বীর উত্তম শহীদ সামাদ স্কুল এন্ড কলেজ

বাংলাদেশের রংপুর শহরে অবস্থিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

বীর উত্তম শহীদ সামাদ স্কুল এন্ড কলেজ ১৯৭৪ সালে প্রতিষ্ঠিত একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান[১] যা রংপুর শহরের রংপুর সেনানিবাস এ অবস্থিত। এটি ১৯৭৪ সালে শহীদ মুখত্বার এলাহী চত্বরের পশ্চিমে সর্বপ্রথম প্রতিষ্ঠিত হয়। পরবর্তীতে, ১৯৮১ সালে উত্তরবঙ্গের মাননীয় জিওসি মহোদয় মেজর জেনারেল আব্দুল মান্নাফ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি রংপুর সেনানিবাস এর ভেতরে স্থাপন করেন। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি মূলত সামরিক বাহিনীর সদস্যদের সন্তানদের জন্য হলেও বেসামরিক ব্যক্তিবর্গের সন্তানরাও এতে পড়াশোনা করতে পারে।

বীর উত্তম শহীদ সামাদ স্কুল এন্ড কলেজ
একাডেমিক ভবন
ঠিকানা
মানচিত্র

৫৪০১

স্থানাঙ্ক২৫°৪৬′০২″ উত্তর ৮৯°১৩′১১″ পূর্ব / ২৫.৭৬৭১২° উত্তর ৮৯.২১৯৬০° পূর্ব / 25.76712; 89.21960
তথ্য
বিদ্যালয়ের ধরনকলেজ
নীতিবাক্যসততা, শৃঙ্খলা, দেশপ্রেম
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৭৪ (1974)
বিদ্যালয় বোর্ডমাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, দিনাজপুর
কর্তৃপক্ষসামরিক ভূমি ও ক্যান্টনমেন্ট অধিদপ্তর, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়
সেশনজানুয়ারি-ডিসেম্বর
বিদ্যালয় কোড৫২৭২
কলেজ কোড১২৭৩৭৭
ইআইআইএন১২৭৩৭৭
অধ্যক্ষমোহাম্মাদ আব্দুল হামিদ
শ্রেণীশিশু শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণি
লিঙ্গবালক এবং বালিকা
ভাষাবাংলা, ইংরেজি
রং     সবুজ
ক্রীড়াফুটবল, ক্রিকেট, বাস্কেটবল, ভলিবল, ব্যাডমিন্টন
ডাকনামB.U.S.S.S.C.R
বর্ষপুস্তকসৃজনী
ওয়েবসাইটwww.busshsr.edu.bd

ইতিহাস

আবু মঈন মোহাম্মদ আশফাকুস সামাদ-এর নামানুসারে ১৯৭৪ সালে এ বিদ্যালয়টি যাত্রা শুরু করে। রংপুর সেনানিবাস এর ক্যান্টনমেন্ট শাখা পোস্ট অফিসের অদূরে স্ট্যাটিক সিগন্যাল কোম্পানির ইউনিট ভবনটির স্থলে তৎকালীন একটি টিনশেড বিল্ডিং এ ১৯৭৪ সালে বিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হয়। পরবর্তীতে স্কুল ভবন হিসেবে 'এম ই এস' - এর জি-ই (আর্মি) বর্তমান মূল ভবন সংলগ্ন বিল্ডিং এ অস্থায়ীভাবে বিদ্যালয়ের পাঠদান শুরু করা হয়। ১৯৭৭ সালে শহীদ সামাদ বিদ্যালয়ের নিজস্ব ভবন শহীদ মুখতার এলাহী চত্বরের পশ্চিমে (বর্তমানে ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ, রংপুর এর মূল ভবন টি) প্রস্তুত করা হয়। নিজস্ব ভবন যাত্রায় শহীদ সামাদ বিদ্যালয়ের নাম ১৯৭৮ সালে শহীদ সামাদ বিদ্যালয় থেকে পরিবর্তন করে নাম দেওয়া হয় ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ এবং সেখানে ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ এর যাত্রা শুরু হয়। ১৯৮১ সালের ১৭ই মার্চ তৎকালীন উত্তরাঞ্চলের সামরিক অধিনায়ক মেজর জেনারেল আব্দুল মান্নাফ, পিএসসি কর্তৃক ২৫ বীর ইউনিট এর মাঠের উত্তর পাশে শহীদ সামাদ উচ্চ বিদ্যালয় এর মূল ভবন স্থাপন করেন।

একই বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর তৎকালীন মাননীয় সেনাপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ, এনডিসি, পিএসসি মহোদয় এর কর্তৃক বর্তমান স্থানে শহীদ সামাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের শুভ সূচনা হয়। পরবর্তীতে ২০০০ সালে শহীদ সামাদ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে নাম পরিবর্তন হয় 'বীর উত্তম শহীদ সামাদ উচ্চ বিদ্যালয়' এবং ২০১৯ সালের ১ জুলাই তৎকালীন জেনারেল অফিসার কমান্ডিং,৬৬ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার, রংপুর এরিয়া কর্তৃক কলেজ শাখার শুভ উদ্বোধন করা হয়।

কালক্রমে বিদ্যালয়টি ১৯৭৮ সালে নিম্ন মাধ্যমিক এবং পরবর্তীতে ১৯৮১ সালে মাধ্যমিক বিদ্যালয় হিসেবে উন্নীত হয়।

বিদ্যালয়টি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সামরিক ভূমি ও সেনানিবাস অধিদপ্তর-এর আওতাধীন রংপুর ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড দ্বারা পরিচালিত।

রংপুর সেনানিবাসের উত্তর প্রান্তে ঘাঘট নদীর পাশে ৬.০০ একর জমির উপর মাঠ ও প্রাঙ্গনসহ কলেজটির চতুর্দিকে প্রাচীর পরিবেষ্ঠিত। বিদ্যালয় ভবনটি সুপরিসর দ্বিতল বিশিষ্ট ‘L’ আকৃতির। ১৯৮১ সালের ১৭ মার্চ তৎকালীন উত্তারাঞ্চলের সামরিক অধিনায়ক মেজর জেনারেল আব্দুল মান্নাফ, পিএসসি বিদ্যালয় ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন এবং ১৫ই সেপ্টেম্বর তৎকালীন সেনাপ্রধান লেঃ জেনারেল এইচ এম এরশাদ, এনডিসি, পিএসসি বিদ্যালয় ভবনটি শুভ উদ্বোধন করেন।

অবস্থান

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি রংপুর সেনানিবাসে অবস্থিত। বিদ্যালয়ের সামনে একটি খেলার মাঠ অবস্থিত।

শিক্ষা কার্যক্রম

এ প্রতিষ্ঠানে শিশু শ্রেণি হতে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের পাঠদান করা হয়। কলেজে বিজ্ঞান বিভাগ সহ ব্যবসা ও মানবিক বিভাগ রয়েছে।

স্কুল

১৯৭৪ সালে প্রাথমিক বিদ্যালয় হিসেবে এর অগ্রযাত্রা শুরু হয়। কালক্রমে বিদ্যালয়টি ১৯৭৮ সালে নিম্ন মাধ্যমিক এবং পরবর্তীতে ১৯৮১ সালে মাধ্যমিক বিদ্যালয় হিসেবে উন্নীত হয়।

কলেজ

সামরিক ভূমি ও সেনানিবাস অধিদপ্তর-এর মাননীয় মহাপরিচালক মহোদয় ফরিদ আহম্মদ-এর প্রচেষ্টায় ২০১৯ সালে বিদ্যালয়টির কলেজ শাখার আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়।

হাউস সমূহ

বর্তমান চ্যাম্পিয়ন হাউস নজরুল হাউস

হাউস রং ক্রেস্ট নীতিবাক্য নামকরণ
নজরুল হাউস
     নীল খোলা তলোয়ার লক্ষ্য বিজয় কাজী নজরুল ইসলাম
তিতুমীর হাউস
     হলুদ মুষ্টিবদ্ধ মুষ্টি মোরা নির্ভীক তিতুমীর
রোকেয়া হাউস
     সবুজ উদীয়মান সূর্য সংগ্রামে অজেয় বেগম রোকেয়া
শেরে বাংলা হাউস
     লাল বিজয়ী আমরা করবো জয় এ কে ফজলুল হক

অর্জন সমূহ

  • ২০১১ - দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডে ফলাফলের দিক দিয়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারী ২০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি ১৮তম স্থান অধিকার করে।[২]
  • ২০১৪ - দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের শীর্ষ ২০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৫তম স্থান অধিকার।[৩]
  • ২০১৫ - দিনাজপুর বোর্ডের সেরা ২০–এ রংপুরের ১০টি প্রতিষ্ঠান স্থান করে; শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি ১৭তম স্থান অধিকার করে।[৪]

তথ্যসূত্র

  1. "Bir Uttam Shaheed Samad School & College"sohopathi.com 
  2. "বোর্ডসেরা রংপুরের ১০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান"দৈনিক সংগ্রাম। মে ৮, ২০১২। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৫, ২০১৯ 
  3. "দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডে শীর্ষ ২০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান"দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন। মে ১৭, ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৫, ২০১৯ 
  4. "বোর্ডসেরা রংপুরের ১০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান"দৈনিক প্রথম আলো। মে ৩১, ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৫, ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ