প্রধান মেনু খুলুন

দিলহারা ফার্নান্দো

শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার

কঙ্গেনিগে রন্ধী দিলহারা ফার্নান্দো (জন্ম: ১৯ জুলাই, ১৯৭৯) কলম্বোয় জন্মগ্রহণকারী শ্রীলঙ্কার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি পেস বোলিং করেন। হাত থেকে বল অবমুক্তির পূর্বে আঙ্গুলকে ব্যবহার করার কৌশল প্রয়োগে ধীরগতির বল ছোড়ার জন্য পরিচিতি পেয়েছেন দিলহারা ফার্নান্দো

দিলহারা ফার্নান্দো
Dilhara Fernando.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামকঙ্গেনিগে রন্ধী দিলহারা ফার্নান্দো
জন্ম (1979-07-19) ১৯ জুলাই ১৯৭৯ (বয়স ৪০)
কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
উচ্চতা৬ ফুট ৩ ইঞ্চি (১.৯১ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৮২)
১৪ জুন ২০০০ বনাম পাকিস্তান
শেষ টেস্ট৮ জুলাই ২০১২ বনাম পাকিস্তান
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১০৬)
৯ জানুয়ারি ২০০১ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
শেষ ওডিআই১১ জানুয়ারি ২০১২ বনাম পাকিস্তান
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ )
১৫ জুন ২০০৬ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টি২০আই২৫ নভেম্বর ২০১১ বনাম পাকিস্তান
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৯৭/৯৮-বর্তমানসিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব
২০০৮ওরচেস্টারশায়ার
২০০৮-২০১১মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই টি২০আই এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৪০ ১৪৭ ১৭ ১০৯
রানের সংখ্যা ২৪৯ ২৩৯ ২৪ ৫৬১
ব্যাটিং গড় ৮.৩০ ৯.১৯ ৬.০০ ৭.৫৮
১০০/৫০ ০/০ ০/০ -/- ০/০
সর্বোচ্চ রান ৩৯* ২০ ২১ ৪২
বল করেছে ৬,১৮১ ৬,৫০৭ ৩৬৬ ১৪,৬৭০
উইকেট ১০০ ১৮৭ ১৮ ২৯১
বোলিং গড় ৩৭.৮৪ ৩০.২০ ২৫.৩৮ ৩০.৩৯
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ৫/৪২ ৬/২৭ ৩/১৯ ৬/২৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১০/– ২৭/– ৩/- ৩৯/–
উৎস: ক্রিকইনফো, ১১ জুলাই ২০১৫

ডি ম্যাজনো কলজে কান্দানায় অধ্যয়ন করেন তিনি। বিদ্যালয় জীবনে বাস্কেটবল খেলোয়াড় হিসেবে খেলতেন। কিন্তু কলেজের ক্রিকেট কোচ তার শারীরিক গড়ন ও উচ্চতার কারণে তাকে ক্রিকেটের দিকে ধাবিত করেন।

ক্যাথলিক ধর্মাবলম্বী ফার্নান্দো মাঝে-মধ্যেই চামিন্দা ভাসের সাথে চার্চে গমন করতেন।[১]

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

জুন, ২০০০ সালে কলম্বোয় সফরকারী পাকিস্তানের বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। এর ছয়মাস পর ডারবানে ৯১.৯ মাইল বেগে বোলিং করেন। এছাড়াও, ভারতে বাংলাদেশের বিপক্ষে করেছিলেন ৯৩.৪০ মাইল বেগে। কিন্তু আঘাতের কারণে তার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বেশ সীমিত হয়ে পড়ে। এ সময়ে তার পিঠে দু’বার অস্ত্রোপচার করতে হয়। ফলে, ২০০৪ মৌসুমে সফরকারী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তাকে দেখা যায়নি। ২০১০ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়া সফরে গাব্বায় অনুষ্ঠিত তৃতীয় ও চূড়ান্ত একদিনের আন্তর্জাতিকে ঘন্টাপ্রতি ১৫০ কিলোমিটার গতিবেগে বল ছুড়েন।

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে তিনি ১৫৮ ওডিআই উইকেট পান যা কেবলমাত্র ভাস, জয়াসুরিয়ামুরালিধরনের তুলনায় কম।[২] ১৩ অক্টোবর, ২০০৭ তারিখে কলম্বোয় অনুষ্ঠিত সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৫ম ওডিআইয়ে নিজস্ব সেরা বোলিং পরিসংখ্যান ৬/২৭ লাভ করেন। এরফলে ইংল্যান্ড দল মাত্র ১০৭ রানে গুটিয়ে যায়। এরফলে তিনি প্রথমবারের মতো চার বা ততোধিক উইকেট পান। শ্রীলঙ্কার একদিনের আন্তর্জাতিকের ইতিহাসে তার এ বোলিং ৫ম শীর্ষস্থানীয়।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Catholics pray for Sri Lankan cricketers following attack"। Union of Catholic Asian News। ৪ মার্চ ২০০৯। ২৪ নভেম্বর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০০৯ 
  2. Most ODI wickets – Sri Lanka from Cricinfo, retrieved 17 June 2011
  3. Best bowling figures in an innings – Sri Lanka from Cricinfo, retrieved 13 October 2007

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা