ইকবাল মাহমুদ (কর্মকর্তা)

রাজনীতিবিদ

ইকবাল মাহমুদ বাংলাদেশের একজন অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা। ২০১৬ সালের ১৪ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ৯ মার্চ পর্যন্ত তিনি দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।[১][২]

ড. ইকবাল মাহমুদ
দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান
কাজের মেয়াদ
১০ মার্চ ২০১৬ – ১৪ মার্চ ২০২১
পূর্বসূরীমোঃ বদিউজ্জামান
উত্তরসূরীমঈনউদ্দীন আব্দুল্লাহ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৯৫৫ (বয়স ৬৫–৬৬)
ফরিদগঞ্জ , চাঁদপুর, বাংলাদেশ
জাতীয়তাবাংলাদেশী
দাম্পত্য সঙ্গীখাদিজা বেগম
প্রাক্তন শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়,
নিউ সাউথ ওয়েলস বিশ্ববিদ্যালয়,
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

প্রাথমিক জীবন ও শিক্ষাসম্পাদনা

ইকবাল ১৯৫৫ সালে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মোহাম্মদ আবদুল লতিফ ছিলেন একজন স্কুল শিক্ষক। ১৯৭২ সালে তিনি সাতক্ষীরার আশাশুনি হাই স্কুল থেকে এসএসসি পাস করেন এবং ঢাকায় এসে নটর ডেম কলেজে ভর্তি হন। ১৯৭৪ সালে সেখান থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। এরপর তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে জনপ্রশাসনে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তারপর অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নীতি অধ্যয়নে আরেকবার মাস্টার্স ডিগ্রি লাভ করেন। এরপর তিনি জনপ্রশাসনে পিএইচ.ডি. সম্পন্ন করেন।[৩]

কর্মজীবনসম্পাদনা

ইকবাল ১৯৮১ সালের জানুয়ারিতে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস প্রশাসনের একজন ক্যাডার হিসেবে সরকারি চাকরিতে যোগদান করেন। এরপর থেকে তিনি ম্যাজিস্ট্রেট, সহকারী কমিশনার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, যুগ্ম সচিব, অতিরিক্ত সচিব সহ বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেন এবং অবশেষে সিনিয়র সচিব পদে থাকাকালীন অবস্থায় অবসর গ্রহণ করেন। তারপর, ২০১৬ সালের ১৪ মার্চ তিনি দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ পান।[৩]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

ইকবালের স্ত্রী খাদিজা বেগম একজন চিকিৎসক। তিনি নিউ সাউথ ওয়েলস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে জনস্বাস্থ্যে স্নাতকোত্তর এবং ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচ.ডি. সম্পন্ন করে বর্তমানে টরন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকুরিরত আছেন। তাদের এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে: মেয়ে চিকিৎসক; আর ছেলে কম্পিউটার বিজ্ঞানের ছাত্র।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Former senior secretary Iqbal Mahmood appointed as ACC chairman"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-২৭ 
  2. "Iqbal Mahmud made ACC chairman"Dhaka Tribune। ২০১৬-০৩-১০। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-২৭ 
  3. "চেয়ারম্যান অব এসিসি"দুর্নীতি দমন কমিশন (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৫-১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-২৭