আরো ভালোবাসবো তোমায়

এস এ হক অলিক পরিচালিত ২০১৫ সালের চলচ্চিত্র

আরো ভালোবাসবো তোমায় হচ্ছে একটি বাংলাদেশী প্রণয়ধর্মী-নাট্য চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্রটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন এস এ হক অলিক এবং টিওটি ফিল্মসের ব্যানারে প্রযোজনা করেছেন খোরশেদ আলম খসরু। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাকিব খানপরীমনি[২] এছাড়াও সোহেল রানা, চম্পা, আফজাল শরীফ, সাদেক বাচ্চুসহ অন্যান্যরা বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন।[৩][৪] চলচ্চিত্রটির সুর ও সঙ্গীতায়োজন করেছেন হাবিব ওয়াহিদ, এস আই টুটুলইমন সাহা

আরো ভালোবাসবো তোমায়
প্রেক্ষাগৃহে মুক্তিপ্রাপ্ত পোষ্টার
পরিচালকএস এ হক অলিক
প্রযোজকখোরশেদ আলম খসরু
রচয়িতাএস এ হক অলিক
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারসঙ্গীত:
হাবিব ওয়াহিদ, হৃদয় খান
আবহসঙ্গীত:
ইমন সাহা
চিত্রগ্রাহকসাঈদ-উজ-জামান
সম্পাদকতৌহিদ হোসেন চৌধুরী
প্রযোজনা
কোম্পানি
টিওটি ফিল্মস
পরিবেশকতানজিব ফিল্মস
মুক্তি
  • ১৪ আগস্ট ২০১৫ (2015-08-14)
[১]
স্থিতিকাল২ ঘন্টা ৩৯ মিনিট
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা

চলচ্চিত্রটির মূখ্য চিত্রগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয় ২০১৫ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি। ২০১৫ সালের ২ আগস্ট ইউটিউবে চলচ্চিত্রটির আনুষ্ঠানিক ট্রেইলার মুক্তি পায়। চলচ্চিত্রটি ২০১৫ সালের ১৪ আগস্ট মুক্তি পায়।[৫][৬][৭] চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করে শাকিব খান ৪০ তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে তৃতীয় বারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।[৮][৯][১০]

কাহিনি সংক্ষেপ সম্পাদনা

শাকিব খান একজন চলচ্চিত্র অভিনেতা ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব। শুটিংয়ের জন্য সারাক্ষণই ব্যস্ত থাকেন তিনি। কিন্তু মোবাইলে নোলক (পরীমনি) নামের একটি অচেনা সাধারণ মেয়ের প্রেমে পড়েন শাকিব খান। ফোনে কথা বলতে বলতে পরিচয় আরো গাঢ় হয় শাকিব আর নোলকের। শাকিব খান নোলককে কখনো দেখেনি, তাই সে সিদ্ধান্ত নেয় নোলক এর সাথে দেখা করার। নোলক তাকে সিলেট চলে আসতে বলে। কিন্তু নোলক শর্ত দেয় শাকিবকে আসতে হবে সাধারণ মানুষের মতো, সুপারস্টার হিসেবে নয়। শর্ত ছিলো ট্যাক্সি করে কমলাপুর রেলস্টেশনে এসে সাধারণ বগিতে টিকিট কেটে তাতে করে আসতে হবে। অনেক ঝামেলার পর ট্রেনে উঠে সিলেটের উদ্দেশে রওনা দেয় শাকিব। যদিও শাকিবের সব কিছু ঢাকা থেকেই ফলো করে আসছেন নোলক (পরীমনি)। তবে সিলেট পৌঁছানোর আগেই ট্রেনের মধ্যে নোলকের সাথে দেখা হয়ে যায় শাকিবের। ধীরে ধীরে তাদের সম্পর্কের গভীরতা বাড়তে থাকে। একদিন সোহেল রানাকে অভিভাবক করে নোলকদের বাসায় বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে যান শাকিব খান। কিন্তু নোলকের বাবার (সাদেক বাচ্চু) সিনেমা জগতের মানুষদের সম্পর্কে বিরুপ ধারণা থাকার কারণে বিয়ের প্রস্তাবটি প্রত্যাখ্যান করে দেন। শুরু হয় দুটি অবুঝ মনের ভালোবাসার মধ্যে কষ্টের চরম মুহুর্ত। এদিকে নোলকের বাবা নোলককে বিয়ে দেওয়ার জন্য দিন-তারিখ ঠিক করেন। অন্যদিকে নোলক শাকিব খানের সাথে পালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু এতে সে ব্যর্থ হয়। পালানোর সময় তার বাবা তাকে দেখে ফেলেন। নোলকের বাবা হুমকি দেয় শাকিবকে তিনি গুলি করে মারবেন। এই ভয়ে নোলক তার বাবার ঠিক করে রাখা বিয়েতে রাজি হয়ে যান। তবে নোলক বিয়ের আগের দিন রাতে অনেকগুলো ঘুমের ওষুধ খেয়ে শাকিব খানের সাথে ফোনে কথা বলতে বলতে আত্মহত্যা করেন। পরের দিন শাকিব নোলকের বাড়িতে গিয়ে নোলকের  লাশ দেখতে পান। শাকিব মনে করেন নোলকের মৃত্যুর জন্য নোলকের বাবা দায়ী। তাই তিনি রাগান্বিত অবস্থায় নোলকের বাবাকে গুলি করে হত্যা করেন। এরপর নোলকের মৃত্যু সইতে না পেরে নিজেকে গুলি করে আত্মহত্যা করেন শাকিব।

অভিনয় সম্পাদনা

  • শাকিব খান - শাকিব খান (স্বভূমিকা), একজন চলচ্চিত্র অভিনেতা ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব; পরবর্তীতে তিনি নোলক নামে একজনের প্রেমে পড়েন এবং তার জন্য আত্মহত্যা করেন
  • পরীমনি - নোলক, একজন সাধারণ পরিবারের মেয়ে; তিনি শাকিব খানের প্রেমে পড়েন এবং পরবর্তীতে তার বাবা তাদের সম্পর্ক মেনে না নিলে তিনি আত্মহত্যা করেন
  • সোহেল রানা - স্বভূমিকায়
  • চম্পা - ঝুমকা, নোলকের ফুপু
  • সাদেক বাচ্চু - নোলকের বাবা ও ঝুমকার ভাইজান
  • আফজাল শরীফ - বেলায়েত, শাকিব খানের সহকারী ও বন্ধু
  • ইয়ামিন হক ববি - স্বভূমিকা (অতিথি উপস্থিতি)

প্রযোজনা সম্পাদনা

২০১৫ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি বিএফডিসির জহির রায়হান কালার ল্যাবের ভিআইপি প্রজেকশন হলে চলচ্চিত্রটির মহরত অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের তৎকালীন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, পাট ও বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, চলচ্চিত্রের অভিনয়শিল্পী শাকিব খান, পরীমনি, চম্পাসহ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট আরও অনেকে।[১১]

অভিনয়শিল্পী নির্বাচন সম্পাদনা

চলচ্চিত্রের প্রধান ভূমিকা শাকিব খান ও নোলক চরিত্রের জন্য চুক্তিবদ্ধ হন শাকিব খান ও পরীমনি। এটি শাকিব খানের বিপরীতে পরীমনির দ্বিতীয় চুক্তিবদ্ধ চলচ্চিত্র এবং মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম চলচ্চিত্র। এর আগে ২০১৪ সালে ধূমকেতু চলচ্চিত্রের জন্য শাকিব খানের বিপরীতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন তিনি।[১২] চলচ্চিত্রে একটি বিশেষ আমন্ত্রিত অতিথি চরিত্রে অপু বিশ্বাসের অভিনয়ের কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তিনি অভিনয় করেন নি, তার পরিবর্তে চিত্রনায়িকা ইয়ামিন হক ববি অভিনয় করেন।[১৩]

চিত্রায়ণ সম্পাদনা

২০১৫ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি বিএফডিসির তিন নম্বর ফ্লোরে চলচ্চিত্রটির মূখ্য চিত্রগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম দিনের চিত্রগ্রহণে চলচ্চিত্রের প্রধান অভিনয়শিল্পীসহ চলচ্চিত্রের পুরো ইউনিট উপস্থিত ছিলেন। প্রথম লটে ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত টানা ৬দিন করা হয় চলচ্চিত্রের চিত্রগ্রহণ।[১৪] এরপর ২০১৫ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারিতে চলচ্চিত্রের পুরো দল রাঙামাটি যায়। সেখান থেকে কাজ শেষে ২৭ ফেব্রুয়ারি এর পুরো দল বান্দরবান যায়। সেখানে ৪ মার্চ পর্যন্ত দুটি গানের দৃশ্যধারণসহ চলচ্চিত্রটির দ্বিতীয় লটের কাজ সম্পন্ন করা হয়।[১৫] এরপর ২০১৫ সালের ১৭ এপ্রিল চলচ্চিত্রের পুরো দল সিলেট যায়। সেখানে ২০১৫ সালের ১৮ এপ্রিল থেকে ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত কয়েকটি গানের দৃশ্যসহ চলচ্চিত্রটির তৃতীয় লটের কাজ সম্পন্ন করা হয়।

সঙ্গীত সম্পাদনা

আরো ভালোবাসবো তোমায়
কর্তৃক সাউন্ডট্র্যাক অ্যালবাম
মুক্তির তারিখ১৫ আগস্ট ২০১৫ (2015-08-15)
শব্দধারণের সময়ফেব্রুয়ারি, ২০১৫
স্টুডিওটিওটি ফিল্মস
ঘরানাপূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র সাউন্ডট্র‍্যাক
দৈর্ঘ্য২২:৩৩
ভাষাবাংলা
সঙ্গীত প্রকাশনীটিওটি ফিল্মস
প্রযোজকহাবিব ওয়াহিদ
আরো ভালোবাসবো তোমায় থেকে একক গান
  1. "মনের দুয়ার"
    মুক্তির তারিখ: ৭ জুলাই ২০১৫
  2. "তুমি আমার বসুন্ধরা"
    মুক্তির তারিখ: ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫

চলচ্চিত্রের সাউন্ডট্র‍্যাক অ্যালবামের সুর ও সঙ্গীতায়োজন করেছেন হাবিব ওয়াহিদ, এস আই টুটুলইমন সাহা[১৬] এছাড়াও চলচ্চিত্রটির সবগুলো গানের গীত রচনা করেছেন এর পরিচালক এস এ হক অলিক। চলচ্চিত্রে মোট পাঁচটি গান ব্যবহার করা হয়েছে। "মনের দুয়ার" শিরোনামের চলচ্চিত্রে প্রথম গান, টিওটি ফিল্মসের ব্যানারে প্রচারণামূলক একক হিসাবে ইউটিউবে মুক্তি ২০১৫ সালের ৭ জুলাই। গানটি গেয়েছেন হাবিব ওয়াহিদপড়শী এবং সুর ও সঙ্গীতায়োজন করেছেন হাবিব ওয়াহিদ নিজে।[১৭] চলচ্চিত্রটি মুক্তির পর ২০১৫ সালের ৮ সেপ্টেম্বর "তুমি আমার বসুন্ধরা" শিরোনামে একক হিসাবে এর দ্বিতীয় গান ইউটিউবে মুক্তি পায়। গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন হৃদয় খানপড়শী

গানের তালিকা
নং.শিরোনামসুরকারসঙ্গীতশিল্পীদৈর্ঘ্য
১."মনের দুয়ার খুলে দিলাম"হাবিব ওয়াহিদহাবিব ওয়াহিদ, পড়শী৩:৫৯
২."তুমি আমার বসুন্ধরা" হৃদয় খান, পড়শী৩:৪৬
৩."কেনো এত ভালোবাসলে বলোনা তুমি আমায়" এস আই টুটুল, কোনাল৪:৫৮
৪."তুই যে আমার জানেরই জান অন্তরের ময়না" ইমরান মাহমুদুল, লেমিস৪:১৭
৫."কি এমন কথা বললে তুমি মানা যায় না" কিশোর৫:৩৩
মোট দৈর্ঘ্য:২২:৩৩

বাজারজাতকরণ ও মুক্তি সম্পাদনা

২০১৫ সালের ৭ জুলাই চলচ্চিত্রটি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড কর্তৃক বিনা কর্তনে মুক্তির ছাড়পত্র লাভ করে।[১৮] এর আগে ৩০ জুন ছাড়পত্রের জন্য চলচ্চিত্রটিকে সেন্সরবোর্ডে জমা দেয়া হয়েছিল।[১২] ২০১৫ সালের ২ আগস্ট চলচ্চিত্রটির আনুষ্ঠানিক ট্রেইলার ও প্রেক্ষাগৃহে মুক্তিপ্রাপ্ত ট্রেইলার মুক্তি পায়। এরপর ১৮ আগস্ট চলচ্চিত্রটি মুক্তির পর এর দ্বিতীয় এবং ২০ আগস্ট তৃতীয় ট্রেইলার ইউটিউবে মুক্তি পায়।

মুক্তি সম্পাদনা

২০১৫ সালের ১৪ আগস্ট চলচ্চিত্রটি বাংলাদেশের ৯০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়।[১৯]

মূল্যায়ন সম্পাদনা

সমালোচনামূলক প্রতিক্রিয়া সম্পাদনা

প্রথম আলোতে চলচ্চিত্র পরিচালক ও চিত্রসমালোচক মতিন রহমান চলচ্চিত্রটিকে "সুস্থ সহনীয় উপস্থাপন" হিসাবে আখ্যায়িত করেছেন। তিনি লিখেন, "বিরহকাল পর্বের দৃশ্যে শাকিব খানের রূপসজ্জায় আরও বিষণ্নতা রূপসজ্জাকর আনতে পারতেন। পরীমনি ও শাকিব খানের শেষ টেলিফোন আলাপ দৃশ্যের আবহ আরও শৈল্পিক ও মনস্তাত্ত্বিক দৃষ্টিকোণে চিত্রগ্রাহক রচনা করতে পারতেন। প্রচুর শট ও দৃশ্য থাকা সত্ত্বেও সম্পাদনা ভাষারীতি প্রয়োগের অভাবে চলচ্চিত্রটি সিনেমাটিক মুড, মুমেন্ট অথবা দ্বান্দ্বিক সংঘাত সৃষ্টিতে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।" চলচ্চিত্রে তিনি পরীমনির অভিনয়ের প্রশংসা করে বলেন, "পরীমনির অভিনয় এককথায় অপূর্ব! শাকিব খানকে পরিচালক ধরিয়ে দিতে পারতেন। সিনেমার নায়ক ও প্রেমিক—এই দুটি চরিত্রের মাঝে একধরনের সূক্ষ্ম ট্রান্সফরমেশন বা রূপান্তর আছে। আমাদের সমাজ-সংস্কৃতিকে ধ্বংসের উপকরণে ঠাসা অন্য দুই-চারটি চলচ্চিত্র থেকে আরো ভালোবাসবো তোমায় সুস্থ সহনীয় উপস্থাপন।"[২০]

পুরস্কার ও সম্মাননা সম্পাদনা

চলচ্চিত্রটিতে স্বভূমিকায় অভিনয় করে শাকিব খান কর্মজীবনে তৃতীয়বারের মতো শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসাবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।

পুরস্কার প্রদানের তারিখ বিভাগ মনোনীত ফলাফল সূত্র
সিজেএফবি পারফরম্যান্স পুরস্কার ১৮ ডিসেম্বর ২০১৬ শ্রেষ্ঠ পরিচালক এস এ হক অলিক বিজয়ী [২১]
শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী পরীমনি বিজয়ী
জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২৪ জুলাই ২০১৭ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা শাকিব খান বিজয়ী [২২]
[২৩]

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. ১৪ আগস্ট ‘আরো ভালবাসবো তোমায়’ | JagoNews24.com
  2. "শাকিব-পরীমণির 'আরো ভালোবাসবো তোমায়'"bdnews24.com। ৭ অক্টোবর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৫ 
  3. "শাকিবের 'আরো ভালোবাসবো তোমায়'"NTV Online 
  4. "সোহেল রানা ও পরীমনি 'আরো ভালবাসবো তোমায়' ছবিতে"। ৭ অক্টোবর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৫ 
  5. "১৪ আগস্ট মুক্তি পাবে আরো ভালোবাসবো তোমায়"dainikpurbokone.net। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৫ 
  6. "১৪ আগস্ট মুক্তি পাবে 'আরো ভালোবাসবো তোমায়'"bhorerkagoj.net। ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  7. "আজ শতাধিক সিনেমাহলে মুক্তি পাচ্ছে এস. এ. হক অলিক এর আরো ভালোবাসবো তোমায়"gbangla24.com। ৭ অক্টোবর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৫ 
  8. "জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৫: শাকিব খান-মাহফুজ সেরা অভিনেতা, সেরা অভিনেত্রী জয়া"দৈনিক কালের কণ্ঠ। ১৮ মে ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মে ২০১৭ 
  9. "২০১৫ সালের 'জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার' ঘোষণা"দৈনিক জনকণ্ঠ। ঢাকা, বাংলাদেশ। ২৪ জুলাই ২০১৭। ১৬ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জুলাই ২০১৭ 
  10. "Shakib, Mahfuz, Jaya receive National Award"Prothomalo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-১২ 
  11. "শাকিব-পরী মনিকে নিয়ে 'আরো ভালোবাসবো তোমায়'"BanglaTribune। ২০২০-০৪-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-১২ 
  12. "ঈদে শাকিব-পরীমনির 'আরো ভালোবাসবো তোমায়'"কালের কণ্ঠ। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-১২ 
  13. প্রতিবেদক, গ্লিটজ; ডটকম, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর (১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "শাকিব-পরীমণির 'আরো ভালোবাসবো তোমায়'"bangla.bdnews24.com। ১৭ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০২০ 
  14. "শাকিবের আরো ভালোবাসবো তোমায়"এনটিভি অনলাইন। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০২০ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  15. "বান্দরবানে শাকিব-পরীমনির প্রেম!"banglanews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-১২ 
  16. ""Aro Bhalobashbo Tomay" to get countrywide release today"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৫-০৮-১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-১২ 
  17. "চলচ্চিত্রের গানে হাবিব-পড়শী"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-১২ 
  18. "ছাড়পত্র পেল আরো ভালোবাসবো তোমায়"সমকাল। ৮ জুলাই ২০১৫। ১৮ এপ্রিল ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০২০ 
  19. "'নায়িকা হওয়ার জন্যই আমার জন্ম'"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-১২ 
  20. চিত্রসমালোচক, মতিন রহমান (২৭ আগস্ট ২০১৫)। "সুস্থ সহনীয় উপস্থাপন"প্রথম আলো। ২০ এপ্রিল ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০২০ 
  21. "CJFB Performance Award conferred"দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট। ২৪ ডিসেম্বর ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ ডিসেম্বর ২০২২ 
  22. https://www.thedailystar.net/bangla/anandadhara/সিকোয়েন্স/জাতীয়-চলচ্চিত্র-পুরস্কার-২০১৫-সেরা-অভিনয়শিল্পী-শাকিব-মাহফুজ-ও-জয়া-80800
  23. "জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেলেন শাকিব, জয়া, মাহফুজ"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ১০ মে ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১২ এপ্রিল ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা