প্রেমের তাজমহল

প্রেমের তাজমহল গাজী মাহবুব পরিচালিত ২০০১ সালের বাংলাদেশী প্রণয়ধর্মী নাট্য চলচ্চিত্র।[২] ছবিটির কাহিনী, চিত্রানাট্য ও সংলাপ রচনা করেছেন গাজী জাহাঙ্গীর ও প্রযোজনা করেছেন মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন। ছবিটি পরিবেশনা করেছে রিয়া কথাচিত্র। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন রিয়াজ, শাবনূর, রাজিব, আবুল হায়াত, মিশা সওদাগর প্রমুখ।[৩]

প্রেমের তাজমহল
পরিচালকগাজী মাহবুব
প্রযোজকমোহাম্মদ জসিম উদ্দিন
রচয়িতাগাজী জাহাঙ্গীর
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারআহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল
চিত্রগ্রাহকমাহফুজুর রহমান খান
সম্পাদকজিন্নাত হোসেন
পরিবেশকরিয়া কথাচিত্র
মুক্তি
  • ১৩ জুলাই ২০০১ (2001-07-13)
[১]
দৈর্ঘ্য১৬০ মিনিট
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা

২০০১ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রটি ব্যবসাসফল হয়।[৪] ছবিটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ সঙ্গীত পরিচালক, শ্রেষ্ঠ পুরুষ কণ্ঠশিল্পীশ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী[২] এবং বাচসাস পুরস্কার এ শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা, শ্রেষ্ঠ পুরুষ কণ্ঠশিল্পী, ও শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী বিভাগে লাভ করে।

কাহিনী সংক্ষেপসম্পাদনা

রবিন ও লিজা একে অপরকে ভালোবাসে। কিন্ত তারা একে অপরের সম্পর্কে তেমন একটা জানে না। তারা বিয়ে করতে চাইলে লিজা রবিনকে গীর্জায় যেতে বলে। রবিন তা শুনে হাসে এবং ভাবে সে মজা করছে। রবিন তাকে কাজী অফিসে গিয়ে বিয়ে করার কথা বলে। রবিন মুসলমান এ কথার জানার পর লিজা অবাক হয়। একইভাবে লিজা খ্রিস্টান তা জানার পর রবিনও অবাক হয়। তারা একে অপরের কাছে থেকে দূরে সরে যেতে চায় কিন্তু পারে না। ফলে তারা সিদ্ধান্ত নেয় যে ধর্ম যাই হোক তাদের প্রেমে তা যেন বাধা না হয়ে আসে। এক সময় তাদের পরিবার তাদের এই প্রেমের কথা জানতে পারে এবং দুই পরিবারের মধ্যে জটিলতার সৃষ্টি হয়। রবিনের বাবা রায়হান চৌধুরী ও লিজার বাবা আব্রাহাম ডিকস্টা ব্যবসায়িক প্রতিদ্বন্দ্বী। এই জটিলতা সংঘাতে পরিণত হয়।

গল্পের মোড় ঘুরে যায় যখন জানা যায় লিজা আব্রাহাম ডিকস্টার মেয়ে নয়। লিজা এক মুসলমান পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিল। তার বাবা আব্দুর রহিম। একদিন রহিমের পরিবার ও আব্রাহামের পরিবার একসাথে নদী পাড় হওয়ার সময় ঝড়ের কবলে পড়ে। পরিবারের সবাইকে হারিয়ে আব্রাহাম আব্দুর রহিমের শিশুকন্যা আলোকে খুঁজে পায়। সে তাকে তার সাথে নিয়ে যায় এবং আলো লিজা হিসেবে তার কাছে বড় হয়। অপর দিকে পরিবারের সবাইকে হারিয়ে রহিম পাগল হয়ে যায়। কিন্তু সে জানত আলো জীবিত আছে। অনেক বছর পর সে একদিন আব্রাহামকে খুঁজে পায়। এবার লিজার আসল পরিচয় পাওয়ার পর রবিন লিজাকে বিয়ে করতে আর কোন সমস্যা হয় না।

কুশীলবসম্পাদনা

সঙ্গীতসম্পাদনা

প্রেমের তাজমহল
আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল কর্তৃক অ্যালবাম
মুক্তির তারিখ২০০১
শব্দধারণের সময়২০০১
ঘরানাচলচ্চিত্রের গান
দৈর্ঘ্য২৬:২৬
সঙ্গীত প্রকাশনীঅনুপম
প্রযোজকআহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল

প্রেমের তাজমহল চলচ্চিত্রের গানের সুর ও সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন এবং গীত রচনা করেছেন আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল। চলচ্চিত্রে ৫টি গান রয়েছে। গানে কণ্ঠ দিয়েছেন এন্ড্রু কিশোর, কনক চাঁপা, কুমার বিশ্বজিৎ, মনির খান, ও বিপ্লব। এই ছবির "এই বুকে বইছে যমুনা" গানটি শ্রোতাপ্রিয়তা লাভ করে।[৫] চলচ্চিত্রটি এর সঙ্গীতের জন্য তিনটি বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করে।[৬]

গানের তালিকাসম্পাদনা

নং.শিরোনামকণ্ঠশিল্পীদৈর্ঘ্য
১."ও প্রিয়া ও প্রিয়া"এন্ড্রু কিশোরকনক চাঁপা৫:০৫
২."ছোট্ট একটা জীবন নিয়ে"এন্ড্রু কিশোর ও কনক চাঁপা৫:৪৭
৩."দিদিমনি ও দিদিমনি"কুমার বিশ্বজিৎ, কনক চাঁপা 
৪."এই বুকে বইছে যমুনা"মনির খান ও কনক চাঁপা৫:৪৪
৫."সাথীরে সাথী আমার"বিপ্লব 
মোট দৈর্ঘ্য:২৬:২৬

পুরস্কারসম্পাদনা

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার
বাচসাস পুরস্কার

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Archive Movie List 2001"বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতি। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৮ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "গাজী মাহবুব"দৈনিক ইত্তেফাক। ২৩ মার্চ ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 
  3. "প্রেমের তাজমহলের সিকুয়েল হচ্ছে"দৈনিক যুগান্তর। ৬ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 
  4. "আবারও 'প্রেমের তাজমহল'"নিউজবাংলাদেশ.কম। ৩ জুন ২০১৫। ১৬ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 
  5. "তৈরি হচ্ছে 'প্রেমের তাজমহল' ছবির সিকুয়েল"প্রিয়.কম। ৩ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  6. সূর্য, নিশীথ (৪ মে ২০১৫)। "আমি একজন কণ্ঠশ্রমিক : কনকচাঁপা"এনটিভি অনলাইন। ৭ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা