প্রধান মেনু খুলুন

আইসিসি পুরস্কার (ইংরেজি: ICC Awards) ক্রিকেট খেলার সাথে সংশ্লিষ্ট একগুচ্ছ পুরস্কারবিশেষ। এ পুরস্কারের মাধ্যমে পূর্বের বারো মাসের সবচেয়ে সেরা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলোয়াড়দেরকে স্বীকৃতিসহ সম্মানিত করা হয়। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল বার্ষিকভিত্তিতে ২০০৪ সাল থেকে টেস্ট ক্রিকেটভূক্ত দেশসহ সহযোগী সদস্যদেশের খেলোয়াড়দের মাঝে অদ্যাবধি পুরস্কৃত করে আসছে।

আইসিসি পুরস্কার
300px
তারিখ২০০৪
অবস্থানবৈশ্বিক
পুরস্কারদাতাআন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল
প্রথম পুরস্কৃত৭ সেপ্টেম্বর, ২০০৪
সর্বশেষ পুরস্কৃত১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১২

বিভাগসমূহসম্পাদনা

এগারোটি বিভাগে আইসিসি পুরস্কার প্রদান করা হয়। সেগুলো হচ্ছে -

এ পুরস্কার অর্জনে ভোট চলাকালীন সময়ে খেলোয়াড়ের বয়সসীমা ২৬ বছরের নিচে হতে হবে। পাঁচটির বেশি টেস্ট ক্রিকেট খেলা অথবা ১০টি ওডিআইয়ের বেশী খেলতে পারবে না।
দলকে খেলায় উজ্জ্বীবিত ভূমিকা পালনসহ -
  • তাদের প্রতিপক্ষ
  • নিজ দলের অধিনায়ক এবং নিজ দল
  • আম্পায়ারের ভূমিকা
  • খেলার মূল্যায়ণ

নির্বাচকমণ্ডলীসম্পাদনা

১ আগস্ট থেকে পরের বছরের ৩১ জুলাই মাস পর্যন্ত সময়কালের মধ্যে খেলোয়াড়দের মান যাচাই করা হয়। আইসিসি নির্বাচক কমিটিতে বিখ্যাত সাবেক খেলোয়াড়দেরকে সংশ্লিষ্ট করা হয়। তারা চূড়ান্তভাবে আইসিসি বর্ষসেরা খেলোয়াড়, আইসিসি বর্ষসেরা টেস্ট খেলোয়াড়, আইসিসি বর্ষসেরা একদিনের আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়, আইসিসি বর্ষসেরা উদীয়মান খেলোয়াড় নির্ধারণ করেন। এছাড়াও, কমিটি আইসিসি বিশ্ব টেস্ট দল এবং আইসিসি বিশ্ব ওডিআই দল নির্বাচন করেন।

নির্বাচকমণ্ডলী
সাল সভাপতি সদস্যবৃন্দ
২০০৪   সুনীল গাভাস্কার   রিচি বেনো   মাইকেল হোল্ডিং   ইয়ান বোথাম   ব্যারি রিচার্ডস
২০০৫   সুনীল গাভাস্কার   ডেভিড গাওয়ার   রিচার্ড হ্যাডলি   রড মার্শ   কোর্টনি ওয়ালশ
২০০৬   সুনীল গাভাস্কার   অ্যালান ডোনাল্ড   ইয়ান হিলি   অর্জুনা রানাতুঙ্গা   ওয়াকার ইউনুস
২০০৭   সুনীল গাভাস্কার   ক্রিস কেয়ার্নস   গ্যারি কার্স্টেন   ইকবাল কাসিম   অ্যালেক স্টুয়ার্ট
২০০৮   ক্লাইভ লয়েড   গ্রেগ চ্যাপেল   শন পোলক   সিদাথ ওয়েতমুনি   আতহার আলী খান
২০০৯   ক্লাইভ লয়েড   অনিল কুম্বলে   মুদাসসর নজর   স্টিফেন ফ্লেমিং   বব টেলর
২০১০   ক্লাইভ লয়েড   অ্যাঙ্গাস ফ্রেজার   ম্যাথু হেইডেন   রবি শাস্ত্রী   ডানকান ফ্লেচার
২০১১   ক্লাইভ লয়েড   জহির আব্বাস   মাইক গ্যাটিং   পল অ্যাডামস   ড্যানি মরিসন
২০১২   ক্লাইভ লয়েড   মারভান আতাপাত্তু   টম মুডি   কার্ল হুপার   ক্লেয়ার কনর
২০১৩   অনিল কুম্বলে   অ্যালেক স্টুয়ার্ট   ওয়াকার ইউনুস   ক্যাথরিন ক্যাম্পবেল   গ্রেইম পোলক
২০১৪   অনিল কুম্বলে   জোনাথন অ্যাগ্নিউ   রাসেল আর্নল্ড   স্টিফেন ফ্লেমিং   বেটি টিমার
২০১৫   অনিল কুম্বলে   ইয়ান বিশপ   মার্ক বুচার   বেলিন্ডা ক্লার্ক   গুন্ডাপ্পা বিশ্বনাথ

চূড়ান্তভাবে নির্বাচনের জন্য ৫৬ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটির উপর দায়িত্বভার অর্পণ করা হয়। যদি ভোটাভুটিতে সমানসংখ্যক ভোট পড়ে, তাহলে যুগ্মভাবে পুরস্কৃত করা হবে। ২০০৪ সালে এ কমিটির সদস্য ছিল ৫০জন। ৫৬ সদস্যবিশিষ্ট কমিটির গঠন হচ্ছে -

  • (ক) টেস্টখেলুড়ে দেশের বর্তমান অধিনায়ক - ১০জন
  • (খ) আইসিসি এলিট প্যানেলভূক্ত আম্পায়ারের সদস্য ও রেফারী - ১৮জন
  • (গ) বিখ্যাত সাবেক খেলোয়াড় ও ক্রিকেট সংবাদদাতা - ২৮জন

বছরওয়ারী পুরস্কারসম্পাদনা

২০০৪সম্পাদনা

৭ সেপ্টেম্বর, ২০০৪ সালে লন্ডনে আইসিসি পুরস্কার বিতরণী পর্বের শুভসূচনা ঘটে। ১ আগস্ট, ২০০৩ থেকে ৩১ জুলাই, ২০০৪ সাল পর্যন্ত মূল্যায়ন প্রক্রিয়া চলে। এ সময়ে টেস্ট ক্রিকেটের সকল খেলা এবং একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার সবগুলোকে মূল্যায়িত করা হয়েছিল।

২০০৫সম্পাদনা

১১ অক্টোবর, ২০০৫ সালে ২য় আইসিসি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান সিডনীর ফোর সিজনস হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়। ১ আগস্ট, ২০০৪ থেকে ৩১ জুলাই, ২০০৫ সাল পর্যন্ত মনোনয়ন প্রক্রিয়া চলে। ২০০৫ সালের অ্যাশেজ সিরিজের সমূদয় খেলা এতে অন্তর্ভুক্ত হয়নি।

২০০৬সম্পাদনা

৩য় আইসিসি পুরস্কার ভারতের মুম্বাইয়ে ৩ নভেম্বর, ২০০৬ সালে বিতরণ করা হয়। নির্বাচন প্রক্রিয়া ১ আগস্ট, ২০০৫ থেকে ৮ আগস্ট, ২০০৬ পর্যন্ত চলে। প্রথমবারের মতো বর্ষসেরা প্রমিলা ক্রিকেটার এবং বর্ষসেরা অধিনায়ক বিভাগ প্রবর্তন করা হয়।

২০০৭সম্পাদনা

৪র্থ আইসিসি পুরস্কার বিতরণী পর্ব দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে অনুষ্ঠিত হয় :-

২০০৮সম্পাদনা

১০ সেপ্টেম্বর, ২০০৮ সালে ৫ম আইসিসি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এত বর্ষসেরা টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে দক্ষতা প্রদর্শন নামে একটি বিভাগ খোলা হয়।

২০০৯সম্পাদনা

৬ষ্ঠ আইসিসি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ১ অক্টোবর, ২০০৯ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে অনুষ্ঠিত হয় :-

২০১০সম্পাদনা

৬ অক্টোবর, ২০১০ সালে ভারতের বেঙ্গালুরুতে ৭ম আইসিসি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান হয়:-

২০১১সম্পাদনা

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১১ সালে ইংল্যান্ডের লন্ডনে ৮ম আইসিসি পুরস্কার বিতরণ করা হয় :-

২০১২সম্পাদনা

৯ম আইসিসি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১২ তারিখে অনুষ্ঠিত হয়:-

২০১৩সম্পাদনা

২০১৩ সালের আইসিসি পুরস্কার টেলিভিশন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সম্প্রচারিত হয়। আনুষ্ঠানিক বিষয়ের পরিবর্তে বিশেষ টেলিভিশন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৩ তারিখে প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়।[৫]

২০১৪সম্পাদনা

২০১৪ সালের আইসিসি পুরস্কার টেলিভিশন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সম্প্রচারিত হয়। আনুষ্ঠানিক বিষয়ের পরিবর্তে বিশেষ টেলিভিশন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বৈশ্বিকভাবে ১৫/১৬ নভেম্বর, ২০১৪ তারিখে প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়।[৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা