রোজী আফসারী

চলচ্চিত্র অভিনেত্রী
(রোজী সামাদ থেকে পুনর্নির্দেশিত)

রোজী আফসারী (জন্ম: শামীমা আক্তার রোজী; ২৩ এপ্রিল ১৯৪৬ - ৯ মার্চ ২০০৭), যিনি রোজী সামাদ নামেও পরিচিত; একজন বাংলাদেশী চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ছিলেন। তিনি ১৯৬৪ সালে এইতো জীবন চলচ্চিত্রের মাধ্যমে অভিনয় শুরু করেন। তিনি লাঠিয়াল (১৯৭৫) চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। তিনিই এই বিভাগের প্রথম বিজেতা। তার অভিনীত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রসমূহ হল জীবন থেকে নেয়া (১৯৭০), তিতাস একটি নদীর নাম (১৯৭৩), সূর্য সংগ্রাম (১৯৭৪), সূর্য গ্রহণ (১৯৭৬), অশিক্ষিত (১৯৭৮), গোলাপী এখন ট্রেনে (১৯৭৮), ও এই ঘর এই সংসার (১৯৯৬)। ১৯৮৬ সালে আশা নিরাশা চলচ্চিত্র দিয়ে পরিচালক হিসেবে তার অভিষেক হয়। ২০০৫ সালে তার সর্বশেষ চলচ্চিত্র মুক্তি পায়।

রোজী আফসারী
রোজী আফসারী (১৯৪৯–২০০৭).jpeg
জন্ম
শামীমা আক্তার রোজী

(১৯৪৬-০৪-২৩)২৩ এপ্রিল ১৯৪৬
মৃত্যু৯ মার্চ ২০০৭(2007-03-09) (বয়স ৬০)
বারডেম হাসপাতাল, ঢাকা, বাংলাদেশ
মৃত্যুর কারণকিডনির রোগ
জাতীয়তাবাংলাদেশী
অন্যান্য নামরোজী সামাদ
নাগরিকত্ববাংলাদেশী
পেশাঅভিনেত্রী, প্রযোজক
কর্মজীবন১৯৬২–২০০৫
দাম্পত্য সঙ্গীআবদুস সামাদ
মালেক আফসারী (১৯৮১-২০০৭)
সন্তানকবিতা সামাদ
রবি আফসারী
পুরস্কারজাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

শামীমা আক্তার রোজী ১৯৪৬ সালের ২৩শে এপ্রিল লক্ষ্মীপুর জেলায় জন্মগ্রহণ করেন।

কর্মজীবনসম্পাদনা

রোজীর চলচ্চিত্র কর্মজীবন শুরু হয় ১৯৬৪ সালে জিল্লুর রহিম পরিচালিত এইতো জীবন চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে। একই বছর তিনি জহির রায়হানের পরিচালনায় তৎকালীন পাকিস্তানে নির্মিত প্রথম রঙিন পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র সংগম-এ একটি প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন।[১] পরের দুই বছরে তিনি একালের রূপকথা (১৯৬৫) ও রাজা সন্ন্যাসী (১৯৬৬) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৬০-এর দশকের শেষভাগে তিনি এতটুকু আশা (১৯৬৮), চোরাবালি (১৯৬৮), চেনা অচেনা (১৯৬৮), রাখাল বন্ধু (১৯৬৮), প্রতিকার (১৯৬৯), বেদের মেয়ে (১৯৬৯), আলোর পিপাসা (১৯৬৯), নীল আকাশের নীচে (১৯৬৯), ও জোয়ার ভাটা (১৯৬৯) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।

১৯৭০-এর দশকে জীবন থেকে নেয়া, তিতাস একটি নদীর নাম, সূর্যগ্রহণ, ও সূর্য সংগ্রাম চলচ্চিত্রে তার অভিনয় ব্যাপক দর্শক নন্দিত হয়। ১৯৭৪ সালে নারায়ণ ঘোষ মিতা পরিচালিত আলোর মিছিল চলচ্চিত্রে অভিনয় করে। ১৯৭৫ সালে লাঠিয়াল চলচ্চিত্রে নাম চরিত্রের স্ত্রী চরিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। অশিক্ষিত ইত্যাদি। তার সর্বশেষ অভিনীত ছবি 'পরম প্রিয়' ২০০৫ সালে মুক্তি পেয়েছিল।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

রোজী ১৯৮১ সালে চলচ্চিত্র নির্মাতা মালেক আফসারীর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।[২] ২০০৭ সালের ৯ মার্চ কিডনিজনিত রোগে ৫৭ বছর বয়সে রোজী মৃত্যুবরণ করেন।[৩]

চলচ্চিত্রসম্পাদনা

বছর চলচ্চিত্র ভূমিকা পরিচালক ভাষা টীকা
১৯৬৪ এইতো জীবন জিল্লুর রহমান বাংলা অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র
বন্ধন উর্দু
সঙ্গম নিশাত জহির রায়হান উর্দু পাকিস্তানের প্রথম রঙ্গীন পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র[১]
১৯৬৫ একালের রূপকথা বাংলা
১৯৬৬ রাজা সন্ন্যাসী বাংলা
অউর গম নেহি উর্দু
জাগে হুয়া সাভেরা উর্দু
পুনাম কি রাত উর্দু
ইস ধার্তি পার উর্দু
উলঝান উর্দু
১৯৬৮ এতটুকু আশা লুসি বাংলা
চেনা অচেনা বাংলা
রাখাল বন্ধু কাওসার জঙ্গের স্ত্রী বাংলা
১৯৬৯ কাসাম উস ওয়াক্ত কি
আলোর পিপাসা বাংলা
জোয়ার ভাটা বাংলা
প্রতিকার বাংলা
বেদের মেয়ে বাংলা
নীল আকাশের নিচে মামুনের ভাবী নারায়ণ ঘোষ মিতা বাংলা
১৯৭০ জীবন থেকে নেয়া সাথী জহির রায়হান বাংলা
যে আগুনে পুড়ি বাংলা
সূর্য্য ওঠার আগে বাংলা
অধিকার বাংলা
সাধারণ মেয়ে নীলু বাংলা
কাঁচ কাটা হীরে বাংলা
দীপ নেভে নাই বাংলা
বড় বউ বাংলা
কলমিলতা বাংলা
গায়ের বধু বাংলা
১৯৭১ সুখ-দুঃখ বাংলা
স্মৃতিটুকু থাক সালেহা বেগম বাংলা
জলছবি বাংলা
১৯৭২ নিজেরে হারায়ে খুঁজি মঞ্জু বাংলা
বাহরাম বাদশাহ বাংলা
মানুষের মন পুতুল বাংলা
সমাধান ঊষা বাংলা
জীবন সংগীত বাংলা
স্বীকৃতি বাংলা
কাঁচের স্বর্গ বাংলা
১৯৭৩ রংবাজ শিরিন জহিরুল হক বাংলা
তিতাস একটি নদীর নাম বাসন্তী ঋত্বিক ঘটক বাংলা
পায়ে চলার পথ বাংলা
আবার তোরা মানুষ হ খান আতাউর রহমান বাংলা
১৯৭৪ আলোর মিছিল মীনা নারায়ণ ঘোষ মিতা বাংলা বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে বাচসাস পুরস্কার
১৯৭৫ লাঠিয়াল কাদেরের স্ত্রী নারায়ণ ঘোষ মিতা বাংলা বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার
১৯৭৬ সূর্যগ্রহণ শিরিন বাংলা
১৯৭৭ রূপালী সৈকতে আলমগীর কবির বাংলা
১৯৭৮ অশিক্ষিত মানিকের মা আজিজুর রহমান বাংলা
গোলাপী এখন ট্রেনে গোলাপী’র মা আমজাদ হোসেন বাংলা
নাগরদোলা বাংলা
১৯৭৯ সূর্য সংগ্রাম শিরিন বাংলা
বেলা শেষের গান বাংলা
১৯৮৬ আশা নিরাশা রোজী আফসারী বাংলা
১৯৯২ ক্ষমা মালেক আফসারী বাংলা
১৯৯৫ এই ঘর এই সংসার মমতা/আপা মালেক আফসারী বাংলা
২০০৩ বীর সৈনিক রোজী দেলোয়ার জাহান ঝন্টু বাংলা
২০০৫ পরম প্রিয় বাংলা অভিনীত শেষ চলচ্চিত্র

পুরস্কার ও সম্মাননাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Remembering Rosy Afsari"দ্য ডেইলি স্টার। ১১ মার্চ ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০১৪ 
  2. "এফডিসি'র মুখ দেখতে চাননা মালেক আফসারী"একুশে টিভি। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১৯ 
  3. "মনে আছে মিষ্টি হাসির অভিনেত্রী রোজী আফসারীর কথা?"জাগোনিউজ২৪.কম। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১৯ 
  4. "Google doodle celebrates 73rd birth anniversary of actor Rosy Afsari"ডেইলি এশিয়ান এজ। ২৩ এপ্রিল ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১৯ 
  5. "National award-winning actor Rosy Afsari"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ২৩ এপ্রিল ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১৯ 
  6. "Rosy Afsari's 73rd Birthday"www.google.com। গুগল। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা