যুব অলিম্পিক গেমস

যুব অলিম্পিক গেমস একটি আন্তর্জাতিক ক্রীড়াযজ্ঞ, ২০১০ সালের ১৪ থেকে ২৬ অক্টোবর এর প্রথম আসর অনুষ্ঠিত হয়েছিল সিঙ্গাপুরে। অলিম্পিক গেমসের আদলে প্রত্যেক চার বছর পর পর এর গ্রীষ্মকালীন ও শীতকালীন আসর অনুষ্ঠিত হয়।[১] অলিম্পিক গেমসে অংশগ্রহণ করার কোন বয়সসীমা নির্ধারিত না থাকলেও যুব অলিম্পিকে অংশগ্রহণেচ্ছুদের বয়সসীমা ১৪ থেকে ১৮ বছরের মধ্যে হতে হবে।[২] এই জাতীয় গেমস আয়োজন করার প্রথম ধারণা দেন অস্ট্রিয়ার জহান রোসেনজফ। ১৯৯৮ সালে ধারণা দেওয়ার পর তিনি এই যুব অলিম্পিকের আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব করেন ২০০১ সালে যা আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির ১১৯ তম কংগ্রেসে অনুমোদিত হয়।

যুব অলিম্পিক গেমস
যুব অলিম্পিক গেমস লোগো.png
যুব অলিম্পিক গেমসের লোগো
গ্রীষ্মকালীন আসর
শীতকালীন আসর
প্রতিযোগিতা সমূহ
গ্রীষ্মকালীন:
শীতকালীন:

২০১০ সালের ১৪-২৬ আগস্টে সিঙ্গাপুরে প্রথম গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক গেমস অনুষ্ঠিত হয়, অপরদিকে এর শীতকালীন আসর বসে দুই বছর পর অস্ট্রিয়ার ইন্সবার্কে। এই যুব অলিম্পিক গেমস অলিম্পিকের মূল আসরের চেয়ে স্বল্প পরিসরে অনুষ্ঠিত হয়। গ্রীষ্মকালীন আসর নয় দিনের জন্য অনুষ্ঠিত হয় যেখানে ৯৭০ জন ক্রীড়াবিদ ও ৫৮০ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করতে পারে অপরদিকে গ্রীষ্মকালীন আসর হয় ১২ দিনের জন্য যেখানে ৩৫০০ জন ক্রীড়াবিদ ও ৯৭০ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করতে পারে। মূল অলিম্পিকের ন্যায় এই অলিম্পিকেও বিভিন্য ধরনের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা থাকে, এছাড়া এর স্থায়িত্ব কমানোর জন্য কিছু ইভেন্ট বাদ দেওয়া হয় ও কিছু খেলায় নারী ও পুরুষের সমন্বিত দল গঠন করা হয়।

ইতিহাসসম্পাদনা

 
আইওসির সাবেক প্রেসিডেন্ট জ্যাক রগ।

যুব অলিম্পিকের এই ধারনাটা আসে ১৯৯৮ সালে অস্ট্রিয়ান শিল্প ব্যবস্থাপক জোহান রোসেনজফের মাথায়।[৩] শৈশবেই স্থূলকায় শরীর, খেলাধুলার প্রতি অনাগ্রহ এবং কিশোরদের মানসিক বৃদ্ধির উপর খেলাধুলার প্রভাবের কথা বিবেচনা করে এই ধরনের গেমের কথা তিনি কল্পনা করেন।[৪] এছাড়াও একাডেমিক ফফলতার জন্য আজকাল স্কুললগুলো শারীরিক শিক্ষা ও বাধ্যতামূলক খেলাধুলা শিক্ষা কমিয়ে দিচ্ছে যা অত্যন্ত হতাশাজনক।[৪] এসকল সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য ও খেলাধুলা ও শরীরচর্চায় শিশুকিশোরদের অংশগ্রহণ বাড়ানোর জন্য একটি গেমসের আয়োজন খুব প্রয়োজন হয়ে পরেছিল। তবে শুরুর দিকে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি শুধুমাত্র কিশোরদের জন্য একটি সম্পূর্ণ গেমসের আয়োজনের পক্ষপাতী ছিল না।[৫] আইওসির প্রতিনিধিরা কিশোরদের জন্য শুধুমাত্র একটি ক্রীড়া প্রতিযোগিতার বদলে একটি সাংস্কৃতিক ও শিক্ষণীয় পরিমণ্ডল বিনিময়ের একটি মাধ্যম গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন।[৫] আইওসির সাবেক প্রেসিডেন্ট জ্যাক রগ ২০০৭ সালের ৬ জুলাই আইওসির ১১৯ তম কাউন্সিলে যুব অলিম্পিক গেমসের আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব করেন।[৬] ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ছাড়াও যুব অলিম্পিক গেমসের আরও কিছু উদ্দেশ্য আছে। তার মধ্যে অন্যতম হল কিশোর ও নবীন ক্রীড়াবিদদের জন্য একটি মিলনমেলার আয়োজন করা, তাদের মধ্যে সাংস্কৃতিক বিনিময় এবং যুবাদের মধ্য থেকে ভবিষ্যতের সম্ভাবনাময় ক্রীড়াবিদ খুঁজে বের করা।

স্বাগতিক দেশের যোগ্যতাসম্পাদনা

সাধারণত যুব অলিম্পিক গেমস অলিম্পিক গেমসের মত এত বৃহৎ পরিসরে অনুষ্ঠিত হয় না। এজন্য স্বাগতিক দেশের যেকোন উন্নত ছোট শহরে এই গেমস অনুস্থিত হতে পারে। সম্ভাব্য স্বাগতিক শহরকেএই গেমস আয়োজনের জন্য কোন নতুন স্থাপনা তৈরীর কোন বাধ্যবাধকতা না থাকলেও মিডিত্যা সেন্টার, প্রেস গ্যালারি, এম্পিথিয়েটার প্রশিক্ষণ ওয়ার্কশপ ও ক্রীড়াবিদদের থাকার জন্য ভিলেজ নির্মাণ করতে হয়। শাটলের মধ্যমে পরিবহন করায় ক্রীড়াবিদদের জন্য আলাদা করে কোন পরিবহন ব্যবস্থা নির্মাণ করার প্রয়োজন পরে না। আয়োজক হওয়ার ডাকে অংশগ্রহণের পূর্বশর্ত হল উদ্বোধনি ও সমাপনি অনুষ্ঠানের স্টেডিয়াম কমপক্ষে দশ হাজার দর্শক ধারণক্ষম হতে হবে। এছাড়াও গ্রীষ্মকালীন আসরের সাঁতার ও অন্যান্য একুয়াটিক প্রদর্শনির জন্য একুয়াটিক স্টেডিয়াম কমপক্ষে ২৫০০ দর্শক ধারণক্ষম হতে হবে।

অর্থায়নসম্পাদনা

যুব অলিম্পিক আয়োজন করার জন্য গ্রীষ্মকালীন আসরে ৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ও শীতকালীন আসরে ১৫ থেকে ২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয় হয়ে থাকে। এই খরচের মধ্যে নতুন অবকাঠামো নির্মাণের খরচ অন্তর্ভুক্ত নয় কারণ অল্প কিছু পরিবর্তন ছাড়া নতুন অবকাঠামো নির্মাণ বাধ্যতামূলক নয়। তার পরও আয়োজক দেশ যদি নতুন অবকাঠামো নির্মাণে আগ্রহী হয় তবে এর খরচ আয়োজক দেশকেই বহন করতে হয়। ক্রীড়াবিদ, ম্যাচ অফশিয়াল ও বিচারকদের আপ্যায়নের জন্য আইওসি স্বাগতিক দেশকে ১১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দেয়।

অংশগ্রহণসম্পাদনা

ক্রিড়াসমূহসম্পাদনা

সংস্কৃতি ও শিক্ষাসম্পাদনা

যুব অলিম্পিক গেমসের তালিকাসম্পাদনা

গ্রীষ্মকালীন যুব অলিম্পিক গেমসসম্পাদনা

শীতকালীন যুব অলিম্পিক গেমসসম্পাদনা

সর্বকালীন পদক তালিকাসম্পাদনা

  চীন ৩৭ ২০ ৬৬
  রাশিয়া ২৩ ১৮ ১৮ ৫৯
  দক্ষিণ কোরিয়া ১৭ ৩০
  জার্মানি ১২ ১৬ ১১ ৩৯
  Mixed-NOCs ১২ ১১ ১৪ ৩৭
  জাপান ১০ ১০ ১২ ৩২
  ইউক্রেন ১০ ১৫ ৩৪
  কিউবা ১৪
  অস্ট্রেলিয়া ১৩ ১০ ৩১
  ফ্রান্স ১২ ২৪
১০   ইতালি ১১ ২৪
১১   অস্ট্রিয়া ১৭
১২   মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১২ ১১ ২৯
১৩   হাঙ্গেরি ১৭
১৪   নেদারল্যান্ডস ১১
১৫   আজারবাইজান
১৬   কানাডা ১৪ ২১
১৭   থাইল্যান্ড
১৮   সুইডেন
১৯   স্লোভেনিয়া ১০
২০   যুক্তরাজ্য ১০
২১   ইসরায়েল
২২    সুইজারল্যান্ড ১১
২৩   কেনিয়া
২৪   লিথুয়ানিয়া
২৫   নরওয়ে ১০
২৬   দক্ষিণ আফ্রিকা
২৭   কাজাখস্তান
২৮   চেক প্রজাতন্ত্র
২৯   ব্রাজিল
৩০   কলম্বিয়া
৩০   ইথিওপিয়া
৩২   বেলজিয়াম
৩২   মিশর
৩২   ফিনল্যান্ড
৩৫   ইরান
৩৬   নাইজেরিয়া
৩৭   বুলগেরিয়া
৩৮   মঙ্গোলিয়া
৩৯   স্পেন ১১
৪০   রোমানিয়া
৪১   তুরস্ক ১০
৪২   স্লোভাকিয়া
৪৩   আর্জেন্টিনা
৪৪   নিউজিল্যান্ড
৪৫   উত্তর কোরিয়া
৪৬   লাতভিয়া
৪৬   ভিয়েতনাম
৪৮   ক্রোয়েশিয়া
৪৮   ডেনমার্ক
৪৮   সার্বিয়া
৫১   পোল্যান্ড
৫২   কিরগিজস্তান
৫৩   ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্র
৫৩   ইরিত্রিয়া
৫৩   মরক্কো
৫৬   বলিভিয়া
৫৬   চিলি
৫৬   আয়ারল্যান্ড
৫৬   মার্কিন ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ
৫৬   জ্যামাইকা
৫৬   পুয়ের্তো রিকো
৫৬   ত্রিনিদাদ ও টোবাগো
৫৬   উরুগুয়ে
৬৪   ভারত
৬৫   বেলারুশ
৬৬   চীনা তাইপেই
৬৭   উজবেকিস্তান
৬৮   সিঙ্গাপুর
৬৯   ভেনেজুয়েলা
৭০   এস্তোনিয়া
৭০   মালয়েশিয়া
৭২   মেক্সিকো
৭৩   আর্মেনিয়া
৭৩   গ্রিস
৭৫   জর্ডান
৭৫   মলদোভা
৭৫   পর্তুগাল
৭৫   তাজিকিস্তান
৭৯   বাহামা দ্বীপপুঞ্জ
৭৯   সাইপ্রাস
৭৯   ইকুয়েডর
৭৯   বিষুবীয় গিনি
৭৯   হাইতি
৭৯   হংকং
৭৯   নাউরু
৭৯   পাকিস্তান
৭৯   কাতার
৮৮   নেদারল্যান্ডস এন্টিলস
৮৮   অ্যান্ডোরা
৮৮   বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা
৮৮   কম্বোডিয়া
৮৮   জর্জিয়া
৮৮   গুয়াতেমালা
৮৮   ইন্দোনেশিয়া
৮৮   সৌদি আরব
৮৮   কুয়েত
৮৮   লেবানন
৮৮   মোনাকো
৮৮   পেরু
৮৮   তুর্কমেনিস্তান
৮৮   উগান্ডা
মোট ২৬৫ ২৬২ ২৮৪ ৮১১

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "FIS in favor of Youth Olympic Games"FIS। ৮ মে ২০০৭। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০০৭ 
  2. "No kidding: Teens to get Youth Olympic Games"USA Today। ২৫ এপ্রিল ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০০৭ 
  3. "Olympischer Frieden"Frankfurter Allgemeine Zeitung। ২৭ ডিসেম্বর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  4. "Youth Olympic Games" (pdf)। International Olympic Committee। পৃষ্ঠা 28। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১১ 
  5. "Youth Olympic Games" (pdf)। International Olympic Committee। পৃষ্ঠা 35। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১১ 
  6. "IOC Session: A "go" for Youth Olympic Games"International Olympic Committee। ৫ জুলাই ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০০৭ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা