২০২৩–২৪ ইন্ডিয়ান সুপার লিগ

২০২৩–২৪ ইন্ডিয়ান সুপার লিগ হল ভারতীয় ক্লাব ফুটবলের শীর্ষ লিগ আইএসএলের দশম সংস্করণ আসর, যা ভারতীয় ফুটবলের সর্বোচ্চ ডিভিশন। ৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩-এ, মৌসুমের প্রথম পর্ব ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ শুরু হয়েছিল এবং ২০ ডিসেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত সূচি প্রকাশিত হয়েছিল।[১] ২০২৩ এএফসি এশিয়ান কাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কারণে জানুয়ারি মাসে বিরতি রাখা হয়েছিল।[২] ২০২৪ সালের ৩১শে জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া নিয়মিত মৌসুমের বাকি সময়সূচী ২৫ জানুয়ারি ২০২৪ তারিখে ঘোষণা করা হয়েছিল।[৩]

ইন্ডিয়ান সুপার লিগ
দশবছর পূর্তি উপলক্ষ্যে পোস্টার
মৌসুম২০২৩–২৪
তারিখ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ – ৪ মে ২০২৪
চ্যাম্পিয়নমুম্বই সিটি
২য় আইএসএল কাপ শিরোপা
প্রিমিয়ার্সমোহনবাগান
১ম আইএসএল শিল্ড শিরোপা
৬ষ্ঠ ভারতীয় শিরোপা
এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ২মোহনবাগান
ইস্টবেঙ্গল (সুপার কাপ বিজয়ী)
সাফ ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপমুম্বই সিটি
গোয়া
মোট খেলা১৩৯
মোট গোলসংখ্যা৩৮৪ (ম্যাচ প্রতি ২.৭৬টি)
শীর্ষ গোলদাতাদিমিত্রিওস দিয়ামান্তাকোস
রয় কৃষ্ণ
(১৩টি গোল)
সেরা গোলরক্ষকফুরবা লাচেনপা
অমরিন্দর সিং
বিশাল কৈথ
(উভয় ৯টি ক্লিন শিট)
সবচেয়ে বড় হোম জয়ইস্টবেঙ্গল ৫–০ নর্থইস্ট ইউনাইটেড
(
৪ ডিসেম্বর ২০২৩)
সবচেয়ে বড় অ্যাওয়ে জয়হায়দ্রাবাদ ০–৫ জামশেদপুর
(
২১ ডিসেম্বর ২০২৩)
সর্বোচ্চ স্কোরিংকেরালা ব্লাস্টার্স ৩–৪ মোহনবাগান
(
১৩ মার্চ ২০২৪)
দীর্ঘতম টানা জয়৫টি ম্যাচ
মোহনবাগান
মুম্বই সিটি
দীর্ঘতম টানা অপরাজিত১৩টি ম্যাচ
ওড়িশা
দীর্ঘতম টানা জয়বিহীন১৮টি ম্যাচ
হায়দ্রাবাদ
দীর্ঘতম টানা পরাজয়৮টি ম্যাচ
হায়দ্রাবাদ
সর্বোচ্চ উপস্থিতি৬২,০০৭
মোহনবাগান ২–০ ওড়িশা
(২৮ এপ্রিল ২০২৪)
মোহনবাগান ১–৩ মুম্বই
(৪ মে ২০২৪)
সর্বনিম্ন উপস্থিতি৩৮০
হায়দ্রাবাদ ০–২ গোয়া
(১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪)
মোট উপস্থিতি১৬,৮৬,৬৩১
গড় উপস্থিতি১২,৩১১
(দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা ম্যাচ বাদে)


মুম্বই সিটি এফসি আগের মৌসুমের শীর্ষ স্থানাধিকারী বা প্রিমিয়ার্স দল ও মোহনবাগান সুপার জায়ান্ট (তৎকালীন এটিকে মোহনবাগান) [৪] ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন্স।


মোহনবাগান এসজি তাদের প্রথম আইএসএল শিল্ড শিরোপা জিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে এবং রেকর্ড ৪৮ পয়েন্ট নিয়ে নিয়মিত মৌসুমের সারণীতে শীর্ষস্থান ধরে সামগ্রিকভাবে ৬ষ্ঠ ভারতীয় শীর্ষ-স্তরের শিরোপা জয় লাভ করেছিল। অন্যদিকে, মুম্বই ফাইনালে মোহনবাগান এসজিকে ৩–১ হারিয়ে ২য় আইএসএল কাপ শিরোপা জয় লাভ করেছিল।[৫]

পূর্ব মৌসুম থেকে পরিবর্তন

সম্পাদনা

উত্তীর্ণ ক্লাব

সম্পাদনা

পাঞ্জাব   ২০২২–২৩ আই-লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য ইন্ডিয়ান সুপার লিগে উত্তীর্ণ হয়। তারাই আইএসএলে প্রথম আই-লিগ থেকে উত্তীর্ণ ক্লাব (যেহেতু ইস্টবেঙ্গলমোহনবাগান সরাসরি খেলার সুযোগ পেয়েছিল)।[৬]

এএফসি প্রতিযোগিতা

সম্পাদনা

এএফসি ক্লাব প্রতিযোগিতা র‌্যাঙ্কিং এর নতুন সংস্করণ প্রকাশিত হলে,[৭] ভারতের অবস্থানের অবনমন ঘটে ও এএফসি চ্যাম্পিয়নস লিগ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সুযোগ ভারতীয় ফুটবল হারিয়ে ফেলে। বদলে দুটি এএফসি চ্যাম্পিয়নস লিগ ২ কোটা ভারতকে দেওয়া হয়েছে।[৮]

মানচিত্র

সম্পাদনা

স্টেডিয়াম ও অবস্থান

সম্পাদনা
ক্লাব রাজ্য/অঞ্চল শহর স্টেডিয়াম ধারণ ক্ষমতা
মোহনবাগান পশ্চিমবঙ্গ কলকাতা বিবেকানন্দ যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন ৮৫,০০০
ইস্টবেঙ্গল
বেঙ্গালুরু কর্ণাটক বেঙ্গালুরু শ্রী কান্তিরাভা স্টেডিয়াম ২৫,৮১০
চেন্নাইয়িন তামিলনাড়ু চেন্নাই মেরিনা এরিনা ৪০,০০০
গোয়া গোয়া মারগাও ফতোরদা স্টেডিয়াম ১৯,০০০
হায়দ্রাবাদ তেলেঙ্গানা হায়দ্রাবাদ জিএমসি বালাযোগী অ্যাথলেটিক স্টেডিয়াম ৩০,০০০
জামশেদপুর ঝাড়খণ্ড জামশেদপুর জেআরডি টাটা স্পোর্টস কমপ্লেক্স ২৪,৪২৪
কেরালা ব্লাস্টার্স কেরালা কোচি জওহরলাল নেহেরু স্টেডিয়াম ৬৯,০০০
মুম্বই সিটি মহারাষ্ট্র মুম্বই মুম্বই ফুটবল এরিনা ১৮,০০০
নর্থইস্ট ইউনাইটেড আসাম গুয়াহাটি ইন্দিরা গান্ধী অ্যাথলেটিক স্টেডিয়াম ২৪,৬২৭
পাঞ্জাব পাঞ্জাব মোহালি জওহরলাল নেহেরু স্টেডিয়াম, দিল্লি[টীকা ১] ৬০,০০০
ওড়িশা ওড়িশা ভুবনেশ্বর কলিঙ্গ স্টেডিয়াম ১৫,০০০
  1. ক্লাবটি পাঞ্জাবের মোহালিতে অবস্থিত, তবে ২০২৩-২৪ মৌসুমে তাদের হোম ম্যাচ গুলো নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল।[৯]

কর্মী এবং কিট

সম্পাদনা
দল কোচ অধিনায়ক (গণ) কিট প্রস্তুতকারক শার্টের প্রধান পৃষ্ঠপোষক
বেঙ্গালুরু   জেরার্ড জারাগোজা   সুনীল ছেত্রী পুমা[১০] জেএসডব্লিউ[১১]
চেন্নাইয়িন   ওয়েন কোয়েল   লাজার সিরকোভিচ নিভিয়া[১২] মেলবেট[১৩]
ইস্টবেঙ্গল   কার্লেস কুয়াদ্রাত   ক্লিটন সিলভা ট্রাক-অনলি ব্যাটারি এআই[১৪]
গোয়া   মানোলো মার্কেজ   ব্র্যান্ডন ফার্নান্দেস সিক্সফাইভসিক্স[১৫] পারিম্যাচ নিউজ
হায়দ্রাবাদ   থাংবোই সিংতো   জোয়াও ভিক্টর হুমেল[১৬] স্টেক নিউজ[১৭]
জামশেদপুর   খালিদ জামিল   ড্যানিয়েল চিমা চুকউ নিভিয়া[১৮] টাটা স্টিল[১৯]
কেরালা ব্লাস্টার্স   ইভান ভুকোমানোভিচ   আদ্রিয়ান লুনা সিক্সফাইভসিক্স[২০] বাইজুস[২১]
মোহনবাগান   আন্তোনিও লোপেজ হাবাস   শুভাশিস বসু নিভিয়া[২২][২৩] ওয়ানএক্সব্যাট
মুম্বই সিটি   পেট্র ক্র্যাটকি   রাহুল ভেকে পুমা[২৪] স্টেক নিউজ[২৫]
নর্থইস্ট ইউনাইটেড   হুয়ান পেদ্রো বেনালি   রোমেন ফিলিপোটাক্স ট্রাক-অনলি মেঘালয় ট্যুরিজম[২৬]
ওড়িশা   সার্জিও লোবেরা   অমরিন্দর সিং ট্রাক-অনলি ওড়িশা ট্যুরিজম[২৭]
পাঞ্জাব   স্টাইকোস ভার্জেটিস   লুকা মাজসেন টি-টেন স্পোর্টস রাউন্ডগ্লাস

বিদেশি খেলোয়াড়

সম্পাদনা

এআইএফএফ ক্লাবগুলিকে একজন এএফসি কোটার খেলোয়াড় সহ সর্বাধিক ছয়জন বিদেশী খেলোয়াড় নিবন্ধন করার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ৪ জনকে মাঠে নামতে পারেন।[২৮][২৯]

গাড় কালো এই খেলোয়াড় গুলো মৌসুমের মাঝামাঝি সময়ে শীতকালীন ট্রান্সফার উইন্ডোতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন।[৩০]

দল খেলোয়াড় ১ খেলোয়াড় ২ খেলোয়াড় ৪ খেলোয়াড় ৪ খেলোয়াড় ৫ এএফসি খেলোয়াড় অনিবন্ধিত খেলোয়াড়(সমূহ) প্রাক্তন খেলোয়াড়(সমূহ)
বেঙ্গালুরু   রায়ান উইলিয়ামস   অলিভার ড্রস্ট   স্লাভকো দামজানোভিচ   কেজিয়াহ ভিনডর্প   জাভি হার্নান্দেজ   আলেকজান্ডার জোভানোভিচ   কার্টিস মেইন[৩১]
চেন্নাইয়িন   রাফায়েল ক্রিভেল্লারো   রায়ান এডওয়ার্ডস   ক্রিস্টিয়ান বাত্তোচ্চিও   কনর শিল্ডস   লাজার সিরকোভিচ   জর্ডান মারে
ইস্টবেঙ্গল   ক্লিটন সিলভা   ফেলিসিও ব্রাউন ফোর্বস   আলেকজান্ডার পান্তিচ   সাউল ক্রেসপো   ভিক্টর ভাজকুয়েজ   হিজাজি মাহের   জর্ডান এলসি[৩২]
  বোরজা হেরেরা[৩৩]
  হোসে আন্তোনিও পার্দো[৩৪]

  Javier Siverio[৩৫]
গোয়া   কার্ল ম্যাকহুগ   নোয়া সাদাউই   বোরজা হেরেরা   কার্লোস মার্টিনেজ   ওদেই ওনাইন্ডিয়া   পাওলো রেত্রে   ভিক্টর রদ্রিগেজ[৩৬]
হায়দ্রাবাদ   জোয়াও ভিক্টর   জো নোলস[৩৭]
  ফিলিপ আমোরিম[৩৮]
  জোনাথন মোয়া[৩৯]
  পেটেরি পেন্নানেন[৪০]

  ওসওয়াল্ডো অ্যালানিস[৪১]
জামশেদপুর   এলসিনহো   জেরেমি মানজোরো   ড্যানিয়েল চিমা চুকউ   অ্যালেন স্তেভানোভিচ   হাভিয়ের সিভেরিও   রেই তাচিকাওয়া   পিটার স্লিসকোভিচ[৪২]
  স্টিভ আমব্রি[৪৩]
কেরালা ব্লাস্টার্স   মার্কো লেস্কোভিচ   দিমিত্রিওস দিয়ামান্তাকোস   ফেডোর সেরনিচ   মিলোস ড্রিঙ্কিচ   আদ্রিয়ান লুনা   দাইসুকে সাকাই   জাউশুয়া সোতিরিও[৪৪]
  কোয়ামে পেপরাহ[৪৫]
  জাস্টিন ইমানুয়েল
মোহনবাগান   আরমান্দো সাদিকু   ব্রেন্ডন হ্যামিল   দিমিত্রি পেট্রাটোস   জনি কাউকো   হেক্টর ইউস্টে   জেসন কামিন্স   হুগো বৌমাস[৪৬]
মুম্বই সিটি   হোর্হে পেরেইরা দিয়াজ   ইয়োয়েল ভ্যান নিফ   জাকুব ভজতুচ   আলবার্তো নোগুয়েরা   তিরি   থায়ের ক্রুমা   ইকার গুয়ারোটক্সেনা[৪৭]   রোস্টিন গ্রিফিথস[৪৮]
  আবদেনাসের এল খায়াতি[৪৯]
  গ্রেগ স্টুয়ার্ট[৫০]
নর্থইস্ট ইউনাইটেড   রোমেন ফিলিপোটাক্স   মোহাম্মদ আলী বেমামর   হামজা রেগরাগুই   নেস্টর আলবিয়াচ   মিশেল জাবাকো   টমি জুরিক   ইবসন মেলো[৫১]
  ইয়াসের হামেদ[৫২]
ওড়িশা   দিয়েগো মরিসিও   রয় কৃষ্ণ   আহমেদ জাহুহ   মৌরতাদা ফল   কার্লোস দেলগাদো   সাই গডার্ড
পাঞ্জাব   উইলমার জর্ডান   মাদিহ তালাল   দিমিত্রিওস চ্যাটজিসিয়াস   লুকা মাজেন   হুয়ান মেরা   কিরণ চেমজোং

লিগ পর্ব

সম্পাদনা

পয়েন্ট তালিকা

সম্পাদনা
অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন
মোহনবাগান (L) ২২ ১৫ ৪৭ ২৬ +২১ ৪৮ প্লে-অফ সেমি-ফাইনাল এবং এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ২ গ্রুপ পর্বের জন্য
যোগ্যতা অর্জন
মুম্বই সিটি (C) ২২ ১৪ ৪২ ১৯ +২৩ ৪৭[ক] প্লে-অফ সেমি-ফাইনাল এবং সাফ ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য
যোগ্যতা অর্জন
গোয়া ২২ ১৩ ৩৯ ২১ +১৮ ৪৫ প্লে-অফ নক-আউট এবং সাফ ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য
যোগ্যতা অর্জন
ওড়িশা ২২ ১১ ৩৫ ২০ +১৫ ৩৯ প্লে-অফ নক-আউট এর জন্য যোগ্যতা অর্জন
কেরালা ব্লাস্টার্স ২২ ১০ ৩২ ৩১ +১ ৩৩
চেন্নাইয়িন ২২ ১১ ২৬ ৩৬ −১০ ২৭
নর্থইস্ট ইউনাইটেড ২২ ২৫ ৩২ −৭ ২৬
পাঞ্জাব ২২ ১০ ২৮ ৩৫ −৭ ২৪[খ]
ইস্টবেঙ্গল (S) ২২ ১০ ২৭ ২৯ −২ ২৪[খ] এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ২ প্রাথমিক পর্যায়ের জন্য যোগ্যতা অর্জন[গ]
১০ বেঙ্গালুরু ২২ ১০ ২০ ৩৪ −১৪ ২২
১১ জামশেদপুর ২২ ১১ ২৭ ৩২ −৫ ২১
১২ হায়দ্রাবাদ ২২ ১৬ ১০ ৪৩ −৩৩
উৎস: ইন্ডিয়ান সুপার লিগ
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: ১) পয়েন্ট; ২) হেড-টু-হেড পয়েন্ট; ৩) হেড-টু-হেড গোল পার্থক্য; ৪) হেড-টু-হেড গোল করা; ৫) গোল পার্থক্য; ৬) গোল সংখ্যা; ৭) ন্যায্য খেলা র‌্যাঙ্কিং; ৮) লটারি
(C) আইএসএল কাপ বিজয়ী; (L) লিগ প্রিমিয়ার্স শিল্ড বিজয়ী; (S) সুপার কাপ বিজয়ী।
টীকা:
  1. জামশেদপুর, মুম্বই সিটির বিপক্ষে, তাদের হোম ম্যাচে নিয়ম বহির্ভূতভাবে কম ভারতীয় খেলোয়াড় মাঠে নামানোর অভিযোগে ম্যাচটির ফলাফল মুম্বইয়ের পক্ষে দেওয়া হয় (৩‌–০)।
  2. হেড-টু-হেড পয়েন্ট: পাঞ্জাব ৪, ইস্টবেঙ্গল ১।
  3. ইস্টবেঙ্গল ২০২৪ সুপার কাপ জিতে এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ২ প্রাথমিক পর্যায়ের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছিল।[৫৩]
স্বাগতিক \ সফরকারী BEN CHE EAB GOA HYD JAM KER MBG MCI NEU OFC PFC
বেঙ্গালুরু ১–০ ২–১ ০–০ ২–১ ১–০ ১–০ ০–৪ ০–৪ ১–১ ০–০ ৩–৩
চেন্নাইয়িন ২–০ ১–১ ০–৩ ০–১ ২–১ ১–০ ১–৩ ০–২ ২–১ ২–১ ৫–১
ইস্টবেঙ্গল ২–১ ১–০ ১–২ ২–১ ০–০ ১–২ ১–৩ ০–১ ৫–০ ০–০ ০–০
গোয়া ২–১ ৪–১ ১–০ ৪–০ ১–০ ১–০ ০–১ ০–০ ০–২ ৩–২ ১–০
হায়দ্রাবাদ ১–১ ০–১ ০–১ ০–২ ০–৫ ১–৩ ০–২ ০–৩ ২–২ ০–৩ ০–২
জামশেদপুর ১–১ ২–২ ২–১ ২–৩ ১–০ ১–১ ২–৩ ০–৩* ১–১ ০–১ ০–০
কেরালা ব্লাস্টার্স ২–১ ৩–৩ ২–৪ ৪–২ ১–০ ১–০ ৩–৪ ২–০ ১–১ ২–১ ১–৩
মোহনবাগান ১–০ ২–৩ ২–২ ১–৪ ২–০ ৩–০ ০–১ ২–১ ৪–২ ২–২ ৩–১
মুম্বই সিটি ০–২ ৩–০ ০–০ ১–১ ১–১ ২–৩ ২–১ ২–১ ৪–১ ২–১ ২–১
নর্থইস্ট ইউনাইটেড ১–১ ৩–০ ৩–২ ১–১ ১–১ ২–১ ২–০ ১–৩ ১–২ ৩–০ ০–১
ওড়িশা ৩–২ ২–০ ২–১ ১–১ ৩–০ ৪–১ ২–১ ০–০ ২–২ ১–০ ৩–১
পাঞ্জাব ৩–১ ১–০ ৪–১ ৩–৩ ১–১ ০–৪ ০–১ ০–১ ২–৩ ১–১ ০–১
১৫ এপ্রিল ২০২৪ তারিখের ম্যাচ শেষের পর হালনাগাদকৃত। উৎস: ইন্ডিয়ান সুপার লিগ
রং: নীল = স্বাগতিক দল বিজয়ী; হলুদ = ড্র; লাল = সফরকারী দল বিজয়ী।
টীকা
  • * = জামশেদপুর, মুম্বই সিটির বিপক্ষে, তাদের হোম ম্যাচে নিয়ম বহির্ভূতভাবে কম ভারতীয় খেলোয়াড় মাঠে নামানোর অভিযোগে ম্যাচটির ফলাফল মুম্বইয়ের পক্ষে দেওয়া হয়।

রাউন্ড প্রতি ফলাফল

সম্পাদনা
দল ╲ রাউন্ড১০১১১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০২১২২
বেঙ্গালুরু
চেন্নাইয়িন
ইস্টবেঙ্গল
গোয়া
হায়দ্রাবাদ
জামশেদপুর
কেরালা ব্লাস্টার্স
মোহনবাগান
মুম্বই সিটি
নর্থইস্ট ইউনাইটেড
ওড়িশা
পাঞ্জাব
১৫ এপ্রিল ২০২৪ তারিখে খেলা ম্যাচ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত। উৎস: ইন্ডিয়ান সুপার লিগ
  = জয়;   = ড্র;   = হার

প্লে-অফ পর্ব

সম্পাদনা

বন্ধনী

সম্পাদনা
  নকআউট প্লে-অফ     সেমি-ফাইনাল     ফাইনাল
                           
         মোহনবাগান
   ওড়িশা (অ.স.প.)      ওড়িশা
   কেরালা          মোহনবাগান
       মুম্বই সিটি
         মুম্বই
   গোয়া      গোয়া
   চেন্নাইয়িন  

নকআউট প্লে-অফ

সম্পাদনা
দল ১ ফলাফল দল ২
ওড়িশা –১ (অ.স.প.) কেরালা
গোয়া –১ চেন্নাইয়িন

সেমি-ফাইনাল

সম্পাদনা
দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
মোহনবাগান –২ ওড়িশা ১–২ ২–০
দল ১ সমষ্টি দল ২ ১ম লেগ ২য় লেগ
মুম্বই –২ গোয়া ৩–২ ২–০

ফাইনাল

সম্পাদনা


আইএসএল কাপের ফাইনাল ম্যাচ
দল ১ ফলাফল দল ২
মোহনবাগান ১– মুম্বই সিটি

পরিসংখ্যান

সম্পাদনা
৪ মে ২০২৪ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।

সর্বোচ্চ গোলদাতা

সম্পাদনা
ক্রম খেলোয়াড় ক্লাব গোল[৫৪]
1   দিমিত্রিওস দিয়ামান্তাকোস কেরালা ব্লাস্টার্স ১৩
  রয় কৃষ্ণ ওড়িশা
  জেসন কামিংস মোহনবাগান এসজি ১২
  দিয়েগো মরিসিও ওড়িশা ১১
  নোয়া সাদাউই গোয়া
  হোর্হে পেরেইরা দিয়াজ মুম্বই সিটি ১০
  কার্লোস মার্টিনেজ গোয়া
  লালিয়ানজুয়ালা ছাংতে মুম্বই সিটি
  দিমিত্রি পেট্রাটোস মোহনবাগান এসজি
১০   উইলমার জর্ডান পাঞ্জাব
  আরমান্দো সাদিকু মোহনবাগান এসজি
  বিক্রম প্রতাপ সিং মুম্বই সিটি
  ক্লিটন সিলভা ইস্টবেঙ্গল
  লুকা মাজসেন পাঞ্জাব

হ্যাটট্রিক

সম্পাদনা
খেলোয়াড় ক্লাব বিপক্ষে ফলাফল তারিখ সূত্র
  ড্যানিয়েল চিমা চুকভু জামশেদপুর হায়দ্রাবাদ ৫–০ (আ) ২১ ডিসেম্বর ২০২৩ [৫৫]
  বিক্রম প্রতাপ সিং মুম্বই সিটি নর্থইস্ট ইউনাইটেড ৪–১ (হো) ১২ মার্চ ২০২৪ [৫৬]
  নূহ সাদাউয়ি গোয়া হায়দ্রাবাদ ৪–০ (হো) ৫ এপ্রিল ২০২৪ [৫৭]

অ্যাসিস্ট

সম্পাদনা
ক্রম খেলোয়াড় ক্লাব অ্যাসিস্ট[৫৮]
  মদিহ তালাল পাঞ্জাব ১০
  রাফায়েল ক্রিভেলারো চেন্নাইয়িন
  মনবীর সিং মোহনবাগান এসজি
  দিমিত্রি পেট্রাটোস মোহনবাগান এসজি
  লালিয়ানজুয়ালা ছাংতে মুম্বই সিটি
  অমেয় রানাওয়াদে ওড়িশা

  মুহাম্মদ ইয়াসির

গোয়া
  নূহ সাদাউয়ি গোয়া
  জয়েশ রানে মুম্বই সিটি
  আদ্রিয়ান লুনা কেরালা ব্লাস্টার্স
  জনি কাউকো মোহনবাগান এসজি
  সাহাল আব্দুল সামাদ মোহনবাগান এসজি
  পার্থিব গগৈ নর্থইস্ট ইউনাইটেড
  বিক্রম প্রতাপ সিং মুম্বই সিটি
  লিস্টন কোলাকো মোহনবাগান এসজি
  ব্র্যান্ডন ফার্নান্দেস গোয়া
  আহমদ জাহুহ ওড়িশা

গোল বাঁচানো

সম্পাদনা
ক্রম খেলোয়াড় ক্লাব গোল বাঁচানো[৫৯]
  ফুরবা লাচেনপা মুম্বই সিটি
  অমরিন্দর সিং ওড়িশা
  বিশাল কৈথ মোহনবাগান এসজি
  আর্শদীপ সিং গোয়া
  প্রভসুখন সিং গিল ইস্টবেঙ্গল
  রেহেনেশ টি. পি. জামশেদপুর
  গুরপ্রীত সিং সান্ধু বেঙ্গালুরু
  রবি কুমার পাঞ্জাব
  মিরশাদ মিছু নর্থইস্ট ইউনাইটেড
  দেবজিত মজুমদার চেন্নাইয়িন

শৃঙ্খলা

সম্পাদনা

খেলোয়াড়

সম্পাদনা
  • সর্বাধিক হলুদ কার্ড: ৬৯[৬২]
    • ইস্টবেঙ্গল
  • সর্বাধিক লাল কার্ড: [৬৩]
    • মুম্বই সিটি

দর্শক উপস্থিতি

সম্পাদনা

নিয়মিত মৌসুম পরিসংখ্যান সারণী

সম্পাদনা
অব দল মোট সর্বোচ্চ সর্বনিম্ন গড় পরিবর্তন
মোহনবাগান এসজি ৩৮২,৬৯৫ ৬১,৭৭৭ ২২,০৪৮ ৩৪,৭৯০ +৩৮.৮%
কেরালা ব্লাস্টার্স ৩,০২,৭০৭ ৩৪,৯৮১ ১৭,৬৫০ ২৭,৫১৯ −১.১%
ইস্টবেঙ্গল ১,৭৯,১৩০ ৫৯,৮৪৫ ১,৫০০ ১৬,২৮৫ +১২.৮%
জামশেদপুর ১,৬৪,৯৫৭ ২৩,১৯০ ৭,১৩৪ ১৪,৯৯৬ +২.৩%
গোয়া ৯৫,০৬৪ ১২,৭০৬ ৫,৩২৬ ৮,৬৪২ −১৫.৪%
বেঙ্গালুরু ৮৮,৬৪৪ ২৭,৯২৩ ২,৩২৩ ৮,০৫৯ −২৯.১%
চেন্নাইয়িন ৬৭,৬০৭ ৮,৪৬৩ ৩,৫২১ ৬,১৪৬ −২৯.৪%
ওড়িশা ৬৪,৯৭৮ ৭,৬২৪ ৪,১০২ ৫,৯০৭ −৪.৭%
নর্থইস্ট ইউনাইটেড ৫৯,৪৪৩ ১০,১৯৩ ২,৮৯৩ ৫,৪০৪ +১১৯.৯%
১০ মুম্বই সিটি ৪৬,২৩৬ ৬,৯১১ ১,৮১৬ ৪,২০৩ −১৫.৪%
১১ পাঞ্জাব ৩৩,৭৯৫ ৫,৯৯২ ২,০১৬ ৩,৭৫৫ +১৭৮.৮%††
১২ হায়দ্রাবাদ ২৩,৮৯৯ ৭,২০৯ ৩৮০ ২,১৭৩ −৬৯.৮%
লীগ সর্বমোট ১৫,০৯,১৩১ ৬১,৭৭৭ ৩৮০ ১১,৬০৯ −৪.০%

সর্বশেষ সংস্করণ: ১৫ এপ্রিল ২০২৪
উৎস: ইএসপিএন.ইন
নোট:
মোহনবাগান এসজি আগের মৌসুমে এটিকে মোহনবাগান এফসি হিসাবে খেলেছিল।
††পাঞ্জাব আই-লিগ খেলেছিল ২০২২–২৩ মৌসুমে

হোম ম্যাচ অনুযায়ী দর্শক উপস্থিতি

সম্পাদনা
দল \ হোম ম্যাচ ১০ ১১ মোট
মোহনবাগান এসজি ২৭,৩২৫ ২৯,৫৫২ ২২,০৪৮ ২৯,৯৮৪ ৩০,০১৫ ৫৭,৯৮৩ ৩০,৮৯৯ ২৯,৮৮৮ ৩১,৩৩২ ৩১,৮৯২ ৬১,৭৭৭ ৩,৮২,৬৯৫
কেরালা ব্লাস্টার্স ৩৪,৯১১ ৩৪,৫১৮ ৩৩,৮৩০ ২৬,৯০১ ৩০,৩১১ ২২,৭১৫ ৩৪,৯৮১ ১৭,৬৫০ ১৮,৮৫৭ ২৪,৬১৫ ২৩,৪১৮ ৩,০২,৭০৭
ইস্টবেঙ্গল ১১,১৪৩ ১১,৫৭৭ ১,৫০০[ক] ১৬,৫৭৫ ৬,৯৭৩ ১৪,৯৭৭ ১২,২২৬ ১১,১৭২ ১৩,১৫৩ ৫৯,৮৪৫ ১৯,৯৮৯ ১,৭৯,১৩০
জামশেদপুর ২১,২৩৮ ২১,৯৬২ ২৩,১৯০ ১৯,২৯৬ ৭,১৩৪ ১০,১৩২ ১২,৬০৫ ১৫,৬১১ ১৪,৮২৬ ১০,৩৩১ ৮,৬৩২ ১,৬৪,৯৫৭
গোয়া ৮,৭৩৪ ৮,৯২৩ ৮,১২৭ ১২,৭০৬ ১১,৭৪৫ ৮,৬৭৪ ৭,৩২১ ৫,৮৫৬ ৭,৩৮৪ ৫,৩২৬ ১০,২৬৮ ৯৫,০৬৪
বেঙ্গালুরু ৫,৯১৩ ৭,১৪৩ ৫,৯২৩ ৭,৬৪১ ৫,২৮২ ৫,২৩৩ ৪,২৩১ ২,৩২৩ ২৭,৯২৩ ৭,৮২৩ ৯,২৩৯ ৮৮,৬৪৪
চেন্নাইয়িন ৮,৪৬৩ ৬,৫২৩ ৭,২৫৪ ৬,৩২৯ ৫,৯২৪ ৮,১৬২ ৫,১৩৩ ৩,৫২১ ৫,২৯৭ ৪,১০৭ ৬,৮৯৪ ৬৭,৬০৭
ওড়িশা ৪,১০২ ৭,১২০ ৭,৬২৪ ৬,৮১৭ ৬,৪৪৭ ৫,৭৪৬ ৪,৭৪৮ ৫,৫৪৩ ৫,২৩৬ ৭,৩৪৮ ৪,২৪৭ ৬৪,৯৭৮
নর্থইস্ট ইউনাইটেড ৭,৩২৯ ৫,৩৭৯ ৭,৭৩৯ ১০,১৯৩ ৪,৭৭৩ ৪,৩৭৯ ৪,৭৩৯ ৩,৫৯৭ ৪,৩৯৭ ৪,০২৫ ২,৮৯৩ ৫৯,৪৪৩
মুম্বই সিটি ৬,৯১১ ৩,৩২৭ ১,৮১৬ ৩,৪৮৮ ৬,২৮২ ৩,৮৩৯ ২,০৮৭ ৫,৮৬৬ ৪,২৭১ ৩,১১৮ ৫,২৩১ ৪৬,২৩৬
পাঞ্জাব ৫,৯১৪ ৩,৯৪৬ ৫,৯৯২ ২,৮৭৬ ৩,৭৩৪ ৩,৯৪৫ ২,২৩০ ৩,১৪২ ২,০১৬ [খ] [খ] ৩৩,৭৫৯
হায়দ্রাবাদ ৪,৬৭৬ ৭,২০৯ ১,৬৫০[গ] ২,১২৮ ৩৮০ ৮৩৮ ১,৩৪৮ ৪৬৮ ৪২৬ ৩,১১১ ১,৬৬৫ ২৩,৮৯৯
  1. কলকাতায় দুর্গাপূজা উদযাপনের কারণে, ইস্টবেঙ্গল গোয়ার বিরুদ্ধে তাদের হোম ম্যাচ ভুবনেশ্বরের কলিঙ্গ স্টেডিয়ামে খেলেছিল।[৬৪]
  2. দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছিল।[৬৫]
  3. ২০২৩ সালের তেলেঙ্গানা বিধানসভা নির্বাচনের কারণে, হায়দ্রাবাদ মোহনবাগানের বিরুদ্ধে তাদের হোম ম্যাচ ভুবনেশ্বরের কলিঙ্গ স্টেডিয়ামে খেলেছিল।[৬৬]

দর্শক উপস্থিতি:   সর্বোচ্চ   নিম্নতম

প্লে অফ

সম্পাদনা
ম্যাচ দর্শক উপস্থিতি
১ম নকআউট (কলিঙ্গ) ৭,৪৩১
২য় নকআউট (ফাতোরদা) ১২,৪৬৯
১ম সেমি-ফাইনাল প্রথম লেগ (কলিঙ্গ) ৯,৪১৭
দ্বিতীয় লেগ (ভিওয়াইবিকে) ৬২,০০৭
২য় সেমি-ফাইনাল প্রথম লেগ (ফাতোরদা) ১৭,২১৬
দ্বিতীয় লেগ (এমএফএ) ৬,৯৫৩
ফাইনাল (ভিওয়াইবিকে) ৬২,০০৭
মোট ১,৭৭,৫০০
গড় ২৫,৩৫৮

পুরস্কার

সম্পাদনা

মৌসুম পুরস্কার

সম্পাদনা
পুরস্কার বিজয়ী ক্লাব
গোল্ডেন গ্লাভস   ফুরবা লাচেনপা মুম্বই সিটি এফসি
গোল্ডেন বুট   দিমিত্রিওস দিয়ামান্তাকোস কেরালা ব্লাস্টার্স এফসি
গোল্ডেন বল   দিমিত্রি পেট্রাটোস মোহনবাগান সুপার জায়ান্ট
লিগের উদীয়মান খেলোয়াড়   বিক্রম প্রতাপ সিং মুম্বই সিটি এফসি
সেরা পিচ জামশেদপুর এফসি
গ্রাসরুট অ্যাওয়ার্ড এফসি গোয়া
সেরা এলিট ইয়ুথ প্রোগ্রাম বেঙ্গালুরু এফসি
আইএসএল কাপ বিজয়ী মুম্বই সিটি এফসি
আইএসএল লিগ জয়ী মোহনবাগান সুপার জায়ান্ট
সূত্র: আইএসএল

ম্যাচ পুরস্কার

সম্পাদনা

দিমিত্রি পেট্রাটোস সর্বাধিক প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচের পুরষ্কার জিতেছে। (৫)

ম্যাচসেরা
ম্যাচ ম্যাচসেরা ম্যাচ ম্যাচসেরা ম্যাচ ম্যাচসেরা ম্যাচ ম্যাচসেরা
খেলোয়াড় ক্লাব খেলোয়াড় ক্লাব খেলোয়াড় ক্লাব খেলোয়াড় ক্লাব
  আদ্রিয়ান লুনা কেরালা ব্লাস্টার্স ৪০   সুরেশ সিং ওয়ানজাম বেঙ্গালুরু ৭৯   মনবীর সিং মোহনবাগান এসজি ১১৮   সাউল ক্রেসপো ইস্টবেঙ্গল
  জেরি মাউইহমিংথাঙ্গা ওড়িশা ৪১   আহমদ জাহুহ ওড়িশা ৮০   ইমরান খান জামশেদপুর ১১৯   কনর শিল্ডস (৪) চেন্নাইয়িন
  দিমিত্রি পেট্রাটোস মোহনবাগান এসজি ৪২   ব্রেন্ডন হ্যামিল মোহনবাগান এসজি ৮১   উইলমার জর্ডান পাঞ্জাব ১২০   নূহ সাদাউয়ি (৩) গোয়া
  হোর্হে পেরেইরা দিয়াজ মুম্বই সিটি ৪৩   সন্দেশ ঝিঙ্গান (২) গোয়া ৮২   ইকার গুয়ারোটসেনা মুম্বই সিটি ১২১   অভিষেক সূর্যবংশী মোহনবাগান এসজি
  এলসিনহো জামশেদপুর ৪৪   নন্দকুমার সেকার ইস্টবেঙ্গল ৮৩   দিমিত্রি পেট্রাটোস (৩) মোহনবাগান এসজি ১২২   নেস্টর আলবিয়াচ (২) নর্থইস্ট ইউনাইটেড
  হুগো বৌমুস মোহনবাগান এসজি ৪৫   আহমদ জাহুহ (২) ওড়িশা ৮৪   জেরেমি মানজোরো (২) জামশেদপুর ১২৩   প্রভসুখন সিং গিল ইস্টবেঙ্গল
  হোর্হে পেরেইরা দিয়াজ (২) মুম্বই সিটি ৪৬   লালদিনপুইয়া জামশেদপুর ৮৫   আকাশ সাঙ্গওয়ান চেন্নাইয়িন ১২৪   লালিয়ানজুয়ালা ছাংতে (৩) মুম্বই সিটি
  নেস্টর আলবিয়াচ নর্থইস্ট ইউনাইটেড ৪৭   গ্রেগ স্টুয়ার্ট মুম্বই সিটি ৮৬   জনি কাউকো মোহনবাগান এসজি ১২৫   নূহ সাদাউয়ি (৪) গোয়া
  ক্লিটন সিলভা ইস্ট বেঙ্গল ৪৮   সুরেশ মৈতৈ পাঞ্জাব ৮৭   ক্লিটন সিলভা (২) ইস্টবেঙ্গল ১২৬   অঙ্কিত মুখোপাধ্যায় চেন্নাইয়িন
১০   আদ্রিয়ান লুনা (২) কেরালা ব্লাস্টার্স ৪৯   পেত্তেরি পেন্নানেন হায়দ্রাবাদ ৮৮   বিক্রম প্রতাপ সিং (২) মুম্বই সিটি ১২৭   মদিহ তালাল (৪) পাঞ্জাব
১১   ওদেই ওনাইন্ডিয়া গোয়া ৫০   রোস্টিন গ্রিফিথস মুম্বই সিটি ৮৯   মিচেল জাবাকো (৩) নর্থইস্ট ইউনাইটেড ১২৮   মনবীর সিং (২) মোহনবাগান এসজি
১২   রায়ান উইলিয়ামস বেঙ্গালুরু ৫১   রাফায়েল ক্রিভেলারো (২) চেন্নাইয়িন ৯০   জেরেমি মানজোরো (৩) জামশেদপুর ১২৯   মুহাম্মদ আইমেন (২) কেরালা ব্লাস্টার্স
১৩   রেই তাচিকাওয়া জামশেদপুর ৫২   মুহাম্মদ আইমেন কেরালা ব্লাস্টার্স ৯১   বিপিন সিং মুম্বই সিটি ১৩০   পার্থিব গগৈ নর্থইস্ট ইউনাইটেড
১৪   মোহাম্মদ আলী বেমাম্মার নর্থইস্ট ইউনাইটেড ৫৩   অনিরুদ্ধ থাপা মোহনবাগান এসজি ৯২   শুভাশিস বসু মোহনবাগান এসজি ১৩১   কার্লোস মার্টিনেজ (২) গোয়া
১৫   নূহ সাদাউয়ি গোয়া ৫৪   জাভি হার্নান্দেজ বেঙ্গালুরু ৯৩   শিবশক্তি নারায়ণন বেঙ্গালুরু ১৩২   দিমিত্রি পেট্রাটোস (৫) মোহনবাগান এসজি
১৬   সাহাল আব্দুল সামাদ মোহনবাগান এসজি ৫৫   হিজাজি মাহের ইস্টবেঙ্গল ৯৪   দিমিত্রিওস দিয়ামান্তাকোস কেরালা ব্লাস্টার্স ১৩৩ (নকআউট ১)   আহমদ জাহুহ (৩) ওড়িশা
১৭   হোর্হে পেরেইরা দিয়াজ (৩) মুম্বই সিটি ৫৬   ইসাক ভানলালরুয়াতফেলা ওড়িশা ৯৫   নন্দকুমার সেকার (২) ইস্টবেঙ্গল ১৩৪ (নকআউট ২)   ব্র্যান্ডন ফার্নান্দেস গোয়া
১৮   ভেক্টর রদ্রিগেজ গোয়া ৫৭   মদিহ তালাল পাঞ্জাব ৯৬   মদিহ তালাল (৩) পাঞ্জাব ১৩৫ (সেমি-ফাইনাল ১)   রয় কৃষ্ণ (৩) ওড়িশা
১৯   মিচেল জাবাকো নর্থইস্ট ইউনাইটেড ৫৮   গ্রেগ স্টুয়ার্ট (২) মুম্বই সিটি ৯৭   তিরি মুম্বই সিটি ১৩৬ (সেমি-ফাইনাল ২)   লালিয়ানজুয়ালা ছাংতে (৪) মুম্বই সিটি
২০   রবি কুমার পাঞ্জাব ৫৯   ড্যানিয়েল চিমা চুকভু জামশেদপুর ৯৮   প্রিন্সটন রেবেলো ওড়িশা ১৩৭ (সেমি-ফাইনাল ৩)   মনবীর সিং (৩) মোহনবাগান এসজি
২১   কনর শিল্ডস চেন্নাইয়িন ৬০   সৌভিক চক্রবর্তী ইস্টবেঙ্গল ৯৯   মনবীর সিং (২) মোহনবাগান এসজি ১৩৮ (সেমি-ফাইনাল ৪)   রাহুল ভেকে মুম্বই সিটি
২২   জয় গুপ্ত গোয়া ৬১   কার্ল ম্যাকহাগ গোয়া ১০০   জয়েশ রানে মুম্বই সিটি ১৩৯ (ফাইনাল)   আপুইয়া (২) মুম্বই সিটি
২৩   মিচেল জাবাকো (২) নর্থইস্ট ইউনাইটেড ৬২   আশির আখতার নর্থইস্ট ইউনাইটেড ১০১   জাভি হার্নান্দেজ (২) বেঙ্গালুরু
২৪   আদ্রিয়ান লুনা (৩) কেরালা ব্লাস্টার্স ৬৩   কোয়ামে পেপরাহ কেরালা ব্লাস্টার্স ১০২   কনর শিল্ডস (৩) চেন্নাইয়িন
২৫   আপুইয়া মুম্বই সিটি ৬৪   ইসাক ভানলালরুয়াতফেলা (২) ওড়িশা ১০৩   মাকান চোথে হায়দ্রাবাদ
২৬   কনর শিল্ডস (২) চেন্নাইয়িন ৬৫   মার্কো লেস্কোভিচ কেরালা ব্লাস্টার্স ১০৪   নূহ সাদাউয়ি (২) গোয়া
২৭   অমেয় রানাওয়াদে ওড়িশা ৬৬   বিক্রম প্রতাপ সিং মুম্বই সিটি ১০৫   দিমিত্রিওস চাটজিসায়াস পাঞ্জাব
২৮   লিস্টন কোলাকো মোহনবাগান এসজি ৬৭   রয় কৃষ্ণ ওড়িশা ১০৬   আলবার্তো নোগুয়েরা মুম্বই সিটি
২৯   লালিয়ানজুয়ালা ছাংতে মুম্বই সিটি ৬৮   ইয়াসের হামেদ নর্থইস্ট ইউনাইটেড ১০৭   অ্যালেক্স সাজি হায়দ্রাবাদ
৩০   কার্লোস দেলগাদো ওড়িশা ৬৯   আশির আখতার (২) নর্থইস্ট ইউনাইটেড ১০৮   দিমিত্রি পেট্রাটোস (৪) মোহনবাগান এসজি
৩১   রায়ান উইলিয়ামস (২) বেঙ্গালুরু ৭০   কার্লোস মার্টিনেজ গোয়া ১০৯   কার্ল ম্যাকহাগ (২) গোয়া
৩২   শচীন সুরেশ কেরালা ব্লাস্টার্স ৭১   রয় কৃষ্ণ (২) ওড়িশা ১১০   বিক্রম প্রতাপ সিং (৩) মুম্বই সিটি
৩৩   জয় গুপ্ত (২) গোয়া ৭২   মদিহ তালাল (২) পাঞ্জাব ১১১   আরমান্দো সাদিকু মোহনবাগান এসজি
৩৪   হুয়ান মেরা পাঞ্জাব ৭৩   দিমিত্রি পেট্রাটোস (২) মোহনবাগান এসজি ১১২   বরিস সিং গোয়া
৩৫   রাফায়েল ক্রিভেলারো চেন্নাইয়িন ৭৪   জেরেমি মানজোরো জামশেদপুর ১১৩   শঙ্কর সাম্পিঙ্গীরাজ বেঙ্গালুরু
৩৬   মিলোস ড্রিনচিচ কেরালা ব্লাস্টার্স ৭৫   দিয়েগো মরিসিও ওড়িশা ১১৪   হাভিয়ের সিভেরিও জামশেদপুর
৩৭   মোহাম্মদ আলী বেমাম্মার (২) নর্থইস্ট ইউনাইটেড ৭৬   সুনীল ছেত্রী বেঙ্গালুরু ১১৫   জর্ডান মারে (২) চেন্নাইয়িন
৩৮   সন্দেশ ঝিঙ্গান গোয়া ৭৭   ওদেই ওনাইন্ডিয়া (২) গোয়া ১১৬   লালিয়ানজুয়ালা ছাংতে (২) মুম্বই সিটি
৩৯   জর্ডান মারে চেন্নাইয়িন ৭৮   টমি জুরিক নর্থইস্ট ইউনাইটেড ১১৭   দিয়েগো মরিসিও (২) ওড়িশা

মাসিক পুরস্কার

সম্পাদনা

সাপ্তাহিক পুরস্কার

সম্পাদনা

সাপ্তাহিক সেরা গোল

সম্পাদনা

সাপ্তাহিক সেরা একাদশ

সম্পাদনা
ম্যাচ সাপ্তাহিক হিসেবে সেরা একাদশ
ম্যাচ সাপ্তাহিক গোলরক্ষক ডিফেন্ডার মিডফিল্ডার ফরোয়ার্ড কোচ রেফ.
  রেহেনেশ টি. পি. (জামশেদপুর)   অমেয় রানাওয়াদে (ওড়িশা)
  এলসিনহো (জামশেদপুর)
  মৌরতাদা ফল (ওড়িশা)
  সাহাল আব্দুল সামাদ (মোহনবাগান এসজি)
  লেনি রদ্রিগেজ (ওড়িশা)
  সাউল ক্রেসপো (ইস্টবেঙ্গল)
  আদ্রিয়ান লুনা (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  পার্থিব গগৈ (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)
  হোর্হে পেরেইরা দিয়াজ (মুম্বই সিটি)
  দিমিত্রি পেট্রাটোস (মোহনবাগান এসজি)
  সার্জিও লোবেরা (ওড়িশা) [৯৬]
  শচীন সুরেশ (কেরালা ব্লাস্টার্স)   মিলোস ড্রিনচিচ (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  রোস্টিন গ্রিফিথস (মুম্বই সিটি)
  আশির আখতার (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)
  পার্থিব গগৈ (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)
  ফাল্গুনী সিং (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)
  হিতেশ শর্মা (হায়দরাবাদ)
  হুগো বৌমুস (মোহনবাগান এসজি)
  আদ্রিয়ান লুনা (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  ক্লিটন সিলভা (ইস্টবেঙ্গল)
  কার্লোস মার্টিনেজ (গোয়া)
  হুয়ান পেদ্রো বেনালি (নর্থইস্ট ইউনাইটেড) [৯৭]
  রেহেনেশ টি. পি. (জামশেদপুর)   জয় গুপ্ত (গোয়া)
  মৌরতাদা ফল (ওড়িশা)
  লালদিনপুইয়া (জামশেদপুর)
  নূহ সাদাউয়ি (গোয়া)
  জাভি হার্নান্দেজ (বেঙ্গালুরু)
  সাহাল আব্দুল সামাদ (মোহনবাগান এসজি)
  রেই তাচিকাওয়া (জামশেদপুর)
  পার্থিব গগৈ (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)
  দিমিত্রি পেট্রাটোস (মোহনবাগান এসজি)
  মহেশ নাওরেম (ইস্টবেঙ্গল)
  হুয়ান ফেরান্দো (মোহনবাগান এসজি) [৯৮]
  রবি কুমার (পাঞ্জাব)   সন্দেশ ঝিঙ্গান (গোয়া)
  মিচেল জাবাকো (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)
  নিখিল পূজারি (হায়দ্রাবাদ)
  আদ্রিয়ান লুনা (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  রেই তাচিকাওয়া (জামসেদপুর)
  অমরজিৎ কিয়াম (পাঞ্জাব)
  দানিশ ফারুক (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  ভেক্টর রদ্রিগেজ (গোয়া)
  নেস্টর আলবিয়াচ (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)
  কনর শিল্ডস (চেন্নাইয়িন)
  মানোলো মার্কেজ (গোয়া) [৯৯]
  গুরপ্রীত সিং সান্ধু (বেঙ্গালুরু)   জয় গুপ্ত (গোয়া)
  মিচেল জাবাকো (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)
  স্লাভকো দামজানোভিচ (বেঙ্গালুরু)
  সন্দীপ সিং (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  আদ্রিয়ান লুনা (কেরালা ব্লাস্টার্স) (অধি.)
  ক্রিস্টিয়ান বাত্তোচ্চিও (চেন্নাইয়িন)
  রাফায়েল ক্রিভেলারো (চেন্নাইয়িন)
  জো নোলস (হায়দ্রাবাদ)
  কনর শিল্ডস (চেন্নাইয়িন)
  দিমিত্রিওস দিয়ামান্তাকোস (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  ওয়েন কোয়েল (চেন্নাইয়িন) [১০০]
  শচীন সুরেশ (কেরালা ব্লাস্টার্স)   জয় গুপ্ত (গোয়া)
  অমেয় রানাওয়াদে (ওড়িশা)
  নিখিল পূজারি (হায়দ্রাবাদ)
  রাওলিন বোর্হেস (গোয়া)
  লালেংমাউইয়া রালতে (মুম্বই সিটি)
  পুইতে (ওড়িশা)
  আদ্রিয়ান লুনা (কেরালা ব্লাস্টার্স) (অধি.)
  লিস্টন কোলাকো (মোহনবাগান এসজি)
  হোর্হে পেরেইরা দিয়াজ (মুম্বই সিটি)
  রায়ান উইলিয়ামস (বেঙ্গালুরু)
  সার্জিও লোবেরা (ওড়িশা) [১০১]
  গুরপ্রীত সিং সান্ধু (বেঙ্গালুরু)   জয় গুপ্ত (গোয়া)
  সন্দেশ ঝিঙ্গান (গোয়া) (অধি.)
  মিলোস ড্রিনচিচ (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  নিখিল পূজারি (হায়দ্রাবাদ)
  আদ্রিয়ান লুনা (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  রাফায়েল ক্রিভেলারো (চেন্নাইয়িন)
  রাওলিন বোর্হেস (গোয়া)
  বরিস সিং (গোয়া)
  ভিক্টর রদ্রিগেজ (গোয়া)
  মহেশ নাওরেম (ইস্টবেঙ্গল)
  মানোলো মার্কেজ (গোয়া) [১০২]
  আর্শদীপ সিং (গোয়া)   জয় গুপ্ত (গোয়া)
  ব্রেন্ডন হ্যামিল (মোহনবাগান এসজি)
  ওদেই ওনাইন্ডিয়া (গোয়া)
  আশিস রায় (মোহনবাগান এসজি)
  নন্দকুমার সেকার (ইস্টবেঙ্গল)
  আহমদ জাহুহ (ওড়িশা)
  মহেশ নাওরেম (ইস্টবেঙ্গল)
  ক্লিটন সিলভা (ইস্টবেঙ্গল) (অধি.)
  দিমিত্রিওস দিয়ামান্তাকোস (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  জর্ডান মারে (চেন্নাইয়িন)
  কার্লেস কুয়াদ্রাত (ইস্টবেঙ্গল) [১০৩]
  ফুরবা লাচেনপা (মুম্বই সিটি)   আকাশ মিশ্র (মুম্বই সিটি)
  সুরেশ মৈতৈ (পাঞ্জাব)
  লালদিনপুইয়া (জামশেদপুর)
  নিশু কুমার (ইস্টবেঙ্গল)
  আহমদ জাহুহ (ওড়িশা) (অধি.)
  গ্রেগ স্টুয়ার্ট (মুম্বই সিটি)
  পেত্তেরি পেন্নানেন (হায়দ্রাবাদ)
  এল খায়াতি (মুম্বই সিটি)
  নিনথোই (চেন্নাইয়িন)
  আরমান্দো সাদিকু (মোহনবাগান এসজি)
  অ্যান্থনি ফার্নান্ডেজ (মুম্বই সিটি) [১০৪]
১০   ফুরবা লাচেনপা (মুম্বই সিটি)   নওচা সিং (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  শুভাশিস বসু (মোহনবাগান এসজি)
  হিজাজি মাহের (ইস্টবেঙ্গল)
  মৌরতাদা ফল (ওড়িশা)
  অমেয় রানাওয়াদে (ওড়িশা)
  মুহাম্মদ আইমেন (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  আহমদ জাহুহ (ওড়িশা)
  রাফায়েল ক্রিভেলারো (চেন্নাইয়িন)
  রয় কৃষ্ণ (ওড়িশা) (অধি.)
  জাভি হার্নান্দেজ (বেঙ্গালুরু)
  সার্জিও লোবেরা (ওড়িশা) [১০৪]
১১   অমরিন্দর সিং (ওড়িশা)   জেসেল কার্নেইরো (বেঙ্গালুরু)
  দিমিত্রিওস চাটজিসায়াস (পাঞ্জাব)
  মার্কো লেস্কোভিচ (কেরালা ব্লাস্টার্স) (অধি.)
  লালদিনপুইয়া (জামশেদপুর)
  গ্রেগ স্টুয়ার্ট (মুম্বই সিটি)
  মদিহ তালাল (পাঞ্জাব)
  নূহ সাদাউয়ি (গোয়া)
  কোয়ামে পেপরাহ (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  ড্যানিয়েল চিমা (জামশেদপুর)
  দিমিত্রিওস দিয়ামান্তাকোস (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  স্কট কুপার (জামশেদপুর) [১০৫]
১২   অমরিন্দর সিং (ওড়িশা)   তিরি (মুম্বই সিটি)
  মার্কো লেস্কোভিচ (কেরালা ব্লাস্টার্স) (অধি.)
  মিলোস ড্রিনচিচ (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  ইসাক রালতে (ওড়িশা)
  লালেংমাউইয়া রালতে (মুম্বই সিটি)
  আহমদ জাহুহ (ওড়িশা)
  মোহাম্মদ আজহার (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  বিক্রম প্রতাপ সিং (মুম্বই সিটি)
  দিমিত্রিওস দিয়ামান্তাকোস (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  রয় কৃষ্ণ (ওড়িশা)
  ইভান ভুকোমানোভিচ (কেরালা ব্লাস্টার্স) [১০৬]
১৩   অমরিন্দর সিং (ওড়িশা)   জয় গুপ্ত (গোয়া)
  দিমিত্রিওস চাটজিসায়াস (পাঞ্জাব)
  প্রভাত লাকরা (জামশেদপুর)
  ইমরান খান (জামশেদপুর)
  মদিহ তালাল (পাঞ্জাব)
  জেরেমি মানজোরো (জামশেদপুর)
  অজয় ছেত্রী (ইস্টবেঙ্গল)
  দিমিত্রি পেট্রাটোস (মোহনবাগান এসজি)
  কার্লোস মার্টিনেজ (গোয়া)
  রয় কৃষ্ণ (ওড়িশা) (অধি.)
  খালিদ জামিল (জামশেদপুর)
১৪   গুরপ্রীত সিং সান্ধু (বেঙ্গালুরু)   জয় গুপ্ত (গোয়া)
  শুভাশিস বসু (মোহনবাগান এসজি) (অধি.)
  নিখিল পূজারি (বেঙ্গালুরু)
  নেস্টর আলবিয়াচ (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)
  সুরেশ ওয়াংজাম (বেঙ্গালুরু)
  আহমদ জাহুহ (ওড়িশা)
  মনবীর সিং (মোহনবাগান এসজি)
  রয় কৃষ্ণ (ওড়িশা)
  টমি জুরিক (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)
  দিয়েগো মরিসিও (ওড়িশা)
  জেরার্ড জারাগোজা (বেঙ্গালুরু)
১৫   রেহেনেশ টি. পি. (জামশেদপুর)   আকাশ সাঙ্গওয়ান (চেন্নাইয়িন)
  রায়ান এডওয়ার্ডস (চেন্নাইয়িন) (অধি.)
  রাহুল ভেকে (মুম্বই সিটি)
  মোহাম্মদ সানান (জামশেদপুর)
  জেরেমি মানজোরো (জামশেদপুর)
  জনি কাউকো (মোহনবাগান এসজি)
  বিক্রম প্রতাপ (মুম্বই সিটি)
  দিমিত্রি পেট্রাটোস (মোহনবাগান এসজি)
  উইলমার জর্ডান (পাঞ্জাব)
  ইকার গুয়ারোটসেনা (মুম্বই সিটি)
  আন্তোনিও লোপেজ হাবাস (মোহনবাগান এসজি) [১০৭]
১৬   মিরশাদ মিছু (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)   শুভাশিস বসু (মোহনবাগান এসজি)
  আশির আখতার (নর্থইস্ট ইউনাইটেড)
  প্রভাত লাকরা (জামশেদপুর)
  আলবার্তো নোগুয়েরা (মুম্বই সিটি)
  দীপক টাংরি (মোহনবাগান এসজি)
  জেরেমি মানজোরো (জামশেদপুর)
  জাভি হার্নান্দেজ (বেঙ্গালুরু)
  দাইসুকে সাকাই (কেরালা ব্লাস্টার্স)
  দিমিত্রিওস দিয়ামান্তাকোস (কেরালা ব্লাস্টার্স) (অধি.)
  বিপিন সিং (মুম্বই সিটি)
  ইভান ভুকোমানোভিচ (কেরালা ব্লাস্টার্স) [১০৮]
১৭   প্রভসুখন সিং গিল (ইস্টবেঙ্গল)   শুভাশিস বসু (মোহনবাগান এসজি) (অধি.)
  হিজাজি মাহের (ইস্টবেঙ্গল)
  দিমিত্রিওস চাটজিসায়াস (পাঞ্জাব)
  নন্দকুমার সেকার (ইস্টবেঙ্গল)
  মুহাম্মদ ইয়াসির (গোয়া)
  আহমদ জাহুহ (ওড়িশা)
  মনবীর সিং (মোহনবাগান এসজি)
  বিক্রম প্রতাপ (মুম্বই সিটি)
  লুকা মাজসেন (পাঞ্জাব)
  মদিহ তালাল (পাঞ্জাব)
  আন্তোনিও লোপেজ হাবাস (মোহনবাগান এসজি)
১৮   দেবজিত মজুমদার (চেন্নাইয়িন)   মুহাম্মদ উয়েস (জামশেদপুর)
  আলেকজান্ডার জোভানোভিচ (বেঙ্গালুরু)
  অঙ্কিত মুখোপাধ্যায় (চেন্নাইয়িন)
  মদিহ তালাল (পাঞ্জাব)