সায়মা ওয়াজেদ পুতুল

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি ও শেখ হাসিনার কন্যা

সায়মা ওয়াজেদ পুতুল একজন প্রখ্যাত অটিজম বিশেষজ্ঞ। তার পিতা বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী ড. ওয়াজেদ মিয়া ও মাতা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাশেখ রেহানা তার খালাম্মা। শেখ কামাল, শেখ জামাল, শেখ রাসেল তার মামা; এবং তার ভাই সজীব ওয়াজেদ। তার খালাতো বোন টিউলিপ সিদ্দিকী[৪] সারাবিশ্বেই তিনি অটিস্টিক শিশুদের নিয়ে তাদের অধিকার ইত্যাদি নিয়েই কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মানসিক স্বাস্থ্যের উপর বিশেষজ্ঞ প্যানেলের একজন সদস্য।[৫] তিনি একজন লাইসেন্সপ্রাপ্ত মনোবিজ্ঞানী।[৬]

সায়মা ওয়াজেদ
জন্ম (1972-12-09) ৯ ডিসেম্বর ১৯৭২ (বয়স ৫১)
অন্যান্য নামপুতুল
মাতৃশিক্ষায়তনব্যারি বিশ্ববিদ্যালয়[১]
পেশাঅটিজমকর্মী
সন্তান
পিতা-মাতা
আত্মীয়
পরিবারদেখুন শেখ-ওয়াজেদ পরিবার

জীবনী সম্পাদনা

সায়মা ওয়াজেদ ১৯৯৭ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ব্যারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মনোবিজ্ঞানে স্নাতক এবং ২০০২ সালে ক্লিনিক্যাল মনস্তত্বে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। ২০০৪ সালে স্কুল মনস্তত্বে বিশেষজ্ঞ ডিগ্রি অর্জন করেন। ব্যারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নের সময় তিনি বাংলাদেশের নারীদের উন্নয়নের ওপর গবেষণা করেন। এ বিষয়ে তার গবেষণাকর্ম ফ্লোরিডার একাডেমি অব সায়েন্স কর্তৃক শ্রেষ্ঠ সায়েন্টিফিক উপস্থাপনা হিসেবে স্বীকৃত হয়।

তিনি ২০০৮ সাল থেকে শিশুদের অটিজম এবং স্নায়ুবিক জটিলতাসংক্রান্ত বিষয়ের ওপর কাজ করছেন। স্বীকৃতিস্বরুপ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক ২০০৪ সালে হু অ্যাক্সিলেন্স পুরস্কারে ভূষিত হন। ২০১৩ সাল থেকে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থায় মানসিক স্বাস্থ্যের বিশেষজ্ঞ পরামর্শক হিসেবে কাজ করছেন।

পুরস্কার সম্পাদনা

২০১৬ সালে ওয়াজেদ জনস্বাস্থ্যে তার শ্রেষ্ঠত্বের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চল পুরস্কার অর্জন করেন।[৭] ২০১৭ সালে, তিনি প্রতিবন্ধী ক্ষেত্রে তার অসামান্য অবদানের জন্য আন্তর্জাতিক চ্যাম্পিয়ন পুরস্কারে ভূষিত হন। তিনি তার সক্রিয়তার জন্য ব্যারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিশিষ্ট প্রাক্তন শিক্ষার্থী পদক প্রাপ্ত হন।[১][৮][৯]

অটিজম নিয়ে অবদান রাখায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) চতুর্থ সমাবর্তন অনুষ্ঠানে তিনি বিশেষ সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেন।[১০]

ব্যক্তিগত জীবন সম্পাদনা

সায়মা ওয়াজেদ পুতুল ব্যক্তিগত জীবনে খন্দকার মাশরুর হোসেনের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এই দম্পতির তিন কন্যা এবং এক ছেলে রয়েছে।[১১]

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "Saima Wazed Putul gets Distinguished Alumni award from Barry University"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  2. "India to give Bangladesh $1bn line of credit"timesofindia.indiatimes.com। TNN। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  3. Bangladesh Country Study Guide Strategic Information and Developments.। Intl Business Pubns USA। ২০১২। পৃষ্ঠা 125। আইএসবিএন 1438773897 
  4. "Autism campaigner Putul listens to the troubles of people with disabilities, stresses on inclusive development"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  5. Hossain Shaikh, Emran। "Putul made WHO adviser"dhakatribune.com। Dhaka Tribune। ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  6. Islam Hasib, Nurul। "Disability campaigner Putul congratulates Bangladesh team, says they make nation proud"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  7. "Saima Wazed wins WHO award"The Daily Star। ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  8. "Saima Wazed awarded for fighting autism - The Daily Star"। ২০১৭-০৭-২৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৭-২৬ 
  9. "Saima received International Champion award for work on autism in South-East-Asia - bdnews24.com"। ২০১৭-১১-০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৭-২৬ 
  10. "বিএসএমএমইউয়ের সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পাচ্ছেন সায়মা ওয়াজেদ"। ইত্তেফাক। ১৩ মার্চ ২০২৩। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০২৩ 
  11. "Saima Wazed Hossain bio" (পিডিএফ)। UNESCO। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০১৭