বোনর মিডলটন

দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটার

জেমস বোনর মিডলটন (ইংরেজি: Bonnor Middleton; জন্ম: ৩০ সেপ্টেম্বর, ১৮৬৫ - মৃত্যু: ২৩ ডিসেম্বর, ১৯১৩) চেস্টার-লি-স্ট্রিট এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ইংরেজ বংশোদ্ভূত প্রথিতযশা দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটার ছিলেন। ১৮৯৬ থেকে ১৯০২ সময়কালে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের পক্ষে ছয় টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন তিনি। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে ওয়েস্টার্ন প্রভিন্সের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতি স্লো-মিডিয়াম বোলার হিসেবে খেলতেন। পাশাপাশি নিচেরসারিতে ডানহাতে ব্যাটিংয়ে পারদর্শীতা দেখিয়েছেন বোনর মিডলটন

বোনর মিডলটন
বোনর মিডলটন.jpg
১৮৯৪ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে বোনর মিডলটন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজেমস বোনর মিডলটন
জন্ম(১৮৬৫-০৯-৩০)৩০ সেপ্টেম্বর ১৮৬৫
চেস্টার-লি-স্ট্রিট, কো ডারহাম, ইংল্যান্ড
মৃত্যু২৩ ডিসেম্বর ১৯১৩(1913-12-23) (বয়স ৪৮)
নিউল্যান্ডস, কেপ টাউন, কেপ প্রদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা
ডাকনামবোনর
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনলেফট-আর্ম স্লো-মিডিয়াম
সম্পর্কপুত্র: টমাস মিডলটন
পুত্র: রেজিনাল্ড মিডলটন
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৭)
১৩ ফেব্রুয়ারি ১৮৯৬ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট৮ নভেম্বর ১৯০২ বনাম অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৩১
রানের সংখ্যা ৫২ ১৭৬
ব্যাটিং গড় ৭.৪২ ৬.০৬
১০০/৫০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ২২ ৩২
বল করেছে ১০৬৪ ৫৫৭১
উইকেট ২৪ ১৪০
বোলিং গড় ১৮.৪১ ১৮.০২
ইনিংসে ৫ উইকেট ১০
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৫/৫১ ৭/৬৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/- ১৪/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৬

হার্ড-হিটিং ব্যাটসম্যান হিসেবে সুনাম ছিল তার। এছাড়াও, বিখ্যাত অস্ট্রেলীয় টেস্ট ক্রিকেটার জর্জ বোনরের সাথে তার ব্যাটিংয়ের সাদৃশ্যতা থাকায় তাকে ডাকনাম ‘বোনর’ হিসেবে আখ্যায়িত করা হতো।

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

১৮৯০-৯১ মৌসুম থেকে ১৯০৩-০৪ মৌসুম পর্যন্ত ওয়েস্টার্ন প্রভিন্সের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন তিনি। তন্মধ্যে, ১৮৯৭-৯৮ মৌসুমে কারি কাপের চূড়ান্ত খেলায় ট্রান্সভালের বিপক্ষে নিজস্ব সেরা বোলিং পরিসংখ্যান ৭/৬৪ করেন। ঐ খেলায় তিনি ১২/১০০ পান। এরফলে ওয়েস্টার্ন প্রভিন্সের জয়লাভ সহজতর হয়।[১]

১৮৯৫-৯৬ মৌসুমে সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। পোর্ট এলিজাবেথে অনুষ্ঠিত ঐ টেস্টের প্রথম ইনিংসেই পাঁচ-উইকেট দখল করে সবিশেষ কৃতিত্ব প্রদর্শন করেন তিনি।[২] খেলায় তিনি ৯/১৩০ পান। তাস্বত্ত্বেও তার দল ২৮৮ রানের ব্যবধানে পরাজিত হয়। বামহাতে স্লো-মিডিয়াম বোলার হিসেবে বোলিং উদ্বোধনে নামতেন। ইংল্যান্ড সফরে লেগ স্পিনারদের প্রাধান্য দেয়ায় তার খেলোয়াড়ী জীবনের সমাপ্তি ঘটে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Western Province v Transvaal 1897-98
  2. "1st Test: South Africa v England at Port Elizabeth, Feb 13-14, 1896"espncricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১২-১৮ 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা