ভেদরগঞ্জ উপজেলা

শরীয়তপুর জেলার একটি উপজেলা

ভেদরগঞ্জ বাংলাদেশের শরীয়তপুর জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা

ভেদরগঞ্জ
উপজেলা
ভেদরগঞ্জ বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
ভেদরগঞ্জ
ভেদরগঞ্জ
বাংলাদেশে ভেদরগঞ্জ উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°১২′১৩″ উত্তর ৯০°২৬′২৩″ পূর্ব / ২৩.২০৩৬১° উত্তর ৯০.৪৩৯৭২° পূর্ব / 23.20361; 90.43972স্থানাঙ্ক: ২৩°১২′১৩″ উত্তর ৯০°২৬′২৩″ পূর্ব / ২৩.২০৩৬১° উত্তর ৯০.৪৩৯৭২° পূর্ব / 23.20361; 90.43972 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগঢাকা বিভাগ
জেলাশরীয়তপুর জেলা
আয়তন
 • মোট২৬৭.২৮ বর্গকিমি (১০৩.২০ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট৩,০৩,৫৩৫
 • জনঘনত্ব১,১০০/বর্গকিমি (২,৯০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট৮০.৪১%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড৮০৩০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
প্রশাসনিক
বিভাগের কোড
৩০ ৮৬ ১৪
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন

অবস্থানসম্পাদনা

ভেদরগঞ্জ উপজেলার উত্তরে নড়িয়া উপজেলামুন্সিগঞ্জ জেলা ও পদ্মা নদী দক্ষিণে ডামুড্যা উপজেলাগোসাইরহাট উপজেলা পূর্বে চাঁদপুর জেলা ও মেঘনা নদী এবং পশ্চীমে শরীয়তপুর সদর উপজেলানড়িয়া উপজেলা অবস্থিত।

প্রশাসনিক এলাকাসম্পাদনা

ভেদরগঞ্জ উপজেলা ১৩টি ইউনিয়ন ১টি পৌরসভা ও ২টি প্রশাসনিক থানা নিয়ে ঘটিত।

পৌরসভা

  1. ভেদরগঞ্জ পৌরসভা

ইউনিয়ন সমূহঃ-

  1. আর্শিনগর ইউনিয়ন
  2. কচিকাটা ইউনিয়ন
  3. চরকুমারিয়া ইউনিয়ন
  4. চরভাগা ইউনিয়ন
  5. চরসেনসুস ইউনিয়ন
  6. ছয়গাঁও ইউনিয়ন
  7. তারাবুনিয়া ইউনিয়ন
  8. দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়ন
  9. দিগার মহিষখালী ইউনিয়ন
  10. নারায়ণপুর ইউনিয়ন, ভেদরগঞ্জ
  11. মহিসার ইউনিয়ন
  12. রামভদ্রপুর ইউনিয়ন
  13. সখিপুর ইউনিয়ন, ভেদরগঞ্জ

ইতিহাসসম্পাদনা

ভেদরগঞ্জ এর নামকরণ নিয়ে বিভিন্ন জনের বিভিন্ন মতামত রয়েছে, প্রথমত, ভেদরগঞ্জ এলাকা ছিল ভেদার উদ্দিন জমিদারীর অংশবিশেষ।ভেদার উদ্দিন ১৯২৪ ক্ষ্রিস্টাব্দে এই এলাকার সফরে আসেন এবং এই প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ ও প্রভাবশালী ব্যক্তিত্য বিক্রম্পুর পরগনার জমিদার সৈয়দ ভেদার উদ্দিন শাহের প্রয়াসে ভেদরগঞ্জ থানা প্রতিষ্ঠিত হয়।তার নামানুসারেই ভেদরগঞ্জ এর নামকরণ করা হয়। দ্বিতীয়ত, ভেদরগঞ্জের নামকরণ নিয়ে আরো একটি প্রবাদ আছে।এই প্রবাদ কাদা প্রবাদ নামে পরিচিত ।‘ভেদার’ শব্দের অর্থ কাদা।একসময় এই এলাকায় প্রচুর কাদা ছিল।কাদার জন্য মানুষের হাটা চলার ব্যঘাত ঘটত।তাই এই এলাকার নাম একে একে জনমুখে ভেদরগঞ্জ নামের পরিচিতি লাভ করে। তৃতীয়ত, অনেকের মতে, এই এলাকায় প্রচুর বেদে ছিল।নদীর পাড়ে সবসময় অসংখ্য বেদে বহর থাকত। তাই এই এলাকার নাম ভেদরগঞ্জ হয়েছে। চতুর্থত, আধুনিক গবেষণায় প্রবাদ দুটি নিছক প্রবাদ বলে প্রতিয়মান হয়েছে।মুলত ভে৪দার শাহ এর নাম হতে ভেদরগঞ্জ নামের উৎপত্তি।

জনসংখ্যার উপাত্তসম্পাদনা

সর্বশেষ আদমশুমারি মতে ভেদরগঞ্জ এর মোট জনসংখ্যা ২,৩৭,৭৮০ জন।এর মধ্যে পুরুষ ও মহিলা যথাক্রমে ১২০৯৬০ ও ১১৬৮২০ জন।

শিক্ষাসম্পাদনা

ভেদরগঞ্জ উপজেলার শিক্ষার হার ৪০.৪৭ ভাগ।এখানে ২৩টি উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রায় এক শত প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে।

অর্থনীতিসম্পাদনা

আধিকাংশ মানুষ কৃষিকাজ এবং ব্যাবসার সংগে জড়িত।

ঐতিহাসিক স্থানসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন ২০১৪)। "এক নজরে ভেদরগঞ্জ"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। ২৪ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০১৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা