রবি হার্ট

নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটার
(Robbie Hart (cricketer) থেকে পুনর্নির্দেশিত)

রবার্ট গ্যারি রবি হার্ট (ইংরেজি: Robbie Hart; জন্ম: ২ ডিসেম্বর, ১৯৭৪) হ্যামিল্টনের ওয়াইকাতো এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক নিউজিল্যান্ডীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ২০০০-এর দশকের সূচনালগ্নে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[১][২][৩]

রবি হার্ট
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরবার্ট গ্যারি হার্ট
জন্ম (1974-12-02) ২ ডিসেম্বর ১৯৭৪ (বয়স ৪৬)
ওয়াইকাতো, হ্যামিল্টন, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাউইকেট-রক্ষক
সম্পর্কম্যাথু হার্ট (ভ্রাতা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২২০)
১ মে ২০০২ বনাম পাকিস্তান
শেষ টেস্ট২৬ ডিসেম্বর ২০০৩ বনাম পাকিস্তান
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১২৮)
২১ এপ্রিল ২০০২ বনাম পাকিস্তান
শেষ ওডিআই২৪ এপ্রিল ২০০২ বনাম পাকিস্তান
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১১ ১১০ ১৩৫
রানের সংখ্যা ২৬০ ২,৮৯৩ ১,২১০
ব্যাটিং গড় ১৬.২৫ ০.০০ ২১.৯১ ১৬.৩৫
১০০/৫০ ০/১ ০/০ ২/১২ ০/২
সর্বোচ্চ রান ৫৭* ১২৭* ৫৬
বল করেছে - - - -
উইকেট - - - -
বোলিং গড় - - - -
ইনিংসে ৫ উইকেট - - - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - - - -
সেরা বোলিং - - - -
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২৯/১ ১/- ২৯৯/১৭ ১৩৪/৩২
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২ ডিসেম্বর ২০২০

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটে নর্দার্ন ডিস্ট্রিক্টস দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ উইকেট-রক্ষক হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও ডানহাতে ব্যাটিংয়ে পারদর্শী ছিলেন রবি হার্ট

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

১৯৯২-৯৩ মৌসুম থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত রবি হার্টের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ২০০২-০৩ মৌসুমের স্টেট শীল্ড ট্রফির শিরোপা বিজয়ে দলের নেতৃত্বে ছিলেন। ১ ফেব্রুয়ারি, ২০০৩ তারিখে অকল্যান্ডের নর্থ হারবার স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ঐ খেলায় তার দল অকল্যান্ডকে ১৭ রানে পরাভূত করেছিল।

নিউজিল্যান্ডীয় টেস্ট স্পিনার ও সহোদর ম্যাথু হার্টের তুলনায় কনিষ্ঠ ছিলেন। নিউজিল্যান্ডের পক্ষে তুলনামূলকভাবে অধিক বয়সে খেলেন। ২০০১-০২ মৌসুমে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ খেলার পর অ্যাডাম প্যারোরে’র অবসর গ্রহণের পর তিনি নিউজিল্যান্ডের প্রথম পছন্দের টেস্ট উইকেট-রক্ষকের দায়িত্বপ্রাপ্ত হন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে এগারোটি টেস্ট ও দুইটিমাত্র একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন রবি হার্ট। ১ মে, ২০০২ তারিখে লাহোরে স্বাগতিক পাকিস্তান দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ২৬ ডিসেম্বর, ২০০৩ তারিখে ওয়েলিংটনে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

বার্বাডোসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট বিজয়ে কিছু অসাধারণ ব্যাটিংশৈলী প্রদর্শন করে ভূমিকা রাখেন। এরপর, দ্বিতীয় টেস্টে রক্ষণাত্মক ব্যাটিং করে টেস্ট ড্র করেন ও নিউজিল্যান্ড দল ক্যারিবীয়ায় প্রথমবারের মতো সিরিজ বিজয় করে।

২০০৩ সালে শ্রীলঙ্কা ও ভারত গমন করেন। স্পিনারদের দাপটের খেলায় নিজস্ব ধাঁচে উইকেট-রক্ষণে অগ্রসর হয়েছিলেন। ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে কিছু ক্যাচ গ্লাভসবন্দী করেন। তাসত্ত্বেও ঐ সিরিজে তিনি মাত্র ছয়টি ক্যাচ নিয়েছিলেন।

অবসরসম্পাদনা

অংশগ্রহণকৃত ১১ টেস্ট থেকে ২৯টি ক্যাচ ও একটি স্ট্যাম্পিংয়ের সাথে স্বীয় নামকে যুক্ত রাখেন। আগস্ট, ২০০৪ সালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটকে বিদেয় জানান তিনি। ব্যাট হাতে নিয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে মোটেই সাড়া জাগাতে পারেননি তিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একমাত্র অর্ধ-শতরানের ইনিংস খেলতে সমর্থ হয়েছিলেন।

অবসর গ্রহণের পর ব্যবসায়ের দিকে ধাবিত হন তিনি। তার জ্যেষ্ঠ ভ্রাতা ম্যাথু হার্ট নর্দার্ন ডিস্ট্রিক্টস নাইটস ও নিউজিল্যান্ডের পক্ষে ক্রিকেটে অংশ নিয়েছেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. List of New Zealand Test Cricketers
  2. "New Zealand Test Batting Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০২০ 
  3. "New Zealand Test Bowling Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০২০ 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা