প্রধান মেনু খুলুন

অ্যালেক বেডসার

ইংরেজ ক্রিকেটার

স্যার অ্যালেক ভিক্টর বেডসার, সিবিই (ইংরেজি: Alec Bedser; জন্ম: ৪ জুলাই, ১৯১৮ - মৃত্যু: ৪ এপ্রিল, ২০১০) বার্কশায়ারের রিডিং এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বিখ্যাত পেশাদার ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকা ছিলেন। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলে তিনি মূলতঃ মিডিয়াম-ফাস্ট বোলার হিসেবে খেলতেন। পাশাপাশি ডানহাতে ব্যাটিংয়েও পারদর্শিতা দেখিয়েছেন তিনি।

স্যার অ্যালেক বেডসার
Eric and Alec Bedser 1946.jpg
১৯৪৬ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে যমজ ভ্রাতা এরিক বেডসারের সাথে অ্যালেক বেডসার (ডানে)
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামঅ্যালেক ভিক্টর বেডসার
জন্ম(১৯১৮-০৭-০৪)৪ জুলাই ১৯১৮
রিডিং, বার্কশায়ার, ইংল্যান্ড, যুক্তরাজ্য
মৃত্যু৪ এপ্রিল ২০১০(2010-04-04) (বয়স ৯১)
ওকিং, সারে, ইংল্যান্ড, যুক্তরাজ্য
উচ্চতা৬ ফুট ০ ইঞ্চি (১.৮৩ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট
সম্পর্কএরিক বেডসার (যমজ ভ্রাতা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৩১১)
২২ জুন ১৯৪৬ বনাম ভারত
শেষ টেস্ট১২ জুলাই ১৯৫৫ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৩৯–১৯৬০সারে
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৫১ ৪৮৫
রানের সংখ্যা ৭১৪ ৫,৭৩৫
ব্যাটিং গড় ১২.৭৫ ১৪.৫১
১০০/৫০ ০/১ ১/১৩
সর্বোচ্চ রান ৭৯ ১২৬
বল করেছে ১৫,৯১৮ ১০৬,০৬২
উইকেট ২৩৬ ১,৯২৪
বোলিং গড় ২৪.৮৯ ২০.৪১
ইনিংসে ৫ উইকেট ১৫ ৯৬
ম্যাচে ১০ উইকেট ১৬
সেরা বোলিং ৭/৪৪ ৮/১৮
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২৬/– ২৮৯/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৭ জানুয়ারি ২০১৫

অ্যালেক বেডসার ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে সারে দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। বিংশ শতাব্দীতে তাকে সেরা ইংরেজ ক্রিকেটারদের অন্যতমরূপে গণ্য করা হয়।

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

১৯৩৯ থেকে ১৯৬০ সালের মধ্যে সারে দলের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেন। এ সময় তার যমজ ভাই এরিক বেডসার একই দলে খেলেন। ৪৮৫ খেলায় বেডসার ৪৮৫টি প্রথম-শ্রেণীর উইকেট লাভ করেন।

১৯৪৬ থেকে ১৯৫৫ সালের মধ্যবর্তী সময়ে ইংল্যান্ডের পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অংশ নেন। ৫১ টেস্টে তার উইকেটের সংখ্যা ২৩৬। ১৯৫৩ সালে বিখ্যাত অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট তারকা ক্ল্যারি গ্রিমেটের সর্বোচ্চ টেস্ট উইকেট লাভের বিশ্বরেকর্ড ভেঙ্গে ফেলেন। ১৯৬৩ সালে ব্রায়ান স্ট্যাদাম কর্তৃক তার এ রেকর্ড ভঙ্গ হয়।

বিশ্বযুদ্ধে অংশগ্রহণসম্পাদনা

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। যুদ্ধের শেষদিকে ইতালিতে অবস্থানকালীন বেডসার যমজ ভ্রাতৃদ্বয়ের সাথে আর্থার ম্যাকইনটায়ারের বন্ধুত্বমূলক সম্পর্ক গড়ে উঠে।

অবসরসম্পাদনা

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর নেয়ার পর ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের নির্বাচকমণ্ডলীর সভাপতির দায়িত্ব পালনসহ সারে কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের সভাপতি মনোনীত হন। ১৯৯৬ সালে নাইট উপাধীতে ভূষিত হন তিনি।

ক্রিকেটের বাইরে এসে ডানপন্থী চাপ প্রয়োগকারী গোষ্ঠী ফ্রিডম অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য মনোনীত হন।[১][২][৩] এ গোষ্ঠী দক্ষিণ আফ্রিকার আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নির্বাসনকালীন সময়ে ক্রীড়া সম্পর্ক বজায়ে পরামর্শকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হতো।

জানুয়ারি, ২০০৯ সালে আইসিসি ক্রিকেট হল অব ফেমের উদ্বোধনী তালিকায় তাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[৪] ৪ এপ্রিল, ২০১০ তারিখে অ্যালেক বেডসারের দেহাবসানের পর রেগ সিম্পসন মৃত্যু-পূর্ব পর্যন্ত ইংল্যান্ডের সর্ববয়োজ্যেষ্ঠ জীবিত টেস্ট খেলোয়াড়ের মর্যাদা লাভ করেছিলেন।[৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Hodgson, Derek (৬ এপ্রিল ২০১০)। "Sir Alec Bedser: Pillar of English cricket, as a player in the 1950s and later as a selector"The Independent। ১১ এপ্রিল ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১০ 
  2. Richards, Huw (৫ এপ্রিল ২০১০)। "Bowler Alec Bedser dies at 91"New York Times। ১৩ এপ্রিল ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১০ 
  3. Lowles, Nick (এপ্রিল ২০০১)। "Blood money"Searchlight। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১০ 
  4. "Sir Alec Bedser"CricinfoESPN। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১০ 
  5. List of oldest living Test players

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

রেকর্ড
পূর্বসূরী
ক্ল্যারি গ্রিমেট
বিশ্বরেকর্ড - টেস্ট ক্রিকেটে সর্বাধিক উইকেট
৫১ টেস্টে ২৩৬ উইকেট (২৪.৮৯)
রেকর্ড ধারণ: ২৪ জুলাই, ১৯৫৩ - ২৬ জানুয়ারি, ১৯৬৩
উত্তরসূরী
ব্রায়ান স্ট্যাদাম