তুর্কমেনিস্তান

মধ্য এশিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিম অংশের একটি প্রজাতান্ত্রিক রাষ্ট্র

স্থানাঙ্ক: ৩৯° উত্তর ৬০° পূর্ব / ৩৯° উত্তর ৬০° পূর্ব / 39; 60

তুর্কমেনিস্তান (তুর্কমেন ভাষায়: Türkmenistan ত্যুর্ক্‌মেনিস্তান্‌) মধ্য এশিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিম অংশের একটি প্রজাতান্ত্রিক রাষ্ট্র। এর উত্তরে কাজাকিস্তানউজবেকিস্তান, পূর্বে উজবেকিস্তান ও আফগানিস্তান, দক্ষিণে আফগানিস্তান ও ইরান এবং পশ্চিমে কাস্পিয়ান সাগরআশগাবাত তুর্কমেনিস্তানের রাজধানী ও বৃহত্তম শহর।

তুর্কমেনিস্তান

Türkmenistan
ত্যুর্ক্‌মেনিস্তান্‌
তুর্কমেনিস্তানের জাতীয় মর্যাদাবাহী নকশা
জাতীয় মর্যাদাবাহী নকশা
তুর্কমেনিস্তানের অবস্থান
রাজধানী
ও বৃহত্তর শহর
আশগাবাত
সরকারি ভাষাতুর্কমেন[১]
স্বীকৃত আঞ্চলিক ভাষারুশ, উজবেক, দারি ভাষা
জাতীয়তাসূচক বিশেষণতুর্কমেন
সরকারsingle-party state
গুর্বাঙ্গুলি বের্দিমুহাম্মেদোভ
Independence 
• Declared
1991-10-27
• Recognized
1991-12-08
আয়তন
• মোট
৪,৯১,২১০ বর্গকিলোমিটার (১,৮৯,৬৬০ বর্গমাইল)[২] (52nd)
• পানি (%)
4.9
জনসংখ্যা
• December 2006 আনুমানিক
5,110,023 (113th)
• ঘনত্ব
৯.৯ প্রতি বর্গকিলোমিটার (২৫.৬ প্রতি বর্গমাইল) (208th)
জিডিপি (পিপিপি)২০১৮ আনুমানিক
• মোট
$103.987 billion[৩]
• মাথাপিছু
$18,771
এইচডিআই (2003)বৃদ্ধি 0.738[৪]
উচ্চ · 97th
মুদ্রাTurkmen Manat (TMM)
সময় অঞ্চলইউটিসি+5 (TMT)
• গ্রীষ্মকালীন (ডিএসটি)
ইউটিসি+5 (not observed)
কলিং কোড993
ইন্টারনেট টিএলডি.tm

তুর্কমেনিস্তানের সরকারি ভাষা তুর্কমেনতুর্কমেনরা এখানকার সংখ্যাগরিষ্ঠ জাতি। পূর্বে দেশটি তুর্কমেন সোভিয়েত সমাজতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র নামে পরিচিত ছিল ও সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ ছিল। ১৯৯১ সালে এটি স্বাধীনতা ঘোষণা করে এবং ১৯৯২ সালে নতুন সংবিধান কার্যকর করে।

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯৯১ সালে দেশটি স্বাধীন হয় এবং ১৯৯২ সালে নতুন সংবিধান কার্যকর করে।

রাজনীতিসম্পাদনা

তুর্কমেনিস্তানের রাজনীতি একটি রাষ্ট্রপতিশাসিত প্রজাতন্ত্র কাঠামোয় সংঘটিত হয়। রাষ্ট্রপতি হলেন একাধারে রাষ্ট্রের প্রধান ও সরকারপ্রধান। তুর্কমেনিস্তানে বর্তমানে একটি একদলীয় শাসনব্যবস্থা বিদ্যমান, কিন্তু সম্প্রতি দেশটি বহুদলীয় রাজনৈতিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। ২০০৭ সালে গুর্বাংগুলি বের্দিমুহামেদভ রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন, তবে নির্বাচনটি বিদেশী পর্যবেক্ষকেরা ভুয়া আখ্যা দেন। তুর্কমেনিস্তান পৃথিবীর একমাত্র দেশ যেখানে ১৯৯১ সাল থেকে গ্যাস, বিদ্যুৎ এবং পানির সেবা বিনামূল্যে প্রদান করা হয়। তবে অতি সম্প্রতি এই ভর্তুকি বাতিল করা হয়। [৫]

প্রশাসনিক অঞ্চলসমূহসম্পাদনা

ভূগোলসম্পাদনা

 
তুর্কমেনিস্তানের ভূসংস্থানিক মানচিত্র

তুর্কমেনিস্তান মধ্য এশিয়ার একটি স্থলবেষ্টিত রাষ্ট্র। এর পশ্চিমে কাস্পিয়ান সাগর, দক্ষিণে ইরানআফগানিস্তান, উত্তর-পূর্বে উজবেকিস্তান, এবং উত্তর-পশ্চিমে কাজাকিস্তান।

তুর্কমেনিস্তানের অধিকাংশ এলাকা সমতল বা ঢেউখেলানো বালুময় মরুভূমি, যার মধ্যে স্থলে স্থলে বালিয়াড়ি দেখতে পাওয়া যায়। দক্ষিণে ইরানের সাথে সীমান্তে রয়েছে পর্বতমালা। কারাকুম মরুভূমির কাছে অবনমিত ভূমি দেখতে পাওয়া যায়।

অর্থনীতিসম্পাদনা

এখানে বিশ্বের ৪র্থ বৃহত্তম প্রাকৃতিক গ্যাস সম্ভার রয়েছে। তুর্কমেনিস্তান পৃথিবীর একমাত্র দেশ, যেখানে ১৯৯১ সাল থেকে গ্যাস, বিদ্যুৎ এবং পানির সেবা বিনামূল্যে প্রদান করা হয়।

জনসংখ্যাসম্পাদনা

তুর্কমেন ভাষা এবং রুশ ভাষা তুর্কমেনিস্তানের সরকারি ভাষা। তুর্কমেন ভাষাতে এখানকার জনগণের প্রায় ৮০% এবং রুশ ভাষাতে প্রায় ৮% কথা বলেন। এখানে প্রচলিত অন্যান্য ভাষার মধ্যে আছে বেলুচি ভাষাউজবেক ভাষা

সংস্কৃতিসম্পাদনা

এখানে কুকুরের জন্য নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

দর্শনীয় স্থানসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Turkmenistan's Constitution of 2008. constituteproject.org
  2. Государственный комитет Туркменистана по статистике : Информация о Туркменистане : О Туркменистане ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৭ জানুয়ারি ২০১২ তারিখে : Туркменистан — одна из пяти стран Центральной Азии, вторая среди них по площади (491,21 тысяч км2), расположен в юго-западной части региона в зоне пустынь, севернее хребта Копетдаг Туркмено-Хорасанской горной системы, между Каспийским морем на западе и рекой Амударья на востоке.
  3. "Turkmenistan"। International Monetary Fund। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০১৬ 
  4. "2015 Human Development Report" (PDF)। United Nations Development Programme। ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ডিসেম্বর ২০১৫ 
  5. https://freedomhouse.org/country/turkmenistan/freedom-world/2020