২০১৮ এশিয়া কাপ

২০১৮ এশিয়া কাপ (উনিমনি এশিয়া কাপ নামেও পরিচিত) হল একটি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট প্রতিযোগিতা যা ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে সংযুক্ত আমিরাতে অনুষ্ঠিত হয়। এটি এশিয়া কাপের ১৪ তম আসর ও এটি সংযুক্ত আরব আমিরাতে ১৯৮৪১৯৯৫ এর পর অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপ ক্রিকেট প্রতিযোগিতার তৃতীয় আসর।

২০১৮ এশিয়া কাপ
২০১৮ এশিয়া কাপ লোগো.jpg
তারিখ১৫ – ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮
ব্যবস্থাপকএশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল
ক্রিকেটের ধরনএকদিনের আন্তর্জাতিক
প্রতিযোগিতার ধরনরাউন্ড-রবিন এবং নক আউট পর্ব
আয়োজক সংযুক্ত আরব আমিরাত
বিজয়ী ভারত
রানার-আপ বাংলাদেশ
অংশগ্রহণকারী
খেলার সংখ্যা১৩
প্রতিযোগিতার সেরা
খেলোয়াড়
ভারত শিখর ধাওয়ান
সর্বোচ্চ রানভারত শিখর ধাওয়ান (৩৪২)
সর্বোচ্চ উইকেটআফগানিস্তান রশীদ খান (১০)
বাংলাদেশ মুস্তাফিজুর রহমান (১০)
ভারত কুলদীপ যাদব (১০)

পটভূমিসম্পাদনা

মূলত, টুর্নামেন্টটি ভারতে হবার জন্য নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু ভারত ও পাকিস্তান মধ্যে চলমান রাজনৈতিক উত্তেজনার কারণে এটি সংযুক্ত আরব আমিরাতে সরানো হয়।

২০১৫ সালে ২৯ অক্টোবর, সিঙ্গাপুরে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল-এর বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড-এর সচিব অনুরাগ ঠাকুর উল্লেখ করেছিলেন যে ২০১৮ ক্রিকেট এশিয়া কাপ ভারতে আয়োজিত হবে।[১]

দলসমূহসম্পাদনা

দলীয় সদস্যসম্পাদনা

  আফগানিস্তান   বাংলাদেশ   হংকং   ভারত   পাকিস্তান   শ্রীলঙ্কা

মাঠসম্পাদনা

সংযুক্ত আরব আমিরাত
দুবাই আবুধাবি
দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়াম
স্থানাঙ্ক: ২৫°২′৪৮″ উত্তর ৫৫°১৩′৮″ পূর্ব / ২৫.০৪৬৬৭° উত্তর ৫৫.২১৮৮৯° পূর্ব / 25.04667; 55.21889 স্থানাঙ্ক: ২৪°২৩′৪৭″ উত্তর ৫৪°৩২′২৬″ পূর্ব / ২৪.৩৯৬৩৯° উত্তর ৫৪.৫৪০৫৬° পূর্ব / 24.39639; 54.54056
আসন সংখ্যা: ২৫,০০০ আসন সংখ্যা: ২০,০০০
ম্যাচ: ৮ ম্যাচ: ৫
   

গ্রুপ পর্বসম্পাদনা

গ্রুপ এসম্পাদনা

দল
খেলা জয় হার ড্র ফ.বি. পয়েন্ট এনআরআর
  ভারত +১.৪৭৪
  পাকিস্তান +০.২৮৪
  হংকং –১.৭৪৮
১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
হংকং  
১১৬ (৩৭.২ ওভার)
  পাকিস্তান
১২০/২ (২৩.৪ ওভার)
আইজাজ খান ২৭ (৪৭)
উসমান শিনওয়ারি ৩/১৯ (৭.৩ ওভার)
ইমাম-উল-হক ৫০* (৬৯)
এহসান খান ২/৩৪ (৮ ওভার)
  • হংকং টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বাবর আজম (পাকিস্তান) এক ওয়ানডেতে ২০০০ রান করার যৌথ দ্বিতীয় দ্রুততম ব্যাটসম্যান হন।

১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
ভারত  
২৮৫/৭ (৫০ ওভার)
  হংকং
২৫৯/৮ (৫০ ওভার)
শিখর ধাওয়ান ১২৭ (১২০)
কিঞ্চিৎ শাহ ৩/৩৯ (৯ ওভার)
নিজাকাত খান ৯২ (১১৫)
যুজবেন্দ্র চাহাল ৩/৪৬ (১০ ওভার)
  • হংকং টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • খলিল আহমেদ (ভারত) তার ওডিআই অভিষেক হয়।
  • নিজাকাত খানআনশুমান রাথ উভয়ই মিলে ওডিআইতে হংকংঙের পক্ষে সর্বকালের সেরা জুটি গড়েন (১৭৪)।

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
পাকিস্তান  
১৬২ (৪৩.১ ওভার)
  ভারত
১৬৪/২ (২৯ ওভার)
বাবর আজম ৪৭ (৬২)
ভুবনেশ্বর কুমার ৩/১৫ (৭ ওভার)
রোহিত শর্মা ৫২ (৩৯)
শাদাব খান ১/৬ (১.৩ ওভার)
  • পাকিস্তান টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বল বাকী হিসেবে, এটি পাকিস্তানের বিপক্ষে ভারতের সবচেয়ে বড় জয় (১২৬)।

গ্রুপ বিসম্পাদনা

দল
খেলা জয় হার ড্র ফ.বি. পয়েন্ট এনআরআর
  আফগানিস্তান +২.২৭০
  বাংলাদেশ +০.০১০
  শ্রীলঙ্কা –২.২৮০
১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
বাংলাদেশ  
২৬১ (৪৯.৩ ওভার)
  শ্রীলঙ্কা
১২৪ (৩৫.২ ওভার)
মুশফিকুর রহিম ১৪৪ (১৫০)
লাসিথ মালিঙ্গা ৪/২৩ (১০ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • এটি ওডিআইতে বাংলাদেশের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার সর্বনিম্ন মোট রান।

১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
আফগানিস্তান  
২৪৯ (৫০ ওভার)
  শ্রীলঙ্কা
১৫৮ (৪১.২ ওভার)
রহমত শাহ ৭২ (৯০)
থিসারা পেরেরা ৫/৫৫ (৯ ওভার)
উপুল থারাঙ্গা ৩৬ (৬৪)
রশীদ খান ২/২৬ (৭.২ ওভার)
আফগানিস্তান ৯১ রানে জয়ী
শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়াম, আবুধাবি
আম্পায়ার: গ্রিগোরি ব্রেদওয়েট (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) ও আহসান রাজা (পাকিস্তান)
সেরা খেলোয়াড়: রহমত শাহ (আফগানিস্তান)
  • আফগানিস্তান টসে জিতে হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • এটি ওডিআইতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার প্রথম পরাজয়।

২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
আফগানিস্তান  
২৫৫/৭ (৫০ ওভার)
  বাংলাদেশ
১১৯ (৪২.১ ওভার)
সাকিব আল হাসান ৩২ (৫৫)
রশীদ খান ২/১৩ (৯ ওভার)
আফগানিস্তান ১৩৬ রানে জয়ী
শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়াম, আবুধাবি
আম্পায়ার: নিতিন মেনন (ভারত) ও রড টাকার (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: রশীদ খান (আফগানিস্তান)

সুপার চারসম্পাদনা

দল
খেলা জয় হার ড্র ফ.বি. পয়েন্ট এনআরআর
  ভারত +০.৮৬৩
  বাংলাদেশ -০.১৫৬
  পাকিস্তান -০.৫৯৯
  আফগানিস্তান -০.০৪৪
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
বাংলাদেশ  
১৭৩/১০ (৪৯.১ ওভার)
  ভারত
১৭৪/৩ (৩৬.২ ওভার)
রোহিত শর্মা ৮৩* (১০৪)
রুবেল হোসেন ১/২১ (৫ ওভার)
  • ভারত টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
আফগানিস্তান  
২৫৭/৬ (৫০ ওভার)
  পাকিস্তান
২৫৮/৭ (৪৯.৩ ওভার)
ইমাম-উল-হক ৮০ (১০৪)
রশীদ খান ৩/৪৬ (১০ ওভার)
  • আফগানিস্তান টসে জিতে হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • শাহীন আফ্রিদি (পাকিস্তান) তার ওডিআই অভিষেক হয়।

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
পাকিস্তান  
২৩৭/৭(৫০ ওভার)
  ভারত
২৩৮/১(৩৯.৩ ওভার)
শোয়েব মালিক ৭৮ (৯০)
জসপ্রীত বুমরাহ ২/২৯ (১০ ওভার)
শিখর ধাওয়ান ১১৪ (১০০)
  • পাকিস্তান টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • যুজবেন্দ্র চাহাল (ভারত) ওডিআইতে নিজের ৫০তম উইকেট নিয়েছিলেন।
  • রোহিত শর্মা (ভারত) ওডিআইতে তার ৭,০০০ তম রান করেছেন।
  • রোহিত শর্মা এবং শিখর ধাওয়ানের জুটিতে ভারতের সর্বোচ্চ ছিল - দ্বিতীয় ব্যাট করার সময় পাকিস্তানের বিপক্ষে এবং তাদের এশিয়া কাপের ইতিহাসে - প্রথম উইকেটে।
  • উইকেটের ক্ষেত্রে এটি পাকিস্তানের বিপক্ষে ভারতের সবচেয়ে বড় জয় (৯)।

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
আফগানিস্তান  
২৪৬/৭ (৫০ ওভার)
  বাংলাদেশ
২৪৯/৭ (৫০ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • নাজমুল ইসলাম (বাংলাদেশ) তার ওডিআই অভিষেক হয়।
  • (বাংলাদেশ) ওডিআইতে তার ২৫০তম উইকেট নিয়েছিল।

২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
আফগানিস্তান  
২৫২/৮ (৫০ ওভার)
  ভারত
২৫২/১০ (৪৯.৫ ওভার)
লোকেশ রাহুল ৬০ (৬৬)
মোহাম্মাদ নবী ২/৪০ (১০ ওভার)
  • আফগানিস্তান টসে জিতে হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • দীপক চাহার (ভারত) তার ওডিআই অভিষেক হয়।
  • মহেন্দ্র সিং ধোনি (ভারত) অধিনায়ক হিসাবে তার 200 তম ওয়ানডে খেলেছে।
  • এটি এশিয়া কাপের ইতিহাসে প্রথম বাঁধা ওয়ানডে এবং আফগানিস্তানের বৈশিষ্ট্যযুক্ত প্রথম ওয়ানডে।

২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
বাংলাদেশ  
২৩৯/১০ (৪৮.৩ ওভার)
  পাকিস্তান
২০২/৯ (৫০ ওভার)
মুশফিকুর রহিম ৯৯ (১১৬)
জুনায়েদ খান ৪/১৯ (৯ ওভার)
ইমাম-উল-হক ৮৩ (১০৫)
মুস্তাফিজুর রহমান ৪/৪৩ (১০ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ওডিআইতে এশিয়া কাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে এটি প্রথম জয়।

ফাইনালসম্পাদনা

২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮
১৫:৩০ (দিন/রাত)
বাংলাদেশ  
২২২/১০ (৪৮.৩ ওভার)
  ভারত
২২৩/৭ (৫০ ওভার)
লিটন দাস ১২১ (১১৭)
কুলদীপ যাদব ৩/৪৫ (১০ ওভার)
রোহিত শর্মা ৪৮ (৫৫)
রুবেল হোসেন ২/২৬ (১০ ওভার)
  • ভারত টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • লিটন দাস (বাংলাদেশ) ওয়ানডেতে নিজের প্রথম সেঞ্চুরি করেছিলেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা