আন্দ্রে রাসেল

ওয়েষ্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটার
(Andre Russell থেকে পুনর্নির্দেশিত)

আন্দ্রে ডোয়াইন রাসেল (ইংরেজি: Andre Dwayne Russell; জন্ম: ২৯ এপ্রিল, ১৯৮৮) হলেন একজন জ্যামাইকান ক্রিকেটার। রাসেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের হয়ে খেলে থাকেন। তিনি মূলত একজন ফাস্ট বোলিং অল-রাউন্ডার।

আন্দ্রে রাসেল
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম
আন্দ্রে ডোয়াইন রাসেল
জন্ম (1988-04-29) ২৯ এপ্রিল ১৯৮৮ (বয়স ৩৬)
জ্যামাইকা
উচ্চতা৬ ফুট ১ ইঞ্চি (১.৮৫ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট বোলার
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় দল
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ২৮৮)
১৫ নভেম্বর ২০১০ বনাম শ্রীলঙ্কা
ওডিআই অভিষেক১১ মার্চ ২০১১ বনাম আয়ারল্যান্ড
শেষ ওডিআই২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ বনাম জিম্বাবুয়ে
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৬/০৭ –জ্যামাইকা
২০১২ –দিল্লি ডেয়ারডেভিলস
২০১৩ –সিলেট রয়্যালস
২০১৩ –ওরচেস্টারশায়ার
২০১৪ –কলকাতা নাইট রাইডার্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৩৪ ১৬ ৫৪
রানের সংখ্যা ৬৬০ ৫৬৫ ১,০১৪
ব্যাটিং গড় ২.০০ ৩০.০০ ২৫.৬৮ ৩০.৭২
১০০/৫০ –/– –/৩ ১/– –/৪
সর্বোচ্চ রান ৯২* ১২৮ ৯২*
বল করেছে ১৩৮ ১,৪২৭ ১,৯২৪ ২,৩১০
উইকেট ৪২ ৫০ ৮০
বোলিং গড় ১০৪ ৩১.০০ ২০.৮৮ ২৪.৭৮
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ১/৭৩ ৪/৩৫ ৫/৩৬ ৬/৪২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/– ৭/– ৬/– ১৩/–
উৎস: ইএসপিএন ক্রিকইনফো, ২১ এপ্রিল ২০১৩

ঘরোয়া ক্রিকেট সম্পাদনা

প্রথম শ্রেণী ক্রিকেট সম্পাদনা

১২ জানুয়ারী ২০০৭ সালে , ক্যারিব বিয়ার সিরিজ-এ গ্রোস আইলেটে জ্যামাইকা বনাম উইন্ডওয়ার্ড ম্যাচে তার প্রথমশ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক হয়। তার দলের অধিনায়ক ছিলেন ওয়াভেল হাইন্ডস

২০১০ সালে ইংল্যান্ডের ওরচেস্টারশায়ার বার্নার্ডস গ্রীণ ক্রিকেট ক্লাব, দলের হয়ে খেলেন যেখানে তিনি বার্মিংহাম লীগ ক্রিকেটে প্রমোশনেন সাহায্য করেন। তিনি ৩৯ উইকেট লাভ করেন যেখানে ১০.১৫ এভারেজ ছিল। তিনি তার ব্যাটিং নেতৃত্বে ৯৯.৮৮ গড়ে ১১ ইনিংসে মিলে (৩বার অপরাজিত) ৭৯৯ রান করেন।

২০১৪ সালে তিনি শেষ প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট খেলেন।

লিস্ট এ ক্রিকেট সম্পাদনা

১৮ নভেম্বর ২০০৮ সালে , WICB কাপ-এ প্রোভিডেন্স মাঠে জ্যামাইকা বনাম গায়ানা ম্যাচে তার লিস্ট এ ক্রিকেটের অভিষেক ঘটে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সম্পাদনা

একমাত্র টেস্ট সম্পাদনা

রাসেলের ২০১০ সালের নভেম্বরে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টেস্টে অভিষেক হয়।[১][২] সেটিই ছিল তার প্রথম ও শেষ টেস্ট ম্যাচ।

একদিবসীয় সম্পাদনা

২০১১ সালের ভারতের মোহালিতে ২০১১ ক্রিকেট বিশ্বকাপে আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে তার একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক হয়। যেখানে তিনি মাত্র ৩ রান করেন এবং বল হাতে জন মনিকে বোল্ড করেন।

২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ-এ তিনি শেষবার একদিবসীয় খেলেন।

আন্তর্জাতিক টি২০ সম্পাদনা

২১ এপ্রিল ২০১১ সালে , পাকিস্তানের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে গ্রস আইলেটে একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচে তার টি২০ আন্তর্জাতিক অভিষেক ঘটে।

২০১২ আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০ সম্পাদনা

ওয়েস্ট ইন্ডিজের জেতা প্রথম টি২০ বিশ্বকাপের দলে ছিলেন তিনি। যদিও তিনি সাদামাটা প্রদর্শন করেছিলেন।

২০১৬ আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০ সম্পাদনা

ওয়েস্ট ইন্ডিজের জেতা দ্বিতীয় টি২০ বিশ্বকাপের দলে ছিলেন তিনি। বল হাতে দারুন প্রদর্শন করেন। সেমিফাইনাল ম্যাচে ভারতের বিরুদ্ধে হার্দিক - জাদেজার বিরুদ্ধে বিধ্বংসী ব্যাটিং করে ম্যাচ জেতান।

পেশাদার লীগ সম্পাদনা

আইপিএল সম্পাদনা

২০১২ সালের আইপিএল নিলামে দিল্লি ডেয়ারডেভিলস তাকে $৪৫০,০০ মার্কিন ডলারের বিনিময়ে কিনে নেয়।[৩]

২০১৪ সালের নিলামে কলকাতা নাইট রাইডার্স দল তাকে কেনে এবং এখনো সেই দলের হয়ে আইপিএল খেলছেন।

বছর দল মূল্য ম্যাচ টীকা
২০১২ দিল্লি ক্যাপিটালস ২৪০ লক্ষ
২০১৩ দিল্লি ক্যাপিটালস ২৪০ লক্ষ
২০১৪ কলকাতা নাইট রাইডার্স ৬০ লক্ষ বিজয়ী
২০১৫ কলকাতা নাইট রাইডার্স ৬০ লক্ষ ১৩ মরসুম সেরা
২০১৬ কলকাতা নাইট রাইডার্স ৬০ লক্ষ ১২
২০১৭ ডোপিং এর জন্যে বহিস্কৃত -
২০১৮ কলকাতা নাইট রাইডার্স ৭০০ লক্ষ ১৬
২০১৯ কলকাতা নাইট রাইডার্স ৭০০ লক্ষ ১৪ মরসুম সেরা
২০২০ কলকাতা নাইট রাইডার্স ৭০০ লক্ষ ১০
২০২১ কলকাতা নাইট রাইডার্স ৭০০ লক্ষ ১০ রানার-আপ
২০২২ কলকাতা নাইট রাইডার্স ১২০০ লক্ষ ১৪
২০২৩ কলকাতা নাইট রাইডার্স ১৬০০ লক্ষ ১৪

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ সম্পাদনা

বছর দল টীকা
২০১০ জ্যামাইকা (ক্যারিবিয়ান টোয়েন্টি২০)
২০১০-১১ জ্যামাইকা (ক্যারিবিয়ান টোয়েন্টি২০)
২০১১-১২ জ্যামাইকা (ক্যারিবিয়ান টোয়েন্টি২০) রানার-আপ
২০১২-১৩ জ্যামাইকা (ক্যারিবিয়ান টোয়েন্টি২০)
২০১৩ জ্যামাইকা তালাওয়াস বিজয়ী
২০১৪ জ্যামাইকা তালাওয়াস
২০১৫ জ্যামাইকা তালাওয়াস
২০১৬ জ্যামাইকা তালাওয়াস বিজয়ী , মরসুম সেরা
২০১৭ ডোপিং এর জন্যে বহিস্কৃত
২০১৮ জ্যামাইকা তালাওয়াস
২০১৯ জ্যামাইকা তালাওয়াস
২০২০ জ্যামাইকা তালাওয়াস
২০২১ জ্যামাইকা তালাওয়াস
২০২২ ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স
২০২৩ ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স রানার-আপ

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ সম্পাদনা

বছর দল টীকা
২০১২ খুলনা রয়াল বেঙ্গল
২০১৩ সিলেট রয়্যালস
২০১৫-১৬ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স বিজয়ী
২০১৬-১৭ ঢাকা ডায়নামাইটস বিজয়ী
২০১৮-১৯ ঢাকা ডায়নামাইটস রানার-আপ
২০১৯-২০ রাজশাহী রয়্যালস বিজয়ী , মরসুম সেরা
২০২১-২২ মিনিস্টার ঢাকা
২০২২-২৩ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স বিজয়ী
২০২৪ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স রানার-আপ

ইন্টারন্যাশনাল লিগ টি২০ সম্পাদনা

২০২৩ - আবুধাবি নাইট রাইডার্স

বিগ ব্যাশ লিগ সম্পাদনা

২০১৪-১৫ - মেলবোর্ন রেনেগেডস

২০১৫-১৬ - সিডনি থান্ডার

২০১৬-১৭ - সিডনি থান্ডার

২০২১-২২ - মেলবোর্ন রেনেগেডস

২০২২-২৩ - মেলবোর্ন রেনেগেডস

পাকিস্তান সুপার লিগ সম্পাদনা

২০১৬ - ইসলামাবাদ ইউনাইটেড

২০১৮ - ইসলামাবাদ ইউনাইটেড

২০১৯ - মুলতান সুলতান্স

২০২১ - কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স

লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ সম্পাদনা

২০২০ - কলম্বো কিংস

কৃতিত্ব সম্পাদনা

সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৩ তারিখে, ভারতের বিরুদ্ধে একটি ম্যাচে তিনি কেদার যাদব, যুবরাজ সিং, নামান ওঝা ও ইউসুফ পাঠানকে আউট করে তিনি টি২০ ম্যাচে প্রথম বোলার হিসেবে ৪ বলে ৪ উইকেট লাভ করতে সামর্থ্য হন।

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. Myers, Sanjay (৫ নভেম্বর ২০১০)। "Great timing! – Russell cites destiny in journey into WI team"Jamaica Observer। ৮ নভেম্বর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০১০ 
  2. "Windies elect to bat in first Sri Lanka Test"Times of India। ১৫ নভেম্বর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০১০ 
  3. "IPL auction 2012"। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১২ 

আরও দেখুন সম্পাদনা

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা