২০২৩–২৪ শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর

শ্রীলঙ্কা পুরুষ ক্রিকেট দল দুটি টেস্ট ম্যাচ, তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিক (ওডিআই) এবং তিনটি টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক (টি২০আই) খেলতে ২০২৪ সালের মার্চ এবং এপ্রিলে বাংলাদেশ সফর করেছিল।[১][২] টেস্ট সিরিজটি ২০২৩–২৫ আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ এর অংশ ছিল।[৩] ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে এই সফরের সূচি নিশ্চিত করা হয়েছিল।[৪]

২০২৩-২৪ শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর
 
  বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা
তারিখ ৪ মার্চ – ৩ এপ্রিল ২০২৪
অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত ধনঞ্জয়া ডি সিলভা (টেস্ট)
ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা/চারিথ আসালাঙ্কা[n ১]
(টি-টোয়েন্টি)
কুশল মেন্ডিস (ওয়ানডে)
টেস্ট সিরিজ
ফলাফল ২ ম্যাচের সিরিজে শ্রীলঙ্কা ২–০ ব্যবধানে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান মুমিনুল হক (১৭৫) কামিন্দু মেন্ডিস (৩৬৭)
সর্বাধিক উইকেট খালেদ আহমেদ (৭) লাহিরু কুমারা (১১)
সিরিজ সেরা খেলোয়াড় কামিন্দু মেন্ডিস (শ্রীলঙ্কা)
একদিনের আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩ ম্যাচের সিরিজে বাংলাদেশ ২–১ ব্যবধানে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান নাজমুল হোসেন শান্ত (১৬৩) জানিথ লিয়ানাগে (১৭৭)
সর্বাধিক উইকেট তাসকিন আহমেদ (৮) ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা (৬)
সিরিজ সেরা খেলোয়াড় নাজমুল হোসেন শান্ত (বাংলাদেশ)
টোয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩ ম্যাচের সিরিজে শ্রীলঙ্কা ২–১ ব্যবধানে জয়ী হয়
সর্বাধিক রান নাজমুল হোসেন শান্ত (৭৪) কুশল মেন্ডিস (১৮১)
সর্বাধিক উইকেট তাসকিন আহমেদ (৪) নুয়ান থুশারা (৫)
সিরিজ সেরা খেলোয়াড় কুশল মেন্ডিস (শ্রীলঙ্কা)

দলীয় সদস্য সম্পাদনা

  বাংলাদেশ   শ্রীলঙ্কা
টেস্ট ওডিআই[৫] টি২০আই[৬] টেস্ট ওডিআই টি২০আই[৭]


সিরিজের আগে তিন ফরম্যাটেই নাজমুল হোসেন শান্তকে বাংলাদেশের অধিনায়ক করা হয়েছিল।[৮] ১লা মার্চ ২০২৪ তারিখে, শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণের কারণে নাম প্রত্যাহার করে নেওয়া কুশল পেরেরার বদলি হিসেবে নিরোশান ডিকভেলাকে শ্রীলঙ্কার টি২০আই দলে স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছিল।[৯]

২ মার্চ ২০২৪ তারিখে, আঙুলের আঘাতের কারণে বাদ পড়া আলিস ইসলামের পরিবর্তে জাকের আলীকে বাংলাদেশের টি২০আই দলে স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছিল।[১০][১১]

১৬ মার্চ ২০২৪ তারিখে, দল থেকে অব্যাহতি পাওয়া লিটন দাসের পরিবর্তে জাকের আলীকে বাংলাদেশের ওডিআই দলে স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছিল।[১২]

১৭ মার্চ ২০২৪ তারিখে, তানজিম হাসান সাকিব হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে তৃতীয় ওডিআইয়ের পূর্বে দল থেকে বাদ পড়েন এবং হাসান মাহমুদকে তার স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছিল।[১৩]

১৯ মার্চ ২০২৪ তারিখে, মুশফিকুর রহিমওয়ানিন্দু হাসরাঙ্গা উভয়ই টেস্ট সিরিজ থেকে ছিটকে যান। বুড়ো আঙুলের চোটের কারণে ছিটকে গেলেন রহিম।[১৪] হাসরাঙ্গা আইসিসির আচরণবিধি ভঙ্গের দায়ে টেস্ট সিরিজে নিষিদ্ধ হন।[১৫] ২০ মার্চ ২০২৪ তারিখে, মুশফিকুর রহিমের বদলি হিসেবে তৌহিদ হৃদয়কে বাংলাদেশ টেস্ট দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[১৬]

দ্বিতীয় টেস্টের জন্য, বাংলাদেশের দলে হৃদয় এবং মুসফিক হাসান এদের বদলি হিসেবে সাকিব আল হাসান এবং হাসান মাহমুদকে স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছিল।[১৭]

২৭ মার্চ ২০৩৪-এ, অসিত ফার্নান্দোকে আহত কসুন রজিতার পরিবর্তে দ্বিতীয় টেস্টের জন্য শ্রীলঙ্কার দলে স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছিল।[১৮]

টি২০আই সিরিজ সম্পাদনা

১ম টি২০আই সম্পাদনা

৪ মার্চ ২০২৪
১৮:০০ (রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা  
২০৬/৩ (২০ ওভার)
বনাম
  বাংলাদেশ
২০৩/৮ (২০ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • এই ম্যাচে ৪০৯ সামগ্রিক রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশের ভেন্যুতে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহ।[১৯]
  • জাকের আলী এই ম্যাচে ছয়টি ছক্কা মেরেছেন, যা টি২০আইয়ে কোনো বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ।[১৯]

২য় টি২০আই সম্পাদনা

৬ মার্চ ২০২৪
১৮:০০ (রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা  
১৬৫/৫ (২০ ওভার)
বনাম
  বাংলাদেশ
১৭০/২ (১৮.১ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।

৩য় টি২০আই সম্পাদনা

৯ মার্চ ২০২৪
১৫:০০ (রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা  
১৭৪/৭ (২০ ওভার)
বনাম
  বাংলাদেশ
১৪৬ (১৯.৪ ওভার)
কুশল মেন্ডিস ৮৬ (৫৫)
তাসকিন আহমেদ ২/২৫ (৪ ওভার)
রিশাদ হোসেন ৫৩ (৩০)
নুয়ান থুশারা ৫/২০ (৪ ওভার)

ওডিআই সিরিজ সম্পাদনা

১ম ওডিআই সম্পাদনা

১৩ মার্চ ২০২৪
১৪:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা  
২৫৫ (৪৮.৫ ওভার)
বনাম
  বাংলাদেশ
২৫৭/৪ (৪৪.৪ ওভার)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।

২য় ওডিআই সম্পাদনা

১৫ মার্চ ২০২৪
১৪:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ  
২৮৬/৭ (৫০ ওভার)
বনাম
  শ্রীলঙ্কা
২৮৭/৭ (৪৭.১ ওভার)
পাথুম নিশাঙ্কা ১১৪ (১১৩)
তাসকিন আহমেদ ২/৪৯ (৯ ওভার)
শরিফুল ইসলাম ২/৪৯ (৯ ওভার)

৩য় ওডিআই সম্পাদনা

১৮ মার্চ ২০২৪
০৯:৪৫
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা  
২৩৫ (৫০ ওভার)
বনাম
  বাংলাদেশ
২৩৭/৬ (৪০.২ ওভার)
জানিথ লিয়ানাগে ১০১* (১০২)
তাসকিন আহমেদ ৩/৪২ (১০ ওভার)

টেস্ট সিরিজ সম্পাদনা

১ম টেস্ট সম্পাদনা

২২–২৬ মার্চ ২০২৪[n ২]
স্কোরকার্ড
২৮০ (৬৮ ওভার)
কামিন্দু মেন্ডিস ১০২ (১২৭)
খালেদ আহমেদ ৩/৭২ (১৭ ওভার)
১৮৮ (৫১.৩ ওভার)
তাইজুল ইসলাম ৪৭ (৮০)
বিশ্ব ফার্নান্দো ৪/৪৮ (১৫.৩ ওভার)
৪১৮ (১১০.৪ ওভার)
কামিন্দু মেন্ডিস ১৬৪ (২৩৭)
মেহেদী হাসান মিরাজ ৪/৭৪ (২৯ ওভার)
১৮২ (৪৯.২ ওভার)
মুমিনুল হক ৮৭* (১৪৮)
কসুন রজিতা ৫/৫৬ (১৪ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ পয়েন্ট: বাংলাদেশ ০, শ্রীলঙ্কা ১২
  • নাহিদ রানা (বাংলাদেশ) তার টেস্ট অভিষেক হয়েছিল।
  • কামিন্দু মেন্ডিস (শ্রীলঙ্কা) টেস্টে তার প্রথম সেঞ্চুরি করেছিলেন।[২৯]
  • ধনঞ্জয়া ডি সিলভা শ্রীলঙ্কার প্রথম অধিনায়ক হিসেবে টেস্টে জোড়া সেঞ্চুরি করলেন।[৩০]
  • কামিন্দু মেন্ডিস এবং ধনঞ্জয়া ডি সিলভা (শ্রীলঙ্কা) তৃতীয় জুটি হিসেবে একই টেস্টে ১৫০+ রানের জুটি গড়েন।[৩১][৩২]
  • কামিন্দু মেন্ডিস টেস্ট ম্যাচের উভয় ইনিংসে সেঞ্চুরি করা প্রথম ৭ নম্বর বা তার নিচের ব্যাটার।
  • কামিন্দু মেন্ডিস প্রথম শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যান যিনি একটি টেস্ট ম্যাচের প্রথম ৩ ইনিংসের প্রতিটিতে ৫০+ স্কোর করেছিলেন।
  • টেস্টে ৮ নম্বর ব্যাটসম্যানের তৃতীয় সর্বোচ্চ ইনিংস কামিন্দু মেন্ডিস।

২য় টেস্ট সম্পাদনা

৩০ মার্চ–৩ এপ্রিল ২০২৪
স্কোরকার্ড
৫৩১ (১৫৯ ওভার)
কুশল মেন্ডিস ৯৩ (১৫০)
সাকিব আল হাসান ৩/১১০ (৩৭ ওভার)
১৭৮ (৬৮.৪ ওভার)
জাকির হাসান ৫৪ (১০৪)
অসিত ফার্নান্দো ৪/৩৪ (১০.৪ ওভার)
১৫৭/৭ঘো. (৪০ ওভার)
অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ৫৬ (৭৪)
হাসান মাহমুদ ৪/৬৫ (১৫ ওভার)
৩১৮ (৮৫ ওভার)
মেহেদী হাসান মিরাজ ৮১* (১১০)
লাহিরু কুমারা ৪/৫০ (১৫ ওভার)
শ্রীলঙ্কা ১৯২ রানে জয়ী
জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম
আম্পায়ার: রড টাকার (অস্ট্রেলিয়া) ও রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ পয়েন্ট: বাংলাদেশ ০, শ্রীলঙ্কা ১২
  • হাসান মাহমুদ (বাংলাদেশ) তার টেস্টে অভিষেক হয়েছিল।
  • শ্রীলঙ্কার তাদের প্রথম ইনিংসে ৫৩১ রান ছিল কোনো খেলোয়াড় সেঞ্চুরিবিহীন টেস্ট ইনিংসে সর্বোচ্চ স্কোর।[৩৩]
  • মুমিনুল হক (বাংলাদেশ) চতুর্থ বাংলাদেশি খেলোয়াড় হিসেবে টেস্টে ৪০০০ রান পূর্ণ করেছিলেন।[৩৪]

টীকা সম্পাদনা

  1. চারিথ আসালাঙ্কা প্রথম দুই টি-টোয়েন্টিতে শ্রীলঙ্কাকে নেতৃত্ব দেন।
  2. প্রতিটি টেস্টের জন্য পাঁচ দিনের খেলা নির্ধারিত হলেও প্রথম টেস্ট চার দিনেই ফলাফলে পৌঁছেছে।

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "Sri Lanka to tour Bangladesh for full series after BPL; Mirpur not on venue list"The Business Standard। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  2. "ICC Men's FTP 2022-27" (পিডিএফ)icc-cricket.com। ICC। পৃষ্ঠা 2। ২৬ ডিসেম্বর ২০২২ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  3. Isam, Mohammad। "SL to tour Bangladesh for two WTC matches in March"ESPNcricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  4. Correspondent, Staff (২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪)। "Itinerary announced for Sri Lanka's Tour of Bangladesh 2024"Bangladesh Cricket Board (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  5. "Najmul Hossain Shanto takes charge as Bangladesh announce limited-overs squads"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  6. "Squads announced for T20i and ODI series against Sri Lanka"Bangladesh Cricket Board। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  7. "Asalanka to lead Sri Lanka in first two T20Is against Bangladesh"ESPNCricinfo। ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  8. "Shanto named Bangladesh captain in all formats"United News of Bangladesh। সংগ্রহের তারিখ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ 
  9. "Kusal Perera ruled out of Bangladesh T20Is with respiratory infection"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০২৪ 
  10. "Aliss Islam ruled out of Sri Lanka T20Is with finger injury"Cricbuzz। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০২৪ 
  11. "Jaker Ali replaces Aliss Islam in Bangladesh T20I squad"Cricbuzz। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০২৪ 
  12. "Bangladesh drop Litton from squad for third Sri Lanka ODI"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০২৪ 
  13. "Tanzim Hasan Sakib ruled out of third ODI due to hamstring injury"ESPNcricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২৪-০৩-১৭ 
  14. "Mushfiqur Rahim ruled out of Sri Lanka Tests"Cricbuzz (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২৪-০৩-১৯। সংগ্রহের তারিখ ২০২৪-০৩-১৯ 
  15. "Blow for Sri Lanka as Hasaranga is suspended for Bangladesh Tests"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২৪ 
  16. "Hridoy replaces Mushfiq in first Test squad against Sri Lanka"Dhaka Tribune। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২৪ 
  17. "Shakib returns for second Test against Sri Lanka"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০২৪ 
  18. "Injured pacer replaced in Sri Lanka's squad for second Test"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০২৪ 
  19. সোলায়মান, মোহাম্মদ (৪ মার্চ ২০২৪)। "জাকেরের ছক্কার রেকর্ড ও বাংলাদেশে সর্বোচ্চ রানের টি–টোয়েন্টি"Prothomalo। সংগ্রহের তারিখ ৫ মার্চ ২০২৪ 
  20. "Nuwan Thushara becomes fifth Sri Lankan bowler to take a hat-trick in T20Is"CricTrack। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০২৪ 
  21. "Rishad's six-hitting spree not enough as Sri Lanka win third T20I to take series"The Business Standard। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০২৪ 
  22. "Rishad breaks Jaker's six-hitting record"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০২৪ 
  23. "Mustafizur Rahman: Bangladesh's Pace Sensation Reaches 300 International Wickets Milestone"The Asian Tribune। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০২৪ 
  24. "Nissanka, Asalanka help Sri Lanka to series-levelling win in second ODI"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মার্চ ২০২৪ 
  25. "Soumya fastest Bangladeshi to 2000 ODI runs, Hasaranga brings SL back"The Business Standard (ইংরেজি ভাষায়)। ১৫ মার্চ ২০২৪। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মার্চ ২০২৪ 
  26. "Liyanage's maiden ODI century lifts Sri Lanka to 235"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০২৪ 
  27. "Tanzid comes on as concussion sub after Soumya hurts his neck while fielding"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০২৪ 
  28. "Tanzid hits highest ever ODI score for a concussion sub"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০২৪ 
  29. "Kamindu Mendis, Dhananjaya de Silva hit centuries as Sri Lanka fight back against Bangladesh"Adaderana। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০২৪ 
  30. "Dhananjaya de Silva became first Sri Lankan captain to score twin centuries in a match"Hiru News। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০২৪ 
  31. "Sri Lanka pair achieve rare milestone in Sylhet"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০২৪ 
  32. "Dhananjaya de Silva, Kamindu Mendis achieve rare feat in Bangladesh vs Sri Lanka Test"Firstpost। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০২৪ 
  33. "Rare team batting record for Sri Lanka in Chattogram"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২৪ 
  34. "Mominul joins Shakib and Co. in 4000s club"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ২ এপ্রিল ২০২৪ 

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা