প্রধান মেনু খুলুন

ফুট (pl. ফিট; সংক্ষেপ: ft; সংকেত: , প্রাইম চিহ্ন) হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিমাপ পদ্ধতি এবং ব্রিটিশ পরিমাপ পদ্ধতিতে দৈর্ঘ্য পরিমাপের একক। ১৯৫৯ সালের আন্তর্জাতিক গজ ও পাউন্ড অ্যাগ্রিমেন্ট অনুসারে এক ফুট সমান ০.৩০৪৮ মিটার। যুক্তরাষ্ট্রীয় ও ব্রিটিশ একক অনুসারে এক ফুট সমান ১২ ইঞ্চি এবং তিন ফুট সমান এক গজ।

ফুট
একক সিস্টেমইম্পেরিয়াল/মার্কিন একক
যার এককদৈর্ঘ্য
প্রতীকft 
১ ft ...... সমান হচ্ছে ...
   ইম্পেরিয়াল/মার্কিন একক   1/ গজ
   মেট্রিক (এসআই) একক   ০.৩০৪৮ মি

উৎপত্তিসম্পাদনা

ঐতিহাসিকভাবে মানব শরীর দৈর্ঘ্যের এককের ভিত্তি হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।[১] একজন শ্বেতাঙ্গ পুরুষের পা তার উচ্চতার ১৫.৩%,[২] ফলে ১৬০ সেন্টিমিটার (৫ ফুট ৩ ইঞ্চি) উচ্চতাবিশিষ্ট একজন ব্যক্তির পায়ের আকার ২৪৫ মিলিমিটার (৯.৬ ইঞ্চি) এবং ১৮০ সেন্টিমিটার (৫ ফুট ১১ ইঞ্চি) উচ্চতাবিশিষ্ট একজন ব্যক্তির পায়ের আকার ২৭৫ মিলিমিটার (১০.৮ ইঞ্চি)।

প্রত্নতত্ত্ববিদগণ মনে করেন দৈর্ঘ্য পরিমাপের জন্য মিশরীয়, প্রাচীন ভারতীয় ও মেসোপটেমীয়রা কিউবিট ব্যবহার করতো, অন্যদিকে রোমান ও গ্রিকরা ফুট ব্যবহার করতো। হরপ্পার সরলরৈখিক পরিমাপ অনুসারে সিন্ধু সভ্যতার শহরগুলো ব্রোঞ্জ যুগে ১৩.২ ইঞ্চিতে (৩৪০ মিমি) এক ফুট ও ২০.৮ ইঞ্চিতে (৫৩০ মিমি) এক কিউবিট ব্যবহার করত।[৩] মিশরীয়দের এক ফুট সমান ছিল চার হাত বা ১৬ সংখ্যা, যা দিজিয়ার নামে পরিচিত ছিল এবং প্রায় ৩০ সেমি (১২ ইঞ্চি) হিসেবে পুনর্নির্মাণ করা হয়।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Oswald Ashton Wentworth Dilke (মে ২২, ১৯৮৭)। Mathematics and measurement। University of California Press। পৃষ্ঠা 23। আইএসবিএন 978-0-520-06072-2। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ২, ২০১২ 
  2. ফেসলার, ড্যানিয়েল এম; হ্যালি, কেভিন জে; লাল, রশনি ডি (জানুয়ারি–ফেব্রুয়ারি ২০০৫)। "Sexual dimorphism in foot length proportionate to stature" (PDF)অ্যানালস অব হিউম্যান বায়োলজি৩২ (১): ৪৪–৫৯। doi:10.1080/03014460400027581। জুন ৮, ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা (PDF) 
  3. কেনোয়ার, জেএম (২০১০) "Measuring the Harappan world," in মোর্লি, আই ও রেনফ্রিউ, সি (edd), দি আর্কিওলজি অব মেজারমেন্ট, ১১৭; "Archived copy" (PDF)। জুন ২৬, ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯