রেজি ডাফ

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার

রেজিনাল্ড আলেকজান্ডার রেজি ডাফ (ইংরেজি: Reggie Duff; জন্ম: ১৭ আগস্ট, ১৮৭৮ - মৃত্যু: ১৩ ডিসেম্বর, ১৯১১) নিউ সাউথ ওয়েলসের সিডনিতে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি।

রেজি ডাফ
Reggie Duff c1905.jpg
আনুমানিক ১৯০৫ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে রেজি ডাফ
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরেজিনাল্ড আলেকজান্ডার ডাফ
জন্ম(১৮৭৮-০৮-১৭)১৭ আগস্ট ১৮৭৮
সিডনি, নিউ সাউথ ওয়েলস, অস্ট্রেলিয়া
মৃত্যু১৩ ডিসেম্বর ১৯১১(1911-12-13) (বয়স ৩৩)
সেন্ট লিওনার্ডস, নিউ সাউথ ওয়েলস, অস্ট্রেলিয়া
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৮১)
১ জানুয়ারি ১৯০২ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট১৪ আগস্ট ১৯০৫ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ২২ ১২১
রানের সংখ্যা ১৩১৭ ৬৫৮৯
ব্যাটিং গড় ৩৫.৫৯ ৩৫.০৪
১০০/৫০ ২/৬ ১০/৩৩
সর্বোচ্চ রান ১৪৬ ২৭১
বল করেছে ১৮০ ৯১৭
উইকেট ১৪
বোলিং গড় ২১.২৫ ৩৪.১৪
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ২/৪৩ ২/১৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১৪/০ ৭৩/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২ মার্চ ২০১৭

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে নিউ সাউথ ওয়েলসের প্রতিনিধিত্ব করেছেন।[১] দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার ছিলেন। ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শিতা দেখিয়েছেন রেজি ডাফ

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

১৯০২-০৩ মৌসুমে অস্ট্রেলীয় প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট মৌসুমে সর্বাধিক রান সংগ্রাহকের মর্যাদা পান। ১৯০২ থেকে ১৯০৫ সময়কালে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের সদস্যরূপে ২২ টেস্টে প্রতিনিধিত্ব করেন। ১৯০১-০২ মৌসুমে সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ারউইক আর্মস্ট্রংয়ের সাথে তারও একযোগে টেস্ট অভিষেক ঘটে।[২] মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত ঐ টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ১০ নম্বরে ব্যাটিং করতে নামেন। পিচ খারাপ থাকা স্বত্ত্বেও ১০৪ তুলতে সক্ষমতা দেখান। এরফলে অভিষেকেই ১০ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে শতরান করার প্রথম ঘটনা ছিল। এটি নিচেরসারিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শতরানকারী চার খেলোয়াড়ের একটি। পরবর্তী টেস্টে স্থান পরিবর্তন করে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং উদ্বোধনে নেমেছিলেন তিনি।

পরবর্তীকালে ২০১২ সালে টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে ১০ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশের আবুল হাসান তার অভিষেক টেস্টেই সেঞ্চুরি করার কৃতিত্ব দেখান। ২১ নভেম্বর, ২০১২ তারিখে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিনি ১১৩ রান তুলেছিলেন।

দেহাবসানসম্পাদনা

অত্যধিক মদ্যপানে রেজি ডাফের জীবন ভয়ঙ্কর পথের দিকে চলে যায়। ফলশ্রুতিতে মাত্র ৩৩ বছর বয়সে ১৩ ডিসেম্বর, ১৯১১ তারিখে নিউ সাউথ ওয়েলসের সেন্ট লিওনার্ডস এলাকায় তার দেহাবসান ঘটে। নিজ রাজ্য নিউ সাউথ ওয়েলসে তার সাবেক সঙ্গীরা শবানুষ্ঠানে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করেছিলেন।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা