আবীর চট্টোপাধ্যায়

ভারতীয় অভিনেতা

আবির চট্টোপাধ্যায় (জন্ম: ১৮ নভেম্বর ১৯৮০) হলেন একজন ভারতীয় অভিনেতা। তিনি মূলত বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয় করে থাকেন। তিনি বিশিষ্ট নাট্য শিল্পী ফাল্গুনী ও রুমকি চট্টোপাধ্যায়ের ছেলে।[১] তিনি বাংলা টেলিভিশনের মাধ্যমে তার কর্মজীবন শুরু করেন এবং ২০০৯ সালে ক্রস কানেকশন ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয়ের মাধ্যমে বাংলা চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন। তিনি বিখ্যাত গোয়েন্দা ব্যোমকেশ বক্সী হিসাবে পৃথক চলচ্চিত্র সিরিজে উপস্থিত হওয়ার জন্য সুপরিচিত। তিনি ২০১০ থেকে ২০২২ সালের মধ্যে টানা ৩৩টি বক্স-অফিসে সাফল্যে অভিনয় করেছেন।

আবির চট্টোপাধ্যায়
২০১৮ সালে আবির চট্টোপাধ্যায়
জন্ম (1980-11-18) ১৮ নভেম্বর ১৯৮০ (বয়স ৪৩)
জাতীয়তাভারতীয়
মাতৃশিক্ষায়তনগোয়েঙ্কা কলেজ অব কমার্স ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড ফিনান্সিয়াল অ্যানালিস্টস অব ইন্ডিয়া
পেশাঅভিনেতা, উপস্থাপক
কর্মজীবন২০০৯-বর্তমান
উল্লেখযোগ্য কর্ম
নিচে দেখুন
দাম্পত্য সঙ্গীনন্দিনী চট্টোপাধ্যায় (বি. ২০০৭)
সন্তানময়ূরাক্ষী চট্টোপাধ্যায়
পুরস্কারপূর্ণ তালিকা

ব্যক্তিজীবন এবং শিক্ষা সম্পাদনা

তিনি নাট্যশিল্পী ফাল্গুনী চট্টোপাধ্যায় ও রুমকি চট্টোপাধ্যায়ের ছেলে।[১] তিনি গোয়েঙ্কা কলেজ অব কমার্স অ্যান্ড বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন থেকে বি.কম ডিগ্রি এবং কলকাতার আইসিএফএআই বিজনেস স্কুল থেকে এমবিএ ডিগ্রি লাভ করেন।[২]

আবির চ্যাটার্জি ২০০৭ সালে তার কলেজ বন্ধু নন্দিনী চট্টোপাধ্যায়কে বিয়ে করেন। এই দম্পতির ময়ূরাক্ষী চট্টোপাধ্যায় নামে একটি মেয়ে রয়েছে।[৩]

কর্মজীবন সম্পাদনা

 
২০০৯ সালে আবির

আবির বহু বাংলা টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন। সেগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য প্রলয়...আসছে,[৪] রুপসী বাংলা, শাশুড়ি জিন্দাবাদ, খুঁজে বেড়াই কাছের মানুষ, বহ্নিশিখা, শুধু তোমারই জন্য, এক আকাশের নিচেজন্মভূমি[৫][৬][৭]

বাংলা সাহিত্যের দুই বিখ্যাত গোয়েন্দা চরিত্র ব্যোমকেশ বক্সীফেলুদার ভূমিকাতেও অভিনয় করেছেন আবির।[৮][৯] দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস লেখে রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার ছবিতে তার অভিনীত চরিত্রটিতে “পরিচ্ছন্ন ভঙ্গিমা ও আত্মবিশ্বাস” ("elegant élan and confidence") নিয়ে আসেন।[১০]

২০১৪ সালে পরিচালক রঞ্জন ঘোষ পরিচালিত হৃদ মাঝারে ছবিতে তিনি একক প্রধান ভূমিকায় প্রথম অভিনয় করেন। এই ছবিটি সমালোচকদের দ্বারা প্রশংসিত হয়েছিল।[১১][১২][১৩] এই ছবিতে অভিনয় করার পর ২০১৪ সালের “ক্যালকাটা টাইমস মোস্ট ডিজায়েরেবল মেন” তালিকার শীর্ষে উঠে আসেন।[১৪]

চলচ্চিত্র সম্পাদনা

বছর চলচ্চিত্র ভূমিকা পরিচালক মন্তব্য
২০২৪ আগন্তুক ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্ত উৎপাদন পরবর্তি
বালিঘর অরিন্দম শীল প্রি-প্রোডাকশন
বাদামী হায়নার কবলে দীপক চ্যাটার্জি দেবলয় ভট্টাচার্য উৎপাদন পরবর্তি
২০২৩ রক্তবীজ পঙ্কজ সিনহা নন্দিতা রায়শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়
বিবাহ বিভ্রান্ত রাজা চন্দ
ফাটাফাটি অরিত্র মুখোপাধ্যায়
২০২২ কর্ণসুবর্ণের গুপ্তধন সুবর্ণ সেন/সোনাদা ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়
ব্যোমকেশ হত্যামঞ্চ ব্যোমকেশ বক্সী অরিন্দম শীল
আবার বছর কুড়ি পরে অরুণ শ্রীমন্ত সেনগুপ্ত
২০২১ ৭২ ঘন্টা আনামরো অতনু ঘোষ
ডিকশনারি অশোক সান্যাল ব্রাত্য বসু
২০২০ সুইজারল্যান্ড শিবু হালদার সৌভিক কুন্ডু
মায়াকুমারী অরিন্দম শীল
দ্বিতীয় পুরুষ সূর্য সৃজিত মুখোপাধ্যায়
অসুর বোধিসত্ত্ব পাভেল
২০১৯ বর্ণপরিচয় অর্ঘ মৈনাক ভৌমিক
দুর্গেশগড়ের গুপ্তধন সুবর্ণ সেন ওরফে সোনাদা ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়
তৃতীয় অধ্যায় মনোজ মিশিগান
শাহজাহান রিজেন্সি সমীরন বসু সৃজিত মুখোপাধ্যায়
বিজয়া নাসির আলি কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়
২০১৮ ফ্ল্যাট নং ৬০৯ অরিন্দম ভট্টাচার্য
ব্যোমকেশ গোত্র ব্যোমকেশ বক্সী অরিন্দম শীল
মনোজদের অদ্ভুত বাড়ি কান্দর্পো নারায়ণ চৌধুরী অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় প্লেব্যাক গায়ক হিসেবেও
বিদায় ব্যোমকেশ ব্যোমকেশ বক্সী
গুপ্তধনের সন্ধানে অধ্যাপক সুবর্ণা সেন
আমি জয় চ্যাটার্জি
২০১৭ সব ভূতুড়ে অনিকেত
ছায়া ও ছবি অরিন্দম
মেঘনাদবধ রহস্য কুনাল সেন অনীক দত্ত
বিসর্জন নাসির আলি কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়
২০১৬ ব্যোমকেশ পর্ব ব্যোমকেশ বক্সী অরিন্দম শীল
ঠাম্মার বয়ফ্রেন্ড পার্থ
বাস্তুশাপ অর্জুন দাশগুপ্ত/জিজো কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়
মনচোরা দিবাকর রায় সন্দীপ রায়
২০১৫ হর হর ব্যোমকেশ ব্যোমকেশ বক্সী অরিন্দম শীল
অ্যাবি সেন অ্যাবি অতনু ঘোষ
কাটমুন্ডু পাবলো বসু রাজ চক্রবর্তী
রাজকাহিনী মাস্টার সৃজিত মুখোপাধ্যায়
যমের রাজা দিল বর দেব দাস আবির সেনগুপ্ত
এবার শবর মিঠু মিত্র অরিন্দম শীল
২০১৪ ব্যোমকেশ ফিরে এলো ব্যোমকেশ বক্সী অঞ্জন দত্ত
বাদশাহী আংটি প্রদোষচন্দ্র মিত্র (ফেলুদা) সন্দীপ রায় [১৫][১৬]
হৃদ মাঝারে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় রঞ্জন ঘোষ [১১]
চার বিনায়ক সন্দীপ রায় [১৬]
যদি লাভ দিলে না প্রাণে অনীশ সুদেষ্ণা রায় ও অভিজিৎ গুহ [১৭]
বাঙালি বাবু ইংলিশ মেম ক্যাপ্টেন বিক্রম (বিশেষ উপস্থিতি) রবি কিনাগী
দ্য রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার অভি/অভিরূপ বন্দ্যোপাধ্যায় রাজেশ গঙ্গোপাধ্যায় [১৮]
জাতিস্মর বোধি সৃজিত মুখোপাধ্যায়
২০১৩ আসবো আরেক দিন করণ অভিজিৎ দাশগুপ্ত
মেঘে ঢাকা তারা ডাক্তার এস. পি. মুখোপাধ্যায় কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায় [১৯]
কানামাছি অভিমন্যু মুখোপাধ্যায় রাজ চক্রবর্তী [২০]
আবর্ত হরি বসু অরিন্দম শীল
২০১২ বোঝেনা সে বোঝেনা অভীক রাজ চক্রবর্তী
যেখানে ভূতের ভয় রঞ্জন সেনগুপ্ত সন্দীপ রায়
বাপি বাড়ি যা বিষে দা
আবার ব্যোমকেশ ব্যোমকেশ বক্সী অঞ্জন দত্ত
কাহানি অরূপ বসু সুজয় ঘোষ হিন্দি চলচ্চিত্র
বেডরুম আনন্দ মৈনাক ভৌমিক
২০১১ বাইশে শ্রাবণ সূর্য সিনহা সৃজিত মুখোপাধ্যায়
রঞ্জনা আমি আর আসবো না মিস্টার বক্সী (সিইও) অঞ্জন দত্ত
২০১০ প্রেম বাই চান্স রাজু সুদেষ্ণা রায় ও অভিজিৎ গুহ
ব্যোমকেশ বক্সী ব্যোমকেশ বক্সী অঞ্জন দত্ত
২০০৯ ক্রস কানেকশন বিক্রম রায়/ভিকি সুদেষ্ণা রায় ও অভিজিৎ গুহ প্রধান চরিত্রে অভিষিক্ত চলচ্চিত্র
২০০৮ ১০:১০ অভিষেক - মোবাইল বুথ অপারেটর অরিন পল অভিষিক্ত চলচ্চিত্র

টেলিভিশন সম্পাদনা

  • প্রলয় আসছে
  • সময়[৪]
  • শাশুড়ি জিন্দাবাদ
  • ভুল
  • মোম রঙে সমুদ্র
  • স্ক্যান্ডাল
  • অতিথি
  • বল্লভপুরের রূপকথা
  • ক্রেডিট কার্ড
  • হঠাৎ মেঘ
  • মাই সুইট ভ্যালেন্টাইন

পুরস্কার ও সম্মাননা সম্পাদনা

২০১৬ – ইন্টারন্যাশনাল বাংলা ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডস (NABC) – বাস্তুশাপের জন্য সেরা অভিনেতা (জনপ্রিয় পছন্দ)

২০১৭ – আন্তর্জাতিক বাংলা চলচ্চিত্র পুরস্কার (NABC) – ব্যোমকেশ পাওয়ার জন্য সেরা অভিনেতা (সমালোচকের পছন্দ)

২০১৭ – স্টার জলসা পরিবার পুরষ্কার – ব্যোমকেশ পাওয়ার জন্য সেরা জুটি (সোহিনী সরকারের সাথে) [ উদ্ধৃতি প্রয়োজন ]

২০১৮ – স্টার জলসা পরিবার পুরষ্কার – শোভ ভূতুরির জন্য সেরা অভিনেতা

২০১৮ – তথ্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক বিভাগ, পশ্চিমবঙ্গ কর্তৃক বর্ষ সেরা চলচ্চিত্র সম্মান

২০১৯ – সিনেমায় অসামান্য অবদানের জন্য এবিপি আনন্দ সেরা বাঙালি

২০১৯ - পশ্চিমবঙ্গের সিনেমায় অবদানের জন্য জি ২৪ ঘণ্টা অনন্যা সম্মান

২০১৯ – কালাকার পুরষ্কার – ব্যোমকেশ গৌত্রোর জন্য সেরা অভিনেতা

২০১৯ - টেলি সিনে পুরস্কার - বিজয়ার জন্য সেরা জুটি (জয়া আহসানের সাথে)

২০২০ - WBJFA - ব্যোমকেশ গৌত্রোর জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় অভিনেতা (যৌথ বিজয়ী)

২০২০ - নেতিবাচক ভূমিকায় সেরা অভিনেতার জন্য পশ্চিমবঙ্গ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি পুরস্কার - অসুরের জন্য আবীর চট্টোপাধ্যায়

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "My IQ makes me hot: Abir Chatterjee"The Times of India। ২০১২। 
  2. "Complete family man"The Times of Indiaআইএসএসএন 0971-8257। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-১১-০৫ 
  3. "How does it feel to be an East Bengal fan?"The Times of India। ২০১৯-০৩-১৩। আইএসএসএন 0971-8257। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-১১-০৫ 
  4. "Junior Horlicks SOMOY (SAMAY,SHOMOY) Bengali TV Show on Rupashi Bangla"Washington Bangla Radio। ১৯ জুলাই ২০১০। ৩০ নভেম্বর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ নভেম্বর ২০১৩ 
  5. "ABIR CHATTERJEE AS A DIFFERENT BYOMKESH in ADIM RIPU (2010)"Washington Bangla Radio। ১০ ডিসেম্বর ২০১০। 
  6. "Being Byomkesh"The Telegraph। Calcutta, India। ১৪ জুলাই ২০০৯। 
  7. "Anjanda happens to be emotional: Abir"The Times of India। ১০ আগস্ট ২০১০। ৪ নভেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ নভেম্বর ২০১৩ 
  8. "The Making of a Master Sleuth: Abir Chatterjee, From Byomkesh to Feluda"NDTV। সেপ্টে ২০১৪। 
  9. প্রতিবেদক, নিজস্ব। "ব্যোমকেশ না ফেলুদা?"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-১১ 
  10. "The Royal Bengal Tiger (Bengali) / The turnaround"Indian Express। ফেব্রু ২০১৪। 
  11. "Abir-Raima jodi-The pair comes together in Ranjan Ghosh's first film"। ১৭ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ নভেম্বর ২০১৬ 
  12. "Love, and jealousy, 450 years after the Bard - The Times of India" 
  13. "Hrid Majharey (Bengali) / Dark but honest" 
  14. "Calcutta Times Most Desirable Man: Abir Chatterjee"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০১৫ 
  15. "Abir to play Feluda in Badshahi Angti adaptation"The Times of India। ২০১৪। 
  16. "Sandip Ray on his next film with short stories and casting Abir as Feluda"Telegraph, Calcutta। ২০১৩। 
  17. "Jodi Love Dile Na Prane (Bengali)/ The right note"Indian Express। ২০১৪। 
  18. "The Royal Bengal Tiger (Bengali) / The turnaround"The Times of India। ২০১৪। 
  19. "Meghe Dhaka Tara: A stunning tribute"The Times of India। ২০১৪। 
  20. "Abir to portray negative role in Kanamachi"The Times of India। ২০১৪। 

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা