কেন্টাকি ফ্রাইড চিকেন

আমেরিকান ফাস্টফুড চেইন

কেন্টাকি ফ্রাইড চিকেন (কেএফসি নামে পরিচিত) যুক্তরাষ্ট্রের কেন্টাকি অঙ্গরাজ্যের লুইসভিলে বেড়ে উঠা একটি ফুড চেইনকে বুঝায় যা মূলত এর ফ্রাইড চিকেনের জন্য সুখ্যাতি লাভ করেছে। এটি ম্যাকডোনাল্ডের পরে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম রেস্তোরাঁর চেইন (বিক্রয় দ্বারা পরিমাপ করা হয়েছে), ডিসেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত ১৫০টি দেশে বিশ্বব্যাপী ২২,৬২১টি স্থানে এদের দোকান রয়েছে।[৫] চেইনটি ইয়াম! ব্র্যান্ডসের একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান, যা একটি রেস্তোরাঁ কোম্পানি যা পিৎজা হাট, টাকো বেল এবং উইংস্ট্রিট চেইনের মালিক।[৬]

কেন্টাকি ফ্রাইড চিকেন
ধরনইয়াম! ব্র্যান্ড্‌স-এর একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান
শিল্পরেস্তোরাঁ
প্রতিষ্ঠাকালসাউথ সল্ট লেক, উটাহ
প্রতিষ্ঠাতাকর্নেল স্যান্ডার্‌স উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
সদরদপ্তরUS flag লুইসভিল, কেন্টাকি
অবস্থানের সংখ্যা
২৪,১০৪ [১]
প্রধান ব্যক্তি
পণ্যসমূহফাস্ট ফুড, including chicken and related Southern foods
আয়US$২৭.৯ বিলিয়ন (২০২০)[৪]
৩১,০০,০০,০০,০০০ মার্কিন ডলার (২০১৯) উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
১৮,০০,০০,০০,০০০ মার্কিন ডলার (২০১৯) উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
কর্মীসংখ্যা
৭৫০,০০০
ওয়েবসাইটkfc.com

২০০২ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ইয়াম! ব্র্যান্ড্‌স ইনকরপোরেটেডের একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠানের মালিকানায় পরিচালিত হচ নাম কেএফসি রাখা হয় ১৯৯১ সালে। তবে ২০০৭ সালের এপ্রিল মাস থেকে এর সকল স্বাক্ষর, প্যাকেজিং এবং বিজ্ঞাপনের জন্য পুরো কেন্টাকি ফ্রাইড চিকেন নামের ব্যবহার শুরু হয়েছে। মূলত যুক্তরাষ্ট্রে কোম্পানিটির ব্র্যান্ডে পূর্ণ পরিবর্তন আনার জন্যই এমনটি করা হয়েছে। নতুনভাবে নির্মিত রেস্তোঁরাগুলোতে এই নতুন স্বাক্ষর এবং প্রতীক ব্যবহৃত হবে। অবশ্য আগের রেস্তোঁরাগুলোতে ১৯৯১ সালের পুরনো প্রতীকই ব্যবহার করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে বর্তমানে বিভিন্ন বিজ্ঞাপনের জন্য কেএফসি নামটিই মুক্তভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। আন্তর্জাতিকভাবে এটি এখনও কেএফসি নামেই বেশি পরিচিত।

কেএফসি বিশ্বব্যাপী বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করে। এরই স্বীকৃতিস্বরূপ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের রেস্তোঁরা মালিকরা এই নামটি খাদ্যের মান হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। অর্থাৎ কোন রেস্তোঁরায় যদি কেএফসির সমমানের খাদ্যমান বজায় রাখতে পারে তাহলে তাদেরকে এই নামে আখ্যায়িত করা যাচ্ছে। কেএফসি ফাস্ট ফুড তাই এখন সারা বিশ্বে বিস্তৃতি লাভ করেছে।

আন্তর্জাতিক কেএফসি রেস্তোঁরাসমূহের অবস্থানসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "KFC: restaurants worldwide 2019"Statista (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-০৫ 
  2. "Senior Officers & Leadership Team"। Yum! Brands। সংগ্রহের তারিখ মে ১৫, ২০১৯ 
  3. Luna, Nancy (মে ১৩, ২০১৯)। "KFC promotes Monica Rothgery to COO of U.S. division"Nation's Restaurant News। সংগ্রহের তারিখ মে ১৫, ২০১৯ 
  4. "KFC"Forbes (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-০৫ 
  5. "KFC: restaurants worldwide 2019"Statista (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ মে ১৪, ২০২০ 
  6. "YUM! Brands, Form 10-K, Annual Report, Filing Date Feb 22, 2018"। secdatabase.com। সংগ্রহের তারিখ মে ৩, ২০১৮