe
2
), and the monosulfide (GeS), selenide (GeSe), and telluride (GeTe).[৩২] GeS2 forms as a white precipitate when hydrogen sulfide is passed through strongly acid solutions containing Ge(IV).[৩২] The disulfide is appreciably soluble in water and in solutions of caustic alkalis or alkaline sulfides. Nevertheless, it is not soluble in acidic water, which allowed Winkler to discover the element.[৩৮] By heating the disulfide in a current of hydrogen, the monosulfide (GeS) is formed, which sublimes in thin plates of a dark color and metallic luster, and is soluble in solutions of the caustic alkalis.[২৭] Upon melting with alkaline carbonates and sulfur, germanium compounds form salts known as thiogermanates.[৩৯]

 
Germane is similar to methane.

Four tetrahalides are known. Under normal conditions GeI4 is a solid, GeF4 a gas and the others volatile liquids. For example, germanium tetrachloride, GeCl4, is obtained as a colorless fuming liquid boiling at 83.1 °C by heating the metal with chlorine.[২৭] All the tetrahalides are readily hydrolyzed to hydrated germanium dioxide.[২৭] GeCl4 is used in the production of organogermanium compounds.[৩২] All four dihalides are known and in contrast to the tetrahalides are polymeric solids.[৩২] Additionally Ge2Cl6 and some higher compounds of formula GenCl2n+2 are known.[২৭] The unusual compound Ge6Cl16 has been prepared that contains the Ge5Cl12 unit with a neopentane structure.[৪০]

Germane (GeH4) is a compound similar in structure to methane. Polygermanes—compounds that are similar to alkanes—with formula GenH2n+2 containing up to five germanium atoms are known.[৩২] The germanes are less volatile and less reactive than their corresponding silicon analogues.[৩২] GeH4 reacts with alkali metals in liquid ammonia to form white crystalline MGeH3 which contain the GeH3 anion.[৩২] The germanium hydrohalides with one, two and three halogen atoms are colorless reactive liquids.[৩২]

 
Nucleophilic addition with an organogermanium compound.

The first organogermanium compound was synthesized by Winkler in 1887; the reaction of germanium tetrachloride with diethylzinc yielded tetraethylgermane (Ge(C
2
H
5
)
4
).[৫] Organogermanes of the type R4Ge (where R is an alkyl) such as tetramethylgermane (Ge(CH
3
)
4
) and tetraethylgermane are accessed through the cheapest available germanium precursor germanium tetrachloride and alkyl nucleophiles. Organic germanium hydrides such as isobutylgermane ((CH
3
)
2
CHCH
2
GeH
3
) were found to be less hazardous and may be used as a liquid substitute for toxic germane gas in semiconductor applications. Many germanium reactive intermediates are known: germyl free radicals, germylenes (similar to carbenes), and germynes (similar to carbynes).[৪১][৪২] The organogermanium compound 2-carboxyethylgermasesquioxane was first reported in the 1970s, and for a while was used as a dietary supplement and thought to possibly have anti-tumor qualities.[৪৩]

Using a ligand called Eind (1,1,3,3,5,5,7,7-octaethyl-s-hydrindacen-4-yl) germanium is able to form a double bond with oxygen (germanone).[৪৪]

আইসোটোপসম্পাদনা

জার্মেনিয়ামের ৫টি প্রাকৃতিক আইসোটোপ বিদ্যমান: 70
Ge
, 72
Ge
, 73
Ge
, 74
Ge
, এবং 76
Ge
। এর মধ্যে 76
Ge
খুব সামান্য পরিমাণে তেজষ্ক্রিয় ও দ্বি-বিটা ক্ষয়ের মাধ্যমে ক্ষয়প্রাপ্ত হয় এবং আইসোটোপের অর্ধায়ু প্রায় 1.৭৮×১০21বছর। সবচেয়ে সাধারণ আইসোটোপ হলো 74
Ge
, প্রকৃতিতে যার প্রাপ্তির সম্ভাব্যতা ৩৬%। আবার 76
Ge
সবচেয়ে কম প্রাপ্য (প্রাকৃতিক প্রাপ্যতা প্রায় ৭%) আইসোটোপ।[৪৫] আলফা কণা বিচ্ছুরণের ফলে 72
Ge
আইসোটোপ উচ্চ শক্তির ইলেকট্রন বিচ্ছুরিত হয় এবং অধিক স্থিতিশীল 77
Se
উৎপন্ন হয়।[৪৬] এই কারণে নিউক্লীয় ব্যাটারিতে রেডনের সাথে আইসোটোপটি ব্যবহৃত হয়।[৪৬]

এছাড়া আরোও ২৭টি তেজস্ক্রিয় আইসোটোপ তৈরি করা হয়েছে, যাদের পারমাণবিক ভর ৫৮ থেকে ৮৯। এর মধ্যে 68
Ge
আইসোটোপটি সবচেয়ে স্থিতিশীল, যার অর্ধায়ু ২৭০.৯৫ দিন এবং ইলেকট্রন ধারণের মাধ্যমে ক্ষয়প্রাপ্ত হয়। আবার সবচেয়ে কম স্থিতিশীল আইসোটোপ হলো 60
Ge
যার অর্ধায়ু মাত্র ৩০ মিলিসেকেন্ড। অধিকাংশ জার্মেনিয়াম আইসোটোপ বিটা ক্ষয়ের মাধ্যমে ক্ষয়প্রাপ্ত হয়। কিন্তু 61
Ge
64
Ge
আইসোটোপ β+ ক্ষয়ের মাধ্যমে ক্ষয়প্রাপ্ত হয়।[৪৫] 84
Ge
থেকে 87
Ge
আইসোটোপ সামান্য β- ক্ষয়ের প্রবণতা প্রদর্শন করে।[৪৫]

Occurrenceসম্পাদনা

Germanium is created by stellar nucleosynthesis, mostly by the s-process in asymptotic giant branch stars. The s-process is a slow neutron capture of lighter elements inside pulsating red giant stars.[৪৭] Germanium has been detected in some of the most distant stars[৪৮] and in the atmosphere of Jupiter.[৪৯]

Germanium's abundance in the Earth's crust is approximately 1.6 ppm.[৫০] Only a few minerals like argyrodite, briartite, germanite, and renierite contain appreciable amounts of germanium.[২৩][৫১] Only few of them (especially germanite) are, very rarely, found in mineable amounts.[৫২][৫৩][৫৪] Some zinc-copper-lead ore bodies contain enough germanium to justify extraction from the final ore concentrate.[৫০] An unusual natural enrichment process causes a high content of germanium in some coal seams, discovered by Victor Moritz Goldschmidt during a broad survey for germanium deposits.[৫৫][৫৬] The highest concentration ever found was in Hartley coal ash with as much as 1.6% germanium.[৫৫][৫৬] The coal deposits near Xilinhaote, Inner Mongolia, contain an estimated 1600 tonnes of germanium.[৫০]

উৎপাদনসম্পাদনা

২০১১ সালে বিশ্বব্যাপী প্রায় ১১৮ টন জার্মেনিয়াম উৎপাদিত হয়, যার অধিকাংশ চীন (৮০ টন), রাশিয়া (৫ টন) এবং যুক্তরাষ্ট্রে (৩ টন) উৎপন্ন হয়।[২৩] স্ফ্যালেরাইট দস্তা আকরিক থেকে সহ-উৎপাদ হিসেবে জার্মেনিয়াম উৎপাদিত হয়। এই আকরিকে প্রায় ০.৩% পর্যন্ত জার্মেনিয়াম মৌল থাকে।[৫৭] বিশেষত নিম্ন তাপমাত্রায় পাললিক ZnPbCu(–Ba) খনিতে এবং কার্বনেট-ভিত্তিক Zn–Pb খনিতে পাওয়া যায়।[৫৮] সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে সন্ধানপ্রাপ্ত দস্তা আকরিকে বিশেষত মিসিসিপি উপত্যকার মতো খনিতে প্রায় ১০,০০০ টন ও কয়লে খনিতে ১,১২,০০০ টন উত্তোলনযোগ্য জের্মেনিয়াম মজুদ আছে।[৫৯][৬০] ২০০৭ সালে মোট ব্যবহৃত জার্মেনিয়ামের ৩৫% পুনঃপ্রক্রিয়াজাতকৃত।[৫০]

বছর খরচ
($/কেজি)[৬১]
১৯৯৯ ১,৪০০
২০০০ ১,২৫০
২০০১ ৮৯০
২০০২ ৬২০
২০০৩ ৩৮০
২০০৪ ৬০০
২০০৫ ৬৬০
২০০৬ ৮৮০
২০০৭ ১,২৪০
২০০৮ ১,৪৯০
২০০৯ ৯৫০
২০১০ ৯৪০
২০১১ ১,৬২৫
২০১২ ১,৬৮০
২০১৩ ১,৮৭৫
২০১৪ ১,৯০০
২০১৫ ১,৭৬০
২০১৬ ৯৫০

প্রধানত স্ফ্যালেরাইট থেকে উৎপাদিত হলেও রূপা, সীসা, এবং তামার আকরিকেও জার্মেনিয়াম পাওয়া যায়। জার্মেনিয়ামের আরেকটি উৎস হলো জার্মেনিয়ামসমৃদ্ধ কয়লা চালিত বিদ্যুৎ উৎপাদনকেন্দ্রের ভাসমান ছাই। রাশিয়া ও চীন মূলত এটিকে জার্মেনিয়ামের উৎস হিসেবে বিবেচনা করে থাকে।[৬২] রাশিয়ার খনিগুলোর অবস্থান দূরপ্রাচ্যের শাখালিন দ্বীপেভ্লাদিভস্টকের উত্তর-পূর্বে। চীনের জার্মেনিয়াম খনির অবস্থান মূলত ইউনানের লিনচ্যাং-এর নিকট লিগনাইট খনিতে এবং অন্তর্দেশীয় মঙ্গোলিয়ার জিলিনহাউতের নিকট কয়লা খনিতে।[৫০]

আকরিকগুলো মূলত সালফাইডিক; বায়ুর উপস্থিতিতে উত্তপ্ত করে তা অক্সাইডে পরিণত করা হয়:

GeS2 + 3 O2 → GeO2 + 2 SO2

এ প্রক্রিয়ায় উৎপাদিত বর্জ্যে কিছু পরিমাণ জার্মেনিয়াম অবশিষ্ট থাকে। বাকি অংশটুকু জার্মানেটে পরিণত করা হয়। অঙ্গারের জার্মানেটকে দস্তার সাথে সালফিউরিক এসিড দ্বারা পরিস্রুত করা হয়। প্রশমিত হওয়ার পর দ্রবণে শুধুমাত্র দস্তা উপস্থিত থাকে এবং জার্মেনিয়ামসহ অন্যান্য ধাতু অধঃক্ষিপ্ত হয়। ওয়েলজ প্রক্রিয়ায় অধঃক্ষেপ থেকে সামান্য দস্তা অপসারণের পর ওয়েলজ অক্সিডকে দ্বিতীয়বারের মতো পরিস্রুত করা হয়। জার্মেনিয়াম ডাইঅক্সাইড অধঃক্ষেপ হিসেবে আহরিত হয় এবং ক্লোরিন গ্যাস কিংবা হাইড্রোক্লোরিক এসিডের উপস্থিতিতে জার্মেনিয়াম টেট্রাক্লোরাইডে পরিণত করা হয়। এই যৌগটি নিম্ন গলনাঙ্কবিশিষ্ট এবং পাতন প্রক্রিয়ায় আলাদা করা হয়:[৬২]

GeO2 + 4 HCl → GeCl4 + 2 H2O
GeO2 + 2 Cl2 → GeCl4 + O2

জার্মেনিয়াম টেট্রাক্লোরাইডকে অক্সাইডের (GeO2) সাথে আর্দ্রবিশ্লেষিত করা হয় অথবা আংশিক পাতন করে পরে আর্দ্রবিশ্লেষণ করা হয়।[৬২] উৎপন্ন বিশুদ্ধ GeO2 জার্মেনিয়াম কাচ তৈরির জন্য উপযুক্ত। একে হাইড্রোজেন দ্বারা বিজারিত করা হয় এবং উৎপন্ন জার্মেনিয়াম দ্বারা অবলোহিত আলোক যন্ত্রে এবং অর্ধপরিবাহী তৈরি হয়:

GeO2 + 2 H2 → Ge + 2 H2O

ইস্পাত ও অন্যান্য শিল্পে ব্যবহৃত জার্মেনিয়ামের জন্য সাধারণত কার্বন দ্বারা বিজারিত করা হয়:[৬৩]

GeO2 + C → Ge + CO2

ব্যবহারসম্পাদনা

The major end uses for germanium in 2007, worldwide, were estimated to be: 35% for fiber-optics, 30% infrared optics, 15% polymerization catalysts, and 15% electronics and solar electric applications.[২৩] The remaining 5% went into such uses as phosphors, metallurgy, and chemotherapy.[২৩]

আলোকবিজ্ঞানসম্পাদনা

 
A typical single-mode optical fiber. Germanium oxide is a dopant of the core silica (Item 1).
1. Core 8 µm
2. Cladding 125 µm
3. Buffer 250 µm
4. Jacket 400 µm

The notable properties of germania (GeO2) are its high index of refraction and its low optical dispersion. These make it especially useful for wide-angle camera lenses, microscopy, and the core part of optical fibers.[৬৪][৬৫] It has replaced titania as the dopant for silica fiber, eliminating the subsequent heat treatment that made the fibers brittle.[৬৬] At the end of 2002, the fiber optics industry consumed 60% of the annual germanium use in the United States, but this is less than 10% of worldwide consumption.[৬৫] GeSbTe is a phase change material used for its optic properties, such as that used in rewritable DVDs.[৬৭]

Because germanium is transparent in the infrared wavelengths, it is an important infrared optical material that can be readily cut and polished into lenses and windows. It is especially used as the front optic in thermal imaging cameras working in the 8 to 14 micron range for passive thermal imaging and for hot-spot detection in military, mobile night vision, and fire fighting applications.[৬৩] It is used in infrared spectroscopes and other optical equipment that require extremely sensitive infrared detectors.[৬৫] It has a very high refractive index (4.0) and must be coated with anti-reflection agents. Particularly, a very hard special antireflection coating of diamond-like carbon (DLC), refractive index 2.0, is a good match and produces a diamond-hard surface that can withstand much environmental abuse.[৬৮][৬৯]

ইলেকট্রনিক্সসম্পাদনা

Silicon-germanium alloys are rapidly becoming an important semiconductor material for high-speed integrated circuits. Circuits utilizing the properties of Si-SiGe junctions can be much faster than those using silicon alone.[৭০] Silicon-germanium is beginning to replace gallium arsenide (GaAs) in wireless communications devices.[২৩] The SiGe chips, with high-speed properties, can be made with low-cost, well-established production techniques of the silicon chip industry.[২৩]

Solar panels are a major use of germanium. Germanium is the substrate of the wafers for high-efficiency multijunction photovoltaic cells for space applications. High-brightness LEDs, used for automobile headlights and to backlight LCD screens, are an important application.[২৩]

Because germanium and gallium arsenide have very similar lattice constants, germanium substrates can be used to make gallium arsenide solar cells.[৭১] The Mars Exploration Rovers and several satellites use triple junction gallium arsenide on germanium cells.[৭২]

Germanium-on-insulator (GeOI) substrates are seen as a potential replacement for silicon on miniaturized chips.[২৩] CMOS circuit based on GeOI substrates has been reported recently.[৭৩] Other uses in electronics include phosphors in fluorescent lamps[২৮] and solid-state light-emitting diodes (LEDs).[২৩] Germanium transistors are still used in some effects pedals by musicians who wish to reproduce the distinctive tonal character of the "fuzz"-tone from the early rock and roll era, most notably the Dallas Arbiter Fuzz Face.[৭৪]

অন্যান্য ব্যবহারসম্পাদনা

Germanium dioxide is also used in catalysts for polymerization in the production of polyethylene terephthalate (PET).[৭৫] The high brilliance of this polyester is especially favored for PET bottles marketed in Japan.[৭৫] In the United States, germanium is not used for polymerization catalysts.[২৩]

Due to the similarity between silica (SiO2) and germanium dioxide (GeO2), the silica stationary phase in some gas chromatography columns can be replaced by GeO2.[৭৬]

In recent years germanium has seen increasing use in precious metal alloys. In sterling silver alloys, for instance, it reduces firescale, increases tarnish resistance, and improves precipitation hardening. A tarnish-proof silver alloy trademarked Argentium contains 1.2% germanium.[২৩]

Semiconductor detectors made of single crystal high-purity germanium can precisely identify radiation sources—for example in airport security.[৭৭] Germanium is useful for monochromators for beamlines used in single crystal neutron scattering and synchrotron X-ray diffraction. The reflectivity has advantages over silicon in neutron and high energy X-ray applications.[৭৮] Crystals of high purity germanium are used in detectors for gamma spectroscopy and the search for dark matter.[৭৯] Germanium crystals are also used in X-ray spectrometers for the determination of phosphorus, chlorine and sulfur.[৮০]

Germanium is emerging as an important material for spintronics and spin-based quantum computing applications. In 2010, researchers demonstrated room temperature spin transport [৮১] and more recently donor electron spins in germanium has been shown to have very long coherence times.[৮২]

স্বাস্থ্যের ওপর প্রতিক্রিয়াসম্পাদনা

Germanium is not considered essential to the health of plants or animals.[৮৩] Germanium in the environment has little or no health impact. This is primarily because it usually occurs only as a trace element in ores and carbonaceous materials, and the various industrial and electronic applications involve very small quantities that are not likely to be ingested.[২৩] For similar reasons, end-use germanium has little impact on the environment as a biohazard. Some reactive intermediate compounds of germanium are poisonous (see precautions, below).[৮৪]

Germanium supplements, made from both organic and inorganic germanium, have been marketed as an alternative medicine capable of treating leukemia and lung cancer.[২০] There is, however, no medical evidence of benefit; some evidence suggests that such supplements are actively harmful.[৮৩]

Some germanium compounds have been administered by alternative medical practitioners as non-FDA-allowed injectable solutions. Soluble inorganic forms of germanium used at first, notably the citrate-lactate salt, resulted in some cases of renal dysfunction, hepatic steatosis, and peripheral neuropathy in individuals using them over a long term. Plasma and urine germanium concentrations in these individuals, several of whom died, were several orders of magnitude greater than endogenous levels. A more recent organic form, beta-carboxyethylgermanium sesquioxide (propagermanium), has not exhibited the same spectrum of toxic effects.[৮৫]

U.S. Food and Drug Administration research has concluded that inorganic germanium, when used as a nutritional supplement, "presents potential human health hazard".[৪৩]

Certain compounds of germanium have low toxicity to mammals, but have toxic effects against certain bacteria.[২৫]

রাসায়নিক সক্রিয় জার্মেনিয়াম যৌগের জন্য সতর্কতাসম্পাদনা

কৃত্রিমভাবে উৎপাদিত বেশ কিছু জার্মেনিয়াম যৌগ বেশ সক্রিয় এবং মানবস্বাস্থ্যে তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষতিকর প্রভাব সৃষ্টি করে। উদাহরণস্বরূপ, জার্মেনিয়াম টেট্রাক্লোরাইড এবং জার্মেন (GeH4), যা যথাক্রমে তরল ও গ্যাসীয় পদার্থ, মানবদেহের চোখ, ত্বক, ফুসফুস এবং গলায় প্রদাহ সৃষ্টি করে।[৮৬]

আরও দেখুনসম্পাদনা

টীকাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Magnetic susceptibility of the elements and inorganic compounds, in Handbook of Chemistry and Physics 81st edition, CRC press.
  2. "Properties of Germanium"Ioffe Institute 
  3. Kaji, Masanori (২০০২)। "D. I. Mendeleev's concept of chemical elements and The Principles of Chemistry" (PDF)Bulletin for the History of Chemistry27 (1): 4–16। ২০০৮-১২-১৭ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২০ 
  4. Argyrodite – Ag
    8
    GeS
    6
    (PDF) (প্রতিবেদন)। Mineral Data Publishing। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৯-০১
     
  5. Winkler, Clemens (১৮৮৭)। "Mittheilungen über des Germanium. Zweite Abhandlung"J. Prak. Chemie (জার্মান ভাষায়)। 36 (1): 177–209। doi:10.1002/prac.18870360119। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২০ 
  6. Winkler, Clemens (১৮৮৭)। "Germanium, Ge, a New Nonmetal Element"Berichte der Deutschen Chemischen Gesellschaft (জার্মান ভাষায়)। 19 (1): 210–211। doi:10.1002/cber.18860190156। ডিসেম্বর ৭, ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  7. Adams, J. C. (নভেম্বর ১৩, ১৮৪৬)। "Explanation of the observed irregularities in the motion of Uranus, on the hypothesis of disturbance by a more distant planet"। Monthly Notices of the Royal Astronomical Society7 (9): 149–152। doi:10.1093/mnras/7.9.149বিবকোড:1846MNRAS...7..149A 
  8. Challis, Rev. J. (নভেম্বর ১৩, ১৮৪৬)। "Account of observations at the Cambridge observatory for detecting the planet exterior to Uranus"। Monthly Notices of the Royal Astronomical Society7 (9): 145–149। doi:10.1093/mnras/7.9.145বিবকোড:1846MNRAS...7..145C 
  9. Sears, Robert (জুলাই ১৮৭৭)। Scientific MiscellanyThe Galaxy24। পৃষ্ঠা 131। আইএসবিএন 978-0-665-50166-1ওসিএলসি 16890343 
  10. "Editor's Scientific Record"Harper's New Monthly Magazine55 (325): 152–153। জুন ১৮৭৭। 
  11. van der Krogt, Peter। "Elementymology & Elements Multidict: Niobium"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২০ 
  12. Westgren, A. (১৯৬৪)। "The Nobel Prize in Chemistry 1951: presentation speech"Nobel Lectures, Chemistry 1942–1962। Elsevier। 
  13. "Germanium, a New Non-Metallic Element"The Manufacturer and Builder: 181। ১৮৮৭। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২০ 
  14. Brunck, O. (১৮৮৬)। "Obituary: Clemens Winkler"। Berichte der Deutschen Chemischen Gesellschaft (জার্মান ভাষায়)। 39 (4): 4491–4548। doi:10.1002/cber.190603904164 
  15. de Boisbaudran, M. Lecoq (১৮৮৬)। "Sur le poids atomique du germanium"Comptes Rendus (ফরাসি ভাষায়)। 103: 452। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২০ 
  16. Haller, E. E. (২০০৬-০৬-১৪)। "Germanium: From Its Discovery to SiGe Devices" (PDF)Department of Materials Science and Engineering, University of California, Berkeley, and Materials Sciences Division, Lawrence Berkeley National Laboratory, Berkeley। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২২ 
  17. W. K. (১৯৫৩-০৫-১০)। "Germanium for Electronic Devices"The New York Times। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২২ 
  18. "1941 – Semiconductor diode rectifiers serve in WW II"। Computer History Museum। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২২ 
  19. "SiGe History"। University of Cambridge। ২০০৮-০৮-০৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২২ 
  20. Halford, Bethany (২০০৩)। "Germanium"Chemical & Engineering News। American Chemical Society। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২২ 
  21. Bardeen, J.; Brattain, W. H. (১৯৪৮)। "The Transistor, A Semi-Conductor Triode"। Physical Review74 (2): 230–231। doi:10.1103/PhysRev.74.230বিবকোড:1948PhRv...74..230B 
  22. "Electronics History 4 – Transistors"। National Academy of Engineering। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২২ 
  23. U.S. Geological Survey (২০০৮)। "Germanium – Statistics and Information"U.S. Geological Survey, Mineral Commodity Summaries। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২৮Select 2008 
  24. Teal, Gordon K. (জুলাই ১৯৭৬)। "Single Crystals of Germanium and Silicon-Basic to the Transistor and Integrated Circuit"। IEEE Transactions on Electron Devices। ED-23 (7): 621–639। doi:10.1109/T-ED.1976.18464বিবকোড:1976ITED...23..621T 
  25. Emsley, John (২০০১)। Nature's Building Blocks। Oxford: Oxford University Press। পৃষ্ঠা 506–510। আইএসবিএন 978-0-19-850341-5 
  26. Agnese, R.; Aralis, T.; Aramaki, T.; Arnquist, I. J.; Azadbakht, E.; Baker, W.; Banik, S.; Barker, D.; Bauer, D. A. (২০১৮-০৮-২৭)। "Energy loss due to defect formation from 206Pb recoils in SuperCDMS germanium detectors"। Applied Physics Letters113 (9): 092101। arXiv:1805.09942 doi:10.1063/1.5041457আইএসএসএন 0003-6951 
  27. Holleman, A. F.; Wiberg, E.; Wiberg, N. (২০০৭)। Lehrbuch der Anorganischen Chemie (102nd সংস্করণ)। de Gruyter। আইএসবিএন 978-3-11-017770-1ওসিএলসি 145623740 
  28. "Germanium"। Los Alamos National Laboratory। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২৮ 
  29. Chardin, B. (২০০১)। "Dark Matter: Direct Detection"। Binetruy, B। The Primordial Universe: 28 June – 23 July 1999। Springer। পৃষ্ঠা 308। আইএসবিএন 978-3-540-41046-1 
  30. Lévy, F.; Sheikin, I.; Grenier, B.; Huxley, A. (আগস্ট ২০০৫)। "Magnetic field-induced superconductivity in the ferromagnet URhGe"। Science309 (5739): 1343–1346। doi:10.1126/science.1115498PMID 16123293বিবকোড:2005Sci...309.1343L 
  31. Tabet, N; Salim, Mushtaq A. (১৯৯৮)। "KRXPS study of the oxidation of Ge(001) surface"। Applied Surface Science134 (1–4): 275–282। doi:10.1016/S0169-4332(98)00251-7বিবকোড:1998ApSS..134..275T 
  32. Greenwood, N. N.; Earnshaw, A. (১৯৯৭)। Chemistry of the Elements (2nd সংস্করণ)। Butterworth-Heinemannআইএসবিএন 0080379419 
  33. Tabet, N; Salim, M. A.; Al-Oteibi, A. L. (১৯৯৯)। "XPS study of the growth kinetics of thin films obtained by thermal oxidation of germanium substrates"। Journal of Electron Spectroscopy and Related Phenomena। 101–103: 233–238। doi:10.1016/S0368-2048(98)00451-4 
  34. Xu, Li; Sevov, Slavi C. (১৯৯৯)। "Oxidative Coupling of Deltahedral [Ge9]4− Zintl Ions"। J. Am. Chem. Soc.121 (39): 9245–9246। doi:10.1021/ja992269s 
  35. Bayya, Shyam S.; Sanghera, Jasbinder S.; Aggarwal, Ishwar D.; Wojcik, Joshua A. (২০০২)। "Infrared Transparent Germanate Glass-Ceramics"। Journal of the American Ceramic Society85 (12): 3114–3116। doi:10.1111/j.1151-2916.2002.tb00594.x 
  36. Drugoveiko, O. P.; Evstrop'ev, K. K.; Kondrat'eva, B. S.; Petrov, Yu. A.; Shevyakov, A. M. (১৯৭৫)। "Infrared reflectance and transmission spectra of germanium dioxide and its hydrolysis products"। Journal of Applied Spectroscopy22 (2): 191–193। doi:10.1007/BF00614256বিবকোড:1975JApSp..22..191D 
  37. Lightstone, A. W.; McIntyre, R. J.; Lecomte, R.; Schmitt, D. (১৯৮৬)। "A Bismuth Germanate-Avalanche Photodiode Module Designed for Use in High Resolution Positron Emission Tomography"। IEEE Transactions on Nuclear Science33 (1): 456–459। doi:10.1109/TNS.1986.4337142বিবকোড:1986ITNS...33..456L 
  38. Johnson, Otto H. (১৯৫২)। "Germanium and its Inorganic Compounds"। Chem. Rev.51 (3): 431–469। doi:10.1021/cr60160a002 
  39. Fröba, Michael; Oberender, Nadine (১৯৯৭)। "First synthesis of mesostructured thiogermanates"। Chemical Communications (18): 1729–1730। doi:10.1039/a703634e 
  40. Beattie, I.R.; Jones, P.J.; Reid, G.; Webster, M. (১৯৯৮)। "The Crystal Structure and Raman Spectrum of Ge5Cl12·GeCl4 and the Vibrational Spectrum of Ge2Cl6"। Inorg. Chem.37 (23): 6032–6034। doi:10.1021/ic9807341PMID 11670739 
  41. Satge, Jacques (১৯৮৪)। "Reactive intermediates in organogermanium chemistry"। Pure Appl. Chem.56 (1): 137–150। doi:10.1351/pac198456010137 
  42. Quane, Denis; Bottei, Rudolph S. (১৯৬৩)। "Organogermanium Chemistry"। Chemical Reviews63 (4): 403–442। doi:10.1021/cr60224a004 
  43. Tao, S. H.; Bolger, P. M. (জুন ১৯৯৭)। "Hazard Assessment of Germanium Supplements"Regulatory Toxicology and Pharmacology25 (3): 211–219। doi:10.1006/rtph.1997.1098PMID 9237323 
  44. Broadwith, Phillip (২৫ মার্চ ২০১২)। "Germanium-oxygen double bond takes centre stage"Chemistry World। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৫-১৫ 
  45. টেমপ্লেট:NUBASE 2003
  46. Perreault, Bruce A. "Alpha Fusion Electrical Energy Valve", US Patent 7800286, issued September 21, 2010. ওয়েব্যাক মেশিনে PDF copy (অক্টোবর ১২, ২০০৭ তারিখে আর্কাইভকৃত)
  47. Sterling, N. C.; Dinerstein, Harriet L.; Bowers, Charles W. (২০০২)। "Discovery of Enhanced Germanium Abundances in Planetary Nebulae with the Far Ultraviolet Spectroscopic Explorer"। The Astrophysical Journal Letters578 (1): L55–L58। arXiv:astro-ph/0208516 doi:10.1086/344473বিবকোড:2002ApJ...578L..55S 
  48. Cowan, John (২০০৩-০৫-০১)। "Astronomy: Elements of surprise"। Nature423 (29): 29। doi:10.1038/423029aPMID 12721614বিবকোড:2003Natur.423...29C 
  49. Kunde, V.; Hanel, R.; Maguire, W.; Gautier, D.; Baluteau, J. P.; Marten, A.; Chedin, A.; Husson, N.; Scott, N. (১৯৮২)। "The tropospheric gas composition of Jupiter's north equatorial belt /NH3, PH3, CH3D, GeH4, H2O/ and the Jovian D/H isotopic ratio"। Astrophysical Journal263: 443–467। doi:10.1086/160516বিবকোড:1982ApJ...263..443K 
  50. Höll, R.; Kling, M.; Schroll, E. (২০০৭)। "Metallogenesis of germanium – A review"। Ore Geology Reviews30 (3–4): 145–180। doi:10.1016/j.oregeorev.2005.07.034 
  51. Frenzel, Max (২০১৬)। "The distribution of gallium, germanium and indium in conventional and non-conventional resources – Implications for global availability (PDF Download Available)"ResearchGate। Unpublished। doi:10.13140/rg.2.2.20956.18564। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৬-১০ 
  52. Roberts, Andrew C.; ও অন্যান্য (ডিসেম্বর ২০০৪)। "Eyselite, Fe3+Ge34+O7(OH), a new mineral species from Tsumeb, Namibia"The Canadian Mineralogist42 (6): 1771–1776। doi:10.2113/gscanmin.42.6.1771 
  53. https://www.deutsche-rohstoffagentur.de/DERA/DE/Downloads/vortrag_germanium.pdf?__blob=publicationFile&v=2
  54. http://tupa.gtk.fi/raportti/arkisto/070_peh_76.pdf
  55. Goldschmidt, V. M. (১৯৩০)। "Ueber das Vorkommen des Germaniums in Steinkohlen und Steinkohlenprodukten"Nachrichten von der Gesellschaft der Wissenschaften zu Göttingen, Mathematisch-Physikalische Klasse: 141–167। 
  56. Goldschmidt, V. M.; Peters, Cl. (১৯৩৩)। "Zur Geochemie des Germaniums"Nachrichten von der Gesellschaft der Wissenschaften zu Göttingen, Mathematisch-Physikalische Klasse: 141–167। 
  57. Bernstein, L (১৯৮৫)। "Germanium geochemistry and mineralogy"। Geochimica et Cosmochimica Acta49 (11): 2409–2422। doi:10.1016/0016-7037(85)90241-8বিবকোড:1985GeCoA..49.2409B 
  58. Frenzel, Max; Hirsch, Tamino; Gutzmer, Jens (জুলাই ২০১৬)। "Gallium, germanium, indium and other minor and trace elements in sphalerite as a function of deposit type – A meta-analysis"। Ore Geology Reviews76: 52–78। doi:10.1016/j.oregeorev.2015.12.017 
  59. Frenzel, Max; Ketris, Marina P.; Gutzmer, Jens (২০১৩-১২-২৯)। "On the geological availability of germanium"। Mineralium Deposita49 (4): 471–486। doi:10.1007/s00126-013-0506-zআইএসএসএন 0026-4598বিবকোড:2014MinDe..49..471F 
  60. Frenzel, Max; Ketris, Marina P.; Gutzmer, Jens (২০১৪-০১-১৯)। "Erratum to: On the geological availability of germanium"। Mineralium Deposita49 (4): 487। doi:10.1007/s00126-014-0509-4আইএসএসএন 0026-4598বিবকোড:2014MinDe..49..487F 
  61. R.N. Soar (১৯৭৭)। USGS Minerals InformationU.S. Geological Survey Mineral Commodity SummariesJanuary 2003, January 2004, January 2005, January 2006, January 2007,January 2010আইএসবিএন 978-0-85934-039-7ওসিএলসি 16437701 
  62. Naumov, A. V. (২০০৭)। "World market of germanium and its prospects"। Russian Journal of Non-Ferrous Metals48 (4): 265–272। doi:10.3103/S1067821207040049 
  63. Moskalyk, R. R. (২০০৪)। "Review of germanium processing worldwide"। Minerals Engineering17 (3): 393–402। doi:10.1016/j.mineng.2003.11.014 
  64. Rieke, G. H. (২০০৭)। "Infrared Detector Arrays for Astronomy"। Annual Review of Astronomy and Astrophysics45 (1): 77–115। doi:10.1146/annurev.astro.44.051905.092436বিবকোড:2007ARA&A..45...77R 
  65. Brown, Jr., Robert D. (২০০০)। "Germanium" (PDF)। U.S. Geological Survey। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৯-২২ 
  66. "Chapter III: Optical Fiber For Communications" (PDF)। Stanford Research Institute। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৮-২২ 
  67. "Understanding Recordable & Rewritable DVD" (PDF) (First সংস্করণ)। Optical Storage Technology Association (OSTA)। ২০০৯-০৪-১৯ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৯-২২ 
  68. Lettington, Alan H. (১৯৯৮)। "Applications of diamond-like carbon thin films"। Carbon36 (5–6): 555–560। doi:10.1016/S0008-6223(98)00062-1 
  69. Gardos, Michael N.; Bonnie L. Soriano; Steven H. Propst (১৯৯০)। Feldman, Albert; Holly, Sandor, সম্পাদকগণ। "Study on correlating rain erosion resistance with sliding abrasion resistance of DLC on germanium"। Proc. SPIE। SPIE Proceedings। 1325 (Mechanical Properties): 99। doi:10.1117/12.22449বিবকোড:1990SPIE.1325...99G 
  70. Washio, K. (২০০৩)। "SiGe HBT and BiCMOS technologies for optical transmission and wireless communication systems"। IEEE Transactions on Electron Devices50 (3): 656–668। doi:10.1109/TED.2003.810484বিবকোড:2003ITED...50..656W 
  71. Bailey, Sheila G.; Raffaelle, Ryne; Emery, Keith (২০০২)। "Space and terrestrial photovoltaics: synergy and diversity"। Progress in Photovoltaics: Research and Applications10 (6): 399–406। doi:10.1002/pip.446hdl:2060/20030000611 
  72. Crisp, D.; Pathare, A.; Ewell, R. C. (জানুয়ারি ২০০৪)। "The performance of gallium arsenide/germanium solar cells at the Martian surface"। Acta Astronautica54 (2): 83–101। doi:10.1016/S0094-5765(02)00287-4বিবকোড:2004AcAau..54...83C 
  73. Wu, Heng; Ye, Peide D. (আগস্ট ২০১৬)। "Fully Depleted Ge CMOS Devices and Logic Circuits on Si" (PDF)IEEE Transactions on Electron Devices63 (8): 3028–3035। doi:10.1109/TED.2016.2581203বিবকোড:2016ITED...63.3028W 
  74. Szweda, Roy (২০০৫)। "Germanium phoenix"। III-Vs Review18 (7): 55। doi:10.1016/S0961-1290(05)71310-7 
  75. Thiele, Ulrich K. (২০০১)। "The Current Status of Catalysis and Catalyst Development for the Industrial Process of Poly(ethylene terephthalate) Polycondensation"। International Journal of Polymeric Materials50 (3): 387–394। doi:10.1080/00914030108035115 
  76. Fang, Li; Kulkarni, Sameer; Alhooshani, Khalid; Malik, Abdul (২০০৭)। "Germania-Based, Sol-Gel Hybrid Organic-Inorganic Coatings for Capillary Microextraction and Gas Chromatography"। Anal. Chem.79 (24): 9441–9451। doi:10.1021/ac071056fPMID 17994707 
  77. Keyser, Ronald; Twomey, Timothy; Upp, Daniel। "Performance of Light-Weight, Battery-Operated, High Purity Germanium Detectors for Field Use" (PDF)। Oak Ridge Technical Enterprise Corporation (ORTEC)। অক্টোবর ২৬, ২০০৭ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৯-০৬ 
  78. Ahmed, F. U.; Yunus, S. M.; Kamal, I.; Begum, S.; Khan, Aysha A.; Ahsan, M. H.; Ahmad, A. A. Z. (১৯৯৬)। "Optimization of Germanium for Neutron Diffractometers"। International Journal of Modern Physics E5 (1): 131–151। doi:10.1142/S0218301396000062বিবকোড:1996IJMPE...5..131A 
  79. Diehl, R.; Prantzos, N.; Vonballmoos, P. (২০০৬)। "Astrophysical constraints from gamma-ray spectroscopy"। Nuclear Physics A777 (2006): 70–97। arXiv:astro-ph/0502324 CiteSeerX 10.1.1.256.9318 doi:10.1016/j.nuclphysa.2005.02.155বিবকোড:2006NuPhA.777...70D 
  80. Eugene P. Bertin (1970). Principles and practice of X-ray spectrometric analysis, Chapter 5.4 – Analyzer crystals, Table 5.1, p. 123; Plenum Press
  81. Shen, C.; Trypiniotis, T.; Lee, K. Y.; Holmes, S. N.; Mansell, R.; Husain, M.; Shah, V.; Li, X. V.; Kurebayashi, H. (২০১০-১০-১৮)। "Spin transport in germanium at room temperature" (PDF)Applied Physics Letters97 (16): 162104। doi:10.1063/1.3505337আইএসএসএন 0003-6951বিবকোড:2010ApPhL..97p2104S 
  82. Sigillito, A. J.; Jock, R. M.; Tyryshkin, A. M.; Beeman, J. W.; Haller, E. E.; Itoh, K. M.; Lyon, S. A. (২০১৫-১২-০৭)। "Electron Spin Coherence of Shallow Donors in Natural and Isotopically Enriched Germanium"। Physical Review Letters115 (24): 247601। arXiv:1506.05767 doi:10.1103/PhysRevLett.115.247601PMID 26705654বিবকোড:2015PhRvL.115x7601S 
  83. Ades TB, সম্পাদক (২০০৯)। "Germanium"। American Cancer Society Complete Guide to Complementary and Alternative Cancer Therapies (2nd সংস্করণ)। American Cancer Society। পৃষ্ঠা 360–363। আইএসবিএন 978-0944235713 
  84. Brown Jr., Robert D.। Commodity Survey:Germanium (PDF) (প্রতিবেদন)। US Geological Surveys। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৯-০৯ 
  85. Baselt, R. (২০০৮)। Disposition of Toxic Drugs and Chemicals in Man (8th সংস্করণ)। Foster City, CA: Biomedical Publications। পৃষ্ঠা 693–694। 
  86. Gerber, G. B.; Léonard, A. (১৯৯৭)। "Mutagenicity, carcinogenicity and teratogenicity of germanium compounds"। Regulatory Toxicology and Pharmacology387 (3): 141–146। doi:10.1016/S1383-5742(97)00034-3 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা