নীল আকাশের নীচে (১৯৬৯-এর চলচ্চিত্র)

১৯৬৯ সালের বাংলাদেশী রোম্যান্টিক চলচ্চিত্র

নীল আকাশের নিচে ১৯৬৯ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ পূর্বকালে মুক্তিপ্রাপ্ত একটি বাংলাদেশী চলচ্চিত্র।[২] কাহিনীকার ইসমাইল মোহাম্মদ একটি কাহিনী তৈরি করেন এবং ছবিটি পরিচালনা করেছেন পরিচালক নারায়ণ ঘোষ মিতা। তৎকালীন বাঙালি পরিবারের গল্পই ছবিটির প্রধান উপজীব্য বিষয়। ছবিতে প্রধান দুইটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন - নায়করাজ রাজ্জাককবরী। এছাড়াও, গুরুত্বপূর্ণ কিছু চরিত্রে অভিনয় করেন - আনোয়ার হোসেন, রোজী সামাদ, হাসমত, সিনা, এনাম আহমেদ, রব্বানী, কোরেশী-সহ আরও অনেকে।

নীল আকাশের নীচে
নীল আকাশের নীচে (১৯৬৯-এর চলচ্চিত্র).jpg
নীল আকাশের নীচে চলচ্চিত্রের পোস্টার
পরিচালকনারায়ণ ঘোষ মিতা
প্রযোজকইমদাদ আলী
রচয়িতাইসমাইল মোহাম্মদ
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারসত্য সাহা
চিত্রগ্রাহকবেবী ইসলাম
সম্পাদকবশির হোসেন
প্রযোজনা
কোম্পানি
সৃজনী কথাচিত্র
পরিবেশকছায়াবানী সংস্থা
মুক্তি১০ অক্টোবর ১৯৬৯[১]
দেশপূর্ব পাকিস্তান
ভাষাবাংলা

কাহিনী সংক্ষেপসম্পাদনা

শ্রেষ্ঠাংশেসম্পাদনা

সংগীতসম্পাদনা

নীল আকাশের নীচে
চলচ্চিত্রের সঙ্গীত
 
অ্যালবাম
মুক্তির তারিখ১৯৬৯
শব্দধারণের সময়১৯৬৯
স্থানআলাউদ্দিন লিটল অর্কেস্ট্রা
শব্দধারণকেন্দ্রবারী স্টুডিও
ঘরানাচলচ্চিত্রের সঙ্গীত
সঙ্গীত প্রকাশনীলেজার ভিশন
প্রযোজকসত্য সাহা

নীল আকাশের নিচে ছবির সংগীত পরিচালনা করেন সত্য সাহা। গীত রচনা করেন গাজী মাজহারুল আনোয়ারমোহাম্মদ মনিরুজ্জামান। ছবিতে নেপথ্য শিল্পী হিসেবে কণ্ঠ দিয়েছেন খন্দকার ফারুক আহমদ, ফেরদৌসী রহমান, শাহনাজ রহমতুল্লাহ, মাহমুদুন্নবীমোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী

গানের তালিকাসম্পাদনা

সবগুলি গানের সুরকার সত্য সাহা

নং.শিরোনামগীতিকারনেপথ্য শিল্পী(গণ)দৈর্ঘ্য
১."হেসে খেলে জীবনটা যদি চলে যায়"গাজী মাজহারুল আনোয়ারমোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী 
২."নীল আকাশের নিচে"গাজী মাজহারুল আনোয়ারখন্দকার ফারুক আহমদ 
৩."গান হয়ে এলে"মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানফেরদৌসী রহমান 
৪."প্রেমের নাম বাসনা"মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানশাহনাজ রহমতুল্লাহ, মাহমুদুন্নবী 
৫."প্রেমের নাম বেদনা"মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানমাহমুদুন্নবী 

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Movie List 1969"বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতি। ১৪ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৭ 
  2. নীল আকাশের নীচে তথ্যসুত্রঃ কালের কণ্ঠ, ২ মার্চ ২০১০

বহিঃসংযোগসম্পাদনা