প্রধান মেনু খুলুন

স্টিভেন ফিন

ইংরেজ ক্রিকেটার

স্টিভেন টমাস ফিন (জন্ম: ৪ এপ্রিল ১৯৮৯) হলেন একজন ইংরেজ ক্রিকেটার। তিনি একজন ডান-হাতি ব্যাটসম্যান এবং একজন ডান-হাতি ফাস্ট মিডিয়াম বোলার হিসেবে ভূমিকা পালন করে থাকেন। মাত্র ১৬ বছর বয়সে তিনি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় মিডলসেক্স কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের সর্বকনিষ্ঠ অভিষেক খেলোয়াড়ের মর্যাদা পান। তিনি বাংলাদেশ জাতীয় দল এর বিরুদ্ধে ২০১০ সালের ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল এর হয়ে টেস্ট ক্রিকেটে আত্মপ্রকাশ করেন।

স্টিভেন ফিন
Steven Finn, 2015.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামস্টিভেন টমাস ফিন
জন্ম (1989-04-04) ৪ এপ্রিল ১৯৮৯ (বয়স ৩০)
হার্টফোর্ডশায়ার, ইংল্যান্ড
ডাকনামফিনি
উচ্চতা৬ ফুট ৭ ইঞ্চি (২.০১ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডান-হাতি
বোলিংয়ের ধরনডান হাতি ফাস্ট মিডিয়াম
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৬৪৭)
২ মার্চ ২০১০ বনাম বাংলাদেশ
শেষ টেস্ট১০ জুলাই ২০১৩ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ২১৮)
৩০ জানুয়ারি ২০১১ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ ওডিআই১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই শার্ট নং২৫
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৫–বর্তমানমিডলসেক্স (দল নং 9)
২০১১ওতাগো
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওয়ানডে এফসি লিস্ট এ
ম্যাচ সংখ্যা ২৩ ৩৯ ৯৩ ৮৭
রানের সংখ্যা ১৬৯ ৯৬ ৫৬৭ ১৭০
ব্যাটিং গড় ১১.২৬ ১৩.৭১ ৭.২৬ ৯.৪৪
১০০/৫০ ০/১ ০/০ ০/১ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৫৬ ৩৫ ৫৬ ৩৫
বল করেছে ৪,৩৪৮ ২,০৮৪ ১৬,৫৩০ ৪,০৩৪
উইকেট ৯০ ৫৯ ৩৩৭ ১১৯
বোলিং গড় ২৯.৪০ ২৭.৭৪ ২৮.২৯ ২৭.৬০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট n/a n/a
সেরা বোলিং ৬/১২৫ ৪/৩৪ ৯/৩৭ ৫/৩৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৬/– ৮/– ২৯/– ১৫/–
উৎস: CricketArchive, 15 November 2013

প্রথম জীবন এবং ঘরোয়া ক্রিকেটসম্পাদনা

ফিন ওয়াটফোর্ড এর কাছাকাছি গার্সটন এর মধ্যে পারমিটার স্কুলে লেখাপড়া করেন। তিনি ওয়াটফোর্ড এফ.সি. দলের একজন অনুরাগী এবং এছাড়াও তিনি একজন প্রাক্তন কাউন্টি বাস্কেটবল খেলোয়াড়। ফিন ল্যাংলিবুরী সিসি ও ওয়েস্ট হার্টস সিসি দলের হয়ে স্থানীয়ভাবে খেলেছেন।[১] তিনি ফেনার কেমব্রিজ ইউসিসিএ এর বিরুদ্ধে ১ জুন ২০০৫ সালে মিডলসেক্স দলের হয়ে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় আত্মপ্রকাশ করেন।[২] তিনি ১৬ রানে ১ উইকেট লাভ করেন ও ৩৭ রানে ১ উইকেট কিন্তু তিনি ব্যাট করতে পারেননি। তিনি ১৯৪৯ সালের ১৬ বছর বয়সী ফ্রেড টিটমাসের রেকর্ড ভেঙ্গে মিডলসেক্স এর সর্বকনিষ্ঠ অভিষেক হওয়া খেলোয়াড়ের মর্যাদা পান।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ তারিখে মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত ২০১৫ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে তিনি হ্যাট্রিক করেন। অস্ট্রেলিয়া দলের ইনিংসের শেষ তিন বলে তিনি একে-একে ব্রাড হাড্ডিন, গ্লেন ম্যাক্সওয়েলমিচেল জনসনকে আউট করে তিনি এ কৃতিত্ব প্রদর্শন করেন।[৩]

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

পরিসংখ্যানসম্পাদনা

একটি ইনিংসে পাঁচ বা ততোধিক উইকেট
তারিখ প্রতিপক্ষ মাঠ রেকর্ড / স্কোরকার্ড
২৭ মে ২০১০   বাংলাদেশ লর্ডস, লন্ডন, ইংল্যান্ড বোলিং: ৫/৮৭
১৩ মার্চ ২০১০   বাংলাদেশ ওল্ড ট্রাফোর্ড, গ্রেটার ম্যানচেস্টার, ইংল্যান্ড বোলিং: ৫/৪২
২৬ নভেম্বর ২০১০   অস্ট্রেলিয়া গাব্বা, ব্রিসবেন, অস্ট্রেলিয়া বোলিং: ৬/১২৫
২৩ মার্চ ২০১৩   নিউজিল্যান্ড ইডেন পার্ক, অকল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড বোলিং: ৬/১২৫

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Finn's reunited: Steve Shirt SOS!"watfordfc.com। ৫ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ মার্চ ২০১৩ 
  2. "Cambridge University Centre of Cricketing Excellence v Middlesex"। Cricket Archive। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মে ২০১০ 
  3. "Cricket World Cup 2015: Steven Finn takes hat-trick"। BBC Sport। ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

পূর্বসূরী
পিটার সিডল
বর্ষসেরা উদীয়মান খেলোয়াড়
২০১০
উত্তরসূরী
দেবেন্দ্র বিশু