হ্যারি ডোনান

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার

হেনরি হ্যারি ডোনান (ইংরেজি: Harry Donnan; জন্ম: ১২ নভেম্বর, ১৮৬৪ - মৃত্যু: ১৩ আগস্ট, ১৯৫৬) নিউ সাউথ ওয়েলসের লিভারপুল এলাকায় জন্মগ্রহণকারী অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৯২ থেকে ১৮৯৬ সময়কালে অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

হ্যারি ডোনান
Harry Donnan.jpg
১৮৯৬ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে হ্যারি ডোনান
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামহেনরি ডোনান
জন্ম(১৮৬৪-১১-১২)১২ নভেম্বর ১৮৬৪
লিভারপুল, নিউ সাউথ ওয়েলস, অস্ট্রেলিয়া
মৃত্যু১৩ আগস্ট ১৯৫৬(1956-08-13) (বয়স ৯১)
বেক্সলি, নিউ সাউথ ওয়েলস, অস্ট্রেলিয়া
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাব্যাটসম্যান
সম্পর্কসিড গ্রিগরি (স্ত্রীর ভ্রাতা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৬১)
১ জানুয়ারি ১৮৯২ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট১০ আগস্ট ১৮৯৬ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৯৪
রানের সংখ্যা ৭৫ ৪২৬২
ব্যাটিং গড় ৮.৩৩ ২৯.১৯
১০০/৫০ ০/০ ৬/২২
সর্বোচ্চ রান ১৫ ১৬৭
বল করেছে ৫৪ ৩০৮১
উইকেট ২৯
বোলিং গড় - ৪১.০৬
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং - ৩/১৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/০ ৩৭/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটে নিউ সাউথ ওয়েলস দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন হেনরি ডোনান নামে পরিচিত হ্যারি ডোনান

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

১৮৮৭-৮৮ মৌসুম থেকে ১৯০০-০১ মৌসুম পর্যন্ত হ্যারি ডোনানের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। শেফিল্ড শিল্ডের ইতিহাসের প্রথম সেঞ্চুরি করার গৌরব অর্জন করেন। ১৮৯২-৯৩ মৌসুমে শিল্ডের প্রথম খেলায় সাউথ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিউ সাউথ ওয়েলসের সদস্যরূপে ১২০ রান করেন।[১]

ব্যাটিংয়ে শক্তি প্রয়োগ না ঘটিয়ে সঠিক সময়ে আঘাত করতেন। শুরুতে বোলার হিসেবে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে খেলতে নামেন। তবে, অস্ট্রেলিয়া একাদশের বিপক্ষে ৮৭ রানের অপরাজিত ইনিংস তাকে ব্যাটসম্যান হিসেবে পরিচিতি এনে দেয়।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে পাঁচটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন হ্যারি ডোনান। ১ জানুয়ারি, ১৮৯২ তারিখে মেলবোর্নে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ১০ আগস্ট, ১৮৯৬ তারিখে ওভালে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

টেস্ট ক্রিকেট খেলার জন্যে তাকে জানুয়ারি, ১৮৯২ সাল পর্যন্ত অপেক্ষার প্রহর গুণতে হয়েছিল। কিন্তু ঐ খেলায় তিনি সফলতা পাননি। এরপর, অ্যাডিলেড টেস্টে শেষ মুহূর্তে অংশ নিয়ে আবারও একই ফলাফল করেন। ১৮৯৫-৯৬ মৌসুমে দূর্দান্ত খেলার স্বীকৃতিস্বরূপ ১৮৯৬ সালে ইংল্যান্ড গমনে স্বয়ংক্রিয়ভাবে মনোনীত হন। সেখানে সিরিজের সবগুলো খেলাতেই অংশ নিয়েছিলেন। এবারও সফলতার সন্ধান পাননি। ওল্ড ট্রাফোর্ডে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৫ রান তুলতে পেরেছিলেন। তবে, প্রস্তুতিমূলক খেলায় ডার্বিশায়ারের বিপক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৬৭ করেছিলেন। এ কাউন্টিতেই তার পরিবারের পূর্ব-পুরুষদের জন্মস্থান ছিল।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর গ্রহণের পর কলোনিয়াল সুগার রিফাইনিং কোম্পানিতে ৪২ বছর কাজ করেছেন। ১৯২৩ সালে এ চাকুরি থেকে অবসর নেন। ঐ প্রতিষ্ঠানটি আরও ৩৩ বছর তার অবসরকালীন ভাতা প্রদান করেছিল।

১৩ আগস্ট, ১৯৫৬ তারিখে ৯১ বছর বয়সে নিউ সাউথ ওয়েলসের বেক্সলি এলাকায় হ্যারি ডোনানের দেহাবসান ঘটে। অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম বয়োজ্যেষ্ঠ জীবিত টেস্ট ক্রিকেটারের সম্মাননা লাভ করেন। ৯২তম জন্মদিন উদযাপনের মাত্র তিন মাস পূর্বে সিডনির কাছাকাছি এলাকায় তার মৃত্যু হয়েছিল।

অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম ক্রিকেটপ্রিয় পরিবারের সাথে সম্পর্ক ছিল তার। এসই গ্রিগরি সম্পর্কে স্বীয় স্ত্রীর ভ্রাতা হন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "South Australia v New South Wales 1892-93"। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০১৫ 

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

পূর্বসূরী
কেনি বার্ন
বয়োজ্যেষ্ঠ জীবিত টেস্ট ক্রিকেটার
২০ জুলাই, ১৯৫৬ - ১৩ আগস্ট, ১৯৫৬
উত্তরসূরী
অডলি মিলার