প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় (বাংলাদেশ)

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সামরিক নীতি প্রণয়ন এবং কার্যকর করার প্রধান প্রশাসনিক প্রতিষ্ঠান। এই মন্ত্রণালয়টি একজন মন্ত্রীর নেতৃত্বে পরিচালিত হয়। সাধারনত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী এই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সশস্ত্র বাহিনী, আন্তঃবাহিনী দপ্তর এবং প্রতিরক্ষা সহায়ক অন্যান্য দপ্তর ও সংস্থার সমন্বয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব সমুন্নত রাখাই প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রধান দায়িত্ব।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ
প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়
Government Seal of Bangladesh.svg
সংস্থার রূপরেখা
গঠিত১৯৭১
অধিক্ষেত্রবাংলাদেশ সরকার
সদর দপ্তরগণভবন কমপ্লেক্স, ঢাকা [১]
দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী
সংস্থা নির্বাহীগণ
  • ডঃ মোঃ আবু হেনা মোস্তফা কামাল, সচিব
অধিভূক্ত সংস্থা
ওয়েবসাইটপ্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়

ইতিহাসসম্পাদনা

বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জনের পর পরই ১৯৭১ খ্রিষ্টাব্দে বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় গঠন করা হয়। প্রথম প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ছিলেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমেদ

ভিশনসম্পাদনা

  • বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা।
  • বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা।
  • বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনীকে বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় একটি সক্ষম ও উপযুক্ত বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলা।
  • অন্যান্য রাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে সমমর্যাদার ভিত্তিতে সুসম্পর্ক বজায় রাখা।
  • শান্তিপূর্ণ বিশ্ব গড়ে তোলার লক্ষে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনসমুহে অংশগ্রহণের মাধ্যমে বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় অবদান রাখা।[২]

অধীন সংস্থা ও দপ্তরসমূহসম্পাদনা

নিম্নে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন সংস্থা ও দপ্তরসমূহের তালিকা দেওয়া হল[৩]:

প্রতিরক্ষা বাহিনীসমূহসম্পাদনা

আন্তঃবাহিনী সংস্থাসমূহসম্পাদনা

অন্যান্য সংস্থা/দপ্তরসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা