প্রধান মেনু খুলুন

শিয়ালদহ-শিলচর কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস

কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস একটি এক্সপ্রেস ট্রেন, যা মূলত ভারতের পূর্ব রেলওয়ে দ্বারা পরিচালিত। ট্রেনটি পশ্চিমবঙ্গ এবং আসাম রাজ্যের শিয়ালদহ এবং শিলচরর মধ্যে আসা যাওয়া করে থাকে। বর্তমানে এটি ত্রি-সাপ্তাহিক ভিত্তিতে ১৩১৭৫/১৩১৭৬ ট্রেন সংখ্যার সাথে পরিচালিত হচ্ছে।[১][২][৩][৪]

কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
পরিষেবা ধরনএক্সপ্রেস
প্রথম পরিষেবা১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬; ৩ বছর আগে (2016-02-01)
বর্তমান পরিচালকপূর্ব রেলওয়ে
যাত্রাপথ
শুরুশিয়ালদহ (এসডিএএইচ)
বিরতি৩৮
শেষশিলচর (এসসিএল)
ভ্রমণ দূরত্ব১,৩৫৯ কিমি (৮৪৪ মা)
যাত্রার গড় সময়৩৩ঘ. ৫৫মি.
পরিষেবার হারত্রি-সাপ্তাহিক
রেল নং১৩১৭৫/১৩১৭৬
যাত্রাপথের সেবা
শ্রেণীসংরক্ষিত, এসি ৩ টিয়ার, শয়ন যান, সাধারণ/অনারক্ষিত
আসন বিন্যাসহ্যাঁ
ঘুমানোর ব্যবস্থাহ্যাঁ
খাদ্য সুবিধাহ্যাঁ ই-ক্যাটারিং
পর্যবেক্ষণ সুবিধাআইসিএফ বগি
বিনোদন সুবিধানা
কারিগরি
গাড়িসম্ভার
ট্র্যাক গেজ১৬৭৬মি.মি.
পরিচালন গতি৪০ কিমি/ঘ (২৫ মা/ঘ) থামা সহ

নিউ জলপাইগুড়ি থেকে হিমালয় পর্বতমালার দৃশ্য কাঞ্চনজঙ্ঘা শৃঙ্গের নামে নামকরণ করা হয়েছিল, ১৯৬০ সালে এই ট্রেনটি শিয়ালদহ থেকে নিউ জলপাইগুড়ি চালু হয়।

সেবাসমূহসম্পাদনা

১৩১৭৫ শিয়ালদহ - শিলচর কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনটি প্রায় ১৩৫৯ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেয় ৩৩ ঘন্টা ৪০ মিনিটে (৪০ কিমি/ঘন্টা) এবং ১৩১৭৬ শিলচর - শিয়ালদহ কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনটি প্রায় ১৩৫৯ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেয় ৩২ ঘন্টা ৪০ মিনিটে (৪১ কিমি/ঘন্টা) ফেরৎ আসে। ট্রেনটিতে একটি ই-ক্যাটারিং এর ব্যবস্থা আছে যেখানে খাবার ব্যবস্থা আছে। ট্রেনটির সর্বোচ্চ গতিসীমা উঠে ১১০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায় এবং সর্বনিম্ন গতিসীমা থাকে ৪০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায়।

সময়সূচীসম্পাদনা

  • ১৩১৭৫ শিয়ালদহ - শিলচর কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনটি শিয়ালদহ রেলওয়ে স্টেশন থেকে ছেড়ে যায় প্রত্যহ সোমবার, বুধবার এবং শনিবার ভারতীয় সময় সকাল ০৬:৩৫ ঘটিকায় এবং শিলচর রেলওয়ে স্টেশনে পৌছায় পরের দিন ভারতীয় সময় বিকাল ১৬:৩০ ঘটিকায়।
  • ১৩১৭৬ শিলচর - শিয়ালদহ কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনটি শিলচর রেলওয়ে স্টেশন ছেড়ে যায় প্রত্যহ সোমবার, বুধবার এবং শুক্রবার ভারতীয় সময় সকাল ১০:৩০ ঘটিকায় এবং শিয়ালদহ রেলওয়ে স্টেশনে পৌছায় পরের দিন সন্ধ্যা ১৯:২৫ ঘটিকায়।

রুট এবং স্টেশনসম্পাদনা

বগি সমূহসম্পাদনা

ট্রেনটির সর্বোচ্চ গতিবেগ ১১০ কিলোমিটারের সাথে সঠিক আইসিএফ রেক রয়েছে। ট্রেনে ২১ টি কোচ রয়েছে।

  • ১ টি এসি ২ টিয়ার
  • ৪ টি এসি ৩ টিয়ার
  • ৫ টি সংরক্ষিত আসন
  • ৭ টি শয়ন যান
  • ৪ টি সাধারণ/অনারক্ষিত
  • ২ টি বসার সহ লাগেজ রেক এবং গার্ড

ইঞ্জিনসমূহসম্পাদনা

উভয় ট্রেনটি বর্ধমান লোকো শেড ভিত্তিক (ডব্লিউডিএম ৩এ) ডিজেল ইঞ্জিন দ্বারা শিয়ালদহ থেকে মালদা টাউন চালিত হয়। ট্রেনটি মালদা টাউন লোকো শেড ভিত্তিক (ডব্লিউডিএম ৩এ) ডিজেল ইঞ্জিনটি মালদা টাউন থেকে গুয়াহাটি পর্যন্ত যায় এবং এর বিপরীত দিকে আসে। ট্রেনটি শিলিগুড়ি লোকো শেড ভিত্তিক (ডব্লিউডিপি-৪) ডিজেল ইঞ্জিনটি গুয়াহাটি থেকে শিলচর পর্যন্ত যায় এবং এর বিপরীত দিকে আসে।

অভিমুখ পরিবর্তনসম্পাদনা

ট্রেনটি ২ বার অভিমুখ পরিবর্তন করেঃ

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Passenger train services restored
  2. "Rain, landslides disrupt road, rail traffic in Northeast"। ২০১৭-০৮-১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৭ 
  3. Train services remain cancelled between Guwahati and Barak Valley
  4. Trains disrupted in Lumding-Badarpur section

বহিঃসংযোগসম্পাদনা