হাবিব ওয়াহিদ

বাংলাদেশী সংগীতশিল্পী

হাবিব ওয়াহিদ (যিনি হাবিব নামেই শ্রোতাদের কাছে বেশি পরিচিত) (জন্ম: ১৫ অক্টোবর ১৯৭৯)[২] একজন বাংলাদেশী জনপ্রিয় সুরকার, সঙ্গীতশিল্পী এবং সংগীত পরিচালক। তিনি বাংলা লোকগীতির ফিউশনের সাথে টেকনো এবং শহুরে বিটের সমন্বয়ের জন্যে সমধিক পরিচিত। স্বল্প পরিচিত লোকগীতিকে আরো ভাল সুর দিয়ে, রিমিক্স করে সাধারণ শ্রোতাদের কাছে জনপ্রিয় গ্রহণযোগ্য করে তুলছেন তিনি। তিনি মূলত হাসন রাজা, শাহ আবদুল করিম, আমির উদ্দীন প্রমূখ মরমী সঙ্গীত শিল্পীদের গানকে কিছুটা পরিবর্তনের মাধ্যমে জনপ্রিয় করে তুলেছেন। এ কারণে অনেকের কাছেই তিনি যেমন সমালোচিত হয়েছেন, ঠিক তেমনি তরুণ প্রজন্মের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে খ্যাত হয়েছেন। হাবিব ওয়াহিদ বিভিন্ন শিল্পীর সাথে অনেক জনপ্রিয় গান গেয়েছেন। জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী ন্যান্সি কে সাথে নিয়েই উপহার দিয়েছেন বেশির ভাগ গান । হাবিব ওয়াহিদ সদ্য সুপারস্টার দেব অভিনীত ভারতীয় বাংলা সিনেমা বিন্দাস এ র গান গেয়েছেন। তার সহশিল্পী ছিলেন তুলসী কুমার

হাবিব ওয়াহিদ
Habib's picture for wikipedia.JPG
জন্ম (1979-10-15) ১৫ অক্টোবর ১৯৭৯ (বয়স ৪০)[১]
জাতীয়তাবাংলাদেশী
নাগরিকত্ব বাংলাদেশ
পেশাসংগীত শিল্পী, সুরকার, সঙ্গীতবিদ,সংগীত পরিচালক
দাম্পত্য সঙ্গীরেহান (ডিভোর্স ২০১৬)
পিতা-মাতাফেরদৌস ওয়াহিদ (বাবা)

জীবনসম্পাদনা

হাবিবের পিতা ফেরদৌস ওয়াহিদ আধুনিক বাংলা পপ সঙ্গীতের পথদ্রষ্টা ছিলেন। ১৯৭০ ও ১৯৮০’র দশকে ফেরদৌস ওয়াহিদ বাংলা পপ সঙ্গীতকে সম্মানজনক স্থানে নিয়ে গিয়েছিলেন। হাবিব তাই ছোটবেলাতেই তার পিতার কী-বোর্ড থেকে সুর করতে শিখেন। পরে তিনি স্কুল অব অডিও ইঞ্জিনিয়ারিং, (লন্ডনে) শব্দ প্রকৌশলে অধ্যয়ন করেন। এসময় তিনি এশিয়ান আন্ডারগ্রাউন্ডের নিতিনের সাথে কাজ করার সুযোগ পান।[৩]

হাবিব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক শ্রেণীর শিক্ষার্থী রেহান কে বিয়ে করেন। হাবিব এর প্রথম সন্তান আলীম ওয়াহিদ ২০১২ সালের ২৪ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করে।[৪] রেহানকে তিনি ২০১৬ সালের ১৯ জানুয়ারিতে তালাক দিয়ে বর্তমানে একা আছেন। সম্প্রতি তিনি ছোট পর্দার আরেক তরুণ অভিনেত্রী তানজিন তিশার সাথে সম্পর্কে জড়িয়েছেন।[৫]

সঙ্গীত ভুবনে আবির্ভাবসম্পাদনা

হাবিবের প্রথম লোকসঙ্গীতের রিমিক্স অ্যালবাম কৃষ্ণ। লন্ডনে ছাত্রাবস্থায় থাকাকালীন সময়ে এটি প্রকাশিত হয়। এ অ্যালবামের কনসেপ্ট ও সুর অনেক পূর্বেই তৈরি করেছিলেন এবং শুধু একজন গায়কের জন্য অপেক্ষা করছিলেন বলে জানা যায়। লন্ডনে একজন সিলেটি রেস্তোঁরার মালিক কায়া ছিলেন একজন অপরিণত গায়ক, যার মত কন্ঠই হাবিবের দরকার ছিল। তাদের মিলিত গানগুলো লন্ডনে প্রচণ্ড জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিল। যখন এই অ্যালবাম কৃষ্ণ শিরোনামে প্রথমবারের মত বাংলাদেশে মুক্তি পায় তখন সেটি অসম্ভব জনপ্রিয়তা অর্জন করে। এতে ছিল পুরোনো স্বাদের লোকসঙ্গীত এবং পাশ্চাত্যের ইলেকট্রনিকা এর মিশ্রণ যা বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো প্রচলিত হয়।

প্রকাশিত অ্যালবামসমূহসম্পাদনা

এরপর থেকে হাবিব আরও দু’টি অ্যালবাম মুক্তি দেন - মায়া (২০০৪) এবং ময়না গো (২০০৫)। দু’টোই বিক্রির তালিকায় একনম্বর ছিল। হাবিব এই অ্যালবামগুলোতে নতুন কন্ঠের আগমন ঘটান। কায়া’র পাশাপাশি এতে হেলাল’কে আনেন যার কন্ঠে অনেক অনুভূতি ছিল। জুলি, কনিকা, নির্ঝর ইত্যাদি নতুন মুখ ময়না গো অ্যালবামে হাবিবের সাথে কাজ করেন। হাবিব নিজেও ময়না গো অ্যালবামের মাধ্যমে গায়ক হিসেবে নিজেকে আত্মপ্রকাশ করেন। হাবিবের পিতা ফেরদৌস ওয়াহিদমিলন মাহমুদ ময়না গো অ্যালবামে গান গেয়েছেন। হাবিবের গানগুলোতে হিপহপ, রেপ, ইত্যাদিতে কন্ঠ দেন কুনলে। হাবিব নিজেকে অন্যতম জনপ্রিয় তরুণ সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তাছাড়া তার আরোও নিজের কিছু একক অল্যবাম বের করেন। হাবিব

হাবিব এর অন্যতম অল্যবাম গুলোর মধ্যে

  • শোন ২০০৬
  • পাঞ্জাবীওয়ালা ২০০৭
  • আকাশ ছোঁয়া ভালবাসা ২০০৮
  • এই তো প্রেম ২০০৮
  • চন্দ্র গ্রহন
  • হৃদয়ের কথা ২০০৮
  • বলছি তোমাকে ২০০৮
  • অবশেষে ২০০৮
  • প্রজাপতি ২০১০
  • আহবান ২০১১
  • রঙ ২০১২
  • স্বাধীন ২০১২
  • তুমি সুন্দর মেঘমালা ২০১২
  • সিঙ্গেল ট্র্যাক:"হারিয়ে ফেলা ভালোবাসা"(২০১৫);"মন ঘুমায় রে"(২০১৫);" তোমার আকাশ"(২০১৬); "বেপোরয়া মন" (২০১৬) মনের ঠিকানা (২০১৬) "ঘুম" (২০১৭), "মিথ্যে নয়" (২০১৭) "আবার তুই" (২০১৮), "আলিঙ্গন" (২০১৯)

তাছাড়া হাবিব বেশ কিছু টিভি বিজ্ঞাপন এর গায়ক এর কাজ করেছেন।

ময়না গোসম্পাদনা

ময়না গো হাবিব ওয়াহিদের ২০০৫ সালে প্রকাশিত একটি বাংলা পপ সঙ্গীত অ্যালবাম।

গানের বিবরণসম্পাদনা

গানের নাম সময় শিল্পীর নাম
ময়না গো ৪.১৩ জুলি
আমি এক পাহারাদার ৫.১৭ ফেরদৌস ওয়াহিদ এবং হাবিব
দেশলাই ৫.০০ নির্ঝর
দিন গেল ৫.৪১ হাবিব
তারে ভাবলে কি আর ৫.৩০ মিলন মাহমুদ
এসো বৃষ্টি নামাই ৪.৫১ হাবিব
যা রে ৪.৩৮ জুলি
কবিতায় ৬.০৯ কনিকা
ময়না গো (রিমিক্স) ৩.৪৭ জুলি
বাংলা লিঙ্ক থীম ১.০০ যন্ত্র (হাবিব)
শোনো
বলছি তোমাকে

মায়াসম্পাদনা

মায়া হাবিব ওয়াহিদের ২০০৪ সালে প্রকাশিত সঙ্গীত অ্যালবাম।

গানের বিবরণসম্পাদনা

  • আসি বলে গেল বন্ধু
  • বাউলা
  • বন্ধুয়া
  • দয়া
  • কানাই
  • কুহু সুরে মনের আগুন
  • লোকে বলে
  • মায়া
  • মন মজায়া
  • অচিন দেশের
  • সোনা বন্ধে
  • Where's My Baby Gone

কৃষ্ণসম্পাদনা

কৃষ্ণ হাবিব ওয়াহিদের ২৹৹৩ সালে প্রকাশিত সঙ্গীত অ্যালবাম।

গানের বিবরণসম্পাদনা

  • কৃষ্ণ - কায়া
  • দয়াল বাবা - কায়া
  • আমি কূল হারা কলঙ্কিনী - কায়া
  • কেমনে ভুলিব আমি - কায়া
  • গান গাই আমার - কায়া
  • কালা - কায়া
  • আজ পাশা - কায়া
  • দিন গেলে দিন - কায়া
  • কৃষ্ণ (রিমিক্স) - কায়া
  • আজ পাশা (যন্ত্র)

পুরস্কার ও মনোনয়নসম্পাদনা

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার
বছর বিভাগ মনোনীত কর্ম ফলাফল সূত্র
২০১১ শ্রেষ্ঠ সঙ্গীত পরিচালক প্রজাপতি [৬]
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার
বছর বিভাগ মনোনীত কর্ম ফলাফল সূত্র
২০০৭ শ্রেষ্ঠ গায়ক "ভালোবাসবো বাসবো রে বন্ধু তোমায় যতনে" (চলচ্চিত্র - হৃদয়ের কথা) বিজয়ী [৭]
২০০৯ বলছি তোমাকে [৮]
২০১০ "দ্বিধা" (চলচ্চিত্র - থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার) [৯]
২০১১ "প্রজাপতি" (চলচ্চিত্র - প্রজাপতি)
২০১৬ "হারিয়ে ফেলা ভালোবাসা" মনোনীত
২০১৭ "বেপরোয়া মন"
সিটিসেল-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস
বছর বিভাগ মনোনীত কর্ম ফলাফল সূত্র
২০০৪ সেরা মিউজিক ভিডিও (সমালোচক) দ্য হিট কালেকশন বিজয়ী
২০০৬ সেরা চলচ্চিত্রের গান (সমালোচক) "ভালোবাসবো বাসবো রে বন্ধু তোমায় যতনে" (চলচ্চিত্র - হৃদয়ের কথা)
সেরা চলচ্চিত্রের গান (দর্শক জরিপ) "ভালোবাসবো বাসবো রে বন্ধু তোমায় যতনে" (চলচ্চিত্র - হৃদয়ের কথা)
২০০৯ সেরা চলচ্চিত্রের গান (সমালোচক) "দ্বিধা" (চলচ্চিত্র - থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার)
নাজমুন মুনিরা ন্যান্সির সাথে যৌথভাবে
সিজেএফবি পারফরম্যান্স পুরস্কার
  • ২০১০ - সেরা গায়ক[১০]
  • ২০১১ - সেরা গায়ক[১১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "শুভ জন্মদিন হাবিব ওয়াহিদ"ekushey-tv.com। ১৫ অক্টোবর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ মে ১৪, ২০২০ 
  2. ভোরের কাগজ ১৫ অক্টোবর ২০১৭
  3. "মাকে নিয়ে হাবিবের মজার পোস্ট"ntvbd.com। ২৬ অক্টোবর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ মে ১৪, ২০২০ 
  4. "বাবা হলেন হাবিব ওয়াহিদ"। প্রথম আলো। ২০১২-১২-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-১২-২৪ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  5. "সিঙ্গেল কী না বিষয়টি গোপন রাখতে চাই: হাবিব ওয়াহিদ"thedailystar.net। ১৩ নভেম্বর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ মে ১৪, ২০২০ 
  6. "Guerrilla bags 10 National Film Awards"বিডিনিউজ। ১৭ মার্চ ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০২০ 
  7. "মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার-২০০৬"দৈনিক প্রথম আলো। ১৫ মে ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০১৮ 
  8. "Meril-Prothom Alo Award ceremony held"দ্য ডেইলি স্টার। ১১ এপ্রিল ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০২০ 
  9. আলম, জাহাঙ্গীর (১১ এপ্রিল ২০১০)। "Meril Prothom Alo Awards"দ্য ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০২০ 
  10. "ইউরো-সিজেএফবি পারফরমেন্স অ্যাওয়ার্ড"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ১ আগস্ট ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০২০ 
  11. "সিজেএফবি পারফর্মেন্স অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠিত"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ৮ অক্টোবর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০২০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা