প্রধান মেনু খুলুন

সৃষ্টিকর্তা

মহাবিশ্বের স্রষ্টা
হাবল টেলিস্কোপে তোলা চার কোটি আলোকবর্ষ দূরের আনতেননাই ছায়াপথ

সৃষ্টিকর্তা একটি বাংলা শব্দ (ইংরেজি: Creator, আরবি: الخالق‎‎ - আল খালিক); যিনি সৃষ্টি করেন তাকেইই সৃষ্টিকর্তা বলা হয়। বিভিন্ন ধর্মের বিশ্বাসীরা যে মহান অস্তিত্ব সময়, স্থান, জীব, মহাকাশসহ সকল কিছু সৃষ্টি করেছেন তাকে সৃষ্টিকর্তা বা স্র্রষ্টা নামে সম্বোধন করে। বিশ্বাসীরা এই মহাবিশ্বের জীবজড় সমস্ত কিছুর সৃষ্টিকর্তা ও নিয়ন্ত্রক আছে বলে বিশ্বাস করে; এদেরকে আস্তিক বলা হয়। আবার অনেকে সৃষ্টিকর্তার অস্তিত্বকে অস্বীকার করে, তাদের বলা হয় নাস্তিক। সৃষ্টিকর্তা একটি অধিক ব্যবহৃত বাংলা শব্দ যা মুলত বিধাতা,ভগবান, ঈশ্বর, ইলাহি, আল্লাহ প্রভৃতি বোঝাতে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। ভাবা হয়, তিনি জাগতিক ক্ষমতার সর্বোচ্চ অবস্থানে অবস্থানকারী কোন অস্তিত্ব।

ব্যবহারিক ভাবে ব্যাক্তিগত কীর্তি ব্যাখা দিতেও সৃষ্টিকর্তা শদটি রূপক অর্থে ব্যাক্তিক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

ইহুদি ধর্মে সৃষ্টিকর্তাসম্পাদনা

= খ্রিষ্টান ধর্মে সৃষ্টিকর্তাসম্পাদনা

ইসলাম ধর্মে সৃষ্টিকর্তাসম্পাদনা

মুসলিমদের বিশ্বাস মতে, আল্লাহ হলেন একমাত্র সৃষ্টিকর্তা। মুসলিমদের ধর্মগ্রন্থে বলা হয়েছে,

"আল্লাহ যথাযথভাবে আকাশমন্ডলী ও পৃথিবী সৃষ্টি করেছেন এবং যাতে প্রত্যেক ব্যক্তিকে তার কর্মানুযায়ী ফল দেওয়া যেতে পারে। আর তাদের প্রতি যুলুম করা হবে না।"[কুরআন 45:22]

আরও বলা হয়েছে,

তিনি আসমানসমূহ ও যমীনের স্রষ্টা। আর যখন তিনি কোনো বিষয়ের সিদ্ধান্ত নেন, তখন কেবল বলেন ‘হও’ ফলে তা হয়ে যায়।[কুরআন 2:117]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা