আহল আল-বাইত

নবীর পরিবার
(আহলুল বাইত থেকে পুনর্নির্দেশিত)

আহল আল-বাইত (আরবি: أَهْلُ ٱلْبَيْتِ‎‎) বা আহলে বাইত (ফার্সি: اهلِ بیت‎‎; উর্দু: اہلِ بیت‎‎) একটি আরবি শব্দবন্ধ যার শাব্দিক অর্থ ঘরের লোকজন। প্রাক-ইসলামি যুগে এই শব্দগুচ্ছটি আরব উপদ্বীপের গোত্র শাসক পরিবারের জন্য ব্যবহৃত হত। ইসলামি ঐতিহ্য অনুসারে আহল আল-বাইত দ্বারা ইসলামের নবী মুহম্মদের পরিবার[ক][১] এবং কিছুক্ষেত্রে তাঁর পূর্বপুরুষ ইব্রাহিমকে বোঝানো হয়।[খ] শিয়া ইসলাম অনুসারে আহলে বাইত হলেন ইসলাম ও কোরআনের কেন্দ্রীয় ব্যাখ্যাকারী। শিয়া মুসলমানদের মতে আহলে বাইতের অন্তর্ভুক্ত হলেন নবী মুহম্মদ, তাঁর কন্যা ফাতিমা, তাঁর জামাতা আলী এবং তাঁদের সন্তান হাসানহোসেন, সম্মিলিতভাবে যাঁদের আহল আল-কিসা (চাদরাবৃত লোকেরা) বলা হয়। ইসনা আশারিয়ারা বারো ইমামকে আহলে বাইতের অন্তর্ভুক্ত বলে বিশ্বাস করে; অন্যান্য শিয়া উপদলগুলো আলীর অন্য বংশধরদের উপর গুরুত্বারোপ করে; যেমন জায়েদিরা জায়েদ ইবনে আলীকে এবং ইসমাইলিরা ইসমাইল ইবনে জাফরকে অনুসরণ করে থাকে।

সুন্নি ইসলাম অনুসারে আহলে বাইতের অন্তর্ভুক্ত হলেন নবী মুহম্মদ, তাঁর স্ত্রীগণ, তাঁর কন্যা ফাতিমা, জয়নব, রুকাইয়া, উম্মে কুলসুম, তাঁর চাচাতো ভাই ও জামাতা আলী এবং তাঁর দৌহিত্র হাসান ও হোসেন।[১] কিছুক্ষেত্রে এই শব্দগুচ্ছটিকে মুহম্মদের চাচা আবু তালিবআব্বাসের বংশধর অবধি বিস্তৃত করা হয়। মালিক ইবনে আনাসআবু হানিফার মতে সমগ্র বনু হাশিম গোত্র আহলে বাইতের অন্তর্ভুক্ত।[১]

শব্দগত উৎপত্তিসম্পাদনা

"আহল" (আরবি: أَهْلُ ٱلْبَيْتِ‎‎; ফার্সি: اهلِ بیت‎‎; উর্দু: اہلِ بیت‎‎;) শব্দটির অর্থ 'একজন ব্যক্তির গৃহের অভ্যন্তরস্থ সদস্যবৃন্দ, যাতে যুক্ত থাকে তার অনুসারী গোত্রবাসীরা, স্বজন, স্ত্রী (সকল), সন্তান, যারা পারিবারিক, ধর্মীয়, আবাসিক, শহরের, রাষ্ট্রীয় কর্মকান্ডের ক্ষেত্রে তার সহগামী'।

"বাইত" শব্দটি 'আবাসস্থল এবং বাসস্থান, তাবু এবং দালান উভয়ই'। গতানুগতিক ক্ষেত্রে এটি 'গৃহস্থলি' শব্দটির পরিবর্তে ব্যবহৃত হয়।

কোনো ব্যক্তির 'আহল আল-বাইত' বলতে তার পরিবারের সকল সদস্য এবং তার পরিবারের সাথে বসবাসকারী সকলকে নির্দেশ করে।[২] আহলে বায়াত মূলত তার কুরআন অর্থে ব্যবহৃত হয়,[৩] "আহলুল বাইত" শব্দটি পরিবারের সদস্য ও স্ত্রীকে ভদ্রভাবে সম্বোধনের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়।[৪]

কুরআনেসম্পাদনা

আহল আল-বাইত শব্দটি কোরআন-এ দুইবার ব্যবহৃত হয়েছে 'স্ত্রী' শব্দটির স্থলে।[৫] প্রথমটি মুহাম্মদ নবির স্ত্রীদের নির্দেশ করেছে[কুরআন ৩৩:৩৩] এবং পরেরটি ইবরাহীম নবির স্ত্রী সারাকে নির্দেশ করেছে।[কুরআন ১১:৭৩]

কিছু অনুবাদকের মতানুসারে, কেরআন-এ "আল-কুরবা" শব্দটি দ্বারা 'আহল আল-বায়াত' শব্দটিকে ৪২:২৩ বোঝানো হয়েছে।[৬][৭]

শিয়া ইসলাম অনুসারে আহল আল-বাইত-এর তালিকাসম্পাদনা

শিয়াদের সংজ্ঞানুসারে ইমাম এবং আহল আল-কিসা মিলিত হয়ে আহল আল-বাইত গঠিত। মুহাম্মদ নবির পরে ইসলামী মূল্যবোধের শিক্ষক এবং নিয়োগপ্রাপ্ত ব্যক্তিত্বরাই আহল আল-বাইত হিসেবে গণ্য হন।[৮]

আরও দেখুনসম্পাদনা

টীকাসম্পাদনা

  1. Ahl al-Bayt, Encyclopedia of Islam
  2. Mufradat al-Qur'an by Raghib Isfahani; Qamus by Firoozabadi; Majm'a al-Bahrayn
  3. Tehrani, Ayatullah Mahdi Hadavi (২০১৪)। Faith and Reason। [Place of publication not identified]: Lulu.com। আইএসবিএন 978-1-312-61635-6ওসিএলসি 1100686982 
  4. Mc Aulliffe, Jame Dammen (২০০৪)। Encyclopedia of the Qur'an। 4, P-Sh। Brill। পৃষ্ঠা 48আইএসবিএন 978-9-0041-2355-7 
  5. Böwering, Gerhard; Patricia Crone; Wadad Kadi; Mahan Mirza; Muhammad Qasim Zaman; Devin J. Stewart (১১ নভেম্বর ২০১২)। The Princeton Encyclopedia of Islamic Political Thought। Princeton University Press। আইএসবিএন 9780691134840The term ahl al-bayt (the people of the house) is used in the Qur'an as a term of respect for wives, referring to Abraham's wife Sarah (Q11:73), for example, and to the Prophet Muhammad's wives, who are declared to be purified by divine act: "God's wish is to remove uncleanness from you" (Q33:32-33). 
  6. "The Ahlul Bayt"Al-Islam.org (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১২-১২-০৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-২০ 
  7. "The Quran Speaks About Ahlul Bayt"www.islamicbooks.info। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-২০ 
  8. A Shi'ite Encyclopedia

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

শিয়া সংযোগ
সুন্নি সংযোগ


উদ্ধৃতি ত্রুটি: "lower-roman" নামক গ্রুপের জন্য <ref> ট্যাগ রয়েছে, কিন্তু এর জন্য কোন সঙ্গতিপূর্ণ <references group="lower-roman"/> ট্যাগ পাওয়া যায়নি