আসোচাজিওনে কালচো মিলান একটি ইতালীয় ফুটবল দল যেটি ইতালির মিলানে অবস্থিত। তারা লাল ও কালো ডোরাকাটা রঙের কাপড় পরে খেলে, তাই তাদের ডাকনাম হয়েছে রোজোনেরি (Rossoneri) ("লাল-কালো")। দলটি মিলান নামেও সমাধিক পরিচিত। এ.সি. মিলান বিশ্বের অন্যতম সফল দল। তার সম্মানজনক উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ (বা সমমানের ইউরোপীয়ান কাপ) জিতেছে সাত বার, (আন্তমহাদেশীয় কাপ) ৩ বার, উয়েফা সুপার কাপ ৫ বার, সিরি এ শিরোপা ১৮ বার (কেবল প্রতিদ্বন্দ্বী দল জুভেন্টাস ফুটবল ক্লাব মিলানের চেয়ে বেশি স্কুডেট্টো জিতেছে) এবং কোপা ইতালীয়া (ইতালীয় কাপ) ৫ বার। সবমিলিয়ে তারা রেকর্ডসংখ্যক ১৮টি ইউরোপীয় ও ফিফা ট্রফি জিতেছে যা, বিশ্বের মধ্যে চতুর্থ ও ইতালিতে সর্বোচ্চ।[৫] বিশ্বের জনপ্রিয়তম দলগুলোর মধ্যে এটি অন্যতম, এবং জুভেন্টাস ও ইন্টারের মত ইতালীয় জনপ্রিয় দল।

এসি মিলান
Logo of AC Milan.svg
পূর্ণ নামআসোচাজিওনে কালচো মিলান এস.পি.এ.[১]
ডাকনামই রসসোনেরি (লাল এবং কালো)
ইল দিয়াভোলো (শয়তান)
প্রতিষ্ঠিত১৩ ডিসেম্বর ১৮৯৯; ১২১ বছর আগে (1899-12-13)
মিলান ফুট-বল অ্যান্ড ক্রিকেট ক্লাব হিসেবে
মাঠসান সিরো
ধারণক্ষমতা৮০,০১৮
মালিকএলিয়ট অ্যাডভাইসর (ইউকে) লিমিটেড (৯৯.৯৩%)[২][৩]
অন্যান্য অংশীদার (০.০৭%)[৪]
সভাপতিপাওলো স্কারোনি
ম্যানেজারস্তেফানো পিওলি
লীগসেরিয়ে আ
২০২০–২১২য়
ওয়েবসাইটক্লাব ওয়েবসাইট
বর্তমান মৌসুম

আলফ্রেড এডওয়ার্ডস নামের একজন ব্রিটিশ ভদ্রলোক ক্রিকেট দল হিসেবে ১৮৯৯ সালে এসি মিলান প্রতিষ্ঠা করেন। তার সম্মানে দলটির নাম মিলান শহরের ইংরেজিরুপ মিলানো (Milan) হিসেবে রাখা হয়েছে, যদিও শহরের ইতালীয় নাম মিলানো (Milano)। তবে ফ্যাসিবাদী সরকারের সময় এটির নাম কিছুদিন পরিবর্তন করা হয়েছিল।

ঐতিহাসিকভাবে এসি মিলান দক্ষিণ ইতালীর শহরের শ্রমিক শ্রেণী সমর্থিত দল ছিল। পক্ষান্তরে এর চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অন্য বড় দল ইন্টার ছিল উচ্চবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেণী সমর্থিত দল। তবে সাম্প্রতিক সময়ে দল দুটি ভিন্ন রাজনৈতিক বলয়ে অবস্থান করছে, কেননা বর্তমানে মিলানের মালিক হচ্ছেন গণমাধ্যম ব্যবসায়ী ও রক্ষণশীল দল থেকে নির্বাচিত ইতালির সাবেক প্রধানমন্ত্রী সিলভিও বার্লুসকনি, এবং ইন্টারের মালিক মধ্য-বামপন্থী তেল ব্যবসায়ী ম্যাসিমো মোরাত্তি। তবুও এসি মিলানের সমর্থকের এখনও সাধারণত বামপন্থী এবং ইন্টারের সমর্থকেরা ডানপন্থী হয়ে থাকেন। ১৯৮০ সালে মিলানকে পাতানো ম্যাচ খেলার অভিযোগে অভিযুক্ত করে শাস্তিস্বরুপ সিরি বি তে নামিয়ে দেয়া হয়। এই কলঙ্কিত ঘটনার পিছনে বিভিন্ন কর্মকর্তা ও খেলোয়াড়ের হাত ছিল। ২০০৬ সালে মিলান আবার ম্যাচ পাতানোর অভিযোগে অভিযুক্ত হয়। মিলানের বিরুদ্ধে পছন্দের রেফারিকে ব্যবহারের অভিযোগ ছিল। শাস্তিস্বরুপ ২০০৬-০৭ মৌসুমে মিলানকে সিরি এ লীগে ১৫ পয়েন্ট কেটে নেয়া হয়। শাস্তির বিরুদ্ধে আপীলের পর শাস্তি কমিয়ে ৮ পয়েন্ট করা হয়।

দলটির ৩ ও ৬ নং জার্সি দুইটি দুই কিংবদন্তি খেলোয়াড় পাওলো মালদিনি ও ফ্র্যাঙ্কো বারেসির জন্য উৎসর্গকৃত । এই জার্সি দুটি অন্য কোন খেলোয়াড়কে দেয়া হবে না । তবে পাওলো মালদিনির কোন ছেলে মিলানের হয়ে খেললে তাকে ৩ নং জার্সি দেয়া হতে পারে ।

খেলোয়াড়দের তালিকাসম্পাদনা

৩১ আগস্ট ২০২১ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।

প্রাথমিক দলসম্পাদনা

নোট: পতাকা জাতীয় দল নির্দেশ করে যা ফিফা যোগ্যতা নিয়মের অধীনে নির্ধারিত হয়েছে। খেলোয়াড়দের একাধিক জাতীয়তা থাকতে পারে যা ফিফা ভুক্ত নয়।

নং অবস্থান খেলোয়াড়
গো   সিপ্রিয়ান তাতারুসানু
  দাভিদে কালাব্রিয়া (সহ-অধিনায়ক)
  ইসমায়েল বেন্নাসের
  ফোদে বালো–তোউরে
  স্যামু কাস্তিয়েহো
  সান্দ্রো তোনালি
  অলিভিয়ে জিরু
১০   ব্রাহিম দিয়াস (রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ধারে)
১১   জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ
১২   আন্তে রেবিচ
১৩   আলেসিও রোমানিওলি (অধিনায়ক)
১৪   আন্দ্রেয়া কন্তি
১৬ গো   মাইক মাইগনান
১৭   রাফায়েল লেয়াও
নং অবস্থান খেলোয়াড়
১৯   থিও হার্নান্দেজ
২০   পিয়ের কালুলু
২৩   ফিকায়ো টমোরি
২৪   সিমোন কেয়ার
২৫   আলেসসান্দ্রো ফ্লোরেনৎসি (রোমা থেকে ধারে)
২৭   ড্যানিয়েল মালদিনি
৩০   জুনিয়র মেসিয়াস (ক্রোতোনে থেকে ধারে)
৩৩   রাদে ক্রুনিচ
৪১   তিয়েমুয়ে বাকায়োকো (চেলসি থেকে ধারে)
৪৬   মাতেও গাবিয়া
৫৬   অ্যালেক্সিস সালিমাকের্স
৬৪   পিয়েত্রো পেলেগ্রি (মোনাকো থেকে ধারে)
৭৭ গো   আলেসান্দ্রো প্লিজারি
৭৯   ফ্র্যাংক কেসিয়ে

ধারে অন্য দলেসম্পাদনা

নোট: পতাকা জাতীয় দল নির্দেশ করে যা ফিফা যোগ্যতা নিয়মের অধীনে নির্ধারিত হয়েছে। খেলোয়াড়দের একাধিক জাতীয়তা থাকতে পারে যা ফিফা ভুক্ত নয়।

নং অবস্থান খেলোয়াড়
  গ্যাব্রিয়েলে বেলোদি (আলেসান্দ্রিয়ায় ৩০ জুন ২০২২ পর্যন্ত)
  লেও দুয়ার্তে (ইস্তানবুল বাশাকশেহিরে ৩০ জুন ২০২২ পর্যন্ত)
  মার্কো ব্রেসিয়ানিনি (এন্তেলাতে ৩০ জুন ২০২২ পর্যন্ত)
নং অবস্থান খেলোয়াড়
  আলেসান্দ্রো সালা (সেসেনাতে ৩০ জুন ২০২২ পর্যন্ত)
  ফ্র্যাংক সাজুত (পর্দেনোনেতে ৩০ জুন ২০২২ পর্যন্ত)
  নিকোস মিকেলিস (উইলেম টুয়েতে ৩০ জুন ২০২২ পর্যন্ত)

সম্মাননাসম্পাদনা

 
সমিতি মিউজিয়াম

মিলান বিশ্বের অন্যতম সফল দল, যাদের ইতালীয় ২৭টি ও আন্তর্জাতিক ১৭টি শিরোপা রয়েছে। তারা রেকর্ড ১৩টি ইউরোপীয়ান ট্রফি জিতেছে। মিলান তাদের জার্সিতে একটী তারকা বসানোর অধিকার লাভ করেছে কেননা তারা ১০টি স্কুডেট্টো জিতেছে। এছাড়া ৫টির বেশি ইউরোপীয়ান ট্রফি জেতায় মিলানকে তাদের পোষাকে উয়েফা ব্যাজ অব অনার বসানোর অধিকার দেয়া হয়েছে।[৬]

  • স্কুডেট্টো (ইতালীয় চ্যাম্পিয়নশিপ)
    • শিরোপা (১৮): ১৯০১, ১৯০৬, ১৯০৭, ১৯৫০-৫১, ১৯৫৪-৫৫, ১৯৫৬-৫৭, ১৯৫৮-৫৯, ১৯৬১-৬২, ১৯৬৭-৬৮, ১৯৭৮-৭৯, ১৯৮৭-৮৮, ১৯৯১-৯২, ১৯৯২-৯৩, ১৯৯৩-৯৪, ১৯৯৫-৯৬, ১৯৯৮-৯৯, ২০০৩-০৪, ২০১০-২০১১
    • রানার্স-আপ (১৬): ১৯০২, ১৯১০-১১, ১৯১১-১২, ১৯৪৭-৪৮, ১৯৪৯-৫০, ১৯৫১-৫২, ১৯৫৫-৫৬, ১৯৬০-৬১, ১৯৬৪-৬৫, ১৯৬৮-৬৯, ১৯৭০-৭১, ১৯৭১-৭২, ১৯৭২-৭৩, ১৯৮৯-৯০, ১৯৯০-৯১, ২০০৪-০৫, ২০২০-২১
  • সিরি বি (দ্বিতীয় বিভাগ)
    • শিরোপা (২): ১৯৮০-৮১, ১৯৮২-৮৩
  • কোপা ইতালিয়া (ইতালীয় কাপ)
    • শিরোপা (৫): ১৯৬৬-৬৭, ১৯৭১-৭২, ১৯৭২-৭৩, ১৯৭৬-৭৭, ২০০২-০৩
    • রানার্স-আপ (৭): ১৯৪১-৪২, ১৯৬৭-৬৮, ১৯৭০-৭১, ১৯৭৪-৭৫, ১৯৮৪-৮৫, ১৯৮৯-৯০, ১৯৯৭-৯৮
  • সুপার কোপা ডি লিগা (ইতালীয় সুপার কাপ)
    • শিরোপা (৫): ১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৩, ১৯৯৪, ২০০৫
    • রানার্স-আপ (৩): ১৯৯৬, ১৯৯৯, ২০০৩
  • উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ (সাবেক ইউরোপীয়ান কাপ)
    • শিরোপা (৭): ১৯৬২-৬৩, ১৯৬৮-৬৯, ১৯৮৮-৮৯, ১৯৮৯-৯০, ১৯৯৩-৯৪, ২০০২-০৩, ২০০৬-০৭
    • রানার্স-আপ (৪): ১৯৫৭-৫৮, ১৯৯২-৯৩, ১৯৯৪-৯৫, ২০০৪-০৫
  • উয়েফা কাপ উইনার্স কাপ
    • শিরোপা (২): ১৯৬৭-৬৮, ১৯৭২-৭৩
    • রানার্স-আপ (১): ১৯৭৩-৭৪
  • ইউরোপীয়ান সুপার কাপ
    • শিরোপা (৪): ১৯৮৯, ১৯৯০, ১৯৯৪, ২০০৩
    • রানার্স-আপ (২): ১৯৭৩, ১৯৯৩
  • বিশ্ব ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপ (সাবেক ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ)
    • শিরোপা (৩): ১৯৬৯, ১৯৮৯, ১৯৯০
    • রানার্স-আপ (৪): ১৯৬৩, ১৯৯৩, ১৯৯৪, ২০০৩
  • মিত্রোপা কাপ
    • শিরোপা (১): ১৯৮১-৮২
  • ল্যাটিন কাপ
    • শিরোপা (২): ১৯৫০-৫১, ১৯৫৫-৫৬
    • রানার্স-আপ (১): ১৯৫২-৫৩

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Organisational chart"acmilan.com। Associazione Calcio Milan। ৭ অক্টোবর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ অক্টোবর ২০১০ 
  2. "Elliott Management owns AC Milan after Li misses deadline"The Washington Post। ১১ জুলাই ২০১৮। ১১ জুলাই ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০১৮ 
  3. "Comunicato stampa congiunto Fininvest e Rossoneri Sport Investment Lux" [Fininvest and Rossoneri Sport Investment Lux joint press release] (PDF)fininvest.it (Italian ভাষায়)। ১৩ এপ্রিল ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৩ এপ্রিল ২০১৭ 
  4. "Who we are"APAMilanAC। ৩১ মে ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০১৮ 
  5. https://web.archive.org/web/20141222201343/http://www.insidespanishfootball.com/141480/real-madrid-match-ac-milan-and-boca-juniors-with-18-international-titles/
  6. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৬ নভেম্বর ২০০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০০৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট
আনঅফিসিয়াল সমর্থক ওয়েবসাইট
সমর্থক ওয়েবসাইট
অন্যান্য