সাইফুর রহমান

বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

সাইফুর রহমান (৬ অক্টোবর ১৯৩২– ৫ সেপ্টেম্বর ২০০৯) বাংলাদেশের একজন অর্থনীতিবিদ এবং রাজনীতিবিদ যিনি বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের সর্বোচ্চ ১২ বার বার্ষিক অর্থ বাজেট পেশকারী অর্থমন্ত্রী। তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের একজন নেতা ছিলেন যিনি সর্বোচ্চ সময়কালীন বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী। ২০০৫ সালে ভাষা আন্দোলনে তার অবদানের জন্য তাকে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সম্মাননা একুশে পদকে ভূষিত করা হয়।[১][২]

Saifur Rahman
সাইফুর রহমান
M. Saifur Rahman.jpg
মার্চ ২০০৬ সালে সাইফুর রহমান
বাণিজ্যমন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
৩ জুন ১৯৭৭ – ৩০মে ১৯৮১
অর্থমন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
৩০ মে ১৯৮১ – ২৪ মার্চ ১৯৮২
অর্থমন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
২০ মার্চ ১৯৯১ – জানুয়ারি ১৯৯৬
অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
১০ অক্টোবর ২০০১ – ২৯ অক্টোবর ২০০৬
সিলেট-১৪ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৯ – ১২ ফেব্রুয়ারি ১৯৮২
সিলেট-৪ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ – ১২ জুন ১৯৯৬
মৌলভীবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১২ জুন ১৯৯৬ – ১ অক্টোবর ২০০১
সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১ অক্টোবর ২০০১ – ২৯ অক্টোবর ২০০৬
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম(১৯৩২-১০-০৬)৬ অক্টোবর ১৯৩২
বহরমর্দন, মৌলভীবাজার, ব্রিটিশ ভারত
(বর্তমান বাংলাদেশ)
মৃত্যু৫ সেপ্টেম্বর ২০০৯(2009-09-05) (বয়স ৭৬)
আশুগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, বাংলাদেশ
মৃত্যুর কারণসড়ক দুর্ঘটনা
নাগরিকত্বব্রিটিশ ভারত (১৯৪৭ সাল পর্যন্ত)
পাকিস্তান (১৯৭১ সালের পূর্বে)
বাংলাদেশ
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
দাম্পত্য সঙ্গীদূররে সামাদ রহমান (বি. ১৯৬০)
সন্তানএম. নাসের রহমান
পিতামাতাআব্দুল বাছিত
তালেবুননেসা
প্রাক্তন শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
মুরারিচাঁদ কলেজ
দি এইডেড হাই স্কুল
পুরস্কারএকুশে পদক ২০০৫

জন্ম ও প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

সাইফুর রহমান ৬ অক্টোবর ১৯৩২ সালে তৎকালীন মৌলভীবাজার মহকুমার সদর উপজেলার বাহারমর্দন গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা আব্দুল বাছিত এবং মা তালেবুননেসা। তিন ভাইয়ের মধ্যে সবার বড় ছিলেন সাইফুর রহমান।

শিক্ষাজীবনসম্পাদনা

সাইফুর মৌলভীবাজার সরকারি হাইস্কুল থেকে লেখা-পড়ার পর দি এইডেড হাই স্কুল থেকে ১৯৪৯ সালে ম্যাট্রিকুলেশন এবং ১৯৫১ সালে সিলেট মুরারী চাঁদ কলেজ থেকে আইএ পাশ করে ১৯৫৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিকম ডিগ্রি অর্জন করেন। পরে তিনি ১৯৫৩ সাল থেকে ১৯৫৮ সাল পর্যন্ত লন্ডনে পড়াশুনা করেন এবং ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড একাউন্ট্যান্ট থেকে উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৬২ সালে তিনি যুক্তরাজ্যে অ্যাডভান্সড ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে আর্থিক ও মুদ্রানীতি এবং উন্নয়ন অর্থনীতিতে বিশেষায়িত শিক্ষা গ্রহণ করেন।[৩]

পেশা জীবনসম্পাদনা

সাইফুর রহমান পেশায় একজন চার্টার্ড একাউন্ট্যান্ট ছিলেন। ১৯৬২ সালে পেশাজীবী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৬৯ সালে তৎকালীন পাকিস্তান জাতীয় বেতন কমিশনে প্রাইভেট সেক্টর হতে একমাত্র সদস্য মনোনীত হন। তিনি ১৯৭৩ ও ১৯৭৫ সালে বাংলাদেশ জাতীয় বেতন কমিশনের সদস্যও ছিলেন।

তিনি ‘রহমান, রেহমান অ্যান্ড হক’ নামে একটি নিরীক্ষা ফার্ম প্রতিষ্ঠা করেন যা চার্টার্ড অ্যাকাউনট্যান্ট শিক্ষার্থীদের জন্য একটি আদর্শ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে তার কৃতিত্বের স্মারক হয়ে আছে।

১৯৯৪ সালে তিনি স্পেনের মাদ্রিদে বিশ্ব ব্যাংক এবং আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের সুবর্ণ জয়ন্তী সম্মেলনের গভর্নর নির্বাচিত হন।[২] ১৯৮০ থেকে ১৯৮২ ও ১৯৯১ থেকে ১৯৯৬ মেয়াদে তিনি বিশ্বব্যাংক, এডিবি, আইডিবি, আইএফএডিতে বাংলাদেশের গভর্নর ছিলেন। ১৯৯৪ থেকে ১৯৯৫ মেয়াদে এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন।

রাজনৈতিক জীবনসম্পাদনা

সাইফুর রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র রাজনীতিতে যোগ দেন এবং সলিমুল্লাহ হল ছাত্র ইউনিয়নের ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন। ভাষা আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকার জন্য তিনি গ্রেফতার হয়ে এক মাস কারাবরণ করেন। তার জাতীয় রাজনৈতিক জীবন শুরু হয় ১৯৭৬ সালে জিয়াউর রহমানের মন্ত্রিসভার বাণিজ্য উপদেষ্টা হিসেবে।[৪]

১৯৭৭ সালে তিনি জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক দলে যোগ দেন যা তৎকালীন প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে ১৯৭৮ সালে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলে রূপান্তরিত হয়। তিনি ১৯৭৯ সালের দ্বিতীয় জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের প্রার্থী হিসেবে তৎকালীন সিলেট-১৪ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৫]

১৯৭৮ থেকে ১৯৮২ সাল পর্যন্ত তিনি প্রথমে জিয়াউর রহমানের মন্ত্রিসভার বাণিজ্যমন্ত্রী ও পরে আবদুস সাত্তারের মন্ত্রিসভার অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২৪ মার্চ ১৯৮২ সালে নির্বাচিত গণতান্ত্রিক সরকারের কাছ থেকে এরশাদ ক্ষমতা দখল করে সামরিক শাসন জারি করলে বিএনপির শীর্ষপর্যায়ের প্রায় সব নেতার সাথে তিনি গ্রেফতার হন।

১৯৯১ সাল থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত তিনি টেকনোক্র্যাট অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ সালের ষষ্ঠ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের প্রার্থী হিসেবে সিলেট-৪ আসন থেকে তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৬] ১২ জুন ১৯৯৬ সালের সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের প্রার্থী হিসেবে মৌলভীবাজার-৩সিলেট-৪ আসন থেকে তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৭] ২০০১ সালের অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের প্রার্থী হিসেবে তিনি সিলেট-১মৌলভীবাজার-৩ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৮] তিনি ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত খালেদা জিয়ার দ্বিতীয় মন্ত্রিসভার অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রী ছিলেন।

বাংলাদেশে মুক্ত বাজার সংস্কার প্রক্রিয়ার প্রবর্তক হিসেবে সমধিক পরিচিত। তিনি সবচেয়ে বেশি সময়কাল ধরে বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন এবং মোট ১২ বার জাতীয় বাজেট পেশ করেন।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

সাইফুর রহমান ১৯৬০ সালে বেগম দূররে সামাদ রহমানকে বিয়ে করেন। তিনি তিন ছেলে ও এক কন্যা সন্তানের জনক। ২০০৩ সালে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে তার স্ত্রী মৃত্যুবরণ করেন। তার পুত্র এম নাসির রহমান মৌলভীবাজার-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য।[৯]

স্বীকৃতি ও সম্মাননাসম্পাদনা

মৃত্যুসম্পাদনা

৫ সেপ্টেম্বর ২০০৯ তারিখে সিলেট থেকে ঢাকা আসার পথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কাছে এক মারাত্মক সড়ক দুর্ঘটনায় তৎক্ষণাৎ মারা যান।[১০]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "রহমান, এম সাইফুর"বাংলাপিডিয়া। সংগ্রহের তারিখ ২ অক্টোবর ২০১৯ 
  2. "Saifur Rahman's life sketch"The Daily Star। ৫ সেপ্টেম্বর ২০০৯। ২০১২-১০-০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "Saifur Rahman"Silobreaker। ২০১২-০৭-২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৯-০৫ 
  4. আহবাব চৌধুরী খোকন (৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯)। "মরহুম সাইফুর রহমান এবং কিছু স্মৃতি"দৈনিক নয়াদিগন্ত। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  5. "২য় জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  6. "৬ষ্ঠ জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  7. "৭ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  8. "৮ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  9. মৌলভীবাজার প্রতিনিধি (৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯)। "সাবেক অর্থমন্ত্রী সাইফুর রহমানের দশম মৃত্যুবার্ষিকী আজ"বাংলা ট্রিবিউন। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  10. Welle (www.dw.com), Deutsche। "সড়ক দুর্ঘটনায় সাইফুর রহমান নিহত | DW | 05.09.2009"DW.COM। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-০২ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা