কাজী মারুফ

বাংলাদেশী অভিনেতা

কাজী মারুফ (জন্ম: ৪ ডিসেম্বর, ১৯৮২) জনপ্রিয় বাংলাদেশী চলচ্চিত্র অভিনেতা। খুব অল্প সময়েই বাংলাদেশী চলচ্চিত্রে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন এই অভিনেতা। বাবা প্রখ্যাত পরিচালক কাজী হায়াৎ-এর মাধ্যমে চলচ্চিত্রে এসে তারই পরিচালনায় করা ছবি ইতিহাস দিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।

কাজী মারুফ
জন্ম
কাজী রুবায়্যাত হায়াত্‍

৪ ডিসেম্বর, ১৯৮২
গোপালগঞ্জ, বাংলাদেশ
জাতীয়তাবাংলাদেশি
পেশাচলচ্চিত্র অভিনেতা
কর্মজীবন২০০২–বর্তমান
উল্লেখযোগ্য কর্ম
উচ্চতা৫ ফুট ১০ ইঞ্চি (১.৭৮ মিটার)
আত্মীয়কাজী হায়াৎ (বাবা)
পুরস্কারজাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

শিক্ষা জীবনসম্পাদনা

উইলস লিটল ফ্লাওয়ার থেকে ‘ও লেভেল’ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে মারুফ ‘এ লেভেল’ সম্পন্ন করেন মাস্টার মাইন্ড থেকে। ২০০১ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি তারিখে একই দিনে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় এবং চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেন। সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ে ওরিয়েন্টেশন শেষ করে বিকেল ৫টায় এফডিসি-র ১ নং ফ্লোরে ‘ইতিহাস’ চলচ্চিত্রের মহরতের মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেন। পরবর্তীতে লন্ডন স্কুল অব কমার্স থেকে ব্যবসায় শিক্ষায় স্নাতক সম্পন্ন করেন কাজী মারুফ।

অভিনয় জীবনসম্পাদনা

অ্যাকশন ঘরানার চলচ্চিত্রের অভিনেতা কাজী মারুফ তার চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেন ইতিহাস ছবির মাধ্যমে। কাজী হায়াৎ পরিচালিত এই চলচ্চিত্রটি মুক্তি পায় ২০০২ সালে। প্রথম ছবিতেই জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতে নেন কাজী মারুফ।

কাজী মারুফ সাম্প্রতিক সময়ে বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রের পাশাপাশি বিকল্প ধারার চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেছেন। দেহরক্ষী ছবিতে নাম ভূমিকায়, আনিসুর রহমান মিলন এবং ববির পাশাপাশি দুর্দান্ত অভিনয় করেন। তবে ইভটিজিং ছবিতে তার কাশেম চরিত্রটি দর্শকপ্রিয়তা পায়। ২০১৪ সালে তিনি কাজী হায়াৎ পরিচালিত সর্বনাশা ইয়াবা ছবিতে কাজ করছেন। ২০১৫ সালে অভিনয় করেছেন মাল্টিমিডিয়া ফিল্ম প্রোডাকশন প্রযোজিত ছিন্নমূল ছায়াছবিতে। এতে তার নায়িকা লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার অরিন। এছাড়াও মোস্তাফিজুর রহমান বাবু পরিচালিত বিধ্বস্ত ও ফিরোজ খান প্রিন্স পরিচালিত শোধ প্রতিশোধ অভিনয় করেন। বিধ্বস্ত ছায়াছবিতেও মারুফের নায়িকা অরিন এবং শোধ প্রতিশোধ-এ নায়িকা মৌসুমী হামিদ ও মৌমিতা মৌ।[১] ইমদাদুল হক মিজানের পরিচালনায় বেপরোয়া প্রেমিক ছায়াছবিতেও অভিনয় করছেন । এই ছবিতে কাজী মারুফের বিপরীতে অভিনয় করবেন চিত্রনায়িকা মৌমিতা মৌ।[২]

চলচ্চিত্রের তালিকাসম্পাদনা

বছর চলচ্চিত্রের শিরোনাম চরিত্র পরিচালক সহশিল্পী টীকা
২০০২ ইতিহাস মারুফ কাজী হায়াৎ রত্না, মৌসুমী বিজয়ী: জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার শ্রেষ্ঠ অভিনেতা
২০০৩ অন্ধকার মারুফ কাজী হায়াৎ নেহা
২০০৪ অন্য মানুষ মারুফ কাজী হায়াৎ শাবনূর
২০০৭ ক্যাপ্টেন মারুফ মারুফ কাজী হায়াৎ নদী
২০০৮ শ্রমিক নেতা কাজী হায়াৎ পূর্ণিমা
গরিবের ছেলে বড়লোকের মেয়ে আহমেদ নাসির অপু বিশ্বাস
আইন বড় না সন্তান বড় এ জে রানা নিপুন
২০০৯ রাস্তার ছেলে শাহীন-সুমন সাহারা,‌ রেসি, ইমন
পাঁচ টাকার প্রেম শাহীন-সুমন সাহারা, রেসি, ইমন
২০১০ অশান্ত মন মারুফ কাজী হায়াৎ সাহারা
আমার স্বপ্ন কাজী হায়াৎ সাহারা, বাপ্পারাজ
মা আমার জান আহমেদ নাসির পূর্ণিমা
আমার মা আমার অহংকার রাজু চৌধুরী পূর্ণিমা
মায়ের জন্য মরতে পারি আহমেদ নাসির সাহারা, রেসি, ইমন
বড়লোকের দশদিন গরিবের একদিন আপন শেখ নজরুল ইসলাম সাহারা, নিপুন, নিরব
বস্তির ছেলে কোটিপতি স্বপন চৌধুরী সাহারা, শাকিবা
ওরা আমাকে ভাল হতে দিল না কাজী হায়াৎ পূর্ণিমা
২০১১ মায়ের জন্য পাগল আহমেদ নাসির পূর্ণিমা, নদী, ইমন
এক টাকার ছেলে কোটি টাকার মেয়ে কমল সরকার সাহারা, রত্না, ঈশিতা, সম্রাট
অস্ত্র ছাড়ো কলম ধরো রাজু চৌধুরী পূর্ণিমা
ওয়ান্টেড আজাদ খান বাসরী
বন্ধু তুমি শত্রু তুমি মারুফ রয়েল বাবু সাহারা, কেয়া, নিরব
দারোয়ানের ছেলে রকিবুল আলম রকিব সাহারা
অংক মারুফ শাহীন-সুমন রত্না, ডিপজল, সাহারা, ইমন
ছোট্ট সংসার মারুফ মনতাজুর রহমান আকবর তমা মির্জা, রেসি, ডিপজল
পিতা পূত্রের গল্প কাজী হায়াৎ সাহারা
২০১২ মারুফের চ্যালেঞ্জ মারুফ শাহাদাত হোসেন লিটন নিপুন, সাহারা,‌ ইমন
রাজা সূর্য খাঁ গাজী মাহবুব পূর্ণিমা, নিরব, সোহেল রানা, উজ্জ্বল
মানিক রতন দুই ভাই রতন কাজী হায়াৎ তমা মির্জা, রেসি, ডিপজল
২০১৩ দেহরক্ষী তীব্র ইফতেখার চৌধুরী ববি, মিলন
ইভটিজিং কাশেম কাজী হায়াৎ তমা মির্জা
২০১৪ সর্বনাশা ইয়াবা মারুফ কাজী হায়াৎ প্রসূন আজাদ
২০১৬ ছিন্নমূল[৩] কাজী হায়াৎ অরিন
২০১৭ মাস্তান ও পুলিশ রকিবুল আলম রকিব বিন্দিয়া
২০১৯ গার্মেন্টস শ্রমিক জিন্দাবাদ[৩] মুস্তাফিজুর রহমান বাবু অরিন, রুবেল, অমিত হাসান
২০২১ সৌভাগ্য (২০২১-এর চলচ্চিত্র) এফ আই মানিক তমা মির্জা, মৌসুমী, ডিপজল

পুরস্কারসম্পাদনা

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ অভিনেতা - ইতিহাস (২০০২)

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "কাজী মারুফ নতুনরূপে"দৈনিক মানবজমিন। ঢাকা, বাংলাদেশ। ১৮ মে ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  2. মাজহার বাবু (৬ জুন ২০১৫)। "নিজেদের গল্পে ছবি বানাতে হবে : মারুফ"এনটিভি অনলাইন। ঢাকা, বাংলাদেশ। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  3. "ফিরছেন মারুফ"Kalerkantho। ২০১৯-১২-০১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-১৪ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা