জর্জ গ্লোভার

দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটার

জর্জ কীওয়ার্থ গ্লোভার (ইংরেজি: George Glover; জন্ম: ১৩ মে, ১৮৭০ - মৃত্যু: ১৫ নভেম্বর, ১৯৩৮) ইয়র্কশায়ারের ওয়াকফিল্ডে জন্মগ্রহণকারী ইংরেজ বংশোদ্ভূত প্রথিতযশা দক্ষিণ আফ্রিকান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৯৬ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[১]

জর্জ গ্লোভার
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজর্জ কীওয়ার্থ গ্লোভার
জন্ম(১৮৭০-০৫-১৩)১৩ মে ১৮৭০
ওয়াকফিল্ড, ইয়র্কশায়ার, ইংল্যান্ড
মৃত্যু১৫ নভেম্বর ১৯৩৮(1938-11-15) (বয়স ৬৮)
কিম্বার্লী, দক্ষিণ আফ্রিকা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাবোলার
সম্পর্কফ্রেডরিক গ্লোভার (পুত্র), চার্লস গ্লোভার (পুত্র) ও জর্জ গ্লোভার (পুত্র)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ৩৬)
২১ মার্চ ১৮৯৬ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১৬
রানের সংখ্যা ২১ ৬২১
ব্যাটিং গড় ২১.০০ ২৩.৮৮
১০০/৫০ ০/০ ০/৪
সর্বোচ্চ রান ১৮* ৭৮
বল করেছে ৬৫ ২৭৪২
উইকেট ৭১
বোলিং গড় ২৮.০০ ১৮.১৫
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ১/২৮ ৮/৩৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/- ১০/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২১ জুলাই ২০১৯

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে গ্রিকুয়াল্যান্ড ওয়েস্ট ও কিম্বার্লী দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি অফ ব্রেক বোলিং করতেন। এছাড়াও, নিচেরসারিতে ডানহাতে কার্যকরী ব্যাটিংশৈলী প্রদর্শন করতেন জর্জ গ্লোভার

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

১৮৮৯-৯০ মৌসুম থেকে জর্জ গ্লোভারের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ১৮৮৯-৯০ মৌসুমে প্রথমবারের মতো কারি কাপের উদ্বোধনী প্রতিযোগিতা কিম্বার্লী ও ট্রান্সভালের মধ্যে একটিমাত্র খেলার মাধ্যমে আয়োজন করা হয়েছিল। ঐ খেলায় দ্বিতীয় ইনিংসে কিম্বার্লীর পক্ষে বার্নার্ড ট্যানক্রেড ১০৬ রান ও ট্রান্সভালের পক্ষে মন্টি বাউডেন অপরাজিত ১২৬* রান করেন যা প্রতিযোগিতার ইতিহাসে প্রথম সেঞ্চুরির ঘটনা ছিল। একই খেলায় প্রথম ইনিংসে কিম্বার্লীর পক্ষে তিনি ৬/৫০ লাভ করেছিলেন। ১৮৯৩-৯৪ মৌসুমে কারি কাপের একটি খেলায় ৬৮ রান খরচায় জর্জ গ্লোভার ১৫ উইকেট দখল করেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন জর্জ গ্লোভার। ২১ মার্চ, ১৮৯৬ তারিখে কেপ টাউনে সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে প্রথমবারের মতো অংশ নেন। দলীয় সঙ্গী এআর রিচার্ডস, এডব্লিউ সেকাল ও প্রতিপক্ষীয় ইংল্যান্ডের ইজে টাইলারের সাথে একযোগে টেস্ট অভিষেক ঘটে তার।[২] এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল।

খেলায় তিনি প্রথম ইনিংসে আট নম্বরে ব্যাটিং করে ১৮ রানে অপরাজিত ছিলেন। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ের অবস্থান পরিবর্তন ঘটিয়ে চার নম্বরে নেমে ৩ রান করে স্যামি উডসের হাতে তালুবন্দীর মাধ্যমে জর্জ লোহম্যানের শিকারে পরিণত হন। বল হাতে নিয়ে স্যার টিসি ও’ব্রায়ানকে অতিরিক্ত খেলোয়াড় জেএইচ অ্যান্ডারসনের কটে ২ রানে বিদেয় করেন। খেলায় তিনি ১/২৮ বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করান। ঐ খেলায় তার দল ইনিংস ও ৩৩ রানে পরাজিত হয়েছিল।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

১৫ নভেম্বর, ১৯৩৮ তারিখে ৬৮ বছর বয়সে দক্ষিণ আফ্রিকার কিম্বার্লীতে জর্জ গ্লোভারের দেহাবসান ঘটে। তার তিন পুত্র - ফ্রেডরিক গ্লোভার, চার্লস গ্লোভার ও জর্জ গ্লোভার গ্রিকুয়াল্যান্ড ওয়েস্টের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "George Glover"। www.cricketarchive.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-০২ 
  2. "England in South Africa (1895 – 1896): Scorecard of third Test"। Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২১, ২০১৯ 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা