পূর্ব আফ্রিকা, পূর্বাঞ্চলীয় আফ্রিকা বা আফ্রিকার পূর্বভাগ বলতে আফ্রিকা মহাদেশের পূর্বভাগের উপ-অঞ্চলটিকে বোঝানো হয়।

  পুর্বাঞ্চলীয় আফ্রিকা (জাতিসংঘের উপাঞ্চল)
  পূর্ব আফ্রিকা সম্প্রদায়
  কেন্দ্রীয় আফ্রিকান সংঘ (বিলুপ্ত)
  ভৌগোলিক পূর্ব আফ্রিকা, জাতিসংঘের উপাঞ্চল এবং পূর্ব আফ্রিকা সম্প্রদায়সহ

এই অঞ্চলের ইতিহাস অত্যন্ত প্রাচীন ও এটিকে সঠিকভাবে সংজ্ঞায়িত করা দুরূহ। এই অঞ্চল প্রাকৃ্তিক ও নৃ্তাত্ত্বিক দিক দিয়ে সমৃদ্ধ। ইংরেজ,পর্তুগিজ,জার্মানইতালীয় সাম্রাজ্যবাদীরা এই অঞ্চলে উপনিবেশ গড়েছে। উপনিবেশোত্তর যুগেও এই অঞ্চল অশান্ত থেকেছে।

ঐতিহাসিক ওমানি সাম্রাজ্য ও ব্রিটিশ কর্তৃত্বাধীন পূর্ব আফ্রিকা অঞ্চল ও জার্মান পূর্ব আফ্রিকা অঞ্চলগুলির কারণে পূর্ব আফ্রিকা বলতে (বিশেষ করে ইংরেজি ভাষায়) বর্তমান কেনিয়া, তানজানিয়া ও উগান্ডা রাষ্ট্র তিনটিকে নিয়ে গঠিত অঞ্চলটিকে বোঝাতে পারে।[১][২][৩][৪] তবে নামটি আরও ব্যাপক অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে ও এখনও হয়ে থাকে, এবং এটিতে জিবুতি, ইরিত্রিয়া, ইথিওপিয়া ও সোমালিয়াও অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে।[৫][৬][৭][৮][৯][১০][১১]

দেশসমূহসম্পাদনা

জাতিসংঘের পরিসংখ্যান বিভাগের ভৌগোলিক অঞ্চল বিষয়ক সংকল্পনা অনুযায়ী পূর্ব আফ্রিকা ১০, ১১ কিংবা ১৬টি দেশ ও অঞ্চল নিয়ে গঠিত।[১২] এগুলি নিচে উল্লেখ করা হল।

ইতিহাসসম্পাদনা

প্রাগৈতিহাসিক পর্বসম্পাদনা

আরব ও পর্তুগিজ পর্বসম্পাদনা

সাম্রাজ্যবাদী যুগসম্পাদনা

সাম্রাজ্যবাদ-উত্তর যুগসম্পাদনা

এসময় এই অঞ্চল স্নায়ুযুদ্ধ দ্বারা প্রভাবিত ছিল। ইদি আমিনের মত একাধিক স্বৈরাচারীর উত্থান হয়েছে এখানে।

ভূগোলসম্পাদনা

 
ভিক্টোরিয়া হ্রদ

ভূমিরূপসম্পাদনা

এই অঞ্চলের ভূমিরূপ বন্ধুর। এই অঞ্চলের মূল পর্বতগুলি হল রাস দাশেন (৪৬২০ মিটার), এল্গোন (৪৩২১ মিটার), রুয়্যেঞ্জেরি (৫১২০ মিটার), কেনিয়া পর্বত (৫২০০ মিটার), কিলিমাঞ্জারো পর্বত (৫৮৯৬ মি), মাসিফ ডে (২৮৯৬ মিটার) ও আঙ্কারাটা (২৬৩৮ মিটার)। এই অঞ্চলে ডেনাকিল খাদের মত ১১৬ মিটার গভীর খাডও আছে। এছাড়া বিভিন্ন নদী গ্রস্ত উপ্ত্যকা তৈরি করেছে। নুবীয় মরুভূমি ও ওগাদেন মরুভূমি এ অঞ্চলের প্রধান দুইটি মরুভুমি।

নদনদীসম্পাদনা

এখানকার নদনদীর মধ্যে নীল নদ, নোগাল নদী, শেবেল নদী, জুব্বা নদী, রুফিজি নদী, রোডুমা নদী, জাম্বেসি নদী ও লিম্পোপো নদী প্রধান। নীল নদের উৎস এখানেই।

হ্রদসম্পাদনা

এখানকার প্রধান হ্রদ হল তুরকানা হ্রদ, ভিক্টোরিয়া হ্রদ, টাঙ্গানিকা হ্রদ, কিভু হ্রদ,আ্যলবার্ট হ্রদ, এডওয়ার্ড হ্রদ, রুকোয়া তানা হ্রদ ও আসাল হ্রদ।

জলবায়ুসম্পাদনা

এখানকার জলবায়ু উষ্ণ ও ক্রান্তীয় উষ্ণ প্রকৃ্তির।

স্বাভাবিক উদ্ভিদসম্পাদনা

বন্যজীবনসম্পাদনা

এই অঞ্চলে বন্যজীবন সমৃদ্ধ। জলহস্তী, জিরাফ, সিংহ, ইত্যাদি স্তন্যপায়ী ও নানা ধরনের পাখি এখানে পাওয়া যায়।

নৃগোষ্ঠীসম্পাদনা

ভাষাসম্পাদনা

এখানে ইংরেজি, পর্তুগিজ ও সোয়াহিলি ভাষাসহ অন্যান্য আফ্রিকান ভাষা প্রচলিত।

প্রধান শহরসম্পাদনা

এখানকার প্রধান শহরগুলির মধ্যে দোদোমা, দারুস সালাম, মাপুটো, আন্তানানারিভো, ভিক্টোরিয়া, নাইরোবি, মোগাদিশু, আদ্দিস আবাবা, লিলোঙ্গোয়ে, কাম্পালা, জিবুতি, আস্মেরা, কিগালি, বুজুম্বুরা, মোরোনিপোর্ট লুইস প্রধান।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "East Africa". The New Oxford Dictionary of English, Judy Pearsall, ed. 2001. Oxford, UK: Oxford University Press; p. 582. "The eastern part of the African continent, especially the countries of Kenya, Uganda, and Tanzania."
  2. Robert M. Maxon, East Africa: An Introductory History, 2 Revised edition, (West Virginia University: 1994), p. 1
  3. Mary Fitzpatrick and Tom Parkinson, Lonely Planet East Africa, 7th edition, (Lonely Planet Publications: 2006), p. 13
  4. Stock, Africa South of the Sahara, Second Ed., p. 24
  5. Somaliland is not included in the United Nations geoscheme, as it is internationally recognized as a part of Somalia.
  6. "East Africa". Merriam-Webster's Geographical Dictionary, 3rd ed. 2001. Springfield, MA: Merriam-Webster, Inc.; p. 339. "A term often used of the area now comprising the countries of Tanzania, Kenya, Uganda, Rwanda, Burundi, and Somalia; sometimes used to include also other neighboring countries of E Africa."
  7. "East Africa ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৯ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে". Encarta World English Dictionary [North American Edition] 2007. Microsoft Corporation. "[R]egion in east central Africa, usually taken to comprise Burundi, Kenya, Rwanda, Somalia, Tanzania, and Uganda". Archived 2009-10-31.
  8. Encyclopædia Britannica, inc, Jacob E. Safra, The New Encyclopædia Britannica, (Encyclopædia Britannica: 2002), p.61
  9. "East Africa". Encyclopedia of Food and Culture. 2003. The Gage Group Inc. "East Africa comprises ten countries: Tanzania, Burundi, Rwanda, Uganda, Sudan, Ethiopia, Eritrea, Djibouti, Somalia, and Kenya."
  10. FAO – East Africa: "With eight countries (Djibouti, Eritrea, Ethiopia, Kenya, Somalia, the Sudan, Uganda and the United Republic of Tanzania),[31] East Africa covers a land area of 5.9 million square kilometres."
  11. Sandra Fullerton Joireman, Institutional Change in the Horn of Africa, (Universal-Publishers: 1997), p.1
  12. "United Nations Statistics Division- Standard Country and Area Codes Classifications (M49)"un.org 
  13. Robert Stock, Africa South of the Sahara, Second Edition: A Geographical Interpretation, (The Guilford Press: 2004), p. 26
  14. IRIN Africa
  15. Michael Hodd, East Africa Handbook, 7th Edition, (Passport Books: 2002), p. 21: "To the north are the countries of the Horn of Africa comprising Ethiopia, Eritrea, Djibouti and Somalia."
  16. Encyclopaedia Britannica, inc, Jacob E. Safra, The New Encyclopaedia Britannica, (Encyclopaedia Britannica: 2002), p.61: "The northern mountainous area, known as the Horn of Africa, comprises Djibouti, Ethiopia, Eritrea, and Somalia."
  17. Sandra Fullerton Joireman, Institutional Change in the Horn of Africa, (Universal-Publishers: 1997), p.1: "The Horn of Africa encompasses the countries of Ethiopia, Eritrea, Djibouti and Somalia. These countries share similar peoples, languages, and geographical endowments."
  18. "Overview of Module Twenty: Southern Africa"Exploring Africa। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মে ২০১৮ 
  19. "Eastern Africa Power Pool" (PDF)। EAPP। সংগ্রহের তারিখ ১৫ অক্টোবর ২০১৪ 
  20. Egyptian Presidency - Egypt Profile: Geography[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]. "[Egypt is s]ituated in the Northeastern corner of Africa, bounded by the Mediterranean Sea from the North and the Red Sea from the East, with the Sinai Peninsula constituting a link to Southwest Asia..."
  21. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০১০ 


  আফ্রিকা বিষয়ক এই নিবন্ধটি অসম্পুর্ণ, আপনি চাইলে এটিকে সমৃদ্ধ করতে পারেন।