রানাসিংহে প্রেমাদাসা

শ্রীলঙ্কান রাজনীতিবিদ

শ্রীলঙ্কাভিমান্য রানাসিংহে প্রেমাদাসা (সিংহলি: රණසිංහ ප්‍රේමදාස,তামিল: ரணசிங்க பிரேமதாசா; ২৩ জুন ১৯২৪ – ১ মে ১৯৯৩)[১] ছিলেন ২ জানুয়ারি ১৯৮৯ থেকে ১ মে ১৯৯৩ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার তৃতীয় (দ্বিতীয় কার্যনির্বাহী) রাষ্ট্রপতি[২] তিনি ছিলেন তৎকালীন ব্রিটিশ সিলনের কলম্বোয় জন্মগ্রহণকারী শ্রীলঙ্কার বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ। তারপূর্বে জে. আর. জয়াবর্ধনে সরকারের অধীনে ৬ ফেব্রুয়ারি, ১৯৭৮ থেকে ১ জানুয়ারি, ১৯৮৯ সময়কাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। রাষ্ট্রপতি থাকাকালীন ১ মে, ১৯৯৩ তারিখে অনুষ্ঠিত মে দিবসের শোভাযাত্রা অনুষ্ঠানে এলটিটিই কর্তৃক পরিচালিত[৩] আত্মঘাতি বোমা হামলায় তিনি নিহত হন।[৪] ১৯৮৬ সালে নির্মিত খেত্তারামা স্টেডিয়ামের উন্নয়নে অনন্য সাধারণ ভূমিকা রাখেন তিনি। মৃত্যু পরবর্তীকালে তার নামকে চীরস্মরণীয় করে রাখতে এর বর্তমান নামকরণ করা হয় আর. প্রেমাদাসা স্টেডিয়াম

রানাসিংহে প্রেমাদাসা
රණසිංහ ප්‍රේමදාස
ரணசிங்க பிரேமதாசா
Ranasinghe Premadasa.jpeg
৩য় শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি
কাজের মেয়াদ
২ জানুয়ারি, ১৯৮৯ – ১ মে, ১৯৯৩
পূর্বসূরীজুনিয়াস রিচার্ড জয়াবর্ধনে
উত্তরসূরীদীনগিরি বান্দা বিজেতুঙ্গা
শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
৬ ফেব্রুয়ারি, ১৯৭৮ – ৩ মার্চ, ১৯৮৯
পূর্বসূরীজুনিয়াস রিচার্ড জয়াবর্ধনে
উত্তরসূরীদীনগিরি বান্দা বিজেতুঙ্গা
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম(১৯২৪-০৬-২৩)২৩ জুন ১৯২৪
কলম্বো, ব্রিটিশ সিলন
(বর্তমানে শ্রীলঙ্কা)
মৃত্যু১ মে ১৯৯৩(1993-05-01) (বয়স ৬৮)
কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
জাতীয়তাশ্রীলঙ্কা শ্রীলঙ্কান
রাজনৈতিক দলইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টি
দাম্পত্য সঙ্গীহেমা প্রেমদাস
(বিবাহপূর্ব বিক্রেমাতুঙ্গে)
সন্তানসজিৎ, দুলাঞ্জলি
ধর্মথেরবাদ বৌদ্ধধর্ম

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

কলম্বোর সেন্ট জোসেফ’স কলেজে অধ্যয়নকালীন সময়ে প্রাচ্য ভাষা শিখতে থাকেন। তার বাবা রিচার্ড রানাসিংহে। তারই অনুপ্রেরণায় তিনি এ ভাষা শিখেন। সাংবাদিক হতে চেয়েছিলেন রানাসিংহে প্রেমাদাসা। সিংহলি ভাষায় জওহরলাল নেহেরু’র আত্মজীবনী অনুবাদ করেন।

হেমা বিক্রমাতুঙ্গে নামীয় এক রমণীকে বিয়ে করেন তিনি। তাদের সংসারে সজীথ প্রেমাদাসা ও দুলাঞ্জলী নামীয় দুই সন্তান রয়েছে। তন্মধ্যে, পুত্র সজীথ প্রেমাদাসা হাম্বানতোতা জেলা থেকে ইউএনপি’র সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন ও ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টি’র সাবেক উপ-নেতা ছিলেন।

রাজনৈতিক জীবনসম্পাদনা

এ. ই. গুণেসিংহে’র নেতৃত্বাধীন সিলনের লেবার পার্টি’র মাধ্যমে রাজনৈতিক জীবনে অনুপ্রবেশ করেন। ১৯৫০-এর দশকে লেবার পার্টির অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ উপলদ্ধি করে দলত্যাগ করেন ও মধ্যপন্থী ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টিতে যোগ দেন। এভাবেই তিনি প্রথম অ-গোভিগামা রাজনীতিবিদ হলেন যিনি গণতান্ত্রিক পন্থায় শ্রীলঙ্কার স্বাধীনতা পরবর্তীকালে সর্বোচ্চ পর্যায়ে উপনীত হয়েছেন।

ডাডলে সেনানায়েকের মন্ত্রীসভায় সম্প্রচার মন্ত্রী হিসেবে অভিষিক্ত হন তিনি। দক্ষিণ এশিয়ার প্রাচীনতম রেডিও স্টেশন রেডিও সিলনকে ৫ জানুয়ারি, ১৯৬৭ তারিখে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব সংস্থা হিসেবে সিলন ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশনে নামাঙ্কিত করেন।

দরিদ্রদের আশ্রয়দান প্রকল্পের সাথে তিনি জড়িত ছিলেন। সেজন্যে জাতিসংঘ আশ্রয়বর্ষ হিসেবে ঘোষণা করে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Ranasinghe Premadasa DOB"priu.gov.lk। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মে ২০১৫ 
  2. "Former Presidents – Presidential Secretariat of Sri Lanka" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১০ নভেম্বর ২০২০ 
  3. Liberation Tigers of Tamil Eelam Backgrounder ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৬ মে ২০১০ তারিখে Council on Foreign Relations - July 21, 2008
  4. Gargan, Edward (মে ২, ১৯৯৩)। "Suicide Bomber Kills President of Sri Lanka"। New York Times। 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

সরকারি দফতর
পূর্বসূরী
জুনিয়াস রিচার্ড জয়াবর্ধনে
শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি
১৯৮৯–১৯৯৩
উত্তরসূরী
দীনগিরি বান্দা বিজেতুঙ্গা
পূর্বসূরী
জুনিয়াস রিচার্ড জয়াবর্ধনে
শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী
১৯৭৮–১৯৮৯
উত্তরসূরী
দীনগিরি বান্দা বিজেতুঙ্গা