বগুড়া-৬

বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের একটি নির্বাচনী এলাকা

বগুড়া-৬ হল বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের ৩০০ টি নির্বাচনী এলাকার একটি। এটি বগুড়া জেলায় অবস্থিত জাতীয় সংসদের ৪১ নং আসন।

বগুড়া-৬
জাতীয় সংসদ-এর
নির্বাচনী এলাকা
জেলাবগুড়া জেলা
বিভাগরাজশাহী বিভাগ
মোট ভোটার৩,৮৭,২৫৪ (২০১৮)[১]
বর্তমান নির্বাচনী এলাকা
সৃষ্ট১৯৭৩
দলবাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
বর্তমান সাংসদজিএম সিরাজ

সীমানাসম্পাদনা

বগুড়া-৬ আসনটি বগুড়া জেলার বগুড়া সদর উপজেলা নিয়ে গঠিত।[২]

নির্বাচিত সাংসদসম্পাদনা

নির্বাচন সদস্য দল
১৯৭৩ এস এম সিরাজুল ইসলাম সুরজ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ[৩]
১৯৭৯ ওয়াজেদ হোসেন তরফদার বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল[৪]
সীমানা পরিবর্তন
১৯৮৬ আবদুর রহমান ফকির বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী[৫]
১৯৮৮ সাইফুর রহমান ভান্ডারী স্বতন্ত্র[৬]
১৯৯১ মজিবর রহমান বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ মজিবর রহমান বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
জুন ১৯৯৬ খালেদা জিয়া বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
সেপ্টেম্বর ১৯৯৬ উপ-নির্বাচন জহুরুল ইসলাম বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
২০০১ খালেদা জিয়া বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
২০০৮ খালেদা জিয়া বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
২০০৯ উপ-নির্বাচন জমির উদ্দিন সরকার বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
২০১৪ নূরুল ইসলাম ওমর জাতীয় পার্টি (এরশাদ)
২০১৮ মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল(বিএনপি)
২০১৯ উপনির্বাচন জিএম সিরাজ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল(বিএনপি)

নির্বাচনসম্পাদনা

২০১০-এর দশকে নির্বাচনসম্পাদনা

বিরোধীদলগুলি ২০১৪ সাধারণ নির্বাচন বর্জন করে তাদের প্রার্থী প্রত্যাহার করে নিলে নূরুল ইসলাম ওমর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।[৭] ২০১৮ সালে বিএনপি প্রার্থী মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিপুল ভোটে নির্বাচিত হওয়া সত্ত্বেও নির্ধারিত সময়ে সপথ না নেওয়ায় আসনটি শূন্য হয়ে যায় ফলে ২০১৯সালে ২৪শে জুন অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ এর উপনির্বাচনে আবারও বিএনপি প্রার্থী গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন।বিএনপি এলাকটি ধরে রাখে।[৮]

২০০০-এর দশকে নির্বাচনসম্পাদনা

২০০৮ সালের সাধারণ নির্বাচনে খালেদা জিয়া তিনটি আসনে দাড়ান: বগুড়া-৬, বগুড়া-৭ফেনী-১। সবগুলি আসনে জয়ী হবার পর, তিনি ফেনী-১ আসনকে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য বেচে নেন ও এর ফলে বাকী দুই আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এপ্রিল ২০০৯ সালের উপ-নির্বাচনে বিএনপির জমির উদ্দিন সরকার নির্বাচিত হন।[৯]

সাধারণ নির্বাচন ২০০৮: বগুড়া-৬[১০][১১]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
বিএনপি খালেদা জিয়া ১,৯৩,৭৯২ ৭১.৬ -৭.০
আওয়ামী লীগ মমতাজ উদ্দিন ৭৪,৬৩৪ ২৭.৬ +৮.৭
ইসলামী আন্দোলন এ. এন. এম. মামুনুর রশিদ ১,৩৩৬ ০.৫ প্র/না
বিকল্পধারা আব্দুল্লাহ আল ওয়াকি ৬২৭ ০.২ প্র/না
বাসদ মো. সাইফুজ্জামান ২৯৭ ০.১ প্র/না
সংখ্যাগরিষ্ঠতা ১,১৯,১৫৮ ৪৪.০
ভোটার উপস্থিতি ২,৭০,৬৮৬ ৮৬.৬
বিএনপি নির্বাচনী এলাকা ধরে রাখে
সাধারণ নির্বাচন ২০০১: বগুড়া-৬[১২]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
বিএনপি খালেদা জিয়া ২,২৭,৩৫৫ ৭৮.৬
আওয়ামী লীগ মো. মাহবুবুল আলম ৫৪,৭৭৭ ১৮.৯
ইসলামী সমাজতান্ত্রিক আন্দোলন এ. এন. এম. মানুনুর রশিদ ৪,৭৪৫ ১.৬
কমিউনিস্ট পার্টি মো. আব্দুর রাজ্জাক ১,৫১৩ ০.৫
বিকেএ মো. শফিকুল হাসান ৪৬৭ ০.২
বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসাদ-খালেকুজ্জামান) মো. সাইফুজ্জামান টুটুল ২৯৪ ০.১
জেপি (মঞ্জু) সৈয়দ আকিল আহমেদ ২৬৭ ০.১
সংখ্যাগরিষ্ঠতা ১,৭২,৫৭৮ ৫৯.৬
ভোটার উপস্থিতি ২,৮৯,৪১৮ ৭৬.৪
বিএনপি নির্বাচনী এলাকা ধরে রাখে

১৯৯০-এর দশকে নির্বাচনসম্পাদনা

১৯৯৬ সালের সাধারণ নির্বাচনে খালেদা জিয়া পাঁচটি আসনে দাড়ান: বগুড়া-৬, বগুড়া-৭, ফেনী-১, লক্ষ্মীপুর-২চট্টগ্রাম-১। সবগুলি আসনে জয়ী হবার পর, তিনি ফেনী-১ আসনকে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য বেছে নেন ও এর ফলে চার দুই আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।[১৩] ১৯৯৬ সালের সেপ্টেম্বরে উপ-নির্বাচনে বিএনপির মো. জহুরুল ইসলাম নির্বাচিত হন।[১৪]

সাধারণ নির্বাচন জুন ১৯৯৬: বগুড়া-৬[১২]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
বিএনপি খালেদা জিয়া ১,৩৬,৬৬৯ ৫৮.৯ +৪.২
জামায়াতে ইসলামী গোলাম রাব্বানি ৪৬,৯১৭ ২০.২ -৭.১
আওয়ামী লীগ মো. মাহমুদুল হাসান ৩৬,৭৪৭ ১৫.৮ -০.১
জাতীয় পার্টি (এ) এ. এইচ. গোলাম জাকারিয়া খান ১০,১৮৫ ৪.৪ +৩.৯
স্বতন্ত্র মো. আলবেরুনি ৬৪৯ ০.৩ প্র/না
জাসদ এএকেএম রিয়াজুল করিম তানসেন ৩১০ ০.১ প্র/না
ইসলামী আল জিহাদ দল আবু নছর মো. শহীদুল্লাহ ২৮৮ ০.১ প্র/না
ফ্রিডম পার্টি এম. এল. আলম ১৭৫ ০.১ প্র/না
স্বতন্ত্র এম. আর. রেনু ১৩৫ ০.১ প্র/না
সংখ্যাগরিষ্ঠতা ৮৯,৭৫২ ৩৮.৭ +১১.৩
ভোটার উপস্থিতি ২,৩২,০৭৫ ৭৮.২ +১৩.৮
বিএনপি নির্বাচনী এলাকা ধরে রাখে
সাধারণ নির্বাচন ১৯৯১: বগুড়া-৬[১২]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
বিএনপি মজিবর রহমান ৯৬,২৩৪ ৫৪.৭
জামায়াতে ইসলামী গোলাম রাব্বানি ৪৮,০৮৬ ২৭.৩
আওয়ামী লীগ মমতাজ উদ্দিন ২৭,৯৬৪ ১৫.৯
ইসলামী ঐক্য জোট আবদুল কাদের প্রাং ৯৪৩ ০.৫
জাতীয় পার্টি (এ) এ. বি. এম. শাহজাহান ৮৯৬ ০.৫
জাকের পার্টি এ. টি. এম. জাকারিয়া ৮৯১ ০.৫
কমিউনিস্ট পার্টি মো. আব্দুর রাজ্জাক ৮২৩ ০.৫
জেএসডি আশীষ সরকার ১৯৫ ০.১
সংখ্যাগরিষ্ঠতা ৪৮,১৪৮ ২৭.৪
ভোটার উপস্থিতি ১,৭৬,০৩২ ৬৪.৪
[[|প্রযোজ্য নয়]] থেকে বিএনপি অর্জন করে

ইতিহাসসম্পাদনা

নির্বাচন কেন্দ্রটি ১৯৭৩ সালে অনুষ্ঠিত নব স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সাধারণ নির্বাচনের জন্য তৈরি করা হয়েছিল।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. এমরান হোসাইন শেখ (১০ অক্টোবর ২০১৮)। "কোন আসনে কত ভোটার"বাংলা ট্রিবিউন। ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. "জাতীয় সংসদীয় আসনবিন্যাস (২০১৩) গেজেট" (PDF)। নির্বাচন কমিশন বাংলাদেশ। ১৬ জুন ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৫ 
  3. "১ম জাতীয় সংসদ সদস্যদের তালিকা" (PDF)বাংলাদেশ সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  4. "২য় জাতীয় সংসদ সদস্যদের তালিকা" (PDF)বাংলাদেশ সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  5. "৩য় জাতীয় সংসদ সদস্যদের তালিকা" (PDF)বাংলাদেশ সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  6. "৪র্থ জাতীয় সংসদ সদস্যদের তালিকা" (PDF)বাংলাদেশ সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  7. যাকারিয়া, মোহাম্মদ (১৪ ডিসেম্বর ২০১৩)। "The number now goes up to 151"ঢাকা ট্রিবিউন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০১৮ 
  8. "বগুড়া ৬আসনে বিএনপি প্রার্থী বিজয়ী" 
  9. "ব্যারিস্টার জমির ও মওদুদ আহমেদের"দৈনিক সংগ্রাম। ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১০। ৫ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  10. "৯ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন" (PDF)বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। ২৮ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৮ 
  11. "মনোনয়ন জমাদানের তালিকা"বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  12. "Parliament Election Result of 1991,1996,2001 Bangladesh Election Information and Statistics"ভোট মনিটর নেটওয়ার্ক (ইংরেজি ভাষায়)। ২০০৮-১২-২৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  13. "Statistical Report: 7th Jatiya Shangshad Election" [পরিসংখ্যানগত প্রতিবেদন: ৭ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন] (PDF)বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন (ইংরেজি ভাষায়)। পৃষ্ঠা ২৯৯। ২৩ মার্চ ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০১৮ 
  14. "Statistical Report: 7th Jatiya Shangshad Election" [পরিসংখ্যানগত প্রতিবেদন: ৭ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন] (PDF)বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন (ইংরেজি ভাষায়)। পৃষ্ঠা ৩০৫, ৩১১। ২৩ মার্চ ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০১৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা