একটি ইলেকট্রন এবং একটি প্রোটন সহ হাইড্রোজেন পরমাণু (কেন্দ্রে)। যার একটি ইলেকট্রন অপসারণ করলে তা ক্যাটায়নে পরিণত হয় (বামে)। আর এতে একটি ইলেকট্রন প্রবেশ করালে তা অ্যানায়নে পরিণত হয় (ডানে)।

আয়ন (/ˈɒn, -ən/)[১]

ধণাত্মক(+) বা ঋণাত্মক(–) আধান যুক্ত পরমাণু বা যৌগমূলক কে আয়ন বলা হয়।

সাধারণত সব পরমাণুই আধান নিরপেক্ষ। কারণ তাদের মধ্যে যতটি ধনাত্মক চার্জ যুক্ত প্রোটন থাকে ঠিক ততটিই ঋণাত্মক চার্জ যুক্ত ইলেকট্রন থাকে। তাই সামগ্রিক ভাবে তারা আধান নিরপেক্ষ। তবে প্রতিটি পরমাণুই তাদের নিকটস্থ নিষ্ক্রিয় গ্যাসের স্থিতিশীল ইলেকট্রন বিন্যাস অর্জন করতে চায়। তাই যৌগ গঠন কালে তারা ইলেকট্রন গ্রহণ বা অপসারণ করে।

ইলেকট্রন গ্রহণ বা অপসারণ করার ফলে ইলেকট্রন এবং প্রোটনের সাম্য অবস্থা নষ্ট হয়। ফলে তারা ধনাত্মক(+) বা ঋণাত্মক(–) চার্জ যুক্ত হয়। এই অবস্থাই হল আয়ন।

ক্যাটায়নসম্পাদনা

ধাতু সমূহ তাদের সর্বশেষ শক্তিস্তরের এক বা একাধিক ইলেকট্রন অপসারণ করে যে আয়নে পরিণত হয় তাকে ক্যাটায়ন বলে। ক্যাটায়নে প্রোটনের তুলানায় ইলেকট্রন কম থাকায় এর আধান (চার্জ) ধনাত্মক(+)।

ব্যাখ্যাসম্পাদনা

যেহেতু ধাতু সমূহের সর্বশেষ শক্তিস্তরে ১টি, ২টি বা ৩টি ইলেকট্রন থাকে তাই এদের প্রতি নিউক্লিয়াসের প্রোটনের আকর্ষণ কম থাকে। ফলে, তারা সহজেই ওই ইলেকট্রন গুলো ত্যাগ করতে পারে। সর্বশেষ শক্তিস্তরের ওই ইলেকট্রন গুলো ত্যাগ করলে ধাতব পরমাণু গুলো আর আধান নিরপেক্ষ থাকে না। এগুলো আয়নে পরিণত হয়। এই আয়নই হল ক্যাটায়ন[২]

কিছু ক্যাটায়নসম্পাদনা

ক্যাটায়ন [৩]
ইংরেজি নাম বাংলা লিপিতে নাম Formula যোজনী প্রচলিত নাম
মৌলের ক্যাটায়ন
Aluminium অ্যালুমিনিয়াম Al3+ 3
Barium বেরিয়াম Ba2+ 2
Beryllium বেরিলিয়াম Be2+ 2
Calcium ক্যালসিয়াম Ca2+ 2
Chromium(III) ক্রোমিয়াম (III) Cr3+ 3
Copper(I) কপার (I) Cu+ 1 cuprous (কিউপ্রাস)
Copper(II) কপার (II) Cu2+ 2 cupric (কিউপ্রিক)
Hydrogen হাইড্রোজেন H+ 1
Iron(II) আয়রন (II) Fe2+ 2 ferrous (ফেরাস)
Iron(III) আয়রন (III) Fe3+ 3 ferric (ফেরিক)
Lead(II) লেড (II) Pb2+ 2 plumbous (প্লামবাস)
Lead(IV) লেড (IV) Pb4+ 4 plumbic (প্লামবিক)
Lithium লিথিয়াম Li+ 1
Magnesium ম্যাগনেসিয়াম Mg2+ 2
Manganese(II) ম্যাঙ্গানিজ (II) Mn2+ 2 manganous (ম্যাঙ্গানাস)
Manganese(III) ম্যাঙ্গানিজ (III) Mn3+ 3 manganic (ম্যাঙ্গানিক)
Manganese(IV) ম্যাঙ্গানিজ (IV) Mn4+ 4
Mercury(II) মার্কারি (II) Hg2+ 2 mercuric (মারকিউরিক)
Potassium পটাসিয়াম K+ 1 kalium (ক্যালিয়াম)
Silver সিলভার Ag+ 1 argentous (আর্জেন্টাস)
Sodium সোডিয়াম Na+ 1 natric (ন্যাট্রিক)
Strontium স্ট্রনসিয়াম Sr2+ 2
Tin(II) টিন (II) Sn2+ 2 stannous (স্ট্যানাস)
Tin(IV) টিন (IV) Sn4+ 4 stannic (স্ট্যানিক)
Zinc জিঙ্ক Zn2+ 2
যৌগমূলক ক্যাটায়ন
Ammonium অ্যামোনিয়াম NH+
4
1
Phosphonium ফসফোনিয়াম PH+
4
1
Hydronium হাইড্রোনিয়াম H3O+ 1
Mercury(I) মার্কারি (I) Hg2+
2
[ক]
2 mercurous (মারকিউরাস)
  1. এই আয়নটি দেখতে মৌলের আয়ন মনে হলেও এখানে যেহাতু মার্কারির দুটো পরমাণু একত্রে সম্মিলিত যোজনী প্রদর্শন করে, তাই এটি যৌগমূলক

অ্যানায়নসম্পাদনা

অধাতু সমূহ তাদের সর্বশেষ শক্তিস্তরে এক বা একাধিক ইলেকট্রন যুক্ত করে যে আয়নে পরিণত হয় তাকে অ্যানায়ন বলে। অ্যানায়নে প্রোটনের তুলানায় ইলেকট্রন বেশি থাকায় এর আধান (চার্জ) ঋণাত্মক (–)।

ব্যাখ্যাসম্পাদনা

অধাতু সমূহের সর্বশেষ শক্তিস্তরে ৫টি, ৬টি বা ৭টি ইলেকট্রন থাকে তাই এদের প্রতি নিউক্লিয়াসের প্রোটনের আকর্ষণ অনেক বেশি থাকে। অর্থাৎ, এদের আয়নিকরণ শক্তির মান অনেক বেশি হয়। ফলে, ওই ইলেকট্রন গুলো ত্যাগ করতে অনেক বেশি শক্তি প্রয়োজন হয়, যা সাধারণ অবস্থায় কোন রাসায়নিক বিক্রিয়া থেকে সহজে পাওয়া যায় না। ফলে অধাতু সমুহ ইলেকট্রন ত্যাগ করেনা। তাই তারা অন্য পরমাণু (সাধারণত ধাতব পরমাণু) থেকে ১টি, ২টি বা ৩টি ইলেকট্রন গ্রহণ করে।

সর্বশেষ শক্তিস্তরের ওই ইলেকট্রন গুলো গ্রহণ করলে অধাতব পরমাণু গুলো আর আধান নিরপেক্ষ থাকে না। এগুলো আয়নে পরিণত হয়। এই আয়নই হল অ্যানায়ন[২]

কিছু অ্যানায়নসম্পাদনা

সাধারণ অ্যানায়ন
ইংরেজি নাম বাংলা লিপিতে নাম ফরমুলা যোজনী প্রচলিত নাম
মৌলের অ্যানায়ন
Azide অ্যাজাইড N
3
1
Bromide ব্রোমাইড Br 1
Chloride ক্লোরাইড Cl 1
Fluoride ফ্লোরাইড F 1
Hydride হাইড্রেড H 1
Iodide আয়োডাইড I 1
Nitride নাইট্রাইড N3− 3
Phosphide ফসফাইড P3− 3
Oxide অক্সাইড O2− 2
Sulfide সালফাইড S2− 2
selenide সেলেনাইড Se2− 2
অক্সো-অ্যানায়ন (যৌগ মূলকের অ্যানায়ন)
Carbonate কার্বনেট CO2−
3
2
Chlorate ক্লোরেট ClO
3
1
Chromate ক্রোমেট CrO2−
4
2
Dichromate ডাই ক্রোমেট Cr
2
O2−
7
2
Dihydrogen phosphate ডাই হাইড্রোজেন ফসফেট H
2
PO
4
1
Hydrogen carbonate হাইড্রোজেন কার্বনেট HCO
3
1 bicarbonate (বাইকার্বনেট)
Hydrogen sulfate হাইড্রোজেন সালফেট HSO
4
1 bisulfate (বাইসালফেট)
Hydrogen sulfite হাইড্রোজেন সালফাইট HSO
3
1 bisulfite (বাইসালফাইট)
Hydroxide হাইড্রোক্সাইড OH 1
Hypochlorite হাইপোক্লোরাইট ClO 1
Monohydrogen phosphate মনোহাইড্রোজেন ফসফেট HPO2−
4
2
Nitrate নাইট্রেট NO
3
1
Nitrite নাইট্রাইট NO
2
1
Perchlorate পার ক্লোরেট ClO
4
1
Permanganate পার ম্যাঙ্গানেট MnO
4
1
Peroxide পার অক্সাইড O2−
2
2
Phosphate ফসফেট PO3−
4
3
Sulfate সালফেট SO2−
4
2
Sulfite সালফাইট SO2−
3
2
Superoxide সুপার অক্সাইড O
2
1
Thiosulfate থিও সালফেট S
2
O2−
3
2
Silicate সিলিকেট SiO4−
4
4
Metasilicate মেটাসিলিকেট SiO2−
3
2
Aluminium silicate অ্যালুমিনিয়াম সিলিকেট AlSiO
4
1
জৈব এসিডের অ্যানায়ন
Acetate এসিটেড CH
3
COO
1 ethanoate (ইথানয়েট)
Formate ফরমেট HCOO
1 methanoate (মিথানয়েট)
Oxalate অক্সালেট C
2
O2−
4
2
Cyanide সায়ানাইড CN 1

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Ion" entry in Collins English Dictionary.
  2. রসায়ন ৯ম-১০ম। NCTB। ২০১৮। পৃষ্ঠা 92-94। 
  3. "Common Ions and Their Charges" (PDF)Science Geek