প্রধান মেনু খুলুন

রাজলক্ষ্মী শ্রীকান্ত

বুলবুল আহমেদ পরিচালিত ১৯৮৭-এর চলচ্চিত্র

রাজলক্ষ্মী শ্রীকান্ত ১৯৮৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলাদেশী বাংলা ভাষার চলচ্চিত্র। ছায়াছবিটি পরিচালনা করেছেন চিত্রনায়ক বুলবুল আহমেদ[২] শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় রচিত শ্রীকান্ত উপন্যাস অবলম্বনে ছায়ছবিটির চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন বুলবুল আহমেদ, মমতাজউদ্দীন আহমেদজহিরুল হক। ছায়াছবিটির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শাবানাবুলবুল আহমেদ। অন্যান্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন প্রবীর মিত্র, নূতন, রাজ্জাক ও আরও অনেকে।[৩] ছায়াছবিটি ১৯৮৭ সালে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রসহ একাধিক বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারবাচসাস পুরস্কার অর্জন করে।[৪]

রাজলক্ষ্মী শ্রীকান্ত
পরিচালকবুলবুল আহমেদ
প্রযোজকবুলবুল আহমেদ
চিত্রনাট্যকার
উৎসশরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় কর্তৃক 
শ্রীকান্ত
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারআলাউদ্দিন আলী
চিত্রগ্রাহকএম এ মোবিন
সম্পাদকআতিকুর রহমান মল্লিক
পরিবেশকত্রয়ী চিত্রম
মুক্তি১৩ ফেব্রুয়ারি, ১৯৮৭[১]
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা

চলচ্চিত্রটি ১৯৮৭ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে মুক্তি পায়। ছবিটি ১২তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে দুটি অভিনয় (শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেতাশ্রেষ্ঠ শিশু শিল্পী) ও একটি সঙ্গীত (শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী) বিভাগে মোট চারটি পুরস্কার অর্জন করে এবং বাচসাস চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রসহ ১১টি বিভাগে পুরস্কার লাভ করে।

কাহিনী সংক্ষেপসম্পাদনা

রাজলক্ষ্মী সাহসী সুন্দরী রমনী। সামাজিক বিভিন্ন জটিলতার কারনে সে বাঈঁজীর কাজ বেছে নিলেও মনে প্রানে সে শুধু শ্রীকান্তকে ভালবাসে। তার অপরিসীম ভালোবাসা আর দায়িত্ববোধ শ্রীকান্তকে আকৃষ্ট করে। রাজলক্ষ্মী চায় শ্রীকান্ত তাকে এই অনৈতিক জীবন থেকে তাকে মুক্ত করবে। কিন্তু শ্রীকান্তের জীবনে কমললতার আগমন ঘটলে রাজলক্ষ্মী শ্রীকান্তের জীবন থেকে দূরে সরে যায়। রাজলক্ষ্মী চায় শ্রীকান্তকে একান্ত নিজের করে পেতে, আর কমললতার দৃঢ় বিশ্বাস শ্রীকান্তের অন্তরে একমাত্র সেই আছে এবং তার কাছ থেকে শ্রীকান্তকে কেউই দূরে নিতে পারবেনা। কমললতাকে ভালোবাসা সত্বেও রাজলক্ষ্মীর নির্ভয় নিরাপদ আশ্রয়ে নিজেকে সঁপে দিতেই ভালোবাসে শ্রীকান্ত। আর তাই শ্রীকান্ত চায় রাজলক্ষ্মীর দায়িত্ববোধের আওতায় থাকতে ও কমললতার মনে গোপন স্বপ্ন হয়ে থাকতে।

শ্রেষ্ঠাংশেসম্পাদনা

সঙ্গীতসম্পাদনা

রাজলক্ষ্মী শ্রীকান্ত ছায়াছবির সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন আলাউদ্দিন আলী ও সুর করেছেন খন্দকার নুরুল আলম। গীত রচনা করেছেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার, আবু হেনা মোস্তফা কামাল, ও মোহাম্মদ রফিকুজ্জামান। গানে কণ্ঠ দিয়েছেন সাবিনা ইয়াসমিন, সুবীর নন্দী, রুনা লায়লা, ও আবিদা সুলতানা

গানের তালিকাসম্পাদনা

নং গানের শিরোনাম কণ্ঠশিল্পী গানের দৈর্ঘ্য পর্দায় শিল্পী
যমুনা বড় বেঈমান সাবিনা ইয়াসমিন ৪:০৯ শাবানা
শত জনমের স্বপ্ন সাবিনা ইয়াসমিন ৫:১৭ বুলবুল আহমেদশাবানা
লাগলাম না তো কারো পূজাতে সুবীর নন্দীআবিদা সুলতানা ৪:৪০ প্রবীর মিত্রনূতন

পুরস্কারসম্পাদনা

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

বাচসাস পুরস্কার

  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র - বুলবুল আহমেদ
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ পরিচালক - বুলবুল আহমেদ
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ অভিনেতা - বুলবুল আহমেদ
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী - শাবানা
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা - প্রবীর মিত্র
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী - নূতন
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ গীতিকার - গাজী মাজহারুল আনোয়ার
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী - সাবিনা ইয়াসমিন
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার - বুলবুল আহমেদ
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক - এম এ মোবিন
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ চিত্রসম্পাদক - আতিকুর রহমান মল্লিক

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Movie List 1987"বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতি। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. রাশেদ শাওন (১৭ জুলাই ২০১৩)। "বুলবুল আহমেদ স্মরণে"বিডিনিউজ। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০১৬ 
  3. "শারদীয় দুর্গোৎসবে নির্বাচিত টিভি অনুষ্ঠান"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ৪ অক্টোবর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০১৬ 
  4. রেজাউল করিম খোকন (১৫ জুলাই ২০১৫)। "বুলবুল আহমেদ"দৈনিক ইত্তেফাক। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০১৬ 
  5. "সংগীতের অহংকার সাবিনা ইয়াসমিন"দৈনিক আজাদী। ২৪ জানুয়ারি ২০১৩। ২০১৫-১২-০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০১৬ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা