হিরো: দ্যা সুপার স্টার

২০১৪ সালের বাংলাদেশি চলচ্চিত্র
(হিরো: দ্যা সুপারস্টার থেকে পুনর্নির্দেশিত)

হিরো: দ্যা সুপার স্টার ২০১৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত তেলুগু চলচ্চিত্র নায়ক এর আন-অফিশিয়াল পুনঃনির্মিত বাংলাদেশী চলচ্চিত্র। যা মুক্তিপায় ২০১৪ সালে। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন বদিউল আলম খোকন এবং এসকে ফিল্মসের ব্যানারে প্রযোজনা করেছেন শাকিব খান। শাকিব খান এই চলচ্চিত্রটিতে ইয়ামিন হক ববিঅপু বিশ্বাসের বিপরীতে দ্বৈত ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।[১] এছাড়াও ববিতা, অমিত হাসান, নূতন, মিশা সওদাগর সহ অন্যান্যরা বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন। চলচ্চিত্রটি রেবেল এবং নায়াক চলচ্চিত্র থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে নির্মিত।[২][৩]

হিরো: দ্যা সুপার স্টার
প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পোস্টার
পরিচালকবদিউল আলম খোকন
প্রযোজকশাকিব খান
রচয়িতাকাশেম আলী দুলাল (নায়ক-র অবলম্বনে)
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকার
প্রযোজনা
কোম্পানি
পরিবেশকএসকে ফিল্মস
মুক্তি
  • ২৯ জুলাই ২০১৪ (2014-07-29)
স্থিতিকাল২ ঘন্টা ৪০ মিনিট
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা

কাহিনী সংক্ষেপ সম্পাদনা

হীরা (শাকিব খান) পেশায় একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার এবং অত্যন্ত আন্তরিক। তাকে প্রিয়া (অপু বিশ্বাস) আঘাত করে এবং সে তার প্রেমে পড়ে যায়। সালমা খান (নূতন) প্রিয়ার বোন, যিনি স্থানীয় একজন গুন্ডা। হীরা সম্পর্কে সে জানতে পারে এবং তাকে সে হত্যা করতে উদবোদ্ধ হয়।

সালমা খান তার লোকদের নিয়ে হীরার পথ অনুসরণ করে এবং এমন একটি জায়গায় গিয়ে পৌঁছেছিল যেখানে তারা তাকে হত্যা করার পরিকল্পনা করেছিল, কিন্তু তাদের হত্যার পরিকল্পনা শেষ পর্যন্ত ভেস্তে যায়। হিরা একজন জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তাকে হত্যা করে যার প্রত্যক্ষ সাক্ষী হন সালমা খান, এবং অত্যন্ত ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে ঘরে ফিরে আসেন। হত্যার বিষয়টি দেখে সালমা খান হতবাক হয়ে যান, এবং হীরা সম্পর্কে খোঁজ খবর নেয়ার জন্য তিনি তার দলের লোকজনদের প্রেরণ করেন।

এদিকে, একজন সিআইডি কর্মকর্তা (শিবা শানু) সালমা খানের বাসভবনে প্রবেশ করে তাকে হেফাজতে নিয়ে যায়, যেখানে তাকে জানানো হয় যে, হীরা বেশ কয়েকজন গুন্ডা হত্যার জন্য অভিযুক্ত, যা সবাইকে অবাক করে দিয়েছিল। হিরা কে এবং কী কারণে তাকে হত্যা করতে প্ররোচিত করা হয়েছিল? এটি গল্পের বাকি অংশে দেখা যাবে।

অভিনয় সম্পাদনা

প্রযোজনা সম্পাদনা

হিরো: দ্য সুপারস্টার প্রযোজনা করেন শাকিব খান, যেখানে তিনি প্রধান ভূমিকায় অভিনয়ও করেন, যা তার প্রযোজিত প্রথম চলচ্চিত্র। ২০১৪ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি চলচ্চিত্রটির মহরত অনুষ্ঠিত হয়, এদিন ওয়েস্টিন হোটেলের বলরুমে আনুষ্ঠানিকভাবে চলচ্চিত্রটির কলাকুশলীদের নাম ঘোষণা এবং চলচ্চিত্রের চিত্রায়ণের পরিকল্পনা সম্পর্কে জানান প্রযোজক শাকিব খান। এই চলচ্চিত্রে শাকিব খানের বিপরীতে চুক্তিবদ্ধ হন অপু বিশ্বাসইয়ামিন হক ববি[৪]

উন্নয়ন সম্পাদনা

চলচ্চিত্রটির দৃশ্যায়নের জন্য ব্যবহার করা হয় অত্যাধুনিক অ্যালেক্সা ক্যামেরা।

চিত্রগ্রহণ সম্পাদনা

২০১৪ সালে ১৭ ফেব্রুয়ারি এফডিসির দুই নম্বর ফ্লোরে চলচ্চিত্রটির দৃশ্যধারণের কাজ শুরু হয়েছে[৫]

সঙ্গীত সম্পাদনা

হিরো: দ্যা সুপার স্টার
 
হিরো: দ্য সুপারস্টার অ্যালবাম প্রচ্ছদ
কর্তৃক সাউন্ডট্র্যাক অ্যালবাম
মুক্তির তারিখ২৫ জুলাই ২০১৪ (2014-07-25)
শব্দধারণের সময়২০১৪
ঘরানাপূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র সাউন্ডট্র্যাক
দৈর্ঘ্য২১:৪৩
ভাষাবাংলা
সঙ্গীত প্রকাশনীটাইগার মিডিয়া
প্রযোজকশাকিব খান

হিরো: দ্যা সুপারস্টার চলচ্চিত্রের সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন আলী আকরাম শুভ, আরফিন রুমিশওকত আলী ইমন। চলচ্চিত্রের সবগুলো গানের কথা লিখেছেন সুদীপ কুমার দীপ, জাহিদ আকবরকবির বকুল। চলচ্চিত্রটিতে মোট পাঁচটি গান ব্যবহার করা হয়েছে। ২০১৪ সালের ২৫ জুলাই রাজধানীর একটি রেস্তোঁরায় টাইগার মিডিয়া লিমিটেডের ব্যানারে চলচ্চিত্রটির অডিও অ্যালবাম প্রকাশ করা হয়। এই অ্যালবাম প্রকাশনার মাধ্যমেই প্রতিষ্ঠানটি যাত্রা শুরু করে।[৬][৭]

গানের তালিকা
নং.শিরোনামসুরকারকণ্ঠশিল্পীদৈর্ঘ্য
১."হিরো: দ্যা সুপারস্টার"আলী আকরাম শুভএস আই টুটুল এবং পুলক অধিকারী৪:১৮
২."যেখানে যাবে আমাকে পাবে"আরফিন রুমিআরফিন রুমি ও নওমী৫:০২
৩."দেখে তোর মায়াবি হাসি"আলী আকরাম শুভআসিফ আকবর ও মিমি৩:৫৪
৪."আই লাভ ইউ হিরো"আলী আকরাম শুভপলাশ, তনজনা রুমা ও মুন৩:৫৭
৫."তোর সাথে বেধেছি মন"শওকত আলী ইমনরুপম ও রুমা৪:৩২
মোট দৈর্ঘ্য:২১:৪৩

বাজারজাতকরণ ও মুক্তি সম্পাদনা

২০১৪ সালের ১০ জুলাই চলচ্চিত্রটি বিনাকর্তণে মুক্তির ছাড়পত্র পায়।

মুক্তি সম্পাদনা

চলচ্চিত্রটি ২০১৪ সালের ২৯ জুলাই ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ১২০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়।[৮]

অভ্যর্থনা সম্পাদনা

সমালোচনামূলক প্রতিক্রিয়া সম্পাদনা

দ্য ডেইলি স্টারের আব্দুল্লাহ আল আমিন চলচ্চিত্রটিকে পাঁচের মধ্যে দুই মূল্যায়ন করেন। তিনি এর কাহিনীকে "চেষ্টা করা এবং সত্য" হিসাবে বর্ণনা করেছেন এবং গতানুগতিক হওয়া সত্ত্বেও তিনি এর শক্তিশালী চিত্রনাট্য ও গল্পের প্রশংসা করেছেন। তিনি লিখেন যে শাকিব খান এবং খল অভিনেতার চরিত্রে মিশা সওদাগরের অভিনয়ের প্রশংসা করেছেন। তবে তিনি পরিচ্ছদপ্রণালী এবং মেকআপের সমালোচনা করেছেন।[৯]

পুরস্কার সম্পাদনা

মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "SK, Apu & Boby in Hero: The Superstar"। bd-pratidin.com। ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  2. "Shakib debut as producer"। banglanews24.com। ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  3. "SK Films debut as producer"। independent24.tv। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  4. "শুরু হচ্ছে শাকিবের \'হিরো : দ্য সুপারস্টার\'"কালের কণ্ঠ। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১৮ 
  5. "তিন তারকার 'হিরো: দ্য সুপারস্টার'"banglanews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১৮ 
  6. "মুক্তি পেল হিরো দ্য সুপারস্টারের অ্যালবাম"jagonews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১৮ 
  7. সাহা, জয়ন্ত; ডটকম, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর। "যে সব কারণে আলোচনায় 'হিরো-দ্য সুপারস্টার'"bangla.bdnews24.com। ২০২১-০১-২৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১৮ 
  8. "Apu, Shakib and Bobby promote Hero: The Superstar"। dhakatribune.com। ৩ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১৪ 
  9. Abdullah Al Amin (Rubel) (১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "Movie Review: Hero the Superstar (2014)"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জানুয়ারি ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা