জর্জ বোনর

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার

জর্জ জন বোনর (ইংরেজি: George Bonnor; জন্ম: ২৫ ফেব্রুয়ারি, ১৮৫৫ - মৃত্যু: ২৭ জুন, ১৯১২) নিউ সাউথ ওয়েলসের বাথহার্স্ট এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বিখ্যাত অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার ছিলেন।[১] ১৮৮০ থেকে ১৮৮৮ মেয়াদে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ ব্যাটিংয়ের সময় খুব জোরে বল মারার জন্য খ্যাতি অর্জন করেন। এইভাবে ব্যাটিং করে তিনি অনেকবার বড় ধরনের রানও সংগ্রহ করেছিলেন। ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়েও তিনি পারদর্শিতা দেখিয়েছেন। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ভিক্টোরিয়া, নিউ সাউথ ওয়েলস ও মেলবোর্নের প্রতিনিধিত্ব করেন জর্জ বোনর

জর্জ বোনর
GeorgeBonnor.jpg
ক্রিকেট তথ্য
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
শেষ টেস্ট৩০ আগস্ট ১৮৮৮ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১৭ ১৪৮
রানের সংখ্যা ৫১২ ৪৮২০
ব্যাটিং গড় ১৭.০৬ ২১.২৩
১০০/৫০ ১/২ ৫/১৮
সর্বোচ্চ রান ১২৮ ১২৮
বল করেছে ১৬৪ ৮৫২
উইকেট ১২
বোলিং গড় ৪২.০০ ৩৯.১৬
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ১/৫ ৩/৩৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১৬/০ ১২৮/১
উৎস: ক্রিকইনফো, ২৪ এপ্রিল ২০১৭

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

১৮৮০ সালে ইংল্যান্ডে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত টেস্টের মাধ্যমে তার অভিষেক ঘটে। ৬ ফুট ৬ ইঞ্চি উচ্চতার অধিকারী বোনর তার শক্তিশালী ব্যাটিংয়ে পরিচিতি লাভ করলেও সবসময় প্রচুর রান সংগ্রহ করতে পারেননি। ১৮৮০ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওভাল টেস্টে তিনি একটি বল এতোটাই জোরে ও উঁচুতে মেরেছিলেন যে জিএফ গ্রেস অনেক দৌঁড়ে বাউন্ডারি সীমানা থেকে তা ধরেন। ইতোমধ্যে অবশ্য বোনর ও তার সঙ্গী তিনটি রান দৌঁড়ে সংগ্রহ করে ফেলেছিলেন। পরবর্তীকালে গ্রেস বলেছিলেন যে, বল হাতের মুঠোতে আসার আগে তার হৃৎপিণ্ড থেমে গিয়েছিল।

১৮৮২-৮৩ মৌসুমে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের মধ্যকার মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত টেস্টে ইংরেজ বোলার বিলি বেটসের তৃতীয় শিকারে পরিণত হয়ে তাকে হ্যাট্রিক পূর্ণ করতে সহায়তা করেন।[২] ২০ জানুয়ারি, ১৮৮৩ তারিখে অনুষ্ঠিত ঐ টেস্টে বিলি বেটস অস্ট্রেলীয় পার্সি ম্যাকডোনেলকে বোল্ড, জর্জ গিফেনকে কট এন্ড বোল্ড এবং জর্জ বোনরকে ওয়াল্টার রিডের গ্লাভসে কট আউটের মাধ্যমে এ কৃতিত্ব গড়েছিলেন।

দেহাবসানসম্পাদনা

জীবনের শেষদিকের বছরগুলোয় বোনরের হৃদজনিত সমস্যায় ভোগেন। তারপরও তিনি ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডে জড়িত ছিলেন। ব্যক্তিগত জীবনে চিরকুমার ছিলেন তিনি।[৩] অতঃপর ২৭ জুন, ১৯১২ তারিখে ৫৭ বছর বয়সে নিউ সাউথ ওয়েলসের ইস্ট অরেঞ্জে হৃদজনিত কারণে তার দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "George Bonnor's Cricinfo Profile"Cricinfo। ২৪ এপ্রিল ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০১৭ 
  2. "England (IFW Bligh's XI) tour of Australia, 1882/83: The Ashes – 2nd Test"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১৩ 
  3. Johnson, Ian (১৯৬৯)। "George Bonnor's Profile in Australian Dictionary of Biography"Australian Dictionary of Biography। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জুলাই ২০১৫ 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা